ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে নতুন প্রশাসক

Kanaighat News on Thursday, May 31, 2012 | 11:54 PM

নতুন প্রশাসক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনে। উত্তরের প্রশাসক পদে পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক শাজাহান আলী মোল্লা এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক পদে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জিল্লার রহমান নিয়োগ পেয়েছেন। গত বছরের ২৯ নভেম্বর ঢাকা সিটি করপোরেশন (ডিসিসি) বিভক্ত করে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন করা হয়। এর পর গত ৩ ডিসেম্বর দুই সিটি করপোরেশনে দুই অতিরিক্ত সচিবকে প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। আগের দুই প্রশাসকের মেয়াদ শেষ হওয়ার দিন বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদার এই দুই কর্মকর্তাকে বিভক্ত ঢাকা সিটি কর্পোরেশনে নিয়োগ দেওয়া হল। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় তাদের নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

Kanaighat News on Wednesday, May 30, 2012 | 11:47 PM

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাতারে দু�দিনের সরকারি সফর শেষে বুধবার বিকেল দেশে ফিরেছেন।যুক্তরাষ্ট্র-ইসলামিক বিশ্ব ফোরাম-২০১২�র বার্ষিক সম্মেলনে যোগদানের উদ্দেশে মঙ্গলবার তিনি দোহা যান। ফোরামের উদ্বোধনী অধিবেশনে পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জের ওপর তিনি মূল বক্তব্য পেশ করেন।প্রধানমন্ত্রী এবং তাঁর সফরসঙ্গীদের নিয়ে কাতার এয়ারওয়েজের একটি বিশেষ বিমান গতকাল বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় হযরত শাহজালাল বিমান বন্দরে পৌঁছায়।জাতীয় সংসদের উপনেতা সাজেদা চৌধুরী, পরিকল্পনা মন্ত্রী এ কে খন্দকার, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী, এলজিআরডি ও সমবায় মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রী ফারুক খান এবং প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমাম প্রধানমন্ত্রীকে বিমান বন্দরে অভ্যর্থনা জানান।মন্ত্রিপরিষদ সচিব, তিন বাহিনীর প্রধানগণ, সচিব এবং পদস্থ বেসামরিক ও সামরিক কর্মতারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির শ্রদ্ধা

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩১তম মৃত্যবার্ষিকীতে তার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছে বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনগুলো।জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠন রাজধানীসহ সারা দেশে সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকালে নয়া পল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনমিত করা হয় ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়।বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বেলা পৌনে ১২টায় জ্যেষ্ঠ নেতাদের নিয়ে শেরেবাংলা নগরে জিয়ার কবরে ফাতেহা পাঠ ও পুস্পস্তবক অর্পণ করেন। এর পর নেতা-কর্মীরা এক মিনিট নীরবে দাঁড়িয়ে প্রয়াত নেতার প্রতি শ্রদ্ধা জানায়।এরপর কবর প্রাঙ্গণে জাতীয়তাবাদী ওলামা দলের উদ্যোগে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলেও খালেদা জিয়া অংশ নেন। প্রয়াত নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন তিনি।১৯৮১ সালের ৩০ শে মে জিয়াউর রহমান চট্টগ্রামে এক সেনা অভ্যুত্থানে নিহত হন। বিএনপি এ দিনটি তার �শাহাদত দিবস� হিসেবে পালন করে।বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ, মাহবুবুর রহমান, এম কে আনোয়ার, রফিকুল ইসলাম মিয়া, নজরুল ইসলাম খান, আবদুল মঈন খান, জ্যেষ্ঠ নেতা চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, আবদুল্লাহ আল নোমান, সেলিমা রহমান, শমসের মবিন চৌধুরী, শাজহাহান ওমর, আবদুল মান্নান, অধ্যাপক এম এ মান্নান, অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ হোসেন, বরকত উল্লাহ বুলু, মোহাম্মদ শাহজাহান, বিরোধী দলীয় প্রধান হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক, সহ দপ্তর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি, সাংসদ শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, আবুল খায়ের ভূঁইয়া, নিজাম উদ্দিন আহমেদ, রেহানা আখতার রানু, নিলোফার চৌধুরী মনি, সাম্মী আখতার ও রাশেদা বেগম হীরাসহ কেন্দ্রীয় ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।খালেদা জিয়ার পর পর্যায়ক্রমে জিয়ার কবরে ফুল দেয় মহানগর বিএনপি, যুবদল, শ্রমিক দল, কৃষক দল, মহিলা দল, ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশ-ড্যাব, অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স-এ্যাব, ওলামা দল, ছাত্রদল, সম্মিলিক পেশাজীবী পরিষদসহ বিভিন্ন সহযোগী ও পেশাজীবী সংগঠন।মিলাদ মাহফিল শেষ করে কবর প্রাঙ্গনে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) ও জিয়া সাংস্কৃতিক সংগঠন (জিসাস) এর উদ্যোগে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচিরও উদ্বোধন করেন খালেদা জিয়া।ড্যাব সভাপতি অধ্যাপক এ কে এম আজিজুল হক, মহাসচিব অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ হোসেনসহ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।জিয়ার কবর প্রাঙ্গনে আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে খালেদা জিয়া সাড়ে ১২টার দিকে মোহাম্মদপুর টাউন হলের মহানগর বিএনপির উদ্যোগে দুস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণের চার দিনের কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। এ সময়ে মহানগর সদস্য সচিব আবদুস সালাম, যুব দল সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, থানা বিএনপির সভাপতি আতিকুল্লাহ মতিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।বুধবার প্রথম দিনে রাজধানীর ১৮ টি স্থানে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার কর্মসূচি রয়েছে খালেদা জিয়ার।মহানগর সদস্য সচিব আবদুস সালাম জানান, দুঃস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণের কর্মসূচি হবে চারদিনের।দলের সহ দপ্তর সস্পাদক আবদুল লতিফ জনি জানান, রাজধানীর মতো সারাদেশে দোয়া মাহফিল, আলোচনা সভা, দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণের কর্মসূচির মাধ্যমে যথাযোগ্য মর্যাদার সঙ্গে দিবসটি পালন করা হচ্ছে।

কানাইঘাটে ১২ বছরের শিশুকে ধর্ষনের অভিযোগ

Kanaighat News on Tuesday, May 29, 2012 | 12:12 AM

কানাইঘাটে এক লম্পট কর্তৃক হতদরীদ্র ঘরের পিতৃহীন বার বছরের শিশুকে ধর্ষনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার ১নং লীপ্রসাদ পূর্ব ইউপির লীপুর গ্রামে। ধর্ষিতাকে গত রোববার স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ডাঃ ফয়েজ আহমদ কানাইঘাট থানায় নিয়ে আসেন। পুলিশ ভিকটিমকে তাদের হেফাজতে নিয়ে ঐ দিনই সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি ইউনিটে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করেছে। থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল হোসেন জানিয়েছেন,শিশুটির মেডিকেল রিপোর্ট পাওয়ার পর সব ধরনের আইনানুগ ব্যাবস্থা নেওয়া হবে। তবে ভিকটিমের পরিবার থেকে এখনও থানায় কোন অভিযোগ দায়ের করা হয়নি বলে তিনি জানান। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,গত শনিবার রাত অনুমান ৩টায় এলাকার চিহ্নিত অপরাধী একাধিক মামলার আসামী লক্ষীপুর গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজের পুত্র ছালিক উদ্দিন(৩৫) একই গ্রামের পিতৃহীন দরিদ্র শিশুটির কাঁচা ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে এবং ধারালো অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে চলে যায়। পরদিন রোববার সকালে শিশুটি তার ভাবীকে বিষয়টি অবহিত করে। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে এলাকার গণ্যমাণ্য ব্যাক্তিবর্গকে ঘটনাটি জানানো হলে তারা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ফয়েজ আহমদকে বিষয়টি অবহিত করেন। পরে চেয়ারম্যান ভিকটিমের জবানবন্ধি শুনে বেলা ২টায় তাকে নিয়ে থানায় যান। থানায় শিশুটি স্থানীয় সাংবাদিকদের জানায়, তাকে ধারালো অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে মুখ চেপে ধরে লম্পট ছালিক খারাপ কাজ করেছে। এসময় মেয়েটির মা কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন,ঘটনার দিন তিনি বাড়িতে ছিলেননা এই সুযোগে তার শিশু কন্যাটির ইজ্জত হরন করেছে লম্পট ছালিক। তিনি ধর্ষকের কঠোর শাস্তির দাবী করেন। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান ফয়েজ আহমদসহ আরো অনেকে জানিয়েছেন,ছালিক এলাকার একজন চিহ্নিত অপরাধী । এলাকাবাসী এ ঘটনায় তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছেন।

আজ নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস

আজ সোমবার ২৮ মে, নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস। ‘নিরাপদ প্রসব, মায়ের অধিকার’ প্রতিপাদ্য নিয়ে ২০১২ সালের নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস পালন করা হচ্ছে।পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর শব্দ ‘মা’। বলা হয়ে থাকে একজন নারীর পূর্ণতা আসে মাতৃত্বে। বংশানুক্রম ধারা টিকিয়ে রাখার দায়িত্ব প্রাকৃতিকভাবেই নারীর ওপর তার মাতৃত্বের মধ্য দিয়ে বর্তেছে। যদিও এখন পুরুষদের পেটে বাচ্চা ধারণের ব্যপারে পরীক্ষা নিরীক্ষার কথা শোনা যাচ্ছে। তারপরও মাতৃত্বের জন্য মাই সবচেয়ে নিরাপদ ও স্বাভাবিক।নিরাপদ মাতৃত্বের অধিকার একটি মানবাধিকার। তেমনি নিরাপদ প্রসবের সব ধরনের সুযোগ পাওয়াও একজন মায়ের অধিকার। একজন নাগরিক হিসেবে তিনি সেই অধিকার ভোগ করার ক্ষমতা রাখেন।স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে বাংলাদেশে মাতৃমৃত্যুর হার প্রতি লক্ষ জীবিত জন্মে ১৯৪ জন । নবজাতকের মৃত্যুর হার প্রতি হাজারে ৩২ জন । তবে আশার কথা, ২০১১ সালে জাতিসংঘের ৬৬তম সাধারণ অধিবেশনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে মা ও শিশু স্বাস্থ্যে অসামান্য অবদানের জন্য ডিজিটাল হেল্থ ফর ডিজিটাল ডেভেলপমেন্ট শীর্ষক ‘সাউথ-সাউথ’ পুরস্কার প্রদান করা হয়।১৯৮৭ সালে কেনিয়ার নাইরোবিতে উন্নয়ন-সহযোগীদের বৈঠকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিরাপদ মাতৃত্ব বিষয়ে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয় । ১৯৯৭ সালে শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংগঠন বিষয়টি পর্যালোচনা করে এ কার্যক্রমকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ওপর গুরুত্ব আরোপ করে। যার মূল উদ্দেশ্য হলো নিরাপদ মাতৃত্বকে নারীর অধিকার হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে মা ও নবজাতকের মৃত্যুহার কমিয়ে আনা।অন্যান্য দেশ বিভিন্ন তারিখে দিবসটি পালন করে। ১৯৯৭ সালে তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকার ২৮ মে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস পালনের ঘোষণা দেয়। তখন থেকেই বাংলাদেশে এই দিবসটি পালন হয়ে আসছে।রোববার নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী পৃথক বাণী দিয়েছেন। সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা, কর্মশালা, পুষ্টি প্রদর্শনী, গর্ভবতী মায়েদের পুষ্টিকর খাবার বিতরণসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।মাতৃত্বের অধিকারের ব্যপারে বলা যায়, একজন নারী কত দিন কোন ধরনের জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি ব্যবহার করবেন বা আদৌ ব্যবহার করবেন কি না এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার একমাত্র তারই। নারী আদৌ সন্তান নেবেন কি না বা কবে নেবেন, কজন নেবেন সে সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকারও তিনি সংরক্ষণ করেন। একজন গর্ভবতী মহিলা গর্ভকালীন সেবা, নিরাপদ প্রসবের জন্য যাবতীয় সেবা এবং প্রসব-পরবর্তী সেবা পাওয়ার সব অধিকার রাখেন।বাস্তবতা হচ্ছে বাংলাদেশের অধিকাংশ নারীই এখনো কোনো অধিকারই পুরোপুরি ভোগ করতে পারেন না। তাঁরা স্বামী বা বেশির ভাগ ক্ষেত্রে শাশুড়ির ইচ্ছা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হন। নিরাপদ শিশু জন্মদানের জন্য বাংলাদেশের সকল মা এখনো হাসপাতালের সুবিধা থেকে বঞ্চিত।শহরাঞ্চলের মায়েদের হাসপাতাল সেবা গ্রহণের সুযোগ থাকলেও দরিদ্রসীমার নিচে বসবাসকারী গর্ভবতী মায়েদের কাছে এখনো তা অধরা। শহরের বস্তিবাসীদের কাছেও তা অনেকটাই অসম্ভব।দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে সরকারি হাসপাতাল,চিকিৎসা,পর্যাপ্ত ডাক্তার,আধুনিক যন্ত্রপাতির অভাব এখনো প্রকট। মা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্র,স্যাটেলাইট ক্লিনিক এবং বিভিন্ন এনজিও বা সংস্থার মা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোর দশা এতোটাই খারাপ যে সার্বক্ষণিক ডাক্তারের অভাব খুবই প্রকট।তারপরও মাতৃত্ব নিরাপদ হবে , সবার মধ্যে সচেতনতা বাড়বে, নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিত হবে, সব শ্রেণীর মানুষ এই অধিকার পাবে, এই হোক এবারের নিরাপদ মাতৃত্ব দিবসের প্রত্যাশা।

কানাইঘাটে বিএনপি একা জামায়াতের নয়া কৌশল

Kanaighat News on Friday, May 25, 2012 | 6:39 PM

কানাইঘাটে প্রাণ ফিরে পাচ্ছে না বিএনপি নেতৃত্বাধীন সরকারবিরোধী ১৮ দলীয় জোট। ১৮ দলের মধ্যে ৫টি ছাড়া কোনোটিরই তেমন অস্তিত্ব নেই কানাইঘাটে। এ অবস্থায় আন্দোলন-সংগ্রামে জোটের শরিকদের কাছে না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন বিএনপির সিনিয়র নেতৃবৃন্দ। বিশেষ করে জোটের অন্যতম শরিক জামায়াতকে এখন পর্যন্ত ইলিয়াস ইস্যু কিংবা সরকারবিরোধী কোনো আন্দোলনে মাঠে পায়নি তারা।
গত পৌরসভা ও ইউপি নির্বাচনে জামায়াতের সঙ্গে বিএনপির দূরত্ব সৃষ্টি হয়। এর পর থেকেই মূলত কানাইঘাটে বিএনপির সঙ্গে জামায়াতের দূরত্ব অনেকটা বেড়ে যায়। আর এ কারণেই ১৮ দলীয় জোটের বৈঠক না হওয়ায় অভিমানে চুপ রয়েছেন অন্যান্য ছোটখাটো দলের নেতারা।জোটভুক্ত দলগুলো হচ্ছে_ জামায়াত, বিজেপি, খেলাফত মজলিসের একাংশ, ইসলামী ঐক্যজোট, এলডিপি, কল্যাণ পার্টি, জাগপা, এনপিপি, এনডিপি, আওয়ামী ন্যাপ, মুসলিম লীগ, ইসলামিক পার্টি, ন্যাপ ভাসানী, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, লেবার পার্টি, ডেমোক্রেটিক লীগ এবং পিপল্স লীগ। কেন্দ্রীয়ভাবে এসব দলকে নিয়ে জোট গঠন হলেও এখন পর্যন্ত কানাইঘাটে তাদের মধ্যে আনুষ্ঠানিক কোনো বৈঠক হয়নি। জোট গঠন হলেও তারা এখন পর্যন্ত কেন্দ্র থেকে কোনো নির্দেশনা পায়নি। এ ছাড়া যাদের সঙ্গে জোট গঠন হয়েছে জামায়াত এবং অন্য চারটি দল ছাড়া আর কারও তেমন অস্তিত্ব নেই কানাইঘাটে।
জামায়াত গ্রামে গ্রামে উঠান বৈঠকের মাধ্যমে সংগঠনকে শক্তিশালী করার পাশাপশি আগাম নির্বাচনী প্রস্তুতি নিচ্ছে। কানাইঘাট-জকিগঞ্জ বিএনপির সমন্বয়কারী মামুনুর রশিদ মামুন জানান, জামায়াত আগামী নির্বাচনকে টার্গেট করে কৌশল অবলম্বনের মাধ্যমে সাংগঠনিকভাবে এগোচ্ছে। তারা রাজপথে আন্দোলনকে গুরুত্ব না দিয়ে নিজেদের আখের গোছাতে ব্যস্ত। উপজেলা জামায়াতের আমির মাওলানা আবদুল করিম বলেন, কেন্দ্র থেকে জোটগতভাবে যে নির্দেশনা আসবে তা আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে বাস্তবায়নের চেষ্টা করব।

নবগঠিত কানাইঘাট তথ্য সেবা পরিষদের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

নব গঠিত“কানাইঘাট তথ্য সেবা পরিষদের” কার্যনির্বাহী কমিটির প্রথম সভা গতকাল শুক্রবার ২৫মে বিকেল ৩টায় কানাইঘাট দক্ষিণ বাজারস্থ সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের আহবায়ক প্রকৌশলী মাহমুদ হোসেইনের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ন-আহবায়ক এ.কে.এম ওলিউল্লাহ”র পরিচালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের যুগ্ন-আহবায়ক সাংবাদিক এখলাছুর রহমান,বদরুল আলম চৌধূরী (বাবু),ডাঃ মূফাজ্জিল হোসেইন,সিনিয়র সদস্য উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বদরুজ্জামান ইকবাল,এডভোকেট মামুন রশীদ,মোঃ সাইফুল্লাহ,ডাঃ হোসেইন আহমদ,সাংবাদিক নিজাম উদ্দিন,জামাল উদ্দিন,মাহবুবুর রশিদ,কাওছার আহমদ,আব্দুন নূর,কামাল উদ্দিন প্রমূখ। সভায় সরকারের সকল সেবা ও উন্নয়নমূলক কমকার্ন্ডের তথ্য জনসাধারনকে অবহিত করনের মাধ্যমে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সংগঠনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়।

আইনজীবীদের জামিন মঞ্জুর

ঢাকার জজ আদালতে ভাঙচুরের ঘটনায় ঢাকা আইনজীবী সমিতির সভাপতি বোরহান উদ্দিনসহ ২২ আইনজীবীর ১০ দিনের আগাম জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত। এই সময়ের মধ্যে তাদের নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে হবে। বৃহস্পতিবার আড়াইটায় বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি শেখ মো. জাকির হোসেন সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ জামিন মঞ্জুর করে আদেশ দেন।বৃহস্পতিবার সাড়ে ১০টার দিকে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদিন আইনজীবীদের জামিনের আবেদনটি উপস্থাপন করেন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন সমিতির সম্পাদক মো মোমতাজ উদ্দিন মেহেদী।গত সোমবার আদালত জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের মহাসচিব মাহবুবউদ্দিন খোকনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এ ঘটনায় পরদিন মঙ্গলবার আদালত বর্জন এবং কালো পতাকা প্রদর্শন ও বিক্ষোভ মিছিল করেন বিএনপি-সমর্থিত আইনজীবীরা। ওই মিছিল থেকে আদালতে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে কোতোয়ালি থানার উপপরিদর্শক মো. মকবুল হোসেন দ্রুত বিচার আইনে এ মামলা করেন। বুধবার ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম সহিদুল ইসলাম এ মামলায় ৩১ মে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রধান মন্ত্রীর বিশেষ উন্নয়ন সহায়তা কর্মসূচীর আওতায় কানাইঘাটে নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর মাঝে ২০টি সেলাই মেশিন ও বাদ্যযন্ত্র প্রদান

Kanaighat News on Wednesday, May 23, 2012 | 8:17 PM

প্রধানমন্ত্রীর নিজ দফতরের উদ্যোগে বিশেষ এলাকার উন্নয়ন সহায়তা কর্মসূচীর আওতায় দেশের নৃতাত্বিক জনগোষ্ঠীকে মূল ¯্রােতে ফিরিয়ে আনা এবং তাদের আতœকর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে কানাইঘাটের দূর্গম পাহাড়ী এলাকার ২২টি খাসিয়া সম্প্রদায়ের পরিবারের মধ্যে ২০টি সেলাই মেশিন এবং ধর্মীয় উপাসনালয়ে ব্যাবহারের জন্য সাংস্কৃতিক সরঞ্জাম বিতরণ করা হয়েছে। কানাইঘাট উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে আজ বৃহস্পতিবার দুপুর১২ টায় ১নং লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউনিয়নে কাড়াবাল্লা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে খাসিয়া সম্প্রদায়ের মধ্যে অনুদান প্রদান উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উপজেলা আ,লীগের সভাপতি পৌর মেয়র লুৎফুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং লক্ষীপ্রসাদ ইউপি আ,লীগের সাধারণ সম্পাদক হেলাল আহমদ চৌধূরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস.এম সোহরাব হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন,জেলা আ,লীগের অন্যতম নেতা লোকমান আহমদ,জেলা আ,লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ পলাশ। অনুষ্ঠান শেষে লক্ষীপ্রসাদ ইউপির সদিছড়ী খাসিয়া পুঞ্জির প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ২২টি পরিবারের মধ্যে ২০টি সেলাই মেশিন ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে ব্যাবহারের জন্য বিভিন্ন প্রকারের বাদ্যযন্ত্র তুলে দেওয়া হয়। এসময় পুঞ্জির খাসিয়াদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সদিছড়ী পুঞ্জির হেডম্যান বিমল রয়,সায়মন,বরালী,বিক্টর,বুটিশ,বিশন,নভেল প্রমূখ। সরকারের পক্ষ থেকে প্রথমবারের মতো নৃতাত্ত্বি¡ক গোষ্ঠীর আওতাভুক্ত খাসিয়ারা তাদের জীবন মানের উন্নয়নের জন্য প্রতিটি পরিবার ১টি করে সেলাই মেশিন ও সাংস্কৃতিক সরঞ্জাম পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। এর মাধ্যমে তাদের প্রত্যেকের পরিবারে স্বচ্ছতা ফিরে আসবে বলে জানান। নির্বাহী কর্মকর্তা এস.এম.সোহরাব হোসেন তার বক্তব্যে বলেন, সরকার নৃতাত্ত্বি¡ক জনগোষ্ঠীর কল্যাণে বিভিন্ন আর্থিক সহায়তা প্রকল্প গ্রহনের মাধ্যমে সুষ্ঠু ও সাবলম্বী হয়ে বেঁচে থাকার জন্য যূগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। তিনি পর্যায়ক্রমে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কানাইঘাটের আদিবাসী জনগোষ্ঠীর কল্যানে সব ধরনের আর্থিক অনুদানের আশ্বাস প্রদান করেন।

কানাইঘাটে ছাত্রলীগের দায়েরকৃত মামলায় ছাত্রদল,জামায়াত-শিবিরের ৫২ নেতাকর্মী বেখসুর খালাস

কানাইঘাট গাছবাড়ী আইডিয়াল কলেজে ২০১০ সালে নবীন বরণ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের সাথে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবিরের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ছাত্রলীগের দায়েরকৃত মামলার ৫২জন ছাত্রদল ও জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মী আদালতের রায় বেখসুর খালাস পেয়েছেন। আজ সিলেটের ৪র্থ জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক উভয়পক্ষের আইনজীবিদের যুক্তি তর্ক শূনানী শেষে আসামীদের বিরুদ্বে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের সকলকে মামলা থেকে বেখসুর খালাস প্রদানের রায় ঘোষনা করেন। মামলার খালাসপ্রাপ্ত ছাত্রদল ও জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীরা তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করে বলেন,মিথ্যা সাজানো মামলা দিয়ে তাদের হয়রানী করা হয়েছিল। বিজ্ঞ আদালতের রায়ে সত্যের জয় হয়েছে। উল্লেখ্য যে,ঐদিনের একই ঘটনায় দ্রুত বিচার আইনে দায়েরকৃত অপর একটির মামলা থেকেও বিরোধীদলের অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী বিজ্ঞ আদালতের রায়ে বেখসুর খালাস পেয়েছিলেন।

কানাইঘাটে ৫ জুয়াড়ীর এক মাস করে কারাদন্ড

Kanaighat News on Tuesday, May 22, 2012 | 9:40 PM

কানাইঘাট থানা পুলিশ গত সোমবার গভীর রাতে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৪ জুয়াড়ীসহ ৫জনকে আটক করেছে। গতকাল আটককৃত জুয়াড়ীদের পুলিশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেট এস.এম সোহরাব হোসেনের আদালতে উপস্থিত করে। পরে তিনি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে আটককৃত জুয়াড়ীদের প্রত্যেকে ১মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড অনাদায়ে ১০০/-টাকা করে জরিমানা প্রদানের রায় দেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হল উপজেলার রতনপুর গ্রামের মৃত হাজী ফয়জুল হকের পুত্র হারিছ উদ্দিন (৪০), রাউৎগ্রামের মাহমুদ আলীর পুত্র বশির উদ্দিন (৪২), বড়বন্দ ১ম খন্ড গ্রামের তাহির আলীর পুত্র গুলজার আহমদ (৫০), হারাতৈল গ্রামের মৃত কাশিম আলীর পুত্র হায়াত উল্লাহ (৪২), দুর্গাপুর গ্রামের মৃত মকরম আলীর পুত্র রুবেল উদ্দিন (১৮)। রায় প্রদানের পর দন্ড প্রাপ্তরা ১০০/- টাকা জরিমানা প্রদান করলে তাদের থানা হাজত থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

কানাইঘাটে ব্র্যাকওয়াশের অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত

ব্র্যাকওয়াশ কানাইঘাটের উদ্যোগে নিরাপদ পানি, স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা ও স্বাস্থ্যবিধি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার উপর একদিনের এক কর্মশালা সম্প্রতি কানাইঘাট ৪নং সাতবাঁক ইউনিয়ন কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত হয়। সাতবাঁক ইউপির চেয়ারম্যান মাস্টার ফয়জুল ইসলামের সভাপতিত্বে ব্র্যাকওয়াশ কর্মসূচির আওতায় অত্র ইউনিয়নে এ সম্পর্কিত অবহিতকরণ সভায় ইউনিয়ন পরিষদের সকল সদস্যবৃন্দ ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। ব্র্যাক ওয়াশ কানাইঘাটের পিও হাফিজুর ও মোস্তফা যৌথভাবে অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন। সভায় ব্র্যাকওয়াশের কর্মসূচির বিস্তারিত তথ্য সেবা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন উক্ত কর্মসূচির উপজেলা সিনিয়র ম্যানেজার ফারুক আহমদ, ইউপি সদস্য শফিকুল হক তোতা, নোমানী প্রমুখ। পর্যায়ক্রমে ব্র্যাকওয়াশ কর্মসূচির অবহিতকরণ সভা উপজেলা ৯টি ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে।

লোডশেডিং এর যন্ত্রণায় অতিষ্ঠ কানাইঘাটের মানুষ

ভয়াবহ লোডশেডিংয়ের কবলে কানাইঘাটবাসী। প্রতিদিন রুটিন মাফিক ১৫/১৬ ঘন্টা বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ফলে চরম ভোগান্তির মধ্যে দিন যাপন করছেন উপজেলার প্রায় আড়াই লক্ষাধিক মানুষ। আকাশে মেঘ জমলেই বিদ্যুৎ হাওয়ায় চলে যায়। এ জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদাসীনতাকেও দায়ী করেছেন বিদ্যুৎ গ্রাহকরা। বর্তমানে একদিকে এইচএসসি ও আলিম এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১ম সাময়িক পরীক্ষাও শুরু হয়েছে। চলতি সপ্তাহ থেকে বাণিজ্যিক এলাকাগুলোতেও বিদ্যুতের অবস্থা খুবই নাজুক। এর ফলে ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি পরীক্ষার্থীরাও চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। মারাত্মক ভাবে ব্যাহত হচ্ছে পরীক্ষার্থীদের লেখাপড়া। এমনকি এই গরমের মধ্যে পরীক্ষা চলাকালীন সময়েও পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোতে বিদ্যুৎ না থাকার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ না থাকায় সরকার কর্তৃক ডিজিটাল বাংলাদেশের অংশ হিসাবে প্রত্যেক ইউনিয়নে তথ্য-ই সেবা কেন্দ্রের কার্যক্রমে মারাত্মক ব্যাঘাত ঘটছে বলে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানরা জানিয়েছেন। এর ফলে সাধারণ মানুষকে তথ্য কেন্দ্র থেকে কাংখিত সেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার লোডশেডিং এর পাশাপাশি বোল্ডেজ সমস্যাও প্রকট। যখন তখন বিদ্যুতের বোল্ডেজের কারণে টিভি, ফ্রিজ, ফ্যান, বাল্ব, মোটর, কম্পিউটার, ফটোস্ট্যাট মেশিনসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক জিনিসপত্র প্রতিনিয়ত বিকল হচ্ছে। ফলে বিদ্যুতের গ্রাহকরা আর্থিকভাবেও চরম তির সম্মুখীন হচ্ছেন। গ্রাহকরা জানিয়েছেন, ঝড়ে বিদ্যুতের লাইন বিকল হলে জরুরী ভিত্তিতে মেরামত করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হলেও তেমন কোন সাড়া পাওয়া যায় না। কানাইঘাট উপজেলার বিদ্যুতের চাহিদা অনুযায়ী বিদ্যুৎ খুবই সামান্য পাওয়া যায়। যেখানে প্রতিদিনের চাহিদা হলো সাড়ে সাত মেগাওয়াট কিন্তু পাওয়া যায় প্রতিদিন মাত্র দুই থেকে আড়াই মেগাওয়াট। যা গ্রাহকদের চাহিদা মেটানো কোনভাবেই সম্ভব নয়। এ ব্যাপারে পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি সিলেট-২ এর কানাইঘাট জোনাল অফিস ইনচার্জ তাজুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী বিদ্যুৎ দিতে আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তবে গ্রাহক অনুযায়ী আমাদের লোকজন অনেকটা কম। বতর্মানে প্রতিনিয়ত ঝড়-বৃষ্টির কারণে নিরবিচ্ছিন্ন দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

ডিএসই’র সূচক কমেছে

রোববার দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সপ্তাহের প্রথম দিন প্রথম ঘণ্টার লেনদেনে সূচকে ঊর্ধ্বগতি থাকলেও লেনদেন শেষে সূচক কমেছে। রোববার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন শুরুর পর সূচক বাড়তে শুরু করে। রোববার বেলা ১২টা থেকে সূচক কিছুটা কমে। লেনদেন শেষে ডিএসই সাধারণ সূচক আগের দিনের চেয়ে প্রায় ১৯ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৯৭২ পয়েন্ট হয়েছে। রোববার হাতবদল হওয়া শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দাম বেড়েছে ১০৫টির, কমেছে ১৩০টির এবং অপরিবর্তিত আছে ২২টির দাম। লেনদেন হয়েছে প্রায় ২৭৮ কোটি টাকার শেয়ার। গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে সাধারণ সূচক প্রায় ৮৪ দশমিক ৮৪ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৬৭ শতাংশ কমে। গড় দৈনিক লেনদেন কমে দাঁড়ায় ৩৫৭ কোটি টাকায় যা তার আগের সপ্তাহে ছিল ৩৮৪ কোটি টাকা। গত সপ্তাহের আগের সপ্তাহে ডিএসই সাধারণ সূচক প্রায় ৮৪ দশমিক ৬ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৬৪ শতাংশ কমে। এরও আগের দুই সপ্তাহে সাধারণ সূচক যথাক্রমে ২ পয়েন্ট ও ২০৪ পয়েন্ট কমেছিল।

অবশেষে দরবস্ত-কানাইঘাট-শাহবাগ সড়কের সংস্কার কাজ শুরু

জেলা সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পভুক্ত কানাইঘাট-দরবস্ত-শাহবাগ সড়কের সংস্কার কাজ দীর্ঘদিন পর এলাকাবাসীর দাবীর মুখে শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে কানাইঘাট উত্তর বাজার বাসস্ট্যান্ড হতে চতুল বাজার পর্যন্ত সড়কের একাংশের সংস্কার কাজ প্রায় শেষের দিকে। অপর দিকে চতুল বাজার থেকে দরবস্ত-তামাবিল মহাসড়ক পর্যন্ত সড়কের অবশিষ্ট অংশের জরাজীর্ণ স্থানে সওজ সিলেট কর্তৃক গত ৫ মে থেকে ব্যাটস, বালি ও পাথর দ্বারা সড়কটির সংস্কার কাজ শুরু হওয়ায় জনদূর্ভোগ কিছুটা হলেও লাঘব হয়েছে। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর জনগুরুত্বপূর্ণ দরবস্ত-কানাইঘাট-শাহবাগ সড়ক সংস্কার ও প্রশস্থ করণের কাজ শুরু হয়। কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের অর্থের অভাব ও গাফলতির কারণে রাস্তাটির উন্নয়নমূলক কাজ মাঝপথে এসে বন্ধ হয়ে যায়। ফলে জনগণের যাতায়াতের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি জরাজীর্ণ হয়ে পড়লে সড়কে যান চলাচলে বিঘœ সৃষ্টি হওয়ার কারণে স্থানীয় জনগণ ফুঁসে উঠেন। গত কয়েকমাস ধরে রাস্তাটির জরাজীর্ণ অংশ দ্রুত সংস্কারের দাবীতে কানাইঘাট-দরবস্ত রাস্তা উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ ও কানাইঘাট-জৈন্তাপুর উপজেলার ১৭ পরগনা সালিশ সমন্বয়ন কমিটির ব্যানারে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়। জনদূর্ভোগের কথা বিবেচনা করে দুই উপজেলার প্রশাসন ও ক্ষমতাসীন দলের দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দ রাস্তাটির সংস্কার কাজ দ্রুত শুরু করার লক্ষ্যে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন-নিবেদন করেন। এরই প্রেক্ষিতে প্রাথমিকভাবে সিলেট সড়ক ও জনপথের উদ্যোগে রাস্তাটির গর্তস্থানে ইট, পাথর ও বালু ফেলা হয়। গত ১৫ মে ১৭ পরগনার উদ্যোগে রাস্তাটির সংস্কার কাজ দ্রুত শুরু করার লক্ষ্যে অর্ধদিবস হরতালের ডাক দেওয়া হয়। পরে দুই উপজেলার প্রশাসন সড়ক ও জনপথ সিলেটের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ১৭ পরগনার নেতৃবৃন্দের নিয়ে দু’দফা বৈঠকে বসেন। রাস্তার সংস্কার কাজ দ্রুত শুরু হবে প্রশাসনের এমন আশ্বাসের প্রেক্ষিতে হরতাল প্রত্যাহার করা হয়। জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটির বর্তমান বাস্তব প্রেক্ষাপট তুলে ধরে জেলা আ’লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক কানাইঘাট সাতবাঁক ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ পলাশ অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, যোগাযোগ সচিব ও সিলেট-৫ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব হাফিজ আহমদ মজুমদারের সাথে কথা বলেন। মোস্তাক আহমদ পলাশ জানিয়েছেন, অর্থমন্ত্রী, যোগাযোগ সচিব ও সংসদ সদস্য হাফিজ মজুমদার সড়কটির সংস্কারের জন্য দ্রুত অর্থ বরাদ্দের আশ্বাস দিয়েছেন। ইতিমধ্যে সওজের উদ্যোগে প্রাথমিক ভাবে সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে, শুকনো মৌসুমে রাস্তাটির প্রশস্তকরণসহ পাকাকরণের কাজ সম্পন্ন হবে তিনি বলেন। এ ব্যাপারে সওজ সিলেটের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল হালিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, ইতিমধ্যে সওজ সিলেটের উদ্যোগে রাস্তাটির সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে। অর্থপ্রাপ্তির পর রাস্তাটির চলমান উন্নয়নমূলক কাজ দ্রুত সম্পন্ন হবে। এক্ষেত্রে তিনি স্থানীয় জনগণের সহযোগিতা ও ধৈর্য্যধারণের অনুরোধ জানিয়েছেন। অপরদিকে ১৭ পরগনার নেতৃবৃন্দ ও রাস্তা উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের সচিব মাওঃ আবুল হোসেনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, রাস্তার কাজ দ্রুত সম্পন্ন হবে প্রশাসনের এমন আশ্বাসের প্রেক্ষিতে ১৫ মে’র হরতাল কর্মসূচি আমরা প্রত্যাহার করেছি। আশা করি সরকার এ অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের প্রতিক্ষিত দাবী এ সড়কটির প্রশস্তকরণসহ পাকাকরণের কাজ দ্রুত বাস্তবায়নের মাধ্যমে জনদুর্ভোগ লাঘবে এগিয়ে আসবেন। সড়কটির সংস্কার কাজে বিলম্ব হলে আবারো আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে বলে জানান।

বিয়ে করলেন ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ

Kanaighat News on Monday, May 21, 2012 | 10:35 PM

দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক চুকিয়ে বিয়ে করলেন বিশ্বের সর্বাধিক জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ।যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার পালো আলতোর নিজ বাড়িতেই ছোটখাট অনুষ্ঠান করে শনিবার প্রিসিলা চ্যানের সাথে দীর্ঘ দিনের প্রেমকে পরিণয়ে রূপ দিলেন মার্ক।অনুষ্ঠানটিও ছিল বেশ চমকপূর্ণ এবং সারপ্রাইজিং। কারণ নিমন্ত্রিত অতিথিরা অনুষ্ঠানে এসেছিলেন চ্যানের গ্র্যাজুয়েশন সমাপ্তি উদযাপন করতে। এসে দেখলেন অনুষ্ঠানটি তাদের বিয়ে উপলক্ষে।মার্ক-চেনের বিয়ে নানা কারণে শুভলগ্নের। কারণ এরই মধ্যে মার্কের প্রতিষ্ঠান ফেসবুকের শেয়ার মূল্যমান আকাশ ছোঁয়া। আরেকদিকে তার স্ত্রী চ্যানের গ্র্যাজুয়েশন শেষ হতে যাচ্ছে।একইভাবে সোমবার মার্কের ২৮তম জন্মদিন তাদের বিয়ের আনন্দে নতুন মাত্রা যোগ করবে। ২০০৪ সালে হার্ভাড ইউনিভার্সিটির এক হলরুমে মার্ক তার সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট ফেসবুকের সূচনা করেন। আর ওই সময়েই হার্ভার্ডে পরিচয় হয় এই দম্পতির।পরে তারা ক্যালিফোর্নিয়ায় চলে আসেন। ফেসবুকের সদরদপ্তরও প্রতিষ্ঠা করেন এখানেই। দীর্ঘ ৯ বছর প্রেমের সম্পর্কে চুকিয়ে অবশেষে বিয়ে করলেন আন্তর্জাতিক এই তারকা দম্পতি।

কানাইঘাট তথ্য সেবা পরিষদ গঠিত

Kanaighat News on Sunday, May 20, 2012 | 7:49 PM

জনসাধারনের মধ্যে সঠিক তথ্য সরবরাহের মাধ্যমে সচেতনতা সৃষ্টি করে সরকারী উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে গত ১৯ মে ১২ইং তারিখে সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয় কানাইঘাট বাজারে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় সর্বসম্মতিক্রমে প্রকৌশলী মাহমুদ হোসেইনকে আহবায়ক এবং বদরুল আলম চৌধূরী বাবু,ডাঃ মুফাজ্জিল হোসেন,প্রভাষক এ.কে.এম ওলিউল্লাহ ও সাংবাদিক এখলাছুর রহমানকে যুগ্ন-আহবায়ক করে ১৭ সদস্য বিশিষ্ট সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক “কানাইঘাট তথ্য সেবা পরিষদ” নামে একটি সেবা মূলক পরিষদ গঠন করা হেেয়ছে। পরিষদের অন্যান্য সম্মানিত সদস্যরা হলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান বদরুজ্জামান ইকবাল,এডভোকেট মামুন রশীদ,এডভোকেট আব্দুল খালিক,কানাইঘাট বণিক সমিতির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম খোকন,প্রভাষক আহমদ হোসেন,ব্যবসায়ী মোঃ ছাইফ উল্লাহ,ডাঃ হোসেইন আহমদ,সাংবাদিক নিজাম উদ্দিন,জামাল উদ্দিন,মাহবুবুর রশিদ,সমাজসেবী ভানু লাল দাস ও কামাল উদ্দিন। জনকল্যানে সরকার কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্প গ্রহন এবং এসকল প্রকল্পে বরাদ্দকৃত অর্থের পরিমাণ,সুষ্ঠু বিতরন ও সঠিক সময়ে বাস্তবায়ন ইত্যাদি বিষয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে সঠিক তথ্য সরবরাহ করে উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে তাদের অংশগ্রহন নিশ্চিত করাই এ পরিষদের মূল লক্ষ্য।


কানাইঘাট থানা ছাত্রদলের উদ্যেগে এস.এস.সি ও দাখিল উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রধান

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কানাইঘাট উপজেলা শাখার উদ্যেগে এস.এস.সি ও দাখিল উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠান আজ রবিবার সকাল ১১টায় কানাইঘাট ইউনিক কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্টিত হয়। উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক দিলদার হোসেন শামীম ও কানাইঘাট ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রদলের সভাপতি আমিনুল ইসলামের যৌথ পরিচালনায় উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,চাকসুর সাবেক আপ্যায়ন সম্পাদক কানাইঘাট-জকিগঞ্জ উপজেলা বিএনপির প্রধান সমন্বয়কারী মামুন রশীদ মামুন। বক্তব্য রাখেন থানা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আহমদ সিদ্দিকী দুদু মিয়া, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ফরিদ আহমদ,বিএনপি নেতা মখলিছুর রহমান,কাউন্সিলার শরীফুল হক,জসিম উদ্দিন,মোহাম্মদ আলী মেম্বার,থানা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি নুরুল ইসলাম,থানা যুবদলের আহবায়ক আব্দুল মান্নান,থানা ছাত্রদলের সিনিয়র সভাপতি জেলা ছাত্রদল নেতা হোসেন আহমদ,সহ-সভাপতি রাশীদুল হাসান টিটু,আব্দুর রহমান,ছাত্রদল নেতা আবুল বাশার,সাদিক শিকদার,রুহুল আম্বিয়া,জাকির উদ্দিন,কয়ছর আলম,করিম চৌধূরী,জাহিদ শিকদার,আব্দুর রহমান,মুহিত,ফয়ছল,বুলবুল,অলি,বদরুল,হোসন,কামরুল,আসাদ,হারুন,আজমল,মাছুম। এস.এস.সি উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কাওছার,নাহিদ,আফতাব প্রমুখ। বিপূল সংখ্যক ছাত্রদল নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আগত প্রায় তিন শতাধিক এস.এস.সি ও দাখিল উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে থানা ছাত্রদলের পক্ষ থেকে আকর্ষণীয় ডায়েরী প্রদান করা হয়।

এভারেস্ট জয়ী প্রথম বাংলাদেশী নারী নিশাত মজুমদার

বাংলাদেশের প্রথম নারী হিসেবে বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ এভারেস্ট চূড়া জয় করেছেন নিশাত মজুমদার। আজ স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে নয়টায় এভারেস্ট চূড়ায় বাংলাদেশের পতাকা উড়ান তিনি। আর এরই সঙ্গে বিরল এক গৌরবের অধিকারী হন নিশাত। তার এ বিজয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অভিনন্দন জানিয়েছেন।নিশাতের পাশাপাশি প্রথম বাংলাদেশি হিসাবে দ্বিতীয়বার এভারেস্ট জয়ের গৌরব অর্জন করেছেন এম এ মুহিত। এর আগে, তিব্বতের দিক থেকেও এভারেস্ট চূড়া জয় করেছেন তিনি। উত্তর ও দক্ষিণ দু’দিক থেকে এভারেস্ট বিজয়ী একমাত্র বাংলাদেশী হওয়ার গৌরব অর্জন করলেন এম এ মুহিত। ২০১০ সালের ২৩ মে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে এভারেস্ট জয় করেন মুসা ইব্রাহিম। এরপরের বছরের ২১ মে দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে এভারেস্ট জয় করেন মুহিত।লক্ষ্মীপুরের মেয়ে এভারেস্ট বিজয়ী নিশাত মজুমদার রাজধানী ঢাকার বটমলী হোম উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং শহীদ আনোয়ার গার্লস কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করার পর ঢাকা সিটি কলেজ থেকে হিসাববিজ্ঞানে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। বর্তমানে তিনি ঢাকা ওয়াসায় হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত। এভারেস্ট বিজয়ী নিশাত ও মুহিত বাংলা মাউন্টেনিয়ারিং অ্যান্ড ট্র্যাকিং ক্লাবের সদস্য।উল্লেখ্য, রাধানাথ শিকদার (১৮১৩-১৮৭০) নামে এক বাঙালি গণিতবিদ জরিপ তথ্য-উপাত্ত ঘেঁটে প্রথমে বের করছিলেন যে, এভারেস্ট বিশ্বের সর্বোচ্চ চূড়া। তিনি ভারতের ততকালীন ব্রিটিশ প্রশাসনের জরিপ বিভাগের সার্ভেয়ার জেনারেল অব ইন্ডিয়ার দপ্তরে কাজ করতেন।

কানাইঘাটে আন্তঃজেলা ডাকাত সর্দার গ্রেফতার

Kanaighat News on Saturday, May 19, 2012 | 8:32 PM

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কানাইঘাট থানা পুলিশ বহু মামলার দূর্ধর্ষ পলাতক আসামী কুখ্যাত ডাকাত সর্দার শাহাব উদ্দিন ওরফে ফকির আলী(৩৭)কে গত শুক্রবার গভীর রাতে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃত ডাকাত সর্দারের বাড়ী উপজেলার নিজ দলইকান্দি গ্রামে। সে মৃত ছিফতউল্লার পুত্র। থানা সূত্রে জানা যায়, ধৃৃত ডাকাত শাহাব উদ্দিন দীর্ঘদিন থেকে কানাইঘাট উপজেলাসহ প¦ার্শবর্তী উপজেলা সমূহে ডাকাতী,দস্যুতা,চুরি,মাদক ব্যবসাসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপ চালিয়ে আসছিল। তার বিরুদ্বে কানাইঘাট থানায় ৫টি,জৈন্তাপুর থানায় ১টি ডাকাতী মামলা রয়েছে। পুরিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে সে দীর্ঘদিন ধরে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল। গত শুক্রবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কানাইঘাট থানার এ.এস.আই ছিদ্দিক ও এ.এস.আই অনুপমের নেতৃত্বে সিলেট থেকে আগত পুলিশের একদল স্পেশাল ফোর্স অভিযান চালিয়ে ডাকাত শাহাব উদ্দিনকে তার বাড়ীর নিকটস্থ হাওর থেকে গ্রেফতার করে। ডাকাত সর্দার শাহাবউদ্দিন গ্রেফতারের সংবাদে এলাকায় জনমনে স্বস্থি ফিরে এসেছে।

কানাইঘাটে ভ্রাম্যমাণ আদালতে মাদকসেবীর ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড

কানাইঘাটে ভ্রাম্যমাণ আদালত এক মাদক সেবীকে ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছেন। সাজাপ্রাপ্ত ব্যাক্তির নাম নাজিম উদ্দিন(২৮)। সে রাজাগঞ্জ ইউ,পির মির্জাগড় গ্রামের মৃত আহমদ আলীর পুত্র। থানা সূত্রে যানা যায়,গত শুক্রবার গভীর রাতে মদ খেয়ে রাজাগঞ্জ বাজারে মাতলামী করার সময় টহলরত পুলিশ তাকে আটক করে। গতকাল শনিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সোহরাব হোসেনের কার্যালয়ে পুলিশ তাকে হাজির করলে তিনি তাৎক্ষণিক মোবাইল কোর্ট বসিয়ে মাতলামীর অভিযোগে নাজিম উদ্দিনকে ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদানের রায় ঘোষনা করেন।

জমিয়তে উলামার সিলেট জেলার আহবায়ক কমিটি গঠন

গতকাল ১৯ মে শনিবার সকাল ১১টায় সিলেট শহরস্থ জামেয়া আয়েশা সিদ্দিকা(রহঃ)বালিকা মাদ্রাসা মিলনায়তনে আহলুস সুন্নাত ওয়াল জামাত অর্থাৎ জমিয়তে উলামা বাংলাদেশ সিলেট জেলার আহবায়ক কমিটি গঠনের লক্ষ্যে বিশেষ সদস্যগণের এক মতবিনিময় সভা কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি হযরত মাওলানা আলীম উদ্দিন দূর্লভপূরীর সভাপতিত্বে এবং কেন্দ্রীয় মহাসচিব মাওঃ সামসুদ্দীনের পরিচালনায় অনুষ্টিত হয়। উক্ত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মাওঃ ইউসুফ শ্যামপুরী,মাওঃ বিলাল আহমদ,মাওঃ নুরুল ইসলাম এল.এল.বি,মাওঃ লোকমান আহমদ,মাওঃ মোস্তাক আহমদ খান,মাওঃ আব্দুল করিম গাজী নগরী,মাওঃ নেজাম উদ্দিন,মাওঃ মখলিছুর রহমান রাজাগঞ্জী,মাওঃ মূফতী রশীদ আহমদ,মাওঃ রুহুল আমিন,মাওঃ ক্বারী হারুনুর রশীদ চতুলী,মাওঃ বদরুল আলম,মাওঃ আব্দুল হালিম,মাওঃ কবির আহমদ,মাওঃ আলিম উদ্দিন প্রমুখ। সভায় জমিয়তে উলামার সাংগঠনিক কার্যক্রমকে তৃণমূল পর্যায়ে গতিশীল করার লক্ষ্যে ২৭ সদস্য বিশিষ্ট সিলেট জেলা জমিয়তে উলামার আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। মাওঃ লোকমান আহমদ তইপুরীকে আহবায়ক ও মাওঃ মখলিছ’র রহমান রাজাগঞ্জীকে সদস্য সচিব করে এ কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়। সভায় আগামী ৯ই জুন সিলেট মেজরটিলাস্থ জামেয়া আয়েশা সিদ্দিকা(রহঃ)বালিকা মাদ্রাসায় পরবর্তী আহবায়ক কমিটির সভা অনুষ্টিত হবে।

১০ বছরেও সংস্কার হয়নি কানাইঘাট কমিউনিটি ক্লাব

কাওছার আহমদ:-

অর্ধশতাধিক বছরের প্রাচীন কানাইঘাট কমিউনিটি ক্লাব কার্যালয়টি প্রায় ১০ বছর ধরে ভঙ্গুর অবস্থায় পড়ে আছে। অর্থের অভাবে বারবার উদ্যোগ নিয়েও সংস্কার করা যাচ্ছে না ক্লাবটি। জঙ্গল, ময়লা ও আবর্জনার স্তূপের নিচে চাপা পড়ে বিলীন হয়ে যাচ্ছে ক্লাবটির নাম-নিশানা। জানা যায়, উপজেলার শিক্ষা ও যোগাযোগ ব্যবস্থাসহ ন্যায্য দাবি-দাওয়া আদায়ের লক্ষ্যে ১৯৬১ সালে ক্লাবটি প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই এলাকার নিরক্ষরতা দূরীকরণ, উন্নয়ন ও সমস্যা সমাধানে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছিল এ প্রতিষ্ঠান। সাবেক ভূমিমন্ত্রী মরহুম আবদুস সালাম, কানাইঘাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক মরহুম আবদুর রকিব, মরহুম ডা. আবদুল লতিফ ও মরহুম ফুরকান আলীসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তির সার্বিক সহযোগিতায় ক্লাবটি এক সময় উপজেলার উন্নয়নের অগ্রদূত ছিল। বর্তমানে ভাংচুর অবস্থা থেকে ক্লাবটিকে বাঁচানোর জন্য সরকারের পাশাপাশি এলাকার বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

কানাইঘাটে পুলিশের হাতে মাদক ব্যবসায়ী ও জালনোটসহ দু’জন গ্রেফতার

কানাইঘাট থানা পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে ভারতীয় অফিসার্স চয়েস মদসহ এক মাদক ব্যবসায়ী ও জাল নোটসহ আরো এক যুবককে গ্রেফতার করেছে। জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার রাত ৭টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় মাদক বিক্রির সময় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মূল গেইট থেকে থানার এস.আই আব্দুল ওয়াহিদ উপজেলার ৫নং বড়চতুল ইউনিয়নের কুড়ার পার গ্রামের মৃত আজব আলী’র পুত্র মাদক ব্যবসায়ী আব্দুন নুর (৪০) কে ৭৫০ এম.এল অফিসার্স চয়েস মদসহ গ্রেফতার করে পুলিশ। অপরদিকে গতকাল বেলা ২টায় স্থানীয় ভবানীগঞ্জ বাজারে একশত টাকার ১০টি জাল নোটসহ বাজারের লেসি আব্দুল হালিম (২৫) কে ব্যবসায়ীরা আটক করে। পরে গ্রাম চৌকিদার সাদ উদ্দিন স্থানীয় ইউপি সদস্য শফিকুর রহমান তোতা ও ইউপি সদস্য শরিফ উদ্দিন আব্দুল হালিম কে জাল নোটসহ থানায় সোপর্দ করেন। পৃথক এ দু’টি ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন মাদক ব্যবসায়ী আব্দুন নুর দীর্ঘদিন ধরে অভিনব পন্থায় এলাকায় মাদক ও গাঁজা বিক্রি করে আসছিল। সে কানাইঘাটের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে মদ ও নেশা জাতীয় দ্রব্য বিক্রি করত। পূর্বে তাকে হাতে নাতে মাদকসহ আটক করার জন্য আইন শৃঙ্খলাবাহীনি তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ধরতে পারেনি। এলাকায় একটি মারামারির ঘটনায় মাদক ব্যবসায়ী আব্দুন নুর আহত হয়ে গত সোমবার কানাইঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়। ভর্তি থাকা অবস্থায় সে অভিনবভাবে মাদক বিক্রির সময় পুলিশ তাকে হাতে নাতে গ্রেফতার করে।

হরতালের সমর্থনে কানাইঘাটে বিক্ষোভ মিছিল

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ১৮ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে জেল হাজতে প্রেরণের প্রতিবাদে ১৮দলীয় জোটের দেশব্যাপী আজকের সকাল-সন্ধ্যা হরতালের সমর্থনে কানাইঘাট উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে গতকাল সন্ধ্যা ৭টায় এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি পৌরশহরের প্রধান প্রধান সড়কগুলো প্রদক্ষিণ শেষে কানাইঘাট দক্ষিণ বাজারে এক পথ সভায় মিলিত হয়। উক্ত পথ সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি এমএ লতিফ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক হাবিব আহমদ, যুগ্ম সম্পাদক জসিম উদ্দিন, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ফরিদ আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক নূরুল হোসেন বুলবুল, যুবদলের আহবায়ক এম এ মন্নান, যুগ্ম আহ্বায়ক মামুন রশিদ, সায়িক আহমদ, উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম শাহীন প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন, অবিলম্বে কেন্দ্রীয় সকল নেতৃবৃন্দকে নিঃশর্ত মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার না করলে দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে দেশব্যাপী অসহযোগ আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়ে আহমদ সিদ্দীকী দুদুমিয়া তত্ত্ববধায়ক সরকার ইস্যুতে গণভোটের দাবী

Kanaighat News on Wednesday, May 16, 2012 | 6:29 PM

ষাট দশকের গনআন্দোলনের অন্যতম ছাত্রনেতা কানাইঘাটের প্রবীন রাজনীতিবীদ সাবেক ইউ,পি চেয়ারম্যান আহমদ সিদ্দিকী দুদু মিয়া তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রশ্নে বর্তমানে দেশের সংঘাতময় রাজনৈতিক পরিস্থিতি তুলে ধরে বলেছেন, সংলাপ নয় তত্বাবধায়ক সরকার প্রশ্নে গণভোট দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আকুল আবেদন জানিয়েছেন তিনি। গত সম্প্রতি বিকেল ৩টায় কানাইঘাট প্রেসক্লাবে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় প্রবীণ রাজনীতিবীদ বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সাথে জড়িত আহমদ সিদ্দিকী দুদু মিয়া বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী দলীয় নেত্রী ও সুশীল সমাজের কাছে দুটি কথা তুলে ধরে তত্বাবধায়ক সরকার ইস্যুতে গণভোট ও দেশের রাজনৈতিক সংঘাত হানাহানি বন্ধে দুই নেত্রীকে হিংসা-বিদ্বেষ পরিহার করে সমৃদ্ব দেশ গণতান্ত্রিক দ্বারা বজায় রাখতে রাজনৈতিক ঐক্যমত পৌঁছার আহবান জানান। তবে তিনি দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিরসনে সংলাপ কার্যকর হবেনা উল্লেখ করে বলেন, সংলাপের নামে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্থানের অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঐতিহাসিক ছয় দফা বাস্তবায়ন সহ পূর্বপাকিস্থানের মানুষের নায্য অধিকার নিয়ে বার বার সংলাপে বসলেও পাকিস্থানী শাসক গোষ্ঠী সংলাপের নামে ঠাল বাহানা করে এই মহান নেতাকে জেলে নিক্ষেপ করে। বিগত চারদলীয় জোট সরকারের শেষের দিকে রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও জাতীয় নির্বাচন নিয়ে তৎকালীন বিএনপির মহাসচিব প্রয়াত মান্নান ভুইয়া ও আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল সংলাপ প্রসঙ্গ উল্ল্যেখ করে বলেন, সে সময় সংলাপের নামে বার বার আলোচনার টেবিলে বসলেও সংলাপ ফলপ্রসূ না হয় রাজনৈতিক হানাহানিতে দেশের কোটি কোটি টাকার সম্পদ বিনষ্ট প্রাণহানির ঘটনার মধ্যে দিয়ে ওয়ান ইলেভেনের সৃষ্টি হয়। দুই নেত্রীসহ অসংখ্য রাজনীতিবীদ সে সময় মামলা-হামলা, কারাবরণ ও নির্যাতনের শীকার হন। তিনি সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারী ক্লিনটন ও ভারতের অর্থমন্ত্রী অভীজ্ঞ রাজনীতিবীদ প্রণব মখার্জি বাংলাদেশে সফরে এসে দুই নেত্রীর সাথে সাক্ষাত করেন এবং গণমাধ্যমে দেশের সংজ্ঞাতময় রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিরশনে এবং আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সকল দলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে দুই প্রধান রাজনৈতিক দলের উদ্যোগে যে সংলাপের পরামর্শ দিয়েছেন, তাঁর বাস্তব প্রতিফলন ঘটবেনা বলে উল্লেখ করে এই প্রবীণ রাজনীতিবীদ বর্তমানে তত্ত্ববধায়ক সরকার ইস্যু নিয়ে রাজনৈতিক মাঠ উত্তপ্ত আইন-শৃঙ্খলার অবনতি, খুন, ঘুম হানাহানী থেকে জাতিকে রক্ষা করার জন্য তত্ত্ববধায়ক সরকার প্রশ্নে সরকার গণভোটের আয়োজন করলে দেশের উত্তপ্ত রাজনীতি শীতিল হবে এবং শান্তি ফিরে আসবে। এছাড়া তিনি তত্ত্ববধায়ক সরকার প্রশ্নে সুপ্রীম কোর্টের সাবেক প্রধান বিচারপতি আরো দু’টি জাতীয় সংসদ নির্বাচন তত্ত্ববধায়ক সরকারের অধীনে অনুষ্ঠিত হতে পারে এ মর্মে যে রায় দিয়েছেন তা বাস্তবায়নে দেশের জনগণের ভোটে নির্বাচিত বর্তমান প্রধান মন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সহধর্মীনি নাবেক প্রধান মন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া সকল মান-অভিমান রাজনৈতিক মনমালিণ্য ভুলে গিয়ে বাংলাদেশকে একটি সুখি সুন্দর উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য দেশ প্রেমে উদ্ধুদ্ধ হয়ে দুই নেত্রী একসাথে বসলে সকল সমস্যার সমাধান হবে বলে তিনি মনে করেন। অন্যতায় আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে যে অনিশ্চয়তার সৃষ্টি হয়েছে তার দায়বার দেশের রাজনীতিবীদ সুশীল সমাজসহ সবাইকে দিতে হবে।

কানাইঘাটে দূর্গম পাহাড়ী এলাকায় এক ব্যক্তিকে নৃশংসভাবে হত্যা

Kanaighat News on Friday, May 11, 2012 | 8:27 PM

কানাইঘাটের পল্লীতে নৃশংসভাবে উপুর্যপোরি ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে ছয়দুল হক(৪২) নামে এক ব্যক্তিকে খুন করা হয়েছে। এ নৃশংস ঘঠনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউ,পির দূর্গম পাহাড়ী এলাকার বড়চাতল পশ্চিম গ্রামে। স্থানীয় পুলিশ ও এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানাযায়, একই গ্রামের মৃত মখন মিয়ার প্ত্রু আব্দুল আলিম(২৫)উরফে কংগ্রেস পূর্ব আক্রোশের জের ধরে গত বৃহস্পতিবার রাতে পারিবারিক বিরোধ নিরসনের কথা বলে ছয়দূল হককে তার নিজ বাড়ীতে ডেকে নেয়। এক পর্যায়ে রাত ১টার দিকে আব্দুল আলিম ছয়দুল হককে ধারালো দা,দিয়ে শরীরে বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপিয়ে ঘটনাস্থলে খুন করে । এ সময় আলিমের স্ত্রী শীলা বেগম(২২) ছয়দুলকে রক্ষার জন্য এগিয়ে আসলে তাকেও কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। এসময় শীলা বেগমের সুরচিৎকারে আশপাশের লোপনকজন এগিয়ে আসলে ঘাতক আলিম দূত পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন কানাইঘাট থানা পুলিশে খবর দিলে গতকাল সকালে থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল হোসেন ও ওসি(তদন্ত) রুহুল আমিন¡ একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহত ছয়দুলের লাশ উদ্বার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এব্যাপারে নিহতের ভাই সফিকুল হক বাদী হয়ে ঘাতক আব্দুল আলিমকে আসামী করে কানাইঘাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার নং (৭)১১/৫/০১২। তবে ঘাতক আব্দুল আলিম ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে। এদিকে ছয়দুল হকের হত্যাকান্ড নিয়ে এলাকায় নানা গুঞ্জন চলছে।

কানাইঘাটে চুরি করে নিয়ে যাবার পথে ৬টি মহিষ উদ্ধার

কানাইঘাটে গত বুধবার গভীর রাতে বড় হাওর থেকে ৬টি মহিষ চুরি করে নিয়ে যাবার পথে উদ্ধার করে কানাইঘাট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। গত বুধবার রাত আনুমানিক ২টার সময় দু’জন অপরিচিত লোক সম্ভবত হাওর এলাকা থেকে দুটি বাছুর সহ ৬টি মহিষ চুরি করে নিয়ে যাবার পথে পৌরসভার নন্দিরাই পশ্চিম মসজিদের পাশে আসা মাত্র কানাইঘাট বাজার থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ী ফেরার পথে উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমুল ইসলাম হারুন, ছাত্রলীগ নেতা মারুফ আহমদ ও স্থানীয় সাংবাদিক নিজাম উদ্দিন বিষয়টি দেখে ফেললে মহিষের সাথে থাকা দুজন চোর পালিয়ে যায়। পরে কানাইঘাট বাজারে পেট্রোল ডিউটিরত কানাইঘাট থানার কন্সটেবল মুয়াজ্জিম হোসাইনকে অবহিত করা হলে তিনি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে উদ্ধারকারীদের সহায়তায় ছয়টি মহিষ থানায় নিয়ে যান। গতকাল বিকাল পর্যন্ত মহিষগুলোর প্রকৃত কোন মালিকের সন্ধান মেলেনি বলে থানা সূত্রে জানা যায়। বর্তমানে উদ্ধারকৃত মহিষগুলো থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে।

কানাইঘাটে রিভলবার উদ্ধার

গত মঙ্গলবার গভীর রাতে র‌্যাব-৯ এর একদল সদস্য কানাইঘাট উপজেলার ৪নং সাতবাঁক ইউনিয়নের লালারচক গ্রামের মৃত নূর উদ্দিনের পুত্র নূর আহমদের বসতঘর থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় আমেরিকার তৈরী একটি রিভলবার উদ্ধার করেছে। উদ্ধারকৃত অস্ত্রটি র‌্যাব গত বুধবার কানাইঘাট থানায় হস্তান্তর করেছে।জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নূর আহমদের বাড়ীতে অস্ত্র আছে জানতে পেরে একদল র‌্যাব সদস্য মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ২টার দিকে নূর আহমদের বসতঘরে অভিযান চালায়। র‌্যাব সদস্যরা অভিযানের সময় স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল করিম শাহীন, আলাউর রহমান, আব্দুশ শুকুর, এবাদুর রহমানসহ গ্রামের অন্যান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে নূর আহমদের বসতঘরে অভিযান চালিয়ে রান্নার চুলা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় রিভলবারটি উদ্ধার করেন। এ সময় নূর আহমদ বাড়ীতে ছিলেন না বলে স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে র‌্যাব-৯ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে, পরিত্যক্ত অবস্থায় রিভলবারটি উদ্ধারের বিষয়টি স্বীকার করে বলা হয় অবৈধ অস্ত্রটি কানাইঘাট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। থানার ওসি রফিকুল হোসেইন বলেন, র‌্যাব-৯ এর সদস্যরা অবৈধ অস্ত্রটি গত বুধবার থানায় জমা দিয়েছেন। এলাকাবাসী জানিয়েছেন, যার বাড়ী থেকে রিভলবারটি উদ্ধার করা হয়েছে সে বাড়ীর মালিক নূর আহমদ ধূর্ত প্রকৃতির লোক। তার বিরুদ্ধে কানাইঘাট থানায় দুটি নারী নির্যাতন মামলা রয়েছে। সে সক্রিয় চোরাকারবারি চক্রের সদস্য ও মাদক ব্যবসায়ী। গ্রামে তার প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে অবৈধ অস্ত্রটি তার ঘরে লুকিয়ে রেখেছিল বলে ধারণা করছেন তারা।

কানাইঘাট বাজারে পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত৭

স্ট্যান্ডের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গত বৃহস্পতিবার(১১ মে) কানাইঘাটে দু’দল পরিবহন শ্রমিকের মধ্যে প্রায় ৩ ঘন্টাব্যাপী দফায় দফায় উত্তেজনা, হাতাহাতি ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পরে ৬/৭ জন পরিবহন শ্রমিক আহত হয়েছেন। তবে পুলিশের কঠোর ভূমিকায় এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের হস্তেেপ বড়ধরণের কোন সংঘর্ষ ঘটেনি। জানা যায়, সড়কের বাজার স্ট্যান্ডের সিএনজি, ক্যারিকাব ও লেগুনার ড্রাইভাররা গত কয়েকদিন ধরে থানা সদরের কানাইঘাট বাজারের পূর্ব গলিতে অঘোষিতভাবে স্ট্যান্ড বসিয়ে যাত্রী বহনের জের ধরে গতকালের এ সংঘর্ষ ঘটনা ঘটে। সড়কের বাজার স্ট্যান্ডের ক্যারিকাব, লেগুনা ও অটোরিক্সার চালকরা নবনির্মিত কানাইঘাট সুরমা সেতু দিয়ে যাত্রী নিয়ে কানাইঘাট বাজারে প্রবেশ করে পূর্ব বাজারের অঘোষিত স্ট্যান্ড বসিয়ে যাত্রী বহন করে আসছিলেন। এতে কানাইঘাট উত্তর ও দণি বাজার অটোরিক্সা, ক্যারিকাব স্ট্যান্ডের শ্রমিক নেতৃবৃন্দ তাদের দুটি স্ট্যান্ডের অধীনে এসে বৈধভাবে গাড়ী চালানোর জন্য সড়কের বাজার স্ট্যান্ডের শ্রমিকদের প্রতি আহ্বান জানান। কিন্তু সড়কের বাজার পরিবহন শ্রমিকরা নিয়মকানুনের তোয়াক্কা না করে গায়ের জোরে অবৈধভাবে স্ট্যান্ড তৈরি করে বাজারের ভিতর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে যাত্রী বহনের ঘটনায় ফুঁসে উঠেন কানাইঘাট উত্তর ও দণি বাজার স্ট্যান্ডের শ্রমিকরা। গতকাল তারা সকাল ১১টায় একত্রিত হয়ে সড়কের বাজার স্ট্যান্ডের চালকদের গাড়ি চালাতে বাঁধা প্রদান করলে পাল্টা সড়কের বাজার শাখার গাড়ির শ্রমিকরা প্রায় শতাধিক ক্যারিকাব, লেগুনা ও অটোরিক্সার বহর নিয়ে দণি বাজার দিয়ে প্রবেশের চেষ্টা করলে উভয় পরে শ্রমিকদের মধ্যে চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে সড়কের বাজার শ্রমিকদের প নিয়ে কিছু বহিরাগতরা তাদের সাথে যোগ দিলে উত্তেজনা মারাত্মক আকার ধারণ করে। উভয় প লাঠি-সোটা নিয়ে সংঘর্ষের প্রস্তুতি নিলে খবর পেয়ে দ্রুত কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল হোসেইন একদল পুলিশ নিয়ে দণি বাজার স্ট্যান্ডে ছুটে এসে পরিবহন শ্রমিকদের সাথে কথা বলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। তারপরও উভয় পরে মধ্যে সংঘাত বিরাজ করলে পুলিশ কানাইঘাট বাজারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অবস্থানের কারণে কোন ধরণের রক্তয়ী সংঘাতের ঘটনা ঘটেনি। পরে আবারও থানার ওসি উভয় পরে শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলে বিষয়টি বসে শান্তি পূর্ণভাবে মীমাংসার আশ্বাস প্রদান করলে বেলা দেড় টার দিকে শ্রমিকরা যার যার অবস্থানে চলে যায়। এ ব্যাপারে ওসি রফিকুল হোসাইনের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, দু’দল শ্রমিকদের মধ্যে স্ট্যান্ড ব্যবহার নিয়ে উত্তেজনা ও মতবিরোধের বিষয়টি আজ উভয় পরে মালিক-শ্রমিক নেতৃবৃন্দ ও কানাইঘাটের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের নিয়ে প্রশাসনিকভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে বসে নিষ্পত্তি করা হবে। এ নিয়ে যাতে করে যেকোন ধরণের অনাকাক্সিত ঘটনা না ঘটে সে ব্যাপারে পুলিশ প্রশাসন সক্রিয় রয়েছে। এ দিকে বাজারের ব্যবসায়ীবৃন্দ ও ভোক্তভোগীরা দুর্ঘটনা রোধে বাজারের ভিতর দিয়ে যাতে কোন ধরণের যানবাহন চলাচল করতে না তার জন্য প্রশাসনের প্রতি জোর দাবী জানিয়েছেন।

কানাইঘাট বাজারে মানসম্পন্ন ফাষ্টফুড“গ্রামবাংলা স্নেক্স" শুভ উদ্বোধন

Kanaighat News on Thursday, May 10, 2012 | 12:04 AM

কানাইঘাট উত্তর বাজারের সউদিয়া মার্কেটে মানসম্পন্ন “গ্রামবাংলা ¯স্নেক্স"” নামে একটি ফাষ্টফুড দোকানের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে এক মিলাদ ও দোয়া মাহফিল গত বুধবার বাদ আছর উক্ত ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে অনুষ্ঠিত হয়। কানাইঘাট বাজারের বিশিষ্ট ব্যাবসায়ীবৃন্দসহ বিভিন্ন পেশার লোকজন শুভ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এ উপলক্ষে আয়োজিত মিলাদ মাহফিল শেষে ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানের সাফল্য কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন প্রখ্যাত আলেমে দ্বীন কানাইঘাট দারুল উলুম মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওঃ মুহাম্মদ বীন ইদ্রিস। উপস্থিত ছিলেন দারুল উলুম মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওঃ আলিম উদ্দিন(দূর্লভপুরী),বীরদল অনোয়ার উলূম মাদ্রাসার মুহতামিম মাওঃগোলাম ওয়াহিদ,হাফিয মাওঃ জাকারিয়া, বীরদল এন.এম.একাডেমীর সহকারী প্রধান শিক কলামিষ্ট মহিউদ্দিন,তৈয়বুর রহমান,বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী আলতাফ হোসেন,হাফিজ বিলাল উদ্দিন,মখলিছুর রহমান,সাংবাদিক নিজাম উদ্দিন,জামাল উদ্দিন,কাওছার আহমদ,এখলাছুর রহমান,আব্দুন নূর, প্রমূখ। উক্ত ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানের সত্বাধীকারী সাংবাদিক মাহবুবুর রশিদ ও হাফিজ অলিউর রহমান জানান কানাইঘাট বাজারে কোন বিশুদ্ব ও মানসম্পন্ন ফাষ্ট ফুড এবং কোমল পানীয় দোকান না থাকায় তিনি ক্রেতাদের চাহিদার কথা বিবেচনা করে হালাল উপায় ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য ফাষ্টফুডের দোকান খুলেছেন। তার ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে দেশী-বিদেশী সকল কোমল পানীয়,বেকারী সামগ্রী সহ সব ধরনের ফাষ্টফুডের খাবার পাওয়া যাবে।

এস.এস.সি পরীক্ষায় কানাইঘাটে সন্তোষজনক ফলাফল অর্জন

Kanaighat News on Monday, May 7, 2012 | 11:26 PM

সিলেট শিক্ষাবোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত এবারের এস.এস.সি পরীক্ষায় কানাইঘাটে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি আশানুরুপ ফলাফল অর্জন করায় অভিভাবক, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে উল্লাস বইছে। তবে প্রত্যাশা অনুযায়ী অনেক মেধাবী শিক্ষার্থী কাংখিত এ প্লাস অর্জন করতে না পারায় তাদের মধ্যে হতাশা সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, এ বছর এস.এ.সি পরীক্ষয় উপজেলার মোট ১৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ১হাজার ৯৫ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। এর মধ্যে ১৪টি এ প্লাস সহ ৯৮৮জন শিক্ষার্থী পাশ করেছেন। উপজেলার পাসের হার ৯০.২২। স্কুল গুলির মধ্যে কানাইঘাট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১০৩ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ৭টি এ প্লাসসহ ৯৯জন, চড়িপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮৪জনের মধ্যে ৩টি এ প্লাস সহ ৮৩, জুলাই আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৭ জনের মধ্যে ১টি এ প্লাস সহ ৩৮, দুর্গাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ৬৫জনের মধ্যে ১টি এ প্লাসসহ ৬২, গাছবাড়ী মর্ডান একাডেমীতে ১০৩জনের মধ্যে ২টি এ প্লাস সহ ৯৫, ছোটদেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৩জনের মধ্যে ৪২, রামিজা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭৩জনের মধ্যে ৬২, সড়কের বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ে ১২৯জনের মধ্যে ৯৭, বড়দেশ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪৪জনের মধ্যে ৪০, বীরদল এন.এম একাডেমীতে ৭৯জনের মধ্যে একটি এ প্লাস সহ ৭২, সুরতুনন্নেছা মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩৫জনের মধ্যে ২৭, সুরইঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩৪জনের মধ্যে ৩২, ঝিংগাবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে ৭০জনের মধ্যে ৬৪, বীরদল অগ্রগামী উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪০জনের মধ্যে ৩২, মানিক গঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫৮জনের মধ্যে ৫৭, বশির আহমদ উচ্চ বিদ্যালয়ে ২৩জনের মধ্যে ২২, মালিক নাহার মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজে ২৫ জনের মধ্যে ২৪ ও সুরমা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪০ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহন করে সবাই কৃতকার্য হয়েছে।

আল্লামা মোশাহিদ সেতু.........উদ্বোধনের আগেই ফাটল

উদ্বোধনের আগেই নবনির্মিত কানাইঘাট সুরমা সেতুর কার্পেটিং উঠে গিয়ে বড় বড় গর্ত ও ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে। এতে কাজের মান নিয়ে সচেতন মহলে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। জানা যায়, সিলেটের পূর্বাঞ্চলীয় উপজেলা কানাইঘাটের আড়াই লাখ মানুষের দীর্ঘদিনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে জোট সরকারের আমলে ২৯৩ক্ম৯ মিটার প্রস্থ সুরমা সেতুর কাজ শুরু হয়। ২৪ কোটি টাকা ব্যয়ে আবদুল মোনেম লিমিটেড নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ৫ বছরে সেতুটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করে। এখনও নির্মাণ কাজ চলছে। আজও সেতুটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়নি। পরীক্ষামূলকভাবে কিছু হালকা যানবাহন চলাচল করায় উদ্বোধনের আগেই ব্রিজের ৩ স্থানে কার্পেটিং উঠে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী রিয়াজ মাহমুদ বলেন, নবনির্মিত সুরমা সেতুর কার্পেটিং উঠে গিয়ে বিভিন্ন স্থানে গর্ত সৃষ্টি হওয়ার বিষয়টি সেতু নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানকে চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে। অন্যদিকে নিম্নমানের কংক্রিট দিয়ে সেতুএপ্রোচ সড়কের কার্পেটিংয়ের কাজের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে জানান।
 
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: মো:মহিউদ্দিন,সম্পাদক : মাহবুবুর রশিদ,নির্বাহী সম্পাদক : নিজাম উদ্দিন। সম্পাদকীয় যোগাযোগ : শাপলা পয়েন্ট,কানাইঘাট পশ্চিম বাজার,কানাইঘাট,সিলেট।+৮৮ ০১৭২৭৬৬৭৭২০,+৮৮ ০১৯১২৭৬৪৭১৬ ই-মেইল :mahbuburrashid68@yahoo.com: সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত কানাইঘাট নিউজ ২০১৩