Previous
Next

সর্বশেষ


Tuesday, December 6

কানাইঘাট মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হলেন সেলিম

কানাইঘাট মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হলেন সেলিম


নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঐতিহ্যবাহী   কানাইঘাট  মডেল  সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন যুব ও ক্রীড়া সংগঠক সেলিম উদ্দিন। 

গত ৩০ নভেম্বর বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য   ও   শিক্ষক   প্রতিনিধিদের  মতামতের   ভিত্তিতে   সর্বসম্মতিক্রমে সেলিম উদ্দিনকে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করা হয়। 

কানাইঘাট   পৌরসভার   নন্দিরাই  গ্রামের   বাসিন্দা   সেলিম   উদ্দিন দীর্ঘদিন থেকে বিভিন্ন সামাজিক ও ক্রীড়া সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন। পাশাপাশি তিনি কানাইঘাট বাজারের একজন ব্যবসায়ী। উচ্চশিক্ষিত   সর্ব  মহলের   কাছে   পরিচিত   সেলিম  উদ্দিন   ঐতিহ্যবাহী কানাইঘাট   মডেল  সরকারি   প্রাথমিক   বিদ্যালয়ের  ম্যানেজিং   কমিটির সভাপতি মনোনীত করায় প্রতিষ্ঠানের অভিভাবকবৃন্দ, বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন   ও   সূধীজন  তাকে   শুভেচ্ছা   জানিয়েছেন।   

নবনির্বাচিত ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির বলিষ্ট নেতৃত্বে এবং স্কুলের অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলীর   ঐকান্তিক  প্রচেষ্টায়   উপজেলার   সর্ববৃহৎ   সেরা  প্রতিষ্ঠান   মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার গুণগত মান বৃদ্ধি এবং প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড আরো ত্বরান্বিত হবে বলে সবাই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। 

স্কুলের প্রধান শিক্ষক নুরুজ্জামান সহ সহকারী শিক্ষকবৃন্দ ও অভিভাবকদের পক্ষ থেকে সেলিম উদ্দিনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে। 

এদিকে সেলিম উদ্দিন তাকে সর্বসম্মতিক্রমে কানাইঘাট মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করায় স্কুলের   শিক্ষকবৃন্দ,   অভিভাবকবৃন্দের   প্রতি   কৃতজ্ঞতা   প্রকাশ   করে   স্কুলের শিক্ষার   মান-উন্নয়নে   তার   পক্ষ   সব   ধরনের   প্রচেষ্টা   অব্যাহত   থাকবে   বলে জানান। 

কানাইঘাট সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সহ সভাপতি হলেন নুরুজ্জামান

কানাইঘাট সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সহ সভাপতি হলেন নুরুজ্জামান


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :

কানাইঘাট সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের নতুন কমিটিতে নুরুজ্জামান সহ সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন। 

সোমবার(৫ ডিসেম্বর) সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নাজমুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক রাহেল সিরাজ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আগামী ১ বছরের জন্য কানাইঘাট কলেজের কমিটি ঘোষণা করা হয়। নুরুজ্জামান  স্কুলজীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত।

Monday, December 5

কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন

কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠন

সভাপতি রাওয়ান আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক মারওয়ান


নিজস্ব প্রতিবেদক:

দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে নতুন কমিটি পেয়েছে কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগ। নতুন এ-কমিটিতে রাওয়ান আহমদকে সভাপতি এবং মারওয়ানুল করিমকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। 

সোমবার(৫ ডিসেম্বর) সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নাজমুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক রাহেল সিরাজ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আগামী ১ বছরের জন্য এই কমিটি ঘোষণা করা হয়।

এদিকে নতুন কমিটি পাওয়ায় সোমবার বিকেলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা কানাইঘাট বাজারে মিষ্টি বিতরণ ও আনন্দ মিছিল করেছে।


Sunday, December 4

কানাইঘাটে শ্রমিকদের টাকা আত্মসাতের ঘটনায়   ইউএনও বরাবরে স্মারকলিপি

কানাইঘাটে শ্রমিকদের টাকা আত্মসাতের ঘটনায় ইউএনও বরাবরে স্মারকলিপি


নিজস্ব প্রতিবেদক: 

সিলেট জেলা অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়ন-৭০৭ শাখার অর্ন্তভুক্ত কানাইঘাট উত্তর বাজার উপ-পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম ও কোষাধ্যক্ষ বশির আহমদ কর্তৃক স্ট্যান্ডের শ্রমিকদের জমানো প্রায় ৭ লক্ষ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন ৭০৭ শাখার অর্ন্তভুক্ত কানাইঘাট উপজেলার বিভিন্ন উপ-পরিষদের নেতৃবৃন্দ।  রবিবার বিকেল ৪টায় নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন্ত ব্যানার্জি বরাবরে এ স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। 

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, কানাইঘাট উত্তর বাজার উপ-পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম ও কোষাধ্যক্ষ বশির আহমদ দায়িত্ব পালনকালে বিভিন্ন প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে স্ট্যান্ডের শ্রমিকদের দৈনিক জমানো ৩ লক্ষ ৬৭ হাজার টাকা সহ বিভিন্ন খাতের মোট ৭ লক্ষ টাকার হিসাব না দিয়ে সমূহ টাকা আত্মসাত করার লক্ষে সংগঠনের একাউন্ট থেকে জালিয়াতির মাধ্যমে এ টাকা আত্মসাত করে তারা। শ্রমিকদের দাবী-দাওয়ার প্রেক্ষিতে উক্ত উপ-পরিষদের সভাপতি সহ অন্যান্য দায়িত্বশীলরা সাধারণ সম্পাদক ও কোষাধ্যক্ষের নিকট সংগঠনের হিসাব-নিকাশ চাইলে তারা কোন কর্ণপাত না করায় সংগঠনের দায়িত্বশীলরা সিলেট জেলা শাখার নেতৃবৃন্দকে অবহিত করলে জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ সাধারণ সভার মাধ্যমে উভয়ের নিকট হিসাব-নিকাশ চাওয়ার পরও তারা কোন হিসাব-নিকাশ বুঝাইয়া না দেয়ায় জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ উপ-পরিষদের কমিটিকে স্থগিত করে কানাইঘাট বাজার বণিক সমিতির সভাপতি, সেক্রেটারী, অটোরিক্সা শ্রমিক ইউনিয়নের জেলা শাখার সদস্য ও কানাইঘাট দক্ষিণ বাজার উপ-পরিষদের সভাপতি জুনেদ হাসান জীবান সহ ৫ সদস্যের একটি কমিটি করে স্থগিত উপ-পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও কোষাধ্যক্ষ হতে হিসাব-নিকাশ সহ টাকা উদ্ধারের দায়িত্ব দেয়া হয়। পরবর্তীতে তারাও একাধিকবার বৈঠক করলেও উপ-পরিষদের হিসাব-নিকাশ ও চেকপাতা উদ্ধার করতে পারেন নাই। শ্রমিক ইউনিয়ন কানাইঘাট উত্তর বাজার উপ-পরিষদের নিয়ম অমান্য করে রেজুলেশন খাতায় জাল-জালিয়াতি করে অনিয়ম-দুর্নীতির আশ্রয় নিয়া শ্রমিকদের জমানো প্রায় ৭ লক্ষ টাকা আত্মসাত করেছে বলে স্মারকলিপিতে বলা হয়। শ্রমিকদের জমানো টাকা উদ্ধার সহ আত্মসাতকারীদের বিরুদ্ধে দ্রæত প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া না হলে কানাঘাটের শ্রমিকরা যে কোন ধরনে কর্মসূচী গ্রহণ করবেন বলে হুশিারী উচ্চারণ করেন। 

স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন, ৭০৭ শাখার জেলা কমিটির সদস্য ও কানাইঘাট দক্ষিণ বাজার উপ-পরিষদের সভাপতি জুনেদ হাসান জীবান, সাধাণ সম্পাদক উদ্দিন জিয়া উদ্দিন, কানাইঘাট উত্তর বাজার উপ-পরিষদের সভাপতি সভাপতি মোঃ জাকারিয়া, যুগ্ম সম্পাদক হারুন রশীদ, রাজাগঞ্জ উপ-পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ, শহর উল্লাহ উপ-পরিষদের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক এখলাছ উদ্দিন, গাছবাড়ী চৌমুহনী উপ-পরিষদের সভাপতি সালেহ আহমদ, সাধারণ সম্পাদক ওয়ারিছ উদ্দিন, চতুল বাজার উপ-পরিষদের সভাপতি মোঃ আলমগীর। সাধারণ সম্পাদক সেলিমুর রহমান, চতুল ঈদগাহ উপ- পিরষদের সভাপতি আলমাছ, সাধারণ সমআদক ফয়ছল আহমদ, সুরইঘাট উপ-পরিষদের মামুন আহমদ, বড়বন্দ বাজার- উপ-কমিটির সভাপতি আলমাছ উদ্দিন সহ বিভিন্ন স্ট্যান্ডের উপ-পরিষদের নেতৃবৃন্দ। 


কানাইঘাটে দুই দিনব্যাপী বিজ্ঞান মেলা সম্পন্ন

কানাইঘাটে দুই দিনব্যাপী বিজ্ঞান মেলা সম্পন্ন


নিজস্ব প্রতিবেদক:

কানাইঘাটে ৪৪ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ এবং বিজ্ঞান মেলা ও ৭ম জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড-২০২২ এর সমাপনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। দুই দিন ব্যাপী উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ মেলার আয়োজ করে উপজেলা প্রশাসন। মেলায় উপজেলার বিভিন্ন কলেজ, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় অংশগ্রহণ করে। 

রবিবার বিকেল ৩টায় মেলার সমাপনী অনুষ্ঠান ও বিজয়ী প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন্ত ব্যানার্জির সভাপতিত্বে ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তরিকুল ইসলামের পরিচালনায় জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ, বিজ্ঞান মেলা, ৭ম জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ এমদাদুল হক, বীরমুক্তিযোদ্ধা সুবেদার আফতাব উদ্দিন, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, উপজেলা প্রোগ্রামার অফিসার আবুল কালাম আজাদ সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ। 

মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন্ত ব্যানার্জি বলেন, বর্তমান সরকার বিজ্ঞান মনস্ক শিক্ষা ব্যবস্থার উপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছে, যাতে করে শিক্ষার্থীরা প্রযুক্তির যথাযথ ব্যবহার করে আবিষ্কারের উপর গুরুত্ব দিয়ে দেশের অগ্রগতি উন্নয়তে অবদান রাখতে পারে। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় সৌর বিদ্যুতের সম্ভাবনাকে গুরুত্ব দিয়ে সোলার সিস্টেম কাজে লাগিয়ে শিক্ষার্থীরা যাতে করে নতুন নতুন উদ্ভাবন করতে পারেন এজন্য গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানের যথাযথ ব্যবহার করে আগামী দিনে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠার জন্য আহবান জানান। অনুষ্ঠান শেষে বিজয়ী প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়। 


চেয়ারম্যান আফসার চৌধুরী রোটারি ক্লাবের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত

চেয়ারম্যান আফসার চৌধুরী রোটারি ক্লাবের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :

কানাইঘাট সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রোটারিয়ান আফসার চৌধুরী রোটারি ক্লাব অব সিলেট সেন্ট্রালের ২০২৩-২৪ রোটারি বর্ষের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন। 

গত ০২-১২-২০২২ তারিখে মনোনয়ন বোর্ড রোটারিয়ান আফসার চৌধুরী কে ক্লাব প্রেসিডেন্ট হিসাবে মনোনীত করেন এবং ০৩-১২-২০২২ তারিখে সাধারণ সভায় তাঁকে চুড়ান্ত মনোনীত করা হয়। রোটারিয়ান আফসার চৌধুরী ২০১২ সালে রোটারিতে যোগদান করেন এবং রোটারিতে যোগদানের পর ক্লাবের এবং ডিস্ট্রিক্ট ৩২৮২ এর বিভিন্ন পদে দক্ষতা ও সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি রোটারি ইন্টারন্যাশনাল ইভেন্টে যোগ দিতে দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া, ভারত সহ বিভিন্ন ইন্টারন্যাশনাল প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করেন। 

তিনি ২০২০-২১ রোটারি বর্ষে সেক্রেটারি' র দায়িত্ব সফলতার সাথে পালন করেন। রোটারি অঙ্গনের এক পরিচিত নাম রোটারিয়ান আফসার চৌধুরী। রোটারিয়ান আফসার চৌধুরী কানাইঘাট উপজেলার সদর ইউনিয়নের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে ১৯৮০ সালে জন্মগ্রহণ করেন। আফসার চৌধুরী সিলেট ওসমানী নগর উপজেলার দয়ামীর ডিগ্রি কলেজে হিসাববিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক হিসাবে কর্মরত ছিলেন। 

২০২২ সালের স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নৌকা প্রতিক নিয়ে ৬নং কানাইঘাট সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এছাড়াও আফসার চৌধুরী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, কানাইঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। ছোটবেলার থেকেই তিনি আর্থ-মানবতার কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। রোটারি ইন্টারন্যাশনাল সারা বিশ্বে আর্থ-মানবতার কল্যাণে কাজ করে থাকে। 

চেয়ারম্যান রোটারিয়ান আফসার চৌধুরী মনোনয়ন বোর্ডের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।

আজ হানাদার মুক্ত হয় কানাইঘাট

আজ হানাদার মুক্ত হয় কানাইঘাট


মাহবুবুর রশিদঃ

আজ ৪ ডিসেম্বর। কানাইঘাট উপজেলাবাসীর জন্য একটি স্মরণীয় দিন। ১৯৭১ সালের আজকের এ দিনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর সাথে সম্মুখ যুদ্ধের মাধ্যমে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধারা কানাইঘাটকে হানাদার মুক্ত করেন। এরপর থেকে এই দিনটি কানাইঘাট মুক্ত দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। 

বেশ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধার সাথে আলাপ করে জানা যায় , ১৯৭১ সালের ৪ ডিসেম্বর কানাইঘাটকে পাক-হানাদার বাহিনীর কবল থেকে মুক্ত করার লক্ষ্যে মুক্তিযোদ্ধারা ৩ ডিসেম্বর রাতে পাক-হানাদার বাহিনীকে বিভিন্ন দিকে থেকে ঘেরাও করেন। ৪ ডিসেম্বর ভোর রাতে পাক-হানাদার বাহিনীর সাথে মুক্তি বাহিনীর তুমুল যুদ্ধ সংঘটিত হয়। সেই যুদ্ধে মুক্তি বাহিনীর পক্ষে নেতৃত্ব মেজর জেনারেল চিত্তরঞ্জন দত্ত (সি আর দত্ত) আর পাক বাহিনীর পক্ষে নেতৃত্ব দেন ক্যাপ্টেন বসারত। মুখোমুখি লড়াইয়ের একপর্যায়ে পরাজয় বরণ করে পাক হানাদার বাহিনীর সদস্যরা। আর জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধারা কানাইঘাট উপজেলাকে হানাদার মুক্ত করে বিজয় উল্লাসে ফেটে পড়েন। 

মুক্তিযুদ্ধকালের অন্যতম স্মরণীয় যুদ্ধ হলো কানাইঘাটের যুদ্ধ। কানাইঘাটে মুক্তিযুদ্ধের গৌরবগাঁথা অনেক ইতিহাস-ঐতিহ্য রয়েছে। সম্মুখ যুদ্ধে নিহত অনেক বীর মুক্তিযোদ্ধাদের গণকবর ও স্মৃতিসৌধ এখানে রয়েছে।

১৯৭১ সালের রক্তক্ষয়ী মহান স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে পাকিস্তান হানাদার বাহিনীর সাথে বীরত্বের সাথে সম্মুখ যুদ্ধে লিপ্ত হয়ে দেশের জন্য জীবন উৎসর্গ করেন জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানরা। অনেকে পঙ্গুত্ব বরণ করেন, পাকিস্তান হানাদার বাহিনী ও তাদের এ দেশীয় দোসররা বহু মা-বোনের ইজ্জত হরণ করার পাশাপাশি শত শত বাড়ি ঘর জ্বালিয়ে দেয়। কিন্তু থেমে থাকেনি মুক্তিকামী জনতা। ৪ ডিসেম্বর শত্রু বাহিনীকে পরাজিত করে কানাইঘাটকে মুক্ত করে বিজয়ের স্বাদ পুরো উপজেলায় ছড়িয়ে দিতে সক্ষম হন।

কানাইঘাট উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নজমুল হক বলেন,'১৯৭১ সালের ৩ডিসেম্বর রাতে পাক হানাদার বাহিনীর সাথে মুক্তিযোদ্ধাদের তুমুল যুদ্ধ হয়,দীর্ঘ সময়ে যুদ্ধ করে শত লাশের বিনিময়ে ৪ ডিসেম্বর হানাদার মুক্ত হয় কানাইঘাট।

অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা ফখরুল ইসলাম বলেন,'১৯৭১ সালে আমি প্রায়ত মেজর জেনারেল চিত্তরঞ্জন দত্তের (সি আর দত্ত) এর অধীনে ৪ নং সেক্টরে যুদ্ধ করি। সিলেটের কানাইঘাট,গোয়াইনঘাট ও জৈন্তাপুর উপজেলায় ভারি অস্ত্র নিয়ে আমার যুদ্ধ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে ।

বীর মুক্তিযোদ্ধা ফখরুল ইসলাম আরও
বলেন,'সেদিন আমার সাথে আব্দুল খালিক ও মকবুল হোসেন নামে আমাদের এলাকার দুইজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন,আমাদের ক্যাম্প ছিলো লালাখাল। ৪ ডিসেম্বর আমরা কমান্ডারের নির্দেশে বড়বন্দ এলাকার হাজি মুছব্বির সাহেবের বাড়ি থেকে অপারেশন চালাই। পাক হানাদার বাহীনির সাথে আমাদের তুমুলযুদ্ধ হয়,একপর্যায়ে তারা পিছু হটলে মুক্ত হয় কানাইঘাট।

প্রতি বছর এই দিনে কানাইঘাট মুক্ত দিবস স্মরণে উপজেলা প্রশাসন ও মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়ে থাকে।

Saturday, December 3

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক হলেন কানাইঘাটের জিলানী

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক হলেন কানাইঘাটের জিলানী

 


মুফিজুর রহমান নাহিদ:

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সহ-সম্পাদক হিসেবে মনোনীত হয়েছেন সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার আব্দুল কাদির জিলানী। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে মাস্টার্সে অধ্যয়নরত আব্দুল কাদির জিলানী স্যার এফ রহমান হলের আবাসিক শিক্ষার্থী।

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য্য স্বাক্ষরিত চিঠিতে তাকে সহ-সম্পাদক হিসেবে মনোনীত করা হয়।

স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ধারণ করে উন্নত ও সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ বিনির্মাণের স্বপ্নদ্রষ্টা দেশরত্ন শেখ হাসিনার রুপকল্প ২০৪১ ও চতুর্থ শিল্পবিপ্লব বাস্তবায়নে আপনার সপ্রতিভ পদচারণা প্রশংসনীয়। আপনাকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সম্পাদক হিসেবে মনোনীত করা হলো।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য মনোনীত হওয়ায় তিনি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য সহ সংশ্লিষ্ট নেতৃবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং সকলের আশির্বাদ কামনা করেন।

আব্দুল কাদিরের গ্রামের বাড়ি সিলেট জেলার কানাইঘাট উপজেলার গাছবাড়ী এলাকার ভদ্রছটি গ্রামে। তিনি দীর্ঘদিন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত  আছেন। ইতোপূর্বে আব্দুল কাদির জিলানী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্যার এ এফ রহমান হল ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ-সম্পাদক ছিলেন। পরবর্তীতে একই হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ছিলেন। দীর্ঘ ২৮ বছর পর অনুষ্ঠিত ডাকসু নির্বাচনেও হল সংসদে প্রার্থী ছিলেন। পরবর্তীতে ডাকসুতে হল সংসদে ছাত্রলীগ প্যানেলকে সমর্থন জানিয়ে মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় এবং নিজ এলাকায় বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত আছেন।

Friday, December 2

কানাইঘাটে আমন ধানের বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি

কানাইঘাটে আমন ধানের বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে হাসি




মাহবুবুর রশিদঃ

কানাইঘাটের বির্স্তীণ ফসলের মাঠ জুড়ে এখন শোভা পাচ্ছে আমনের সোনালী ধান। যতদূর চোখ যায় শুধু সোনালী ফসলের সমারোহ। মাঝেমধ্যে বাতাসে দোল খাচ্ছে হলুদ-সবুজের ধানের শীষ। চারিদিকে ভেসে আসছে পাকা ধানের মৌ মৌ গন্ধ। চলতি বছরের বন্যায় আউশ ধানের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ার পর কৃষকরা নতুন করে স্বপ্ন দেখেন ঘুরে দাঁড়ানোর। আমন ধান চাষ করে সফল হয়েছেন চাষীরা। ভালো ফলন হওয়ায় কৃষকের মুখে সাফল্যের হাসি ফুটেছে। তাঁরা এখন আনন্দে ধান কাটতে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

সরেজমিনে বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে দেখা যায়,মাঠে মাঠে কৃষকেরা মনের আনন্দে গান গেয়ে ধান কাটছেন, কেউ আবার ধান মাড়াইয়ের কাজে ব্যস্ত। কৃষাণীরাও ধান রাখার জন্য মাঠ সাজাতে ব্যস্ত রয়েছেন। যেন দম ফেলার ফুসরত নেই কারো। কোনো কোনো জায়গায় হারভেস্টার মেশিন দিয়েও ধান কাটতে দেখা গেছে। ইদানীং ধান মাড়াই কলের কদরও বেড়েছে বেশ। তবে এ বছর লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে জমি আবাদ বেশি হওয়ায় ধান কাটা শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে বলে বেশ কয়েকজন কৃষক জানান। উপজেলা কৃষি অফিসের কর্মকর্তা ও মাঠকর্মীরা সোনালী আমন ধানের ফসল সঠিকভাবে যাতে করে কৃষকরা ঘরে তুলতে পারেন এজন্য তাদের সব ধরনের সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছেন। 

কানাইঘাট পৌরসভার শিবনগর গ্রামের সালমান আহমদ নামের একজন চাষি বলেন,‘অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এবছর আমন ধানের ভালো ফলন হয়েছে,এতে আমি খুশি’।

সদর ইউনিয়নের গোসাইনপুর  গ্রামের সেলিম উদ্দিন নামের আরেক কৃষক বলেন,‘অনুকূল আবহাওয়া ও ধানের রোগবালাই কম থাকায় অন্য বছরের তুলনায় আমন ধানের ফলন বেশ ভালো হয়েছে’। 

কানাইঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো.এমদাদুল হক জানান,‘চলতি বছরের বন্যায় আউশ ধানের ক্ষতি হলেও এবছর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় আমন ধানের রেকর্ড বাম্পার ফলন উৎপাদন হয়েছে। উপজেলায় আমন ধানের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৫৬১৭ হেক্টর, সে লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে আমাদের কৃষক ভাইরা ১৫৬২০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের আবাদ করেছেন। কৃষকরা যাতে করে তাদের পাকা ধান নির্বিঘ্নে ঘরে তুলতে পারেন এ জন্য কৃষি অফিসের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে’। 




Wednesday, November 30

সংবাদকর্মী আসআদ এর পিতার দাফন সম্পন্ন ,কানাইঘাট প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের শোক

সংবাদকর্মী আসআদ এর পিতার দাফন সম্পন্ন ,কানাইঘাট প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দের শোক


নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঐতিহ্যবাহী কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সদস্য, দৈনিক বিজয়ের কন্ঠ পত্রিকার কানাইঘাট উপজেলা প্রতিনিধি, কানাইঘাট দারুল উলূম মাদ্রাসার সহকারি শিক্ষক মাওলানা আসআদ আহমদ এর পিতা পৌরসভার দুর্লভপুর গ্রাম নিবাসী হাফিজ ইসহাক আলীর দাফন সম্পন্ন হয়েছে। 

প্রবাস থেকে দেশে আসার পর কয়েক মাস অসুস্থ থাকার গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৪টার দিকে নিজ বাড়িতে মারা যান হাফিজ ইসহাক আলী(ইন্নানিল্লাহি.........রাজিউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর। তিনি স্ত্রী সহ দুই ছেলে-দুই মেয়ে রেখে গেছেন। 

বুধবার(৩০ নভেম্বর)  বাদ যোহর দুর্লভপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে মরহুমের জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাজার নামাজে এলাকার সর্বস্তরের লোকজন সহ কানাইঘাট প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। পরে লাশ গ্রামের গুরুস্তানে দাফন করা হয়। 

এদিকে কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সদস্য মাওলানা আসআদ আহমদ এর পিতা সমাজসেবী হাফিজ ইসহাক আলীর মৃত্যুতে শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা এবং মরহুমের আত্মার মাগফেরাত করে শোক প্রকাশ করেছেন, ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এম.এ হান্নান, বর্তমান সভাপতি রোটারিয়ান শাহজাহান সেলিম বুলবুল, সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন সহ নেতৃবৃন্দ।


বাড়িতে ডেকে নিয়ে হত্যা করা হয় কানাইঘাটের মঈনকে,৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

বাড়িতে ডেকে নিয়ে হত্যা করা হয় কানাইঘাটের মঈনকে,৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা




নিজস্ব প্রতিবেদক:

কানাইঘাটের মঈন উদ্দিন হত্যাকান্ডের ঘটনায় ৭ জনকে আসামী করে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহতের বাবা উপজেলার সীমান্তবর্তী লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউনিয়নের বাউরভাগ প্রথমখন্ড (সিঙ্গারীপার) গ্রামে শফিকুল হক বাদী হয়ে তার ছেলে মঈন উদ্দিনকে কোপিয়ে নির্মমভাবে হত্যার ঘটনায় কানাইঘাট থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতারকৃত একই গ্রামের মৃত সিদ্দেক আলীর পুত্র আলিম উদ্দিন, তার ভাই আলী হোসেন সহ পরিবারের ৭ জনকে আসামী করে বুধবার(৩০ নভেম্বর)  এ হত্যা মামলা দায়ের করেন। থানার মামলা নং- ২১, তারিখ- ৩০/১১/২০২২ইং। 

মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত মঈন উদ্দিন প্রায়ই একই গ্রামের মৃত সিদ্দেক আলীর পুত্র আলী হোসেনের বসত বাড়িতে যাতায়াত করিত। এতে আলী হোসেনের স্ত্রী মমতা বেগমকে মঈন উদ্দিন ভাবি বলে ডাকার সুবাদে তাদের বাড়িতে যাওয়া-আসা করে। একপর্যায়ে তাদের বাড়িতে আলী হোসেনের ভাগ্নি তানিয়া বেগমের সহিত মঈন উদ্দনের সখ্যতা গড়ে উঠলে আলী হোসেন, আলিম উদ্দিন সহ তার পরিবারের লোকজন বিষয়টি ভালো চোখে দেখেনি। তারা মঈন উদ্দিনকে তাদের বাড়িতে আসতে নিষেধ করে এবং তানিয়া বেগমের সাথে কথা না বলার জন্য গালাগালি করে। মঈন উদ্দিন এর প্রতিবাদ করলে সম্প্রতি তাকে আলিম উদ্দিন ও তার ভাই আলী হোসেন হত্যার হুমকি দেয়। এতে আলিম উদ্দিন, আলী হোসেন ও তাদের ভাগ্না মারজান গংরা মঈন উদ্দিনকে হত্যার পরিকল্পনা করে গত সোমবার রাতে মঈন উদ্দিনকে কৌশলে ফোন দিয়ে একই গ্রামের মারজানের বাড়িতে নেয়া হয়। সেখানে মঈন উদ্দিনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথা ও গাড়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয় এবং ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য তার লাশ গ্রামের সাধন দাসের বাড়ির পাশের ক্ষেতের মাঠে ফেলা রাখা হয়। 

থানার ওসি (তদন্ত) দিলীপ কান্ত নাথ জানান, মমতা বেগম ও তানিয়া বেগমের সাথে মঈন উদ্দিনের সখ্যতা থাকার কারনেই এ হত্যাকান্ডটি ঘটানো হয়েছে। তানিয়া বেগমের বাড়িতে মঈন উদ্দিনকে কৌশলে ডেকে নিয়ে সোমবার রাত ৯টা থেকে ১০টার মধ্যে হত্যা করার পর পাশর্^বর্তী ধান ক্ষেতের মাঠে তার ফেলে দেয়া হয়। এ হত্যাকান্ডের সাথে সরাসরি জড়িত থাকার দায়ে এজাহার ভুক্ত আসামী আলিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে, তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। মামলার অপর আসামীদের গ্রেফতার করতে এলাকায় পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে

Tuesday, November 29

কানাইঘাটে যুবককে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় আটক ১

কানাইঘাটে যুবককে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় আটক ১


নিজস্ব প্রতিবেদক:

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার সীমান্তবর্তী লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউনিয়নের বাউরভাগ প্রথমখন্ড (সিঙ্গারীপার) গ্রামে গত সোমবার(২৮ নভেম্বর)  রাতে মঈন উদ্দিন (৩০) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। 

কানাইঘাট থানা পুলিশ নিহত মঈন উদ্দিনের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট মর্গে প্রেরন করেছে। 

স্থানীয় ও নিহতের পরিবারের সদস্যরা জানান, বাউরভাগ প্রথমখন্ড (সিঙ্গারীপার) গ্রামের শফিকুল হকের পুত্র মঈন উদ্দিন রাত ৯টার দিকে বিশ্বকাপ খেলা দেখা জন্য নিজ বাড়ি থেকে বের হয়ে তার বোন জামাই আবুল কালামের খাইবাড়ি বিজরবন্দ মাদ্রাসার সামনে দোকানে যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে গ্রামের সাধন দাসের বাড়ির পাশের ধান ক্ষেতের মাঠে মঈন উদ্দিনের রক্তাক্ত লাশ পড়ে থাকতে দেখে এক পথচারী শোর চিৎকার করেন। তখন আশপাশ থেকে লোকজন এসে দেখতে পান মঈন উদ্দিনকে মাথায় ও গাড়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপিয়ে কে বা কারা হত্যা করে ফেলে রেখে গেছে। 

এ হত্যাকান্ডের খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক কানাইঘাট সার্কেলের এএসপি আব্দুল করিম ও থানার অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলাম পিপিএম ঘটনাস্থলে যান এবং নিহত মঈন উদ্দিনের লাশ পুলিশ হেফাজতে নিয়ে এসে ময়না তদন্তের জন্য  মঙ্গলবার(২৯ নভেম্বর)  সকালে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়। 

তবে কী কারনে দুই সন্তানের জনক মঈন উদ্দিনকে হত্যা করা হয়েছে তার সঠিক রহস্য উদ্ঘাটিত না হলেও নিহতের পরিবারের সদস্যরা বলেছেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে একই গ্রামের মৃত সিদ্দেক আলীর পুত্র আলিম উদ্দিন, তার শশুড়, শ্যালক মিলে এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে। 

নিহত মঈন উদ্দিনের পিতা বৃদ্ধ শফিকুল হক কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, সপ্তাহ খানেক পূর্বে আলিম উদ্দিন তার ছেলে মঈন উদ্দিনকে প্রাণে মারার হুমকিও দিয়েছিল। 

ঘটনার পর সোমবার রাতে এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে একই গ্রামের মৃত সিদ্দেক আলীর পুত্র আলিম উদ্দিনকে আটক করে স্থানীয় জনতা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। তবে স্থানীয় অনেকে বলেছেন, নারী ঘটিত ঘটনার জের ধরে এ হত্যাকান্ডটি ঘটেছে। 

এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলামের কথা হলে তিনি বলেন, নারী ঘটিত ঘটনার জের ধরে মঈন উদ্দিনকে হত্যা করা হতে পারে বলে আমরা ধারনা করছি। হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের অভিযান চলছে। সন্দেহ জনক হিসেবে আলিম উদ্দিন নামে এক যুবক আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান। 


কানাইঘাটে যুবককে কুপিয়ে হত্যা,  লাশ উদ্ধার

কানাইঘাটে যুবককে কুপিয়ে হত্যা, লাশ উদ্ধার


নিজস্ব প্রতিবেদক:

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার সীমান্তবর্তী লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউনিয়নের বাউরবাগ প্রথমখন্ড গ্রামে মঈন উদ্দিন (২৮) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা । 

স্থানীয়রা জানান,মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে বাউরবাগ প্রথমখন্ড গ্রামের সফিক আহমদের পুত্র মঈন উদ্দিনের রক্তাক্ত লাশ একই গ্রামের ক্ষেতের মাঠে দেখতে পেয়ে থানা পুলিশকে খবর দেন। 

একপর্যায়ে রাত ৯টার দিকে কানাইঘাট সার্কেলের এএসপি আব্দুল করিম ও থানা অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলাম পিপিএম একদল পুলিশকে নিয়ে ঘটনাস্থলে যান এবং মঈন উদ্দিনের লাশ পুলিশ হেফাজতে নিয়ে আসেন। 

নিহত মঈন উদ্দিনের মাথায় গভীর ধারালো আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে পুলিশ সুত্রে জানা গেছে। তবে কি কারণে মঈন উদ্দিনকে হত্যা করা হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। পুলিশ এ গুপ্ত হত্যার সাথে জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের জন্য এলাকায় অভিযান চালাচ্ছে। 


এ ব্যাপারে কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলাম পিপিএম'র সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার হত্যার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।