অস্ট্রেলিয়ায় নিহত কানাইঘাটের শাহিদুরের পরিবারে চলছে শোকের মাতম

Written By Shimanter Dak on Friday, October 31, 2014 | 9:23 PM

 কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক:
গত ২৭ অক্টোবর সোমবার অস্ট্রেলিয়ার সিডনি শহরে সন্ত্রাসীদের হাতে খুন হওয়া কানাইঘাটের শাহিদুর রহমান শাহীনের পরিবারে চলছে শোকের মাতম। শাহিদের মৃত্যুকে স্বাভাবিক মৃত্যু হিসেবে মেনে নিতে পারছে না তাঁর পরিবার,কমিউনিটি ও এলাকার লোকজন। শাহিদুর রহমান শাহীন ল্যাকেম্বায় সদ্য চালুকৃত একটি মানি-এক্সচেঞ্জের পরিচালক হিসেবে কমিউনিটিতে অল্প সময়ের মধ্যে বেশ সুনাম অর্জন করেছিলেন।  গ্রামের নিবাস সিলেটে বিধায় সিলেটী শাহীন নামেও তিনি কমিউনিটিতে পরিচিত ছিলেন। এছাড়াও সদা হাস্যজ্জল অমায়িক এই যুবকের অন্য এক পরিচিতি ছিল স্থানীয় যুব লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে। পিতামাতা ও ভাইবোন সহ কিং জর্জেস রোডের এক বাসাতে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছিলেন শাহিদুর রহমান শাহীন। উল্লেখ্য যে,গত
গত ২৭ অক্টোবর সোমবার অস্ট্রেলিয়ার সিডনি শহরে সন্ত্রাসীদের হাতে খুন কানাইঘাটের শাহিদুর রহমান শাহিন।
 ক্যাম্পসী লোকাল পুলিশের তদন্ত রিপোর্ট এখনও প্রকাশিত না হলেও প্রত্যক্ষদর্শীরা মৃতদেহটি পার্কের গাছের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায় বলে জানান।  ঘটনার দিন রাতে এশার আগ পর্যন্ত শাহিদ নিজ বাসাতেই অবস্থান করছিলেন। এক সূত্র থেকে জানাযায়, রাত নয়টার দিকে এক ফোন কলের পর পরই বড় এক অঙ্কের টাকার লেনদেনের কথা জানিয়ে ঘর থেকে বের হন তিনি। অবশ্য, বিস্তারিত তথ্য উদ্ঘাটনের উদ্দেশ্যে শাহিদের অফিস ও বাসার বিভিন্ন বস্তু বর্তমানে পুলিশের তদন্তনাধীন রয়েছে বলে একটি সূত্রে জানা যায়। পরদিন সকালে প্যারি পার্ক থেকে পুলিশ উদ্ধার করে শাহিদের মরদেহ। বেশ কিছুদিন আগে  শাহিদ ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে বেশ কয়েক হাজার নগদ টাকা হারান। টাকা ছিনতাইয়ের পর ছিনতাইকারীরা শাহিদকে গুরুতরভাবে আহত করে।  বাংলাদেশী কমিউনিটির এমনই একজন সফল, কর্মঠ, মিশুক, সদাহাস্য উদীয়মান যুবক ব্যবসায়ীকে হারিয়ে ভীষণভাবে শোকাহত। আজ ৩১ অক্টোবর শুক্রবার জুময়ার নামাজের পর ল্যাকেম্বার অয়াঞ্জী রোড মসজিদে শাহিদের নামাজে যানাযা অনুষ্ঠিত হয়ার কথা ছিল তবে যাম্পসী লোকাল পুলিশ অনিবার্য কারণবশতঃ তা স্থগিত করে দেয়। শাহিদের জানাযায় শরীক হতে আসা শুভাকাঙ্ক্ষীদের প্রতি দুঃখ প্রকাশ করেছেন তাঁর পরিবার ও নিকটজনেরা। স্থানীয় ক্যাম্পসী পুলিশের অনুমতি সাপেক্ষে পরবর্তীতে শাহিদের জানাযার সময়সূচী সবাইকে অবহিত করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

ফালুই প্রথম ফোন করেন ফায়ার সার্ভিসে


কানিউজ ডেস্ক : রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল করপোরেশন (বিএসইসি) ভবনের ১১ তলায় অগ্নিকাণ্ডের পর ফায়ার সার্ভিসে প্রথম ফোন করেন এনটিভির চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক আলী ফালু। এনটিভি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সূত্র জানায়, শুক্রবার সকাল ৯টায় শুরু হয়েছিল বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এনটিভির নিজস্ব উদ্যোগে সংবাদকর্মীদের দুই ধাপে দক্ষতা বৃদ্ধির প্রথম কর্মশালা। কর্মশালায় এনটিভির ১৬জন প্রতিবেদকসহ প্রডাকশন বিভাগের কয়েকজন সংবাদকর্মী উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালায় ক্লাশ নিচ্ছিলেন দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী। এ সময় ভবনের ৮তলায় নিজস্ব চেম্বারে উপস্থিত ছিলেন চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক আলী ফালু। এনটিভির নিজস্ব উদ্যোগে আরেকটি কর্মশালা আগামী শুক্রবার অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। সূত্র আরো জানায়, নভেম্বর ২০১৩ সাল থেকে একই ভবনে অবস্থিত আরটিভির মালিকানা কাগজে-কলমে বুঝে পেয়েছেন ফালু। কিন্তু তিনি এখনো ওই বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের মালিকানা বাস্তবে বুঝে পাননি। এদিকে ২০০৭ সালে বিএসইসি ভবনে আগুন লাগার পরে এনটিভি অফিস স্থানান্তরের পরিকল্পনা করছিলেন কর্তৃপক্ষ। এফডিসির পাশে অবস্থিত নিজস্ব ভবন গ্রীন ইনে তা স্থানান্তরের কথা হচ্ছিল বলে সূত্র জানায়। ফায়ার সর্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ জানায়, শুক্রবার বেলা ১১টা ৪৮ মিনিটে ওই ভবনে আগুন লাগার খবর পেয়ে অগ্নি নির্বাপক বাহিনীর ১৫টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে কাজ শুরু করে। বেলা ১টা ৫৬ মিনিটে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসার কথা জানান ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের মহাপরিচালক আলী আহমেদ খান। এনটিভি, আরটিভি, আমার দেশ এবং বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান মিলিয়ে প্রায় ৩০টি প্রতিষ্ঠানের কার্যালয় রয়েছে ওই ভবনে। ২০০৭ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি এই ভবনে আগুন লেগে এনটিভি, আরটিভি ও আমার দেশসহ ১০টি প্রতিষ্ঠানের কার্যালয় পুড়ে যায়, মৃত্যু হয় তিন জনের। অগ্নি নির্বাপক কর্মী এবং ওই ভবনের বিভিন্ন কার্যালয়ের কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ১১ তলায় আমার দেশের একটি গুদাম থেকে আগুনের সূত্রপাত। তবে আজ ছুটির দিন হওয়ায় ওই ভবনের বেশিরভাগ কার্যালয় বন্ধ ছিল। কিন্তু গণমাধ্যম কার্যালয়গুলোতে সাধারণত সবসময়ই কর্মীরা থাকেন। আগুন লাগার পরপরই ওইসব প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা নেমে আসেন বলে উপস্থিত কর্মীরা জানান। দৈনিক আমার দেশ সূত্রে জানা যায়, আজ সকালে আমার দেশ অফিসের কার্যালয় নিকেতনে শিফট করার কথা ছিল। এ কারণে নিউজ রুমের কেউ সকালে অফিসে ছিলেন না। এ ব্যাপারে আরো জানা যায়, বাংলাদেশ ইস্পাত ও প্রকৌশল করপোরেশন (বিএসইসি) ভবন শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন। এ ভবনে ভাড়া বাবদ আমার দেশ পত্রিকার কাছে কয়েক কোটি পাওনা রয়েছে বিএসইসির। এদিকে আগুন লাগার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন বিভিন্ন গণমাধ্যমের কর্র্মীরা। এ সময় এনটিভির চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোসাদ্দেক আলী ফালু সাংবাদিকদের বলেন, ‘বারবারই এ ভবনে আগুন লাগে, আর আমি বারবারই ক্ষতিগ্রস্ত হই। তদন্ত হয়, কিন্তু রিপোর্ট পাই না। তদন্ত কি হয় তা জানা যায় না। বার বার এ ভবনে আগুন লাগে কেন তা জানা দরকার। আমি সকলের দোয়া চাই।’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আমার দেশ পত্রিকার এক কর্মচারী জানান, অফিস পরিবর্তনের জন্য কয়েকটা এসি ও চেয়ার লিফটে করে নামানো হয়। আরো মালামাল নামানোর প্রস্তুতি চলছিল। এ সময় উত্তর-পূর্ব দিকের স্টোর রূমে আগুনের ফুলকি দেখা যায়। স্টোর রূম তালাবন্ধ ছিল। চাবি দিয়ে খুলে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন তারা। তারপর ভবন থেকে নেমে পড়েন। অন্যদিকে আগুন নেভানোর কাজ চলার সময়ই বিএসইসি ভবনের নিচে এসে পৌঁছান শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। এ সময় ২০০৭ সালে এ ভবনে অগ্নিকাণ্ডের পর যে তদন্ত কমিটি হয়েছিল, তার প্রতিবেদনের বিষয়ে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি বিষয়টি দেখব। এখন আমার জানা নেই।’

মেয়ের সামনেই মাকে গণধর্ষণের অভিযোগ


ঢাকা : বিজেপি-সমর্থিত পরিবারের এক গৃহবধূকে তার মেয়ের সামনেই গণধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় কয়েকজন তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেছেন নির্যাতিত মহিলা। পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুর জেলার ইটাহারের বরোট গ্রামে অক্টোবরের ১৮ তারিখে এ ঘটনা ঘটে। তবে প্রাণনাশের হুমকিতে ভয় পেয়ে ওই মহিলা এত দিন পুলিশকে অভিযোগ জানাননি। আজ শুক্রবার নির্যাতিতা মহিলা ইটাহার থানায় তৃণমূল কংগ্রেসের ওই নেতাদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার রাতে ওই মহিলার বাড়িতে এলাকার তৃণমূল কংগ্রেস নেতা হিসেবে পরিচিত ১০-১২ জন দুষ্কৃতকারী হামলা চালান। পরিবারের লোকজনকে মারধরের পাশাপাশি তাদের বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগে জানানো হয়। পুলিশকে ওই মহিলা জানিয়েছেন, ওই দুষ্কৃতকারীরা ঘরে ঢুকে তার ১০ বছর বয়সী মেয়ের সামনেই তাকে গণধর্ষণ করে। মেয়েটিরও শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ ওই নির্যাতিতার। খবর পেয়ে ইটাহারের প্রাক্তন বিধায়ক শ্রীকুমার মুখোপাধ্যায় তাদের বাড়িতে যান। তিনিই ওই মহিলাকে পুলিশে অভিযোগ জানাতে বলেন। শ্রীকুমার মুখোপাধ্যায়ের কথামতো নির্যাতিতা মহিলা স্থানীয় থানায় অভিযুক্তদের নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ইটাহারের তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক ও জেলা সভাপতি অমল আচার্য জানিয়েছেন, অভিযোগটি গুরুতর। আইন নিজস্ব পথেই চলবে। কোনো রাজনৈতিক রং না দেখে পুলিশকে তদন্ত করতে অনুরোধ করা হবে বলেও জানান তিনি। অন্যদিকে বিজেপির জেলা সভাপতি শুভ্র রায়চৌধুরী অভিযোগ করেছেন, সারা রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। ইটাহারের ঘটনা তাতে আর একটি সংযোজন। অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতার করার দাবি জানান তিনি।

চিরকুমার সমিতি: নতুন উপদেষ্টা জমসের, বাদ রেলমন্ত্রী


কুমিল্লা: বিয়ে করে নতুন ইনিংস ‍শুরু করছেন কুমিল্লার চিরকুমার সমিতির প্রধান উপদেষ্টা রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক। এ কারণে চিরকুমার সমিতির পদ হারাচ্ছেন তিনি। তার স্থলে সমিতির প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে জমসের আলী সর্দারকে মনোনীত করা হয়েছে। সমিতির নেতারা জানান, চিরকুমার জমসের আলী সর্দারকে (১০২ বছর) নতুন প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে বরণের প্রস্তুতি চলছে। ৬৮ বছর বয়সে প্রধান উপদেষ্টা চলে যাওয়ায় বর্তমানে চিরকুমার সমিতি অপেক্ষাকৃত ‘‘কমবয়সী’’ কোনও চিরকুমারকে আর বিশ্বাস করতে পারছে না। চির কুমার সমিতির মহাসচিব ডা. মোহাম্মদ আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন, ‘প্রধান উপদেষ্টা রেলমন্ত্রীর বিয়েতে আমরা মর্মাহত। তবে তার জন্য শুভ কামনা রইলো। আমরা শিগগিরই নতুন উপদেষ্টাকে বরণ করে নেবো।’ নতুন উপদেষ্টা জমসের আলী সর্দার কুমিল্লা জেলার আদর্শ সদর উপজেলার দুর্লভপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি থাকেন দুর্লভপুরের উত্তর পাড়ায় একটি পৃথক টিনের ঘরে। তার এক ভাই ও চার বোন সবাই মারা গেছেন। দূর সম্পর্কের আত্মীয়-স্বজনরা তার দেখাশোনা করেন। বয়স ১০২ হলেও তিনি শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন। নিজের বিষয়-সম্পত্তির একটি অংশ দান করেছেন সমাজের কল্যাণে। তিনি দুর্লভপুর হাই স্কুলের জন্য দুই একর জায়গা (মূল্য চার কোটি টাকা) দান করেছেন।

কারওয়ানবাজারে বিএসইসি ভবনের আগুন নিয়ন্ত্রণে


স্টাফ রিপোর্টার: রাজধানীর কারওয়ানবাজারে বিএসইসি ভবনে আমার দেশ কার্যালয়ের আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। বেলা সোয়া দুইটার দিকে এ তথ্য জানান ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেলর আলী হামদ খান। দুপুর ১২টার দিকে আগুন লাগে বিএসইসি ভবনে। ভবনে বেসরকারি টেলিভিশন এনটিভি ও আরটিভির অফিসও রয়েছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট। এছাড়া সেখানে ব্যবহার করা হয় তিনটি ল্যাডার। এখনো পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমান নিয়ে দুই শিশুর মামলা


কানিউজ ডেস্ক : মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমানে থাকা এক যাত্রীর দুই শিশু সন্তান মালয়েশীয় এয়ারলাইনস ও দেশটির সরকারের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। ফ্লাইট এমএইচ৩৭০-এ থাকা তাদের বাবাকে উদ্ধারে বিমান সংস্থা ও সরকারের অবহেলার অভিযোগে এই মামলা করা হয়েছে। মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমানে থাকা যাত্রীদের স্বজনদের পক্ষে এটিই প্রথম মামলা। শুক্রবার বিবিসি ও আলজাজিরা অনলাইনের খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে। গত মার্স মাসের ৮ তারিখে নিখোঁজ হওয়া বিমানে ছিলেন জি জিং হান নামে এক মালয়েশীয়। ইন্টারনেটভিত্তিক তার একটি ব্যবসা ছিল। প্রতি মাসে আয় ছিল ৫ হাজার ১৭৮ মার্কিন ডলার। তাকে হারিয়ে তার পরিবার দিশেহারা হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় বাবাকে হারানোর জন্য মালয়েশীয় এয়ারলাইনসের কর্তৃপক্ষ ও সরকারকে দায়ী করেছে জি জিং হানের দুই সন্তান। তাদের নাম জি কিনসন ও জি কিনল্যান্ড। কিনসন ও কিনল্যান্ড অভিযোগে বলেছে, এমএইচ ৩৭০ ফ্লাইটটি রাডার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার পর মালয়েশীয় এয়ারলাইনস বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগের জন্য তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিতে অবহেলা করেছে। তা ছাড়া অত্যাধুনিক প্রযুক্তির যুগে এই ধরনের নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা মেনে নেওয়া যায় না। সরকার ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

জেনে রাখুন চটজলদি হেঁচকি বন্ধ করার ১০টি দারুণ উপায়


ফারজানা রিংকী হেঁচকি নিয়ে এই জীবনে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন নি, এমন মানুষ পৃথিবী খুঁজেও মিলবে না। মারাত্মক ব্যাপার এই হেঁচকি। আর সেটা যদি ভরা পেটে হয়, তাহলে তো আরও মারাত্মক আকার ধারণ করে। অফিসে, ক্লাসের ফাঁকে, খাওয়ার সময় বা ঘুমের মাঝে হেঁচকি একটা চরম বিব্রতকর অবস্থা। এমন সময়ে কী করবেন চট করে হেঁচকি দূর করতে? জেনে নিন ১০ টি উপায়, একটি না একটি তো কাজে আসবেই। হেঁচকি বন্ধ করার কিছু তাৎক্ষণিত প্রাকৃতিক উপায় : ১. আপনার যদি এমন হঠাৎ করে হেঁচি ওঠে তাহলে লম্বা শ্বাস নিয়ে ভেতরে অনেকক্ষণ রাখুন। এক্ষেত্রে অবশ্যই নাক বন্ধ রাখুন। ২. কাগজের ব্যাগের ভেতরে মাথা ঢুকিয়ে নিশ্বাস নিন। ৩. এক চামচ মাখন বা চিনি খেতে পারেন। এটি হেঁচকি কমাতে সহায়ক। ৪. মুখের উপরের অংশটিতে ভালোভাবে ম্যাসেজ করুন। প্রয়োজনে গলার পেছনের অংশে হালকা ম্যাসেজ করুন। এতেও হেঁচকি কমবে। ৫. বেশি করে পানি খান। বিশেষ করে বরফ পানি খেলে তাড়াতাড়ি উপকার পাওয়া যায়। ৬. আপনি যখন নাক দিয়ে নিশ্বাস নিবেন তখন নাকে হালকা করে চাপ দিন। এটি হেঁচকি কমাতে সহায়ক। ৭. লম্বা নিঃশ্বাস নিন। হাঁটুকে বুকের কাছাকাছি এনে জড়িয়ে ধরুন এবং কয়েক মিনিট এভাবেই থাকুন। ৮. হেঁচকি বন্ধ করার জন্য জিহ্বাতে লেবুর একটি অংশ রাখুন এবং মিষ্টি মনে করে তা চুষুন। এটি হেঁচকি বন্ধে বেশ কার্যকর। ৯. হেঁচকি বন্ধে লেবুর রসের সাথে আদা কুচিও খেতে পারেন। ১০. হেঁচকি বন্ধে সহায়ক আরেকটি উপায় হল দুই কানে দুই আঙ্গুল ঢুকিয়ে কিছুক্ষণ থাকুন। দেখবেন হেঁচকি নিমেষেই বন্ধ হয়ে গেছে।
 
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: এম.এ হান্নান,সম্পাদক : মাহবুবুর রশিদ,নির্বাহী সম্পাদক : নিজাম উদ্দিন। সম্পাদকীয় যোগাযোগ : সাউদিয়া মার্কেট,দোকান নং-২,কানাইঘাট উত্তর বাজার,সিলেট। +৮৮ ০১৭২৭৬৬৭৭২০,+৮৮ ০১৯১২৭৬৪৭১৬ ই-মেইল :mahbuburrashid68@yahoo.com: সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত কানাইঘাট নিউজ ২০১৩