উজানী ঢলে কানাইঘাটে বন্যা!লোভাছড়া কোয়ারী বন্ধ থাকায় হাজার হাজার বারকি শ্রমিক বেকার

Kanaighat News on Monday, August 31, 2015 | 8:08 PM


নিজস্ব প্রতিবেদক: ভারতের উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল ও সপ্তাহ জুড়ে টানা ভারি বৃষ্টিপাতের ফলে সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার প্রত্যন্ত অঞ্চলের অর্ধ লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। ভারতের উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল অব্যাহত ভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় সপ্তাহ দিন থেকে লোভাছড়া পাথর কোয়ারীর বন্ধ থাকায় হাজার হাজার বারকি শ্রমিক বেকার হয়ে পড়েছেন। সোমবার কানাইঘাটে সুরমা নদীর পানি বিপদ সীমার ৬৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে করে নদীর তীরবর্তী গ্রামগুলোর মানুষ আতংকের মধ্যে বসবাস করছেন। বিশেষ করে দু’দিন থেকে অব্যাহত ভাবে বন্যার পানি বেড়ে গিয়ে প্রায় শতাধিক গ্রামে বন্যার পানি ঢুকে পড়ায় প্রত্যন্ত অঞ্চলের অধিকাংশ গ্রামীন রাস্তা-ঘাট তলিয়ে যাওয়ায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন অর্ধ লক্ষাধিক মানুষ। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তারেক মোহাম্মদ জাকারিয়া কানাইঘাট নিউজকে বলেছেন, সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি মনিটরিং করা হচ্ছে, তবে অদ্যবধি পর্যন্ত সরকারী ভাবে কোন ত্রাণ সামগ্রী বরাদ্ধ দেওয়া হয়নি। তিনি আরো জানান, সরকারী হিসাব মতে ৪ হাজার হেক্টর ফসলি জমি তলিয়ে গেছে। সম্পূর্ণভাবে বিনষ্ট হয়েছে প্রায় ৭শত হেক্টর ফসলি জমি। তবে কোথাও সুরমা নদীর ডাইকগুলোর ভাঙ্গনের খবর পাওয়া যায় নি। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা জানিয়েছেন, তাদের ইউনিয়নে অধিকাংশ এলাকা বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। মানুষ দুর্বিষহ জীবন যাপন করছেন। পানিবন্দী মানুষের জন্য জরুরী ভিত্তিতে সরকারী ত্রাণ বরাদ্ধের দাবিও জানিয়েছেন তারা।

ব্লগার অনন্ত হত্যায় কানাইঘাটে গ্রেফতারকৃত দুই ভাইকে নিয়ে এলাকায় তোলপাড়

Kanaighat News on Saturday, August 29, 2015 | 10:57 PM


নিজস্ব প্রতিবেদক: সিলেটের সুবিদবাজারে ব্লগার অনন্ত বিজয় দাশ হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে কানাইঘাট উপজেলার পূর্ব ফালজুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা হাফিজ মাওঃ মঈন উদ্দিনের দুই পুত্র হাফিজ আব্দুল মান্নান ইয়াহিয়া (২৫) ও হাফিজ আব্দুল মোহাইমিন নোমান (১৯) কে গ্রেফতার নিয়ে এলাকায় জনমনে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। গত শুক্রবার ভোর রাতে পুলিশের অপরাদ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) এই দুই সহোদরকে তাদের নিজ বাড়ী থেকে গ্রেফতার করে। উগ্রবাদী ধর্মীয় গোষ্ঠীর সাথে তাদের সম্পৃক্ততা রয়েছে এবং বিজ্ঞান মনস্ক লেখক অনন্ত বিজয় দাস হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত সন্দেহে এ দুই সহোদরকে গ্রেফতার করা নিয়ে এলাকায় জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। গ্রেফতারকৃত দুই সহোদর ভাইয়ের নামে ফেইসবুকে একাধিক আইডি রয়েছে। এরমধ্যে হাফিজ আব্দুল মান্নান ইয়াহিয়ার নামে ইবনে মঈন, মান্নান রাহি নামে ফেইসবুক আইডি রয়েছে, অপর ভাই হাফিজ আব্দুল মোহাইমিন নোমানের নামে এ.এম রুমান নামে একটি ফেইসবুক আইডি রয়েছে। উক্ত আইডিগুলোতে তারা নিয়মিত ধর্মীয় লেখালেখি সহ বিভিন্ন পোস্ট এবং ধর্মীয় উগ্রবাদী জঙ্গী সংগঠনগুলোর সাথে যোগাযোগ রাখত বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। শনিবার সরেজমিনে কানাইঘাট উপজেলা সদর থেকে অন্তত ৩৫ কিলোমিটার দূরে সুরমা নদীর তীরবর্তী পূর্ব ফালজুর গ্রামসহ আশপাশ এলাকার নানা শ্রেণি পেশার মানুষের সাথে কথা বলে জানা যায়, ফালজুর গ্রামের মৃত তাহির আলীর পুত্র ফালজুর জামে মসজিদের ইমাম এবং এলাকায় অবস্থিত আশরাফুল উলূম কৌমি মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মুহতামিম দাখিল পাশ মাদ্রাসা পড়ুয়া সরকারী ভাতা প্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা হাফিজ মঈন উদ্দিন (৫৫) এর গ্রেফতারকৃত দুই পুত্রের মধ্যে বড় ছেলে হাফিজ আব্দুল মান্নান ইয়াহিয়া (২৫) প্রথমে কৌমি মাদ্রাসায় লেখাপড়া করে পরবর্তীতে স্থানীয় ঝিঙ্গাবাড়ী ফাজিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসা থেকে দাখিল এবং একই মাদ্রাসা থেকে আলিম পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়। ছোট ছেলে হাফিজ আব্দুল মোহাইমিন নোমান (১৯) একই মাদ্রাসা থেকে দাখিল পাশ করে। সরেজমিনকালে গ্রেফতারকৃত দুই সহোদরের পিতা হাফিজ আব্দুর রহিম নিজেকে বীর মুক্তিযোদ্ধা দাবী করে তার মুক্তিবার্তা, পরিচয়পত্র দেখিয়ে বলেন তিনি এলাকার একমাত্র ভাতা প্রাপ্ত একজন মুক্তিযোদ্ধা। ১৯৭১ সালে যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে বৃহত্তর সিলেটের বিভিন্ন রণাঙ্গনে তিনি সরাসরি যুদ্ধ করেছেন। নিজেকে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি ও আওয়ামীলীগের একজন নিবেদিত কর্মী দাবী করে বলেন, তিনি রাজাগঞ্জ ইউপির ৯নং ওয়ার্ড আ’লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক। এলাকায় জামায়াত-শিবির ও জঙ্গিবাদী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে তিনি সব সময় সোচ্চার ছিলেন এবং নিজ এলাকায় সকলের সহযোগিতায় আশরাফুল উলুম কৌমি মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠাতা মুহতামিম এবং গ্রামের জামে মসজিদের ৩৫ বছর ধরে ইমামতির দায়িত্ব পালন করে আসছেন। গ্রেফতারকৃত তার দুই ছেলে কোন ধরনে উগ্রবাদী জঙ্গী গোষ্ঠীর সাথে জড়িত রয়েছে এমন কোন তথ্য তিনি জানেননা এবং কোন রাজনৈতিক দলের সাথে তাদের সম্পৃক্ততা নেই। গ্রেফতারকৃত তার বড় ছেলে হাফিজ আব্দুল মান্নান @ ইয়াহিয়া আলিম পাশ করে কুমিল্লা ময়নামতি কলেজে ইংলিশ (অনার্স) কিছুদিন অধ্যয়নরত থাকার পর পরবর্তীতে সিলেট শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে একই বিভাগে ভর্তি হয়ে ৪র্থ সেমিস্টারে অধ্যয়নরত একজন নিয়মিত শিক্ষার্থী। পাশাপাশি সে বিসিএস পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। গ্রেফতারকৃত অপর ছেলে হাফিজ আব্দুল মোহাইমিন নোমান (১৯) ঝিংঙ্গাবাড়ী ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসা থেকে দাখিল পাশ করে সিলেট এম.সি কলেজে রাষ্ট্র বিজ্ঞানের একজন নিয়মিত অধ্যয়নরত শিক্ষার্থী। তার দুই পুত্র বিজ্ঞান মনস্ক লেখক অনন্ত বিজয় দাস হত্যাকান্ডের সাথে কোন অবস্থায় জড়িত নয়। অনন্ত হত্যাকান্ডের পূর্বে ও পরে তার দুই পুত্র নিজ বাড়ীতে ছিল। হত্যাকান্ডের সাথে তাদের তার পুত্রদের নূন্যতম সম্পৃক্ততা নেই এবং তারা স্ব স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত থেকে মাঝে মধ্যে বাড়ীতে আসা যাওয়া করত। তবে তার গ্রেফতারকৃত দুই পুত্র যে, ফেইসবুকে নিয়মিত লেখালেখি করতঃ এ বিষেয় তিনি কিছু জানেনা বলে জানান। সরেজমিনে গ্রেফতারকৃত দুই সহোদরের বাড়ীতে গেলে সেখানে স্থানীয় সাংবাদিকরা উপস্থিত হয়েছেন এমন খবরে এলাকার নানা শ্রেণি পেশার মানুষ ভীড় জমান। এসময় নানা জনের সাথে কথা বলে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত দুই সহোদর মাঝে মধ্যে তাদের নিজ বাড়ীতে আসত। কারো সাথে তেমন মিশত না তারা। নিয়মিত নামায পড়তো, এলাকায় কোন ধরনের জঙ্গীবাদের কর্মকান্ডের সাথে তাদের সম্পৃক্ততার রয়েছে এমন কিছুই তারা জানেন না। তাদের পিতা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা বলে উপস্থিত স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ সহ এলাকার লোকজন জানান। গত শুক্রবার গভীর রাতে সিআইডির স্পেশাল ব্রাঞ্চের সদস্যরা ইয়াহিয়া ও নোমানের সাথে তাদের নবম শ্রেণি পড়ুয়া ভাই মামুন ও স্কুল পড়ুয়া ভাগ্না তানভীরকে ধরে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে স্কুল পড়ুয়া দুই জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়। আবার এলাকার অনেকে জানিয়েছেন গ্রেফতারকৃত দুই সহোদর ইসলামী ছাত্র মজলিশের কর্মী। রাজাগঞ্জ ইউপি আ’লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক বিকাশ দাস বলেন, গ্রেফতারকৃতদের পিতা হাফিজ মঈন উদ্দিন একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক। তার গ্রেফতারকৃত দুই পুত্র এলাকায় কোন ধরনের সাম্প্রদায়িক বিরোধী বা জঙ্গী সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছে এ ধরনের কোন কিছু তাদের জানা নেই। তিনি বিষয়টি অধিকতর তদন্ত করে জঙ্গী সংগঠনের সাথে তাদের সম্পৃক্ততা থাকলে বিচার করা হউক দাবী করে বলেন, নির্দোশ হলে তাদের যেন হয়রানী না করা হয়। একই কথা বলেছেন স্থানীয় আ’লীগ নেতা ইউপি সদস্য ফখর উদ্দিন, রফিক আহমদ, আব্দুল কাদির, আব্দুল মন্নান, ফারুক আহমদ, আহমদ আলী, ছাত্রলীগ নেতা ইমরান আহমদ, মঞ্জুর ইসলাম, লিটন চন্দ্র দাস, রুপক দাস সহ বিভিন্ন পেশার সাধারণ মানুষ।

কানাইঘাটে এমপি কেয়া চৌধুরী ! দেশের যেকোন ধরনের উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড একমাত্র আওয়ামীলীগের মাধ্যমেই সম্ভব

Kanaighat News on Friday, August 28, 2015 | 10:09 PM


নিজস্ব প্রতিবেদক: হবিগঞ্জ-সিলেট সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাত ধরে এদেশ স্বাধীন হয়েছে। শোকের মাস ১৫ই আগষ্ট বাঙালি জাতীর শ্রেষ্ঠ সন্তান, স্বাধীনতার স্থপতি, জাতীর পিতাকে হত্যা করা হয়েছিল, তার আদর্শকে বিলীন করার জন্য। কিন্তু জাতীর পিতার আদর্শ কখনো বিলীন হবেনা, তাই এ মাসকে আমরা শক্তির মাস হিসেবে পরিণত করতে চাই। আ’লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড তোলে ধরার জন্য তিনি আহবান জানান। দেশের যেকোন উন্নয়ন ও জাতির আশা আকাঙ্খা একমাত্র আওয়ামীলীগের মাধ্যমেই পূরন হওয়া সম্ভব। তিনি আরো বলেন, দেশের প্রতিটি ঘরকে শিক্ষার আলোয় আলোকিত করতে এবং আগামীদিনের যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করার জন্য বঙ্গবন্ধুর সূযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষার উপর সর্বোচ্চ গুরুত্বারোপ করেছেন। কিন্তু কানাইঘাট পৌর শহরে প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত মহেষপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়টি জাতীয় করন না হওয়ায় তিনি বিষ্ময় প্রকাশ করে বলেন, ইতিমধ্যে দেশের ২২ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ এবং উপজেলা পর্যায়ে একটিকরে কলেজ ও মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ প্রক্রীয়া শুরু করেছেন প্রধানমন্ত্রী। এর মাধ্যমে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের শিক্ষার্থীরা সব ধরনের সুযোগ সুবিধা গ্রহণ করে নিজেদের দেশ ও জাতীর কল্যানে নিয়োজিত করতে সক্ষম হবে। আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধূরী এমপি শুক্রবার বিকেল ৩টায় কানাইঘাট পৌর সভাস্থ মহেষপুর বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন পরবর্তী স্কুল ম্যানেজিং কমিটি ও এলাকাবসীর উদ্যেগে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন হলে আয়োজিত তাকে দেওয়া এক গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অথিতির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সাবেক কাউন্সিলার মাসুক আহমদের সভাপতিত্বে প্রধান অথিতির বক্তব্যে এমপি কেয়া চৌধূরী আরো বলেন, হবিগঞ্জ ও সিলেট সংরক্ষিত আসনের মহিলা এমপি হিসাবে তিনি সরকারী ভাবে বরাদ্ধ একজন নির্বাচিত এমপির চেয়ে অনেকাংশে কম পান। তিনি যেটুকু বরাদ্ধ পান তা সুষ্ঠু ভাবে উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে সচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে বাস্তবায়নে জনগণের সামনে তুলে ধরার জন্য মিডিয়ার মাধ্যমে প্রকাশ করে থাকেন। স্থানীয় নির্বাচিত এমপির উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে যাতে কোন ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতি না হয় তার জন্য সবাইকে সজাগ থাকার আহ্বান জানান। স্কুলের প্রধান শিক্ষক হেলাল আহমদ ও প্রজন্মলীগ নেতা আখতার হুসন তামিমের যৌথ পরিচালনায় উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক পৌর মেয়র লুৎফুর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সদর ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম, পৌর আ’লীগের আহ্বায়ক জামাল উদ্দিন, উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাসুদ আহমদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম রানা, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সভাপতি এম.এ হান্নান, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, কানাইঘাট নিউজ ডট কম এর সম্পাদক মাহবুবুর রশিদআ’লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এড. আব্দুস সাত্তার, এড. মামুন রশিদ, জলাল আহমদ, ফখর উদ্দিন শামীম, লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ চৌধুরী, পৌর আ’লীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক কেএইচএম আব্দুল্লাহ, আ’লীগ নেতা ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদ হোসেন। বক্তব্য রাখেন, পৌর কাউন্সিলার রহিম উদ্দিন ভরসা, কলামিস্ট মিলন কান্তি দাস প্রমুখ। অনুষ্ঠানের পূর্বে এমপি কেয়া চৌধুরী মহেষপুর বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেন। এসময় ছাত্র শিক্ষক ও এলাকার সর্বস্তরের মানুষ পৌরসভার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত স্কুলটিকে জাতীয় করনের দাবী জানালে তিনি এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলবেন বলে জানান। এছাড়া এমপি কেয়া চৌধুরীকে স্কুল ম্যানেজিং কমিটি এবং আ’লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ক্রেস্ট ও ফুলের তোড়া দিয়ে ভূষিত করেন।

ব্লগার অনন্ত হত্যা মামলায় কানাইঘাটের দুই সহোদর গ্রেফতার

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক:
সিলেটের সুবিদবাজারে ব্লগার অনন্ত বিজয় দাশ হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে গ্রেফতারকৃত দুই সহোদরকে ৭ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে সিআইডি পুলিশ। শুক্রবার ভোরে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। পরে শুক্রবার সিলেট মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে ১৫ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত ৭ মঞ্জুর করেন। শুক্রবার রাত ৯টায় সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন সিআইডি কর্মকর্তা এবং অনন্ত বিজয় হত্যা মামলার তত্ত্বাবধায়ক আবদুল­াহ আল বাকী এই তথ্য জানিয়েছেন। রিমান্ডে নেয়া দুইজন হচ্ছে কানাইঘাটের পূর্ব লজুর গ্রামের হাফিজ মইনুদ্দিনের পুত্র মান্নান ইয়াহিয়া ওরফে মান্নাম রাহী ও তার ভাই মোহাইমিন নোমান ওরফে এএএম নোমান। এর আগে অনন্ত হত্যা মামলায় গত ৭ জুন সিলেটের স্থানীয় একটি দৈনিকের আলোকচিত্রী ইদ্রিছ আলীকে গ্রেফতার করে রিমান্ডে নেয় সিআইডি। প্রসঙ্গত, গত ১২ মে নগরীর সুবিদবাজারে ব্লগার অনন্তকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এরপর এর দায় স্বীকার করে আনসার উল্লাহ বাংলা টিম নামের একটি জঙ্গি সংগঠন টুইট করে।

কানাইঘাট থেকে ভারতীয় খাসিয়া পানের চালান উদ্ধার


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার সীমান্ত এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে ৩৮০ বিড়া ভারতীয় খাসিয়া পানের চালান আাটক করেছে। উপজেলার সীমান্ত এলাকায় সুরাইঘাট এলাকার অভিযান চালানো হয়। শুক্রবার বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ৪১ ব্যাটালিয়ন সূত্রে জানা যায়, সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার সুরাইঘাট বিওপি’র বিজিবি’র সদস্যরা বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে চতুল গ্রাম এলাকায় অভিযান চালায়। অভিযানকালে মালিকবিহীন অবস্থায় চতুল গ্রাম মাঠ থেকে ২৪০ বিড়া ভারতীয় খাসিয়া পান উদ্ধার করে। জব্দকৃত পানের সিজার মূল্য ৬ হাজার টাকা। অভিযানে নেতৃত্ব দেন কানাইঘাট উপজেলার সুরাইঘাট বিওপি’র নায়েক এনামুল হক । সুরাইঘাট বিওপি’র বিজিবি’র সদস্যরা বড়গন্ড এলাকায় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে অপর এক অভিযান চালায়। অভিযানকালে বড়গন্ড এলাকায় রাস্তার উপর মালিকবিহীন অবস্থায় ১৪০ বিড়া ভারতীয় খাসিয়া পান উদ্ধার করে। জব্দকৃত পানের সিজার মূল্য ৩ হাজার ৫০০ টাকা। অভিযানে নেতৃত্ব দেন কানাইঘাট উপজেলার সুরাইঘাট বিওপি’র হাবিলদার মুসলেম আলী ।

হজের গুরুত্ব ও তাৎপর্য

Kanaighat News on Thursday, August 27, 2015 | 11:26 PM


ইসলাম ডেস্ক হজ ইসলামের অন্যতম স্তম্ভ ও মৌলিক ইবাদত। সচ্ছল মুসলিম নর-নারীর ওপর হজ পালন করা ফরজ। জিলহজ মাসের নির্দিষ্ট তারিখে পবিত্র বায়তুল্লাহ বা কাবাঘর প্রদক্ষিণ, আরাফাত ময়দানের মহাসম্মিলনে যোগদানসহ অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতা পালনের মাধ্যমে হজ আদায় করতে হয়। হজ পালনকারীকে এ সময় যথাযথ নির্দেশিত নিয়ম মেনে চলতে হয়। হজ পালনের সময় একনিষ্ঠভাবে আল্লাহর ইবাদতে নিমগ্ন থাকতে হয়। একদিকে একনিষ্ঠ ইবাদত-বন্দেগি, অন্যদিকে নিরহংকার, অনাড়ম্বর ও নির্মোহ জীবনযাপনের মাধ্যমে হজ পালনকারীদের আত্মা ষড়রিপুর কুপ্রভাব থেকে কলুষমুক্ত ও বিশুদ্ধ হয়। হজের মাধ্যমে যেমন আত্মার উন্নতি সাধিত হয়, তেমনি গুনাহও দূরীভূত হয়। হাদিসে আছে, ‘পানি যেমন ময়লা-আবর্জনা দূর করে, তেমনি হজও গুনাহ দূর করে।’ হজ শুধুই ইবাদত নয়, বিশ্বভ্রাতৃত্ব প্রতিষ্ঠায় এর গুরুত্ব ও তাৎপর্য ব্যাপক। হজের সময় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানুষ পবিত্র মক্কা নগরীতে একত্রিত হয়। ভাষা-বর্ণের ভিন্নতা, সাংস্কৃতিক-জাতীয় পরিচয়ের পার্থক্য ও ভৌগোলিক দূরত্ব থাকা সত্ত্বেও বিশ্বমুসলিমের ভ্রাতৃত্ববোধ জাগ্রত এবং সুসংহত হয় পবিত্র হজ উদযাপনে। বিশ্বমুসলিমের পারস্পরিক দুঃখ-অভাব, অভিযোগ-সমস্যা সম্পর্কে অবগত হওয়া ও তার সমাধানের সুযোগ হয় পবিত্র হজের বিশ্বসম্মিলনে। অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ও রাজনৈতিক সংহতিতেও হজের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। আরাফাত ময়দানে অবস্থান হজের অন্যতম জরুরি কাজ। এর প্রধান উদ্দেশ্য সমবেত বিশ্বমুসলিমের করণীয়-বর্জনীয় সম্পর্কে বিশ্বনেতাদের দিকনির্দেশনা প্রদান। মহানবী (সা.)-এর হজ থেকে এ শিক্ষাই পাওয়া যায়। তিনি বিদায় হজের সময় আরাফাত ময়দানে উপস্থিত মুসলিমদের উদ্দেশে ব্যক্তিগত, পারিবারিক, সামাজিকসহ বিভিন্ন বিষয়ের দিকনির্দেশনা দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ দিয়েছেন। হজের প্রতিটি বিধানেই রয়েছে স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য ও নিজস্ব ঐতিহ্য। কাবাঘর প্রদক্ষিণ ও পশু কোরবানির মাধ্যমে হজরত ইবরাহিম ও ইসমাঈলের আদর্শ-ত্যাগের প্রতি প্রকাশ করা হয় গভীর শ্রদ্ধা। জামারায় পাথর নিক্ষেপের সঙ্গে জড়িত আছে শয়তানের প্রতি বালক ইসমাইলের অবজ্ঞার নিদর্শন। আবার সাফা ও মারওয়া পাহাড়ে দৌড়ানোর মধ্যে নিহিত আছে শিশুপুত্র হজরত ইসমাঈলের প্রতি বিবি সারার ব্যাকুলতার ঘটনা। প্রকৃতপক্ষে হজ একটি ঐতিহ্যবাহী অনন্য ফরজ ইবাদত ও বিশ্বমুসলিম সম্মিলন। হজের মাধ্যমে বিশ্বমুসলিমের আধ্যাত্মিক-নৈতিক উন্নতি, সামাজিক-রাজনৈতিক সংহতি, অর্থনৈতিক-সাংস্কৃতিক সমৃদ্ধি এবং আধুনিক বিশ্বব্যবসায় ইসলাম-মুসলিমের অবস্থান সুসংহত ও সুদৃঢ় হবে-এটাই প্রত্যাশা।

নিলয় হত্যা: আরও দুই সন্দেহভাজন আটক


ঢাকা: ব্লগার নীলাদ্রি চট্টোপাধ্যায় নিলয়কে হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে কাওসার হোসেন খান (২৯) ও কামাল হোসেন সরদার (২৭) নামে দু’জনকে আটক করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। তারা দুজন ব্লগার আসিফ মহিউদ্দিন হত্যাচেষ্টা মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামি। বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় কাওসারকে মিরপুর-১০ ও সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে শ্যামপুরের ধোলাইপাড় থেকে কামালকে আটক করা হয়। এর আগে ১৩ সন্ধ্যায় আগস্ট শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নুর ভাতিজা সাদ আল নাহিন ও মাসুদ রানা নামে দুজনকে আটক করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। উল্লেখ্য, চলতি আগস্ট মাসের ৭ তারিখ রাজধানীর পূর্ব গোড়ান টেম্পোস্ট্যান্ডের কাছে ৮ নম্বর রোডের ১৬৭ নম্বর ভবনের পঞ্চম তলার ভাড়া বাসায় নিজ রুমে খুন হন নিলয়। দুই দফায় চারজন লোক বাসা দেখতে আসার কথা বলে ওই বাসায় ঢোকে। তারা নিলয়কে কুপিয়ে হত্যা করে চলে যায়।

add

 
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: মো:মহিউদ্দিন,সম্পাদক : মাহবুবুর রশিদ,নির্বাহী সম্পাদক : নিজাম উদ্দিন। সম্পাদকীয় যোগাযোগ : সাউদিয়া মার্কেট,দোকান নং-২,কানাইঘাট উত্তর বাজার,সিলেট। +৮৮ ০১৭২৭৬৬৭৭২০,+৮৮ ০১৯১২৭৬৪৭১৬ ই-মেইল :mahbuburrashid68@yahoo.com: সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত কানাইঘাট নিউজ ২০১৩