শক্তিশালী রাউটার বাজারে এনেছে কম্পিউটার সোর্স

Kanaighat News on Friday, May 27, 2016 | 9:46 PM

শক্তিশালী রাউটার বাজারে এনেছে কম্পিউটার সোর্স
কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: ওয়াই ফাই রাউটারের কর্মদক্ষতা উন্নত না হলে সরাসরি অনলাইন ভিডিও দেখতে সমস্যা হয়। তবে এ সমস্যার সমাধান করতে ডিলিংকের নতুন একটি আল্ট্রা ওয়াইফাই রাউটার বাজারে নিয়ে এলো দেশের প্রযুক্তি পণ্য বিপণন প্রতিষ্ঠান কম্পিউটার সোর্স। যা লাইভ স্ট্রিমিং এবং অনলাইন গেমিংয়ের জন্য উপযুক্ত। রাউটারটির মডেল ডিআইআর ৮৯০এল।

রাউটারটির নেটওয়ার্ক ব্যবহার করেই অনলাইন প্রিন্টিং এবং প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত হার্ডডিস্কে সংরক্ষণ করা যায়। উচ্চগতির ইন্টারনেট সম্প্রসারণে এগিয়ে থাকা ডিলিংক ডিআইআর ৮৯০এল মডেলের এসি৩২০০ রাউটারটির মূল্য ২২ হাজার টাকা।

এই রাউটারটি এসি৩২০০ রাউটারটি তিনটি ব্যান্ডেই কাজ করে। এর নেটওয়ার্ক গতি প্রতি সেকেন্ডে ৩.২জিবি পর্যন্ত। এতে স্মার্ট বিম ফরমিং প্রযুক্তি থাকায় পুরু দেয়ালের সিগন্যাল বাধা জয় করে সহজেই।

চতুর্দিকে শক্তিশালী ইন্টার সংযোগ অটুট রাখতে উচ্চমান ৬টি এক্সটার্নাল অ্যান্টেনার পাশাপাশি রাউটারটিতে ৪টি গিগা ল্যান, ১টি গিগা ওয়্যান এবং ২টি ইউএসবি পোর্ট রয়েছে। এর ইউএসবি পোর্টের মাধ্যমে স্টোরেজ ডিভাইস ও প্রিন্টার সংযুক্ত করা যায় অনায়াসে।

কোরিয়ান এয়ারের ইঞ্জিনে আগুন, বেঁচে গেল তিনশ যাত্রী

কোরিয়ান এয়ারের ইঞ্জিনে আগুন, বেঁচে গেল তিনশ যাত্রী

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: শুক্রবার সকালে কোরিয়ান এয়ারের একটি উড়োজাহাজের এক পাশের ইঞ্জিনে আগুন ধরার ঘটনা ঘটেছে। জাপানের রাজধানী টোকিওর হানেদা বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের প্রস্তুতিকালে এ ঘটনা ঘটে বলে বিবিসি সূত্রে জানা গেছে।

তবে এ ঘটনায় হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। ঘটনার পর উড়োজাহাজটির তিনশরও বেশি যাত্রী ও ক্রু-কে বিমান থেকে নামিয়ে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়।

ফ্লাইট ২৭০৮ হানেদা বিমানবন্দর থেকে সিউলের পথে রওয়ানা হওয়ার প্রস্তুতি নিতেছিল বলে জানিয়েছে বিমানবন্দরের কর্মকর্তারা।

রানওয়েতে থাকা বোয়িংয়ের ৭৭৭ উড়োজাহাজটির ওই ইঞ্জিনটিতে ফোম স্প্রে করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন বিমানবন্দরের দমকল কর্মীরা। এ ঘটনায় অাতঙ্কিত হয়ে জাপানের সবচেয়ে ব্যস্ত বিমানবন্দরটি সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়।

তাৎক্ষণিকভাবে আগুন লাগার কারণ জানা যায়নি। তবে জাপানের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম ৩০ জন যাত্রীর অসুস্থবোধ করার কথা জানিয়েছে।

মানব-কুকুর হয়ে বেঁচে আছেন তারা!


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: ধরুন, বেশ মজার একটা দৃশ্য দেখলেন। একজন মানুষ তার গায়ে রাবারের তৈরি কুকুরের পোশাক পরেছেন। কুকুরের মতোই মুখে কোনো খেলনা নিয়ে এটা সেটা করছেন। এমন দৃশ্য দেখলে যে কেউ মজা পাবেন বা হেসে উঠবেন। বোঝায় যায়, মানুষটি বেশ কৌতুক করতে পারেন। কিন্তু যারা জীবনের সঙ্গে কুকুরের মতো চাল-চলন বা স্বভাব-চরিত্র মিশিয়ে নিয়েছেন, তাদের ক'জন মানুষই বা চেনেন? বহু অনুষ্ঠানে বা পার্কে যারা কুকুরের পোশাক পড়ে কুকুর সেজে মানুষকে আনন্দ দেন, অনেক ক্ষেত্রেই তাদের জীবনটা অনেক কষ্টের। তবে পেশাদার এই মানুষের সংখ্যা অনেক। ইন্টারনেটের কল্যাণে তারা এক হওয়ার সুযোগ পেয়েছেন। এভাবে বিগত ১৫ বছরে বিশাল এক 'পাপ কমিউনিটি' গড়ে উঠেছে। এসব মানব-কুকুর সমাজের বহু মানুষ রয়েছেন। তারা পুরুষ, সমকামী বা যেকোনো চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের হতে পারেন। এরা সবাই চামড়ার তৈরি কুকুরের পোশাক পরতে আগ্রহী, তারা কুকুরের মতো করে খেলনা নিয়ে খেলেন, পাত্র থেকে মুখ দিয়ে খাবার খান, কুকুরের মতো করেই কান চুলকান। এক ডকুমেন্টরিতে দেখানো হয়, টম ওরফে স্পট 'মি. পাপি ইউরোপ' চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেন। সেখানে ডেভিড ওরফে বুটব্রাশ ক্যামেরার সামনে কথা বলেন মুখে কুকুরের মুখোশ পরে। ডকুমেন্টরিতে দেখা যায়, লন্ডনের রাস্তায় দুজন কুকুর হয়ে হাঁটছেন। তারা ঘেউ ঘেউ করছেন এবং যান্ত্রিক লেজটি নাড়ছেন। তার গলায় বেল্ট বাঁধা। টম নিজের জীবনটাকেই কুকুরের মতো করে নিয়েছেন। তিনি আঁটোসাঁটো কুকুরের পোশাক পরেন। অনলাইন স্টোর ইবে-তে এগুলো কিনতেও পাওয়া যায়। বলেন, গলায় বেল্ট ছাড়া কুকুরের জীবন অর্থহীন। বেল্ট থাকার অর্থ তাকে দেখার কেউ আছে। টমের প্রেমিকার সঙ্গে তার ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে। তার সম্পর্ক গড়ে উঠেছে কলিনের সঙ্গে। তারা দুজনই সমকামী। তারা দুজনই মানব-কুকুর। মনোবিজ্ঞানী কার্ল জাং জানান, মানুষের সচেতন মন আবেগ, আবেশ, শিহরণ অনুভব করে এবং মনে আদর্শ নিয়ে নানা জল্পনা-কল্পনা করে। তাদের এই মনজুড়ে বসে রয়েছে কুকুর বা এর জীবন। বিভিন্ন পার্কে বা ক্লাবে যখন তারা এভাবে পেশাদার কাজ করেন, তখন মানুষ অনেক মজা পায়। তবে তাদের জীবনের সমকাম সত্যিকার অর্থে বেশ সিরিয়াস বিষয়। আরেক মানব-কুকুর কাজ। তার দাবি, স্রেফ কুকুরের মতো সাজলেই এমন হওয়া যায় না। কুকুরের মতো চলতে হলে সত্যিকার অর্থেই কুকুর হতে হবে। এভাবে চলাফেরার বিষয়টি তিনি দারুণ উপভোগ করেন। অনেক সময়ই এ জীবনের চর্চার বড় একটি অংশ জুড়ে রয়েছে যৌনতা, জানান কাজ। আরো বলেন, এসব পোশাক পরে প্রথমেই মনে হয় সেক্স করতে হবে। আবার সব সময় এতে যৌন আবেদন থাকে না। এমন জীবনের অভিজ্ঞতা সত্যিই অনন্য। এ জীবনে যে কেউ আসতে পারেন যার আগ্রহ রয়েছে। এ জীবন নিয়ে কোনো অনুতাপ থাকলে চলবে না। রাস্তায় অন্যান্য মানুষ বা প্রাণীর মতো আমরাও, জানান মানব-কুকুররা। সূত্র : গার্ডিয়ান

মৌলভীবাজারে এক বাসায় তিন গৃহকর্মীর আত্মহত্যার চেষ্টা


মৌলভীবাজার প্রতিনিধি, শুক্রবার, ২৭ মে ২০১৬ :: মৌলভীবাজার শহরের একটি বাসায় মালিকের অনুপস্থিতিতে ৬ জন গৃহকর্মীর মধ্যে ৩ জন ড্রাইসেল ব্যাটারীর রাসায়নিক পদার্থ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। বিষয়টি টের পেয়ে অন্য গৃহকর্মীরা চিৎকার শুরু করলে পাশের বাসার লোকজন এসে বিকল্প চাবি দিয়ে বাসার মূল দরজা খুলে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। অপর তিন গৃহকর্মীকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। গতকাল মৌলভীবাজার শহরের চৌমোহনায় অবস্থিত শাহ মোস্তফা গার্ডেন সিটির ৮ম তলায় এই ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, এই অ্যাপরর্টমেন্টে ভাড়া থাকেন পাসপোর্ট অফিসের (বর্তমানে টাঙ্গাইল) সহকারি পরিচালকের স্ত্রী ইভা, ছোট দুই শিশু সন্তান ও এক ভাগ্নে। তাদের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করেন ৬ জন গৃহকর্মী। এর মধ্যে ৫ জন নারী একজন ছেলে শিশু। শুক্রবার সকালে হাবিবুর রহমানের স্ত্রী (গৃহকর্মীর ভাষায় ইভা আন্টি) দুই সন্তান নিয়ে ঢাকায় চলে যান। গৃহকর্মীদের ভিতরে রেখে বাসার প্রধান দরজা তালাবদ্ধ করে রেখে যান। গৃহকর্মী সাহেনা (২০) ও শাহানা (২৮) জানায় সকাল সাড়ে আটটার দিকে বাচ্চাদের খেলনা পরিস্কারের জন্য নিয়োজিত গৃহকর্মী রুবি (১৫), মালা (১৮) ও আমিনা (১৫) নিজেদের মধ্যে ঝগড়া করে এক পর্যায় খেলনা গাড়ির ব্যাটারী ভেঙ্গে পানি মিশিয়ে খেয়ে ফেলে। তিনজনের মুখ দিয়ে ফেনা ও রক্ত বের হতে দেখে তারা চিৎকার দেয়। পরে পাশের বাসার লোকজন আসে খবর পেয়ে পুলিশও আসে এবং কেয়ার টেকারের নিকট থেকে বিকল্প চাবি দিয়ে দরজা খুলে তাদের উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়। বিকালে হাসপাতালে কথা হয় তিন গৃহকর্মীর সাথে। তারা জানায় ঝগড়া করে প্রথম রুবি ব্যাটারী ভেঙ্গে খায়, পরে বাকি দু’জন খায়। আর কিছু তারা বলতে পারে না। মৌলভীবাজার মডেল থানার পুলিশ কর্মকর্তা এস আই আমিনুল ইসলাম শুক্রবার বিকালে জানিয়েছেন এখন তিনজন হাসপাতালে সুস্থ আছে। বাকি তিন গৃহকর্মীকে থানায় নিরাপত্তা হেফাজতে রাখা হয়েছে। গৃহকর্তা আসারপর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এ দিকে গৃহকর্তা হাবিবুর রহমানের মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তাঁর সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

টস জিতে বোলিংয়ে হায়দরাবাদ, দলে নেই মুস্তাফিজ

টস জিতে বোলিংয়ে হায়দরাবাদ, দলে নেই মুস্তাফিজ

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: আইপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও গুজরাট লায়ন্স। এই ম্যাচে টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে মুস্তাফিজহীন হায়দরাবাদের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার।

এই ম্যাচ খেলতে পারছেন না পুরো টুর্নামেন্টে আলো ছড়ানো 'বিস্ময়বালক' মুস্তাফিজ। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে দলে নেয়া হয়নি মুস্তাফিজকে। তার বদলে প্রথমবারের মতো একাদশে ঢুকেছেন কিউই পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। অন্যদিকে গুজরাট শিবিরে রয়েছে একটি পরিবর্তন। খেলছেন না জাকাটিয়া। তার বদলে খেলবেন কৌশিক।

আজকের ম্যাচে যারা জিতবে তারা ২৯ মে বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে ফাইনাল খেলবে।

কানাইঘাট পৌর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের কমিটি গঠন


নিজস্ব প্রতিবেদক:: কানাইঘাট পৌর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের ৪৮ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কার্য্যকরী কমিটি গঠন করা হয়েছে। মনির উদ্দিন বুলবুলকে সভাপতি ও মোঃ জাকারিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে গঠিত কমিটিতে স্থান পাওয়া অন্যান্যরা হলেন সহ সভাপতি যথাক্রমে আবুল হাসমত, দেলোয়ার হোসেন, জিয়া উদ্দিন, সুজিত বাবু, শিহাব উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সেলিম উদ্দিন, মাতাব উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক জাবের আহমদ, দপ্তর সম্পাদক মঈন উদ্দিন, প্রকশনা সম্পাদক আখতার হোসেইন, শিক্ষা সম্পাদক তারেক আহমদ, গবেষণা সম্পাদক বাহার উদ্দিন, পাঠাগার সম্পাদক আফতাব উদ্দিন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক শিহাব উদ্দিন, ক্রীড়া সম্পাদক শামীম আহমদ, অর্থ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী, ধর্ম সম্পাদক মখতার হোসেন, সমাজ সেবা সম্পাদক আশিক আহমদ, বন ও পরিবেশ সম্পাদক আবুল হাসনাত, কৃষি সম্পাদক ফয়েজ উদ্দিন, বাণিজ্য সম্পাদক কামাল উদ্দিন, আন্তর্জাতিক বিষয় সম্পাদক তাজ উদ্দিন।

মৌলভীবাজারে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু


মৌলভীবাজার প্রতিনিধি, শুক্রবার, ২৭ মে ২০১৬ :: মৌলভীবাজারে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসা ও কর্তৃপক্ষের অবহেলায় চম্পা রাণী দেব নামে এক প্রসূতির মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকাল ৯টায় শহরের শাহ্ মোস্তফা রোডের লেইক ভিউ হাসপাতালে এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে। মৃত চম্পা রাণী দেব কমলগঞ্জ উপজেলার মির্জানগর গ্রামের বাসিন্দা ও মৌভলীবাজার সদর উপজেলার উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা রিপন কুমার দাসের স্ত্রী। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, চম্পা রাণীর প্রসব ব্যথা শুরু হলে তার স্বামী তাকে লেইক ভিউ হাসপাতালে ভর্তি করান। ডাক্তার শুধাকর কৈরীর পরামর্শ অনুযায়ী নির্ধারিত সময় অপারেশনের কথা ছিল। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নির্দেশে আবার তিনিই নির্ধারিত সময়ের ২ ঘন্টা আগে অপারেশন করায় শরীর থেকে অতিরিক্ত রক্ত নির্গত হওয়ায় সে মারা যায়। মৃত চম্পা রাণীর স্বামী রিপন কুমার দাস বলেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও ডাক্তারের অসচেতনতার কারণে আমার স্ত্রী বাচ্চা প্রসবের পরই মারা যান। ডাক্তাররা টাকার জন্য দৌড়ের উপরে থাকেন। টাকার জন্য নির্ধারিত সময়ের আগে অপারেশন করে আমার স্ত্রীকে মেরে ফেলা হয়। ভবিষ্যতে যাতে আমার মতো আর কেউ এরকম তার স্ত্রী হারাতে না হয় এর জন্য আমি তাদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই। অপারেশনকারী ডাক্তার শুধাকর কৈরী বলেন, নির্দিষ্ট সময়ে রক্তের যোগান না দেওয়ার কারনে রোগীর মৃত্যু হয়েছে এ জন্য আমি কোন ভাবেই দায়ি নয়। এ ব্যাপারে হাসাপাতালের মালিক পক্ষ মিসেস উদ্দিনের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, হাসপাতালে রোগী আসবে মারা যাবে এটাই জাতীয় নিয়ম। তিনি বলেন রোগী মারা যাওয়ার জন্য আমরা দায়ী নয় কারণ অপারেশন তো ডাক্তার করেছেন।
 
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: মো:মহিউদ্দিন,সম্পাদক : মাহবুবুর রশিদ,নির্বাহী সম্পাদক : নিজাম উদ্দিন। সম্পাদকীয় যোগাযোগ : শাপলা পয়েন্ট,কানাইঘাট পশ্চিম বাজার,কানাইঘাট,সিলেট।+৮৮ ০১৭২৭৬৬৭৭২০,+৮৮ ০১৯১২৭৬৪৭১৬ ই-মেইল :mahbuburrashid68@yahoo.com: সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত কানাইঘাট নিউজ ২০১৩