Wednesday, January 31, 2018

কানাইঘাটে মুজম্মিল আলী ট্রাস্টের ১১তম বৃত্তি বিতরণ সম্পন্ন

কানাইঘাটে মুজম্মিল আলী ট্রাস্টের ১১তম বৃত্তি বিতরণ সম্পন্ন


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট ডাঃ মুজম্মিল আলী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের চেয়ারম্যান কানাইঘাট ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকের সাধারণ সম্পাদক যুক্তরাজ্য প্রবাসী কমিউনিটি নেতা ইকবাল হোসেন বলেছেন, কানাইঘাটের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মধ্যে উদ্দীপনা তৈরী এবং মেধাবী শিক্ষার্থীদের আগামী দিনের দক্ষ মানব সম্পদে পরিণত এবং এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে মুজম্মিল আলী স্ট্রাস্ট কাজ করে যাচ্ছে। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন জীবনের লক্ষ্য, উদ্দেশ্যে পৌঁছতে হলে তোমাদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। ইচ্ছা শক্তি থাকলেই তোমরা আগামীদিনের আলোকিত মানুষ হবে। কানাইঘাট ইউকে ও মুজম্মিল আলী ট্রাষ্টের কার্যক্রম তুলে ধরে তিনি আরো বলেন, এ দু’টি সংগঠনের মহৎ উদ্দেশ্য হচ্ছে কানাইঘাটকে এগিয়ে নেওয়া এবং সমাজের অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানো। আমরা যারা প্রবাসে আছি সেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি এজন্য আপনাদের সহযোগিতা প্রয়োজন। ইকবাল হোসাইন বুধবার সকাল ১১টায় কানাইঘাট বড়দেশ উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে মুজম্মিল আলী ট্রাস্টের ১১তম বার্ষিক মেধাবৃত্তি বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। বড়দেশ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নূর উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও ট্রাষ্টের সচিব, সমাজসেবী মখলিছুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কাতার প্রবাসী সমাজসেবী আলহাজ্ব রফিক উদ্দিন, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, ট্রাস্টের সহ সভাপতি খলিলুর রহমান, বড়দেশ স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ফরিদ আহমদ খান, রইছ উদ্দিন, সাবেক সদস্য আব্দুল মতিন। বক্তব্য রাখেন, বড়দেশ স্কুলের সহকারী শিক্ষক আখতার হোসেন আকন্দ, হাফিজ উদ্দিন, শহিদুল ইসলাম, সাহেদ আহমদ প্রমুখ। অনুষ্ঠান শেষে বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের হাতে এককালীন বৃত্তি ও সনদ তুলে দেন অতিথিবৃন্দ। সেই সাথে ট্রাষ্টের চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেনের সুযোগ্য পিতা কানাইঘাটের কৃতি সন্তান প্রয়াত ডাঃ মুজম্মিল আলী, বড়দেশ হাই স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সমাজসেবী হাজী রফিকুল হক ও স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আলীর আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।
কানাইঘাটের প্রবীণ মুরব্বী রফিকুল হকের ইন্তেকালে বিভিন্ন মহলের শোক

কানাইঘাটের প্রবীণ মুরব্বী রফিকুল হকের ইন্তেকালে বিভিন্ন মহলের শোক


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট গাছবাড়ী আইডিয়্যাল কলেজ ও বড়দেশ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য এলাকার বহু ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের অনুদান দাতা বিশিষ্ট সমাজসেবী ও প্রবীণ মুরব্বী কানাইঘাট বাণীগ্রাম ইউপির বড়দেশ দক্ষিণ গ্রাম নিবাসী হাজী রফিকুল হক রফই হাজী (৯০) এর দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বুধবার বিকেল ২টায় বড়দেশ আনসারুল উলূম মাদ্রাসা মাঠে তার জানাজার নামায অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দসহ সর্বস্তরের হাজারো মানুষ শরীক হন। জানাজার নামায শেষে হাজী রফিকুল হকের লাশ বড়দেশ বাজার গুরুস্থানে দাফন করা হয়। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বার্ধক্য জনীত কারণে ৫ ছেলে ও ৬ মেয়ের জনক হাজী রফিকুল হক তাহার নিজ বাড়ীতে মারা যান। তিনি এক সময় বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ছিলেন। এদিকে শিক্ষানুরাগী, সমাজসেবী, প্রবীণ মুরব্বী হাজী রফিকুল হকের ইন্তেকালে তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন, কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশিক উদ্দিন চৌধুরী, বাণীগ্রাম ইউপির চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ, সাবেক চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন, কানাইঘাট উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি কলামিষ্ট মহিউদ্দিন,ডাঃ মুজম্মিল আলী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন, গাছবাড়ী আইডিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল মতিন, বড়দেশ হাই স্কুরের প্রধান শিক্ষক মোঃ নুর উদ্দিন, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সভাপতি রোটারিয়ান শাহজাহান সেলিম বুলবুল, সাধারন সম্পাদক নিজাম উদ্দিন সহ এলাকার বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
বুকের সংক্রমণ থেকে বাঁচার ঘরোয়া উপায়

বুকের সংক্রমণ থেকে বাঁচার ঘরোয়া উপায়

ButterflySymbolismInTarot_2.jpg

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
ঠাণ্ডা লাগলে বুকে কফ জমে যায়। কখনো কখনো এটা থেকে সংক্রমণও তৈরি হয়। কফ জমলে বুক ভারী হয়ে আসে, অস্বস্তি হয়, অনেকসময় গলাও ব্যথা করে। কখনো কখনো এটা এতটাই তীব্র হয় যে খাবার খেতেও কষ্ট হয়। আবার কাঁশি হয়, এতে বুক বেশ ব্যথা হয়। এ ধরনের সমস্যা হলে ঘরোয়া উপায়ে এর সমাধান সম্ভব।

কফ জমে বুক ভারী হয়ে আসলে এক গ্লাস গরম পানির সঙ্গে মধু ও লেবুর রস যোগ করে দিনে অন্তত দুই থেকে তিনবার পান করুন। মধু গলা ও বুক পরিষ্কার করতে সাহায্য করবে আর লেবুতে থাকা ভিটামিন শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

গরম দুধের সঙ্গে মধু, হলুদ আর গোলমরিচ মিশিয়ে খেলেও ঠাণ্ডার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। হলুদ ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে আর গোল মরিচ হজমে সহায়তা করে এবং ঠাণ্ডা, কাশি সারায়। উপকার পেতে দিনে দুইবার এটি খেতে পারেন।

গরম পানির সঙ্গে আদার রস আর সামান্য লবণ মিশিয়ে দিনে ৩ থেকে ৪ বার কুলিকুচি করলে গলা ও বুক পরিষ্কার করতে সহায়তা করবে।

আদা কিংবা তুলসি চা গলা ব্যথা কিংবা বুকের কফ পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। চায়ের সঙ্গে চিনির পরিবর্তে মধু ব্যবহার করলে বেশি উপকার পাওয়া যাবে।

এই সময় গরম পানি পান করলে গলায় আরাম বোধ লাগে। ধীরে ধীরে বুকে জমাট বাঁধা কফও কমে আসবে। গরম পানির সঙ্গে হলুদের গুড়া মিশিয়ে কুলিকুচি করলেও বুকে জমাট বাঁধা কফ কমে যায়।

এক গ্লাস গরম পানিতে রসুনের রস, লেবুর রস, মধু মিশিয়ে দিনে তিন থেকে চারবার খেলে বুকে জমে থাকা কফ থেকে অনেকটা আরামবোধ করবেন।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া
বিয়ানীবাজারে ছেলের হাতে মা খুন

বিয়ানীবাজারে ছেলের হাতে মা খুন


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: সিলেটের বিয়ানীবাজারের চারখাইয়ে ছয়মুন বিবি (৫৫) নামে এক নারীকে গলা কেটে হত্যা করেছে তার প্রবাস ফেরত ছেলে। ঘটনার পর পালিয়ে যাওয়ার সময় ছুরিসহ অভিযুক্ত কামাল হোসেনকে (২৮) আটকে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের মরদেহ উদ্ধার এবং শিমুলকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ইউনিয়নের কামারগ্রামে গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ছয়মুন বিবি ওই গ্রামের তাহির আলী সুন্দরের স্ত্রী। ঘাতক কামাল দুই সপ্তাহ পূর্বে আরব আমিরাত থেকে দেশে আসে। স্থানীয়রা জানান, দেশে ফেরার পর থেকেই পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মার সাথে তার ঝগড়া হতো কামালের। বুধবার বিকেলে ঝগড়ার একপর্যায়ে সে মাকে মারতে উদ্যত হয়। এসময় ছয়মুন বিবি দৌড়ে ঘর থেকে বের হয়ে গেলে কামাল তাকে ঝাঁপটে ধরে ছুরি দিয়ে গলায় কাঘাত করে। এসময় ঘটনাস্থলেই প্রচন্ড রক্তক্ষরণে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। ঘটনার সময় মায়ের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ঘাতক কামাল স্থানীয়দের উপরও আক্রমণের চেষ্টা চালায়। পরে সে নিজের ঘরে ঢুকে ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে দিয়ে ঘরের অভ্যন্তরে বাসের ছাঁদের উপর উঠে পড়ে। স্থানীয় ঘটনার খবর বিয়ানীবাজার থানাকে অবহিত করলে চাঁরখাই ফাঁড়ির পুলিশ গিয়ে ঘন্টাখানিক চেষ্টা চালিয়ে ঘাতক ছেলে কামালকে হত্যাকান্ডে ব্যবসহৃত ছুরিসহ আটক করে। চারখাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন জানান, ঘাতক পুত্র কামাল হোসেন মানসিক রোগী। প্রায় ১৫ দিন পূর্বে সে সৌদি আরব থেকে দেশে আসে। বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজালাল মুন্সী জানান, খবর পেয়ে বিয়ানীবাজার থানা ও চারখাই পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘন্টাখানিক চেষ্টা চালিয়ে ঘাতক ছেলেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরিসহ আটক করেছে এবং নিহত ছয়মুন বিবির মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। পারিবারিক বিরোধের কারণে এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।
 নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করতে কাল সিলেট আসছেন এরশাদ

নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করতে কাল সিলেট আসছেন এরশাদ

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক:
কাল বৃহস্পতিবার জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ সিলেটে আসছেন। তিনি দুপুর ১টায় হেলিকাপ্টর যোগে সিলেট এম.এ.জি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছে সরাসরি হযতর শাহজালাল (রহ:) ও পরে হযরত শাহপরান (রহ:) মাজার জিয়ারত করবেন। মাজার জিয়ারতের মধ্যে দিয়ে এরশাদ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনী প্রচারণায় নামছেন বলে জাপা সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র আরো জানায়- হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ মাজার জিয়ারত শেষে সিলেট সার্কিট হাউসে মধ্যাহ্নভোজ করবেন এবং দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় শেষে বিকেল ৪টায় হেলিকপ্টার যোগে সিলেট ত্যাগ করবেন।
জাপা চেয়ারম্যানের সঙ্গে সফর সঙ্গী হিসেবে থাকবেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ এমপি, কো-চেয়ারম্যান জি.এম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি, বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম চৌধুরী এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী কাজী ফিরোজ রশীদ এমপি, জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু এমপি, এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা এমপি, মেজর (অব.) খালেদ আখতার সহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।
এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিলেট জেলা জাপার সদস্য সচিব উছমান আলী চেয়ারম্যান।
মুমিনুলের টেস্ট ক্যারিয়ারের পাঁচটি সেঞ্চুরির চারটিই চট্টগ্রামে

মুমিনুলের টেস্ট ক্যারিয়ারের পাঁচটি সেঞ্চুরির চারটিই চট্টগ্রামে

image-13206-1517397163.jpg


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আজ বুধবার শুরু হয়েছে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ। ম্যাচের প্রথম দিন মুমিনুল হক তার টেস্ট ক্যারিয়ারের পঞ্চম সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন। দিন শেষে ১৭৫ রান করে অপরাজি রয়েছেন তিনি।

মুমিনুল হক তার টেস্ট ক্যারিয়ারে যে পাঁচটি সেঞ্চুরি করেছেন তার চারটিই এসেছে চট্টগ্রামে। একটি সেঞ্চুরি করেছিলেন ঢাকার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। টেস্টে ১২টি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে মুমিনুল হকের।

২০১৩ সালে চট্টগ্রামে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরিটি করেছিলেন মুমিনুল হক। ১৮১ রানের দারুণ একটি ইনিংস খেলেছিলেন তিনি। একই সিরিজে মিরপুরে অপরাজিত ১২৬ রানের আরেকটি ঝলমলে ইনিংস খেলেছিলেন তিনি। ২০১৪ সালে চট্টগ্রামে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি করেন এই টাইগার ব্যাটসম্যান। একই বছর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চট্টগ্রামে অপরাজিত ১৩১ রানের ইনিংস খেলেন মুমিনুল হক।
 চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ

চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ

11.jpg

কানাইঘাট নিউজ  ডেস্ক :
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

আজ বুধবার প্রকাশিত এ তালিকা অনুযায়ী, ৪৩ লাখের বেশি নতুন ভোটার যোগ হচ্ছে।

তালিকা অনুযায়ী, এবার ভোটার সংখ্যা ১০ কোটি ৪১ লাখ ৪২ হাজার ৩৮১ জন। আইন অনুযায়ী, ৩১ জানুয়ারি চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশের বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

সে লক্ষ্যে গত বছরের ২৫ জুলাই থেকে দেশব্যাপী ভোটার তালিকা হালনাগাদ শুরু করে নির্বাচন কমিশন। এবার নতুন ভোটার যুক্ত হয়েছে প্রায় ৪৩ লাখ। 


সূত্র :বিডি লাইভ।
কাঁদলেন এবং ক্ষমা চাইলেন কেট উইন্সলেট

কাঁদলেন এবং ক্ষমা চাইলেন কেট উইন্সলেট

C9mklLHW0AATBeT_1.jpg

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
'টাইটানিক' ছবির অভিনেত্রী কেট উইন্সলেট ক্ষমা চাইলেন। এমন কিছু মানুষের সঙ্গে তিনি কাজ করেছেন, যাদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগে তোলপাড় হলিউড। তাই লন্ডনের একটি অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে ক্ষমা চান তিনি। কথা বলতে বলতে সে সময় ভিজে উঠেছিল কেটের চোখ দুটো। তবে কি তিনিও এমন কোনো আচরণের শিকার হয়েছিলেন? এ প্রশ্নের জবাব কেটের কথায় পাওয়া যায়নি।

তবে যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে সোচ্চার নারীদের পাশে দাঁড়ালেন তাঁর এবারের বক্তব্যের মাধ্যমে। লন্ডন ক্রিটিকস’ সার্কেল অ্যাওয়ার্ডস অনুষ্ঠানে চলচ্চিত্রের উন্নয়নে অবদান রাখার জন্য বিশেষ সম্মাননা পান কেট উইন্সলেট। সেই সম্মাননা গ্রহণের সময় কেট এক আবেগী বক্তব্য দেন। ৪২ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী কারো নাম নেননি। শুধু বললেন, হলিউডের অনেক পুরুষের ক্ষমতার অপব্যবহার নিয়ে তিনি খুবই বিরক্ত।

অস্কারজয়ী এ অভিনেত্রী বলেন, ‘হলিউডে অনেক প্রভাবশালী পরিচালক ও প্রযোজক আছেন যারা কাজ দিয়ে দশকের পর দশক পুরস্কৃত ও প্রশংসিত হয়ে আসছেন। তাদের চলচ্চিত্রে অভিনয় করে অনেক অভিনয়শিল্পী খ্যাতি পেয়েছেন। একটা সময় ছিল যখন তাদের কাছ থেকে কোনো চরিত্রের প্রস্তাব পাওয়া ছিল বিশাল ব্যাপার। অথচ সেসব ব্যক্তিদের বিরুদ্ধেই আজ হয়রানি, শোষণ ও নিগ্রহের এত এত গল্প। আমি এখন আফসোস করছি এই ভেবে যে, আমাকে একটা সময় সেসব ব্যক্তিদের সঙ্গে কাজ করতে হয়েছিল।’

কথা বলতে বলতে কেট উইন্সলেটের চোখ ভিজে যায়। ভেজা চোখে তিনি সমর্থন জানান বিভিন্ন সময় হলিউডের প্রভাবশালী ব্যক্তিদের দ্বারা হয়রানির শিকার হওয়া নারীদের প্রতি। তিনি বলেন, ‘এটা পরিষ্কার যে, মুখের কথায় কিছুই হয় না। আমার কথা কেবল হয়রানির শিকার সাহসী এই মানুষগুলোকে হয়তো শুধু একটু অনুপ্রেরণা জোগাবে।’

এ বছরের গোল্ডেন গ্লোব আসরে যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে অভিনয়শিল্পীরা কালো পোশাক পরে প্রতিবাদ জানান। আবার গানের জগতের তারকারা পোশাকে সাদা গোলাপ গুঁজে গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডেও প্রতিবাদ করেন।

কেট উইন্সলেট হার্ভি ওয়াইনস্টিন প্রযোজিত সিনেমা ‘দ্য রিডার’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন। এ ছবির জন্য অস্কারও পেয়েছেন তিনি। এছাড়া রোমান পোলানস্কির ‘কারনেজ’ এবং উডি অ্যালেনের ‘ওয়ান্ডার হুইল’ ছবিতে অভিনয় করেও প্রশংসিত হন এই অভিনেত্রী।

কেট উইন্সলেট এ বিষয়ে কি মন্তব্য দেন, তা নিয়ে অনেক দিন ধরেই অপেক্ষা ছিল। বিক্ষিপ্তভাবে এর আগে এ বিষয়ে মন্তব্য করলেও, কেটের এবারের বক্তব্য নতুন করে সাড়া ফেলল হলিউডে।
আফগানিস্তানে ভূমিকম্প: পাকিস্তানে নিহত ১

আফগানিস্তানে ভূমিকম্প: পাকিস্তানে নিহত ১

23.jpg


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলে বুধবার একটি শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। রিখটার স্কেলে এর তীব্রতা ছিল ৬.১। ইসলামাবাদ ও দিল্লীতেও কম্পন অনুভূত হয়েছে।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা জানায়, আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলে হিন্দুকুশ পর্বতে তাজিকিস্তান সীমান্তে ১৯১ কিলোমিটার গভীরে ভূমিকম্পটি আঘাত হানে।

পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমে প্রাকৃতিক এই দুুর্যোগে একটি পরিবারের অন্তত এক শিশু নিহত ও আরো নয় জন আহত হয়েছে। বাড়িটির ছাদ ধসে হতাহতের এ ঘটনা ঘটে।
'প্রশ্ন ফাঁসের বিন্দুমাত্র আশঙ্কা নেই'

'প্রশ্ন ফাঁসের বিন্দুমাত্র আশঙ্কা নেই'

C9mklLHW0AATBeT_2.jpg

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক:
চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের বিন্দুমাত্র আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হতে যাওয়া এই পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপের কথাও জানান তিনি।

আজ বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা উপলক্ষে সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, 'প্রশ্ন ফাঁসের বিন্দুমাত্র আশঙ্কা নেই। শান্তিপূর্ণভাবে এই পরীক্ষা সম্পন্ন করতে মন্ত্রণালয়, বোর্ড ও অধিদপ্তর বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। আর পরীক্ষা শুরু হওয়ার আধাঘণ্টা আগে পরীক্ষার্থীর উপস্থিতি নিশ্চিত করবে কেন্দ্র।'

নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত থাকতে পরীক্ষার্থীদের সহযোগিতা করার জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এর আগে পরীক্ষা চলাকালীন ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বন্ধ রাখার একটি পরিকল্পনা নিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী। এ বিষয়ে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ রেগুলেটরি কমিশনকে সীমিত সময়ের জন্য এই মাধ্যমগুলো বন্ধ রাখতে অনুরোধ জানিয়ে চিঠিও দিয়েছিলেন তিনি।

আজ এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে মন্ত্রী বলেন, ‘পরীক্ষার সময় ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো বন্ধ করা হবে না। তবে ভুয়া প্রশ্ন ছাপিয়ে প্রশ্ন ফাঁসের গুজব যাতে কেউ না ছড়াতে পারে, সে জন্য বিটিআরসিসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোকে বিশেষভাবে তদারকি করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।’

শিক্ষামন্ত্রী জানান, 'পরীক্ষার দিন পরীক্ষা শুরু হওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগে প্রশ্নের বান্ডেল খোলার কারণেও প্রশ্নপত্র ফাঁসের একটা সুযোগ তৈরি হতো। কিন্তু এ বছর পরীক্ষা শুরু হওয়ার আধঘণ্টা আগে প্রশ্নের বান্ডেল খোলা হবে। আর এই প্রশ্নের বান্ডেল খোলার বিষয়টি বিভাগীয় কমিশনার তদারক করবেন।

সূত্র : বিডি লাইভ ডেস্ক
'নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নতুন আইজিপির বড় চ্যালেঞ্জ'

'নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নতুন আইজিপির বড় চ্যালেঞ্জ'

27072916_1805039632902479_2892863700558608756_n.jpg

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
পুলিশের বিদায়ী মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক জানিয়েছেন তিনি সন্তুষ্টি নিয়ে অবসরে যাচ্ছেন।
নতুন আইজিপি ড. জাভেদ পাটোয়ারিকে অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখা হবে তার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।

আজ বুধবার দুপুরে পুলিশ সদর দপ্তরে এক মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের প্রশ্নে জবাবে এ কথা বলেন বিদায়ী আইজিপি।

তিনি বলেন, গতকাল যে ঘটনা ঘটেছে, সামনে আরও ঘটবে। পুলিশকে ধৈর্য ধরে এগুলো মোকাবেলা করতে হবে।

শহীদুল হক তার ৩২ বছরের চাকরিজীবনের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘চাকরিজীবনের অত্যন্ত সন্তুষ্টি নিয়ে অবসরে যাচ্ছি। আমার মধ্যে কোনো হতাশা নেই। আমি সবার ভালোবাসা পেয়েছি। সবার সহযোগিতা পেয়েছি।’ এ জন্য সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

বিদায়ী আইজিপি সবার দোয়া চেয়ে বলেন, ‘আমি অবসরের পর ঢাকায় থাকব। আমার একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে, সেখানে আমি কাজ করব।’

প্রয়োজনে দ্রুত পুলিশের সহযোগিতা পেথে জনগণের জন্য ৯৯৯ টেলিফোন সেবা বাস্তবায়ন একটি স্বপ্ন ছিল জানান বিদায়ী আইজিপি। তিনি বলেন, ‘আমি বিদেশে দেখেছি মানুষ তিনটি সংখ্যা দিয়ে ফোন করে। আমি সেই স্বপ্ন ৯৯৯ বাস্তবায়ন করেছি। থানায় গিয়ে সাধারণ মানুষ যাতে কথা বলতে পারে সেটাও অনেকটাই হয়েছে। বাকিটা নতুন যারা আসবেন তারা করবেন।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বিদায়ী আইজিপি বলেন, ‘নতুন আইজিপির জন্য আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাগরিকদের ভোটাধিকার প্রয়োগের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখা একটি বড় চ্যালেঞ্জ হবে।’

পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক (এঅ্যান্ডও) মোখলেসুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের শুরুতে বিদায়ী আইজিপিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান নতুন আইজিপি। পরে নতুন আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারীকেও ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান বিদায়ী আইজিপি শহীদুল হক। এ সময় বিদায়ী আইজিপিকে ক্রেস্ট উপহার দেন অতিরিক্ত আইজিপি মোখলেসুর রহমান।

গত ২৫ জানুয়ারি নতুন আইজিপি হিসেবে নিয়োগ পান জাভেদ পাটোয়ারি। তার নিয়োগ কার্যকর হয় আজ ৩১ জানুয়ারি থেকে। আর আজই শেষ হয় বিদায়ী আইজিপি শহীদুল হকের চাকরির মেয়াদ।
গয়েশ্বর রায় আটক

গয়েশ্বর রায় আটক

3.jpg

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে অাটক করেছে ডিবি পুলিশ।

গতকাল রাত সোয়া ১০টার দিকে গুলশানের পুলিশ কনকর্ড প্লাজার সামনে তাকে আটক করা হয়েছে।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। গভীর রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, 'গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক বৈঠক শেষে বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায় নিজের গাড়িতে বাসায় ফিরছিলেন। পুলিশ প্লাজার সামনে গাড়ি থামিয়ে তাকে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ। এভাবে গ্রেপ্তার করা হলে দেশের মানুষ আরও বিক্ষোভে ফেটে পড়বে।'

ওই সময়ের পর থেকে গয়েশ্বর রায়ের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। পুলিশের পক্ষ থেকে কেউ তাকে আটকের খবর স্বীকার করছিলেন না।

পরে রাত পৌনে ১২টার দিকে ডিএমপির উপকমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান বিএনপি নেতা গয়েশ্বরকে গ্রেপ্তারের কথা স্বীকার করেন। তবে কি অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি।

পুলিশ সূত্র জানায়, হাইকোর্ট এলাকায় হামলার ঘটনায় রমনা ও শাহবাগ থানায় পুলিশ বাদী হয়ে দুটি মামলা করছে, সেগুলোতে গয়েশ্বর রায়কে গ্রেপ্তার দেখানো হতে পারে।

উল্লেখ্য, গতকাল মঙ্গলবার বিকালে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া আদালত থেকে ফেরার সময় বিএনপিকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। তাতে বিএনপিকর্মীদের হামলায় ভাংচুর হয় পুলিশের গাড়ি ও অস্ত্র। পিটুনিতে আহত হন কয়েকজন পুলিশ সদস্য। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলায় রায়ের তারিখ ৮ ফেব্রুয়ারি নির্ধারণের পর দলের নেতা-কর্মীদের রাজপথে সক্রিয় হওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন গয়েশ্বর। খালেদা জিয়ার সাজার রায় হলে সরকার পতনের আন্দোলনের হুমকিও দিয়েছিলেন বিএনপির তিনি। সূত্র: ইত্তেফার
কানাইঘাটে নবচেতনা স্পোর্টিং ক্লাবের "মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্ট" শুরু ২ফেব্রুয়ারি

কানাইঘাটে নবচেতনা স্পোর্টিং ক্লাবের "মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্ট" শুরু ২ফেব্রুয়ারি


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: কানাইঘাটে নবচেতনা স্পোর্টিং ক্লাবের আয়োজনে আগামী ২ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে যাচ্ছে ১ম গোল্ডকাপ মিনি ফুটবল টুর্ণামেন্ট। কানাইঘাট পৌরসভার শ্রীপুর টুকের বাজার সংলগ্ন মাঠে আগামী ২ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বিকেল ৩টায় এ টুর্ণামেন্টের পর্দা উঠবে।(বিজ্ঞপ্তি)

Thursday, January 25, 2018

কানাইঘাটে সরকারি রাস্তা বন্ধ করা নিয়ে সৃষ্ট বিরোধ নিষ্পত্তির উদ্যোগ নিলেন ইউএনও

কানাইঘাটে সরকারি রাস্তা বন্ধ করা নিয়ে সৃষ্ট বিরোধ নিষ্পত্তির উদ্যোগ নিলেন ইউএনও


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট রাজাগঞ্জ ইউপির নিজ রাজাগঞ্জ গ্রামের খাস খতিয়ান নং-১, জেএল নং- ৯১, দাগ নং- ১০৬১, শ্রেণি- সরকারি রাস্তার যাতায়াতের একাংশের উভয় পাশে পাকা খুটি মেরে বালুর বস্তা দিয়ে ভরাট করে রাস্তার দু’দিক বন্ধ করে দেয়ায় এলাকায় জনমনে উত্তেজনা বিরাজ করায় বিষয়টি শান্তিপূর্ণ ভাবে নিষ্পত্তির উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শ করে সরকারি রাস্তা বন্ধ করা নিয়ে সৃষ্ট বিরোধ কিভাবে নিরসন করা যায় এবং এলাকায় ধর্মীয় সম্প্রীতি বজায় রাখতে স্থানীয় রাজাগঞ্জ ইউপির চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ স্থানীয় রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ এবং মুসলিম ও হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনদের নিয়ে বৈঠক করেন। এর আগে গত বুধবার উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি লুসি কান্ত হাজং, থানার ওসি (তদন্ত) নুনু মিয়া সরেজমিনে রাস্তাটি পরিদর্শন করে উভয়পক্ষের সাথে কথা বলে সবাইকে শান্ত থাকতে বলেন। স্থানীয় গণ্যমান্য লোকদের সাথে বৈঠক কালে নির্বাহী কর্মকর্থা তানিয়া সুলতানা বলেন, এলাকার জনসাধারণের যাতায়াতের রাস্তার একাংশ বন্ধ করা নিয়ে এলাকায় কোন ধর্মীয় বিভেদ তৈরি হোক এটা আমরা চাইনা। আমি সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি, এব্যাপারে জেলা প্রশাসক মহোদয় স্যারের কাছে রিপোর্ট দিব। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ৩ দিনের মধ্যে এলাকার জন প্রতিনিধি সহ সবাইকে নিয়ে বিষয়টি শান্তিপূর্ণ ভাবে সমাধানের পথ বের করা হবে। সরেজমিনে জানা যায়, সম্প্রতি রাজাগঞ্জ ইউপির গাজীপুর গ্রামের দিগেন্দ্র চন্দ্র নাথের পুত্র দোল গোবিন্দ নাথ গংরা এলাকার প্রাচীনতম এলজিইডির রাস্তা তাদের বাড়ীর অংশের ৪০ শতক জায়গার যাতায়াতের উভয় পাশের পাকা পীলার ও বালুর বস্তা ফেলে বাঁশের খুটি দিয়ে গড় মেরে দিলে এলাকার কয়েকটি গ্রামের মানুষের যাতায়াত ও যানবাহন চলাচলের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে স্থানীয় লোকজনদের সাথে দোল গোবিন্দ নাথ গংদের পরিবারের সাথে বিরোধের সৃষ্টি হলে দোল গোবিন্দ নাথ বাদী হয়ে কানাইঘাট থানায় স্থানীয় নয়ামাটি সহ কয়েকটি গ্রামের মুসলিম সম্প্রদায়ের ৩২ জনের নাম উল্লেখ করে গত ১০ জানুয়ারি একটি মামলা দায়ের করেন। পাল্টা সরকারি রাস্তার উপর দোল গোবিন্দনাথ গংরা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে রাস্তা বন্ধ করে দেয়ায়, এলাকাবাসী বাদী হয়ে গত ২১ জানুয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে একটি অভিযোগ দাখিল করেন। পাল্টাপাল্টি মামলার অভিযোগ দাখিল নিয়ে দোল গোবিন্দনাথের পরিবারের সাথে এলাকার মানুষের বিরোধ তৈরি হলে যাতে করে এলাকায় কোন কু-চক্রী মহল ধর্মীয় বিভেদ তৈরি করতে না পারে এজন্য স্থানীয় প্রশাসন ও কানাইঘাট থানা পুলিশ বিষয়টি শান্তিপূর্ণ ভাবে নিষ্পত্তির জন্য এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সবাইকে শান্ত থাকার পরামর্শ দেন। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন রাস্তা বন্ধ করার ইস্যু নিয়ে দু’টি পক্ষের মধ্যে যে বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে তা নিরসনের জন্য আগামী ৩ দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসক মহোদয় স্যারের নির্দেশে সবাইকে নিয়ে শান্তিপূর্ণ ভাবে নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেয়া হবে। এ নিয়ে এলাকায় কোন মহল ধর্মীয় ইস্যু তৈরি করে আইন শৃঙ্খলার অবনতি না করতে পারে এজন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে আমি বৈঠক করেছি, সবাই আমাকে কথা দিয়েছেন প্রশাসন যে সিন্ধান্ত গ্রহণ করবে তারা সবাই সেটি মেনে নিবেন। রাজাগঞ্জ ইউপির চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম, সাবেক চেয়ারম্যান আ’লীগ নেতা সিরাজুল হক, ইউপি আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক সুহেল রানা জানিয়েছেন রাস্তার একাংশ বন্ধ করা নিয়ে এলাকায় কোন ধরনের ধর্মীয় ইস্যু তৈরি করতে কাউকে দেয়া হবে না। মুসলমান ও হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন শান্তিপূর্ণ ভাবে বসবাস করে আসছেন। দোল গোবিন্দ নাথ রাস্তার একাংশ বন্ধ করে দেয়ায় এ সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। অপরদিকে দোল গোবিন্দ নাথ ও এডভোকেট অরুণ চন্দ্র নাথ ও রাধিকা রঞ্জন নাথ জানিয়েছেন রাস্তাটির যে অংশ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে সে অংশটি দোল গোবিন্দ নাথের বসত বাড়ীর উপর দিয়ে গেছে। একটি মামলার রায় দোল গোবিন্দ নাথের পক্ষে রয়েছে, বিকল্প জনসাধারণ যাতায়াতের রাস্তা দেয়ার পরও এলাকার কিছু লোকজন অযথা দাঙ্গা হাঙ্গামার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন।
লেভার ফেডারেশন কানাইঘাট  শাখা আহবায়ক কমিটি গঠন

লেভার ফেডারেশন কানাইঘাট শাখা আহবায়ক কমিটি গঠন


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: আইটিইউসি’র অর্ন্তভুক্ত বাংলাদেশ লেভার ফেডারেশন-বিএলএফ (রেজিঃ নং- বা.জে.ফে-১৯) এর কানাইঘাট উপজেলা শাখার আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। যুবনেতা আব্দুর রহমান জীবনকে আহবায়ক, মাহফুজুর রহমান চৌধুরী, আব্দুল আহাদ, আখতার হোসেন, শফিকুর রহমান মেননকে যুগ্ম আহবায়ক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ বিলাল আহমদকে সদস্য সচিব এবং বেলাল আহমদ, রাজু আহমদ, আব্দুস সহিদ, আব্দুল আজিজ ও কয়েস আহমদকে সদস্য করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট এ আহবায়ক কমিটিকে গত ২৩ জানুয়ারি অনুমোদন দিয়েছেন সংগঠনের সিলেট বিভাগীয় কমিটির আহবায়ক ছায়াদুল ইসলাম ও সদস্য সচিব মোঃ জুবায়ের আহমেদ। এদিকে নবগঠিত বিএলএফ কমিটির নেতৃবৃন্দ কমিটির অনুমোদনের কপি গতকাল বুধবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা ও কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আহাদ ও সমাজসেবা কার্যালয়ে জমা দিয়েছেন।(প্রেস বিজ্ঞপ্তি)
জমিয়তে উলামার মহাসমাবেশ ২৪শে মার্চ

জমিয়তে উলামার মহাসমাবেশ ২৪শে মার্চ


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: আজ বৃহস্পতিবার ২৫ জানুয়ারি বাদ যোহর জমিয়তে উলামা বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় মজলিসে আমেলার এক জরুরী অধিবেশন দলের অস্থায়ী প্রধান দফতর দারুল উলুম কানাইঘাট মাদরাসা মিলনায়তনে অনুষ্টিত হয়। জমিয়তে উলামার কেন্দ্রীয় মুহতারাম আমীর আল্লামা আলিমুদ্দীন শায়খে দুর্লভপুরীর সভাপতিত্বে এবং দলের মহাসচিব আল্লামা নজরুল ইসলাম তোয়াকুলীর পরিচালনায় অনুষ্টিত মজলিসে আমেলায় বক্তব্য রাখেন দলের সহ সভাপতি আল্লামা শামসুদ্দীন দুর্লভপুরী,মাওলানা আব্দুল হক গোবিন্দপুরী, মাওলানা শব্বীর আহমদ, মাওলানা নুরুল হক, সহকারী মহাসচিব মাওলানা আব্দুল জব্বার, মাওলানা জয়নুল আবেদীন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা ক্বারী হারুনুর রশীদ চতুলী, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আব্দুল্লাহ বাহার চতুলী, জমিয়তে আনসার বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমীন আসাদী, কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা আব্দুস সালাম জৈন্তাপুরী, জমিয়তে আনসার কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক মাও.বদরুল আলম, কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ, মাওলানা এনামুল হাসান সোনাপুরী, কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা খালিদ আহমদ, মাওলানা মাহবুুবুল আম্বিয়া, মাওলানা আব্দুল লতীফ মহেশপুরী, মাওলানা নজীর আহমদ, মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা ছয়ফুল আলম, মাওলানা শিহাবুদ্দীন বড়চতুলী, মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস, মাওলানা ইসলাম উদ্দীন, মাওলানা হা.সিদ্দীক আহমদ, মাওলানা বিলাল আহমদ, মাওলানা ইলিয়াছ আহমদ, মাওলানা তৈয়্যিব আহমদ, মাওলানা নজরুল ইসলাম পাত্রমাটি, মাওলানা সাইদুর রহমান, মাওলানা গিয়াস উদ্দিন দুর্লভপুরী, জমিয়তে তালাবা বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাওলানা ইয়াহইয়া শহীদ এবং জমিয়তে তালাবার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা আসাদ আহমদ প্রমুখ। অধিবেশনে কয়েকটি গুরুত্বপুর্ণ সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। ২৪ মার্চ সিলেট রেজিষ্টারী মাঠে জমিয়তে উলামার আহবানে মহাসমাবেশ,মহাসমাবেশ সফলের লক্ষে ২৪ সদস্য বিশিষ্ট বাস্তাবায়ন কমিটি গঠন।(বিজ্ঞপ্তি)
হাসপাতালে বাচ্চা বদল: পরের ঘটনা সিনেমার চেয়েও নাটকীয়

হাসপাতালে বাচ্চা বদল: পরের ঘটনা সিনেমার চেয়েও নাটকীয়

5_0.jpg


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
ঘটনাটি বলিউডের সিনেমার কাহিনির মতো।

প্রথমত, কয়েক মিনিটের ব্যবধানে দুটো শিশুর জন্ম হয় এবং হাসপাতালে থাকতেই এই দুটো শিশু দুর্ঘটনাবশত বদলাবদলি হয়ে যায়।

দ্বিতীয়ত, একেবারেই ভিন্ন রকমের দুটো পরিবারে তাদের জন্ম। একটি শিশু উপজাতি এক হিন্দু পরিবারে আর অন্যটি মুসলিম। কিন্তু তারপর কি হলো?

কর্তৃপক্ষের সাথে দীর্ঘ সংগ্রামের পর তাদের ডিএনএ পরীক্ষা করে যে পরিবারে তাদের জন্ম তাদেরকে শনাক্ত করা হয়। কিন্তু ঘটনা হচ্ছে, শেষ পর্যন্ত ওই দুটো শিশু যে পরিবারে বড় হয়েছে তাদেরকে ছেড়ে নিজের জন্মদাতা পিতামাতার কাছে ফিরে যেতে রাজি হয়নি।

পরে ওই দুটো দম্পতি আদালতের শরণাপন্ন হয় এবং নিশ্চিত করেন যে তারা একে অপরের সন্তানকে লালন পালন করবেন। এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় আসাম রাজ্যে।

শাহাবুদ্দিন আহমেদ জানান তিনি তার স্ত্রী সালমা পারভীনকে মঙ্গলদাই হাসপাতালে নিয়ে যান ২০১৫ সালের ১১ই মার্চ সকাল ৬টার সময় এবং তার এক ঘণ্টা পরেই তাদের একটি পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। পরের দিনই তার স্ত্রীকে ছেড়ে দেওয়া হয় হাসপাতাল থেকে।

'এক সপ্তাহ পর আমার স্ত্রী বললো এই বাচ্চা আমাদের না। আমি বললাম, কি বলছো তুমি? একটি নিষ্পাপ শিশুর ব্যাপারে তোমার এভাবে কথা বলা ঠিক না। আমার স্ত্রী বললো প্রসূতি কক্ষে নাকি একজন বোড়ো মহিলা ছিলো এবং তার মনে হচ্ছে ওই মহিলার বাচ্চার সাথে আমাদের বাচ্চা বদল হয়ে গেছে। আমি তার কথা বিশ্বাস করি নি। কিন্তু দিনের পর দিন সে এই কথাটা আমাকে বলতেই থাকলো।'

তাদের সন্তানের নাম রাখা হয় জুনায়েত। সালমা পারভীন জানান, শুরু থেকেই তার সন্দেহ হয়েছিলো যে এই বাচ্চা তাদের নয়।

'যখন আমি তার মুখ দেখলাম আমার মনে একটা সন্দেহ তৈরি হলো। আমার তখন প্রসূতি কক্ষের ওই মহিলার কথা মনে পড়লো। বাচ্চাটার চেহারার সাথে ওই মহিলার চেহারার মিল আছে। বাচ্চাটার ছোট ছোট দুটো চোখ দেখেই আমি সেটা বুঝতে পারি। আমাদের পরিবারের কারোর চোখই ওরকম নয়', বলেন তিনি।

আহমেদ তখন হাসপাতালে ছুটে যান এবং সেখানকার এক কর্মকর্তাকে তার স্ত্রীর সন্দেহের কথা জানান। তখন ওই কর্মকর্তা তাকে বলেন যে তার স্ত্রী মানসিকভাবে সুস্থ নন। তার মানসিক চিকিৎসা প্রয়োজন।

আহমেদ তখন তথ্য জানার অধিকার সংক্রান্ত একটি পিটিশন দায়ের করেন। সেদিন সকাল সাতটা থেকে যতো শিশুর জন্ম হয়েছিলো তাদের ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে চান তিনি।

তার এক মাস পর তিনি সাতজন নারীর ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারেন। কাগজপত্র দেখার পর তিনি সিদ্ধান্ত নেন একটি উপজাতি মহিলার ব্যাপারে বিস্তারিত খোঁজ খবর নেওয়ার। কারণ ওই মহিলার সন্তান জন্মদানের সাথে তাদের সন্তানের জন্ম হওয়ার সময় ও ঘটনার মধ্যে তিনি অনেক মিল দেখতে পেয়েছেন।

এই দুটো মহিলাই পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। দুটো শিশুরই ওজন তিন কেজি এবং তাদের জন্ম মাত্র পাঁচ মিনিটের ব্যবধানে। এরপর ওই মহিলার খোঁজে তিনি দু'বার তার গ্রামে গিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তার বাড়িতে যাওয়ার সাহস পান নি।

'তখন আমি তাদেরকে একটি চিঠি লিখি। আমি বলি যে আমার স্ত্রী সন্দেহ করছে তাদের বাচ্চার সাথে আমাদের বাচ্চা বদল হয়ে গেছে এবং এবিষয়ে তাদের কোনো সন্দেহ আছে কীনা। চিঠির নিচে আমি আমার ফোন নম্বর দিয়ে দেই।'

আহমেদের বাড়ি থেকে প্রায় ১৯ মাইল দূরে এই বোড়ো পরিবারের গ্রাম- বার্লি। সেখানে অনিল ও শেওয়ালি বোড়ো দম্পতির সন্তান রইয়ান চন্দ্রা।

আহমেদের চিঠি পাওয়ার আগ পর্যন্ত ওই বোড়ো দম্পতির সন্দেহ হয় নি যে তাদের সন্তান অন্য কোনো শিশুর সাথে বদল হয়ে গেছে। এরকম কিছু হতে পারে বলে তারা কেউই সেটা বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। কিন্তু পুরো ঘটনাটিই বদলে যায় যখন এই দুটো পরিবার একসাথে মিলিত হয়।

'যখন আমি অন্য শিশুটিকে প্রথম দেখলাম তখনই মনে হলো যে আমার স্বামীর সাথে তার চেহারার প্রচুর মিল। আমার তখন এতো খারাপ লাগছিলো যে আমি কতোক্ষণ কাঁদলাম। আমরা বোড়োরা দেখতে অন্যদের চেয়ে আলাদা। আমাদের নাক চোখ দেখতে মুসলমানদের মতো নয়', বলেন শেওয়ালি বোড়ো।

সালমা পারভীন বলেন, প্রথমবার দেখার সাথে সাথেই তিনি বুঝতে পেরেছিলেন যে রইয়ানই তাদের বাচ্চা। সেই মুহূর্তেই তিনি বাচ্চা দুটোকে আবার বদলে নিতে চেয়েছিলেন। তবে বোড়ো নারী তাতে রাজি হননি।

পরে আহমেদের অনুরোধে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এবিষয়ে তদন্ত করতে শুরু করে। হাসপাতালের প্রসূতি কক্ষে সেদিন যেসব নার্স ছিলেন তাদের সাথেও কথাবার্তা বলা হয়। তাদের কাজে কোনো ধরনের ভুল ভ্রান্তি হওয়ার কথা তারা অস্বীকার করেন।

এতেও ক্ষান্ত হননি আহমেদ। তিনি তখন তার স্ত্রী ও শিশুর রক্তের নমুনা পাঠান ডিএনএ টেস্টের জন্যে। পরীক্ষার ফলাফল যখন তার হাতে আসে তিনি তার সব প্রশ্নের জবাব পেয়ে যান। সেখানে দেখা যায় শিশু জুনায়েতের সাথে সালমা পারভীনের জিনগত কোন মিল পাওয়া যায় নি।

হাসপাতাল থেকে তখন আহমেদের পরিবারকে জানানো হয় যে আইনের কাছে এই রিপোর্ট গ্রহণযোগ্য নয়। তখন তিনি পরের বছরের ডিসেম্বর মাসে পুলিশের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

পরে তিনি ওই দুটো দম্পতি ও দুটো শিশুর রক্তের নমুনা নিয়ে কলকাতায় যান পরীক্ষার জন্যে। তবে ফর্মে কিছু ত্রুটি থাকায় ফরেনসিক ল্যাবরেটরি এই পরীক্ষা করাতে রাজি হননি।

পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, 'তখন আমরা দ্বিতীয়বারের মতো নমুনা সংগ্রহ করি। রাজধানী গৌহাটিতে ফরেনসিক ল্যাবে এই টেস্ট সম্পন্ন করা হয়। ওই পরীক্ষায় প্রমাণ হয় যে আসলেই বাচ্চা দুটো জন্মের সময় বদলা বদলি হয়ে গেছে।'

বড়ুয়া তখন আহমেদকে পরামর্শ দেন বিষয়টি নিয়ে আদালতে যাওয়ার জন্যে। ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে তিনি আবেদন করেন দুটো বাচ্চাকে আবার বদল করার জন্যে।

তখন সিদ্ধান্ত হয় যে বাচ্চা দুটোকে যার যার আসল পরিবারের কাছে ফেরত দেওয়া হবে। এজন্যে দুটো পরিবার আদালতেও হাজির হয়। কিন্তু বাদ সাধে দুটো শিশু। যে পরিবারে তারা বেড়ে উঠেছে সেই পরিবার ছেড়ে যেতে তারা আর রাজি হয়নি।

সালমা পারভীন বলেন, 'ম্যাজিস্ট্রেট আমাদের বলেন, চাইলে আমরা আমাদের বাচ্চা দুটো বদলাবদলি করে নিতে পারি। কিন্তু আমরা তখন বলি যে না, আমরা সেটা করবো না। কারণ গত তিন বছর ধরে আমরা তাদেরকে বড় করেছি। হঠাৎ করেই আমরা তো আর তাদেরকে অন্যের কাছে দিয়ে দিতে পারি না।'

'এছাড়াও জুনায়েত কাঁদছিলো। সে ছিলো আমার দেবরের কোলে। সে তাকে শক্ত করে ধরে রেখেছে। দু'হাত দিয়ে তার গলা শক্ত করে জড়িয়ে ধরে সে তখন কাঁদতে লাগলো। আমাদের ছেড়ে সে যেতে চাইছিলো না।'

একই আচরণ করতে থাকে বোড়ো পরিবারে বড়ো হওয়া শিশু রইয়ানও।

অনিল বোড়ো বলেন, এখন যদি তাদেরকে বদল করা হয় তাহলে তারা মানসিকভাবে কষ্ট পেতে পারে। তারা এতো ছোট্ট যে কি ঘটছে তার কিছুই তারা বুঝতে পারছে না।

তারপর থেকে ওই দুটো শিশু আগের মতোই ভিন্ন পরিবারে আদর যত্ন আর ভালোবাসায় বেড়ে উঠছে। কিন্তু দুটো পরিবারের কাছে জানতে চেয়েছিলেন শিশুদের ধর্মীয় পরিচয় ভবিষ্যতে কোনো সমস্যা হতে পারে কীনা।

'বাচ্চা তো বাচ্চাই। সে হচ্ছে সৃষ্টিকর্তার উপহার। সে হিন্দুও নয়, মুসলিমও নয়। সবার উৎস একই। পৃথিবীতে আসার পরেই তারা হিন্দু বা মুসলিম হয়ে যায়', বলেন আহমেদ।

তিনি বলেন, এখন যদি বাচ্চা দুটোকে বদল করা হয় তাহলে নতুন পরিবারে তারা নিজেদের মানিয়ে নিতে পারবে না। কারণ দুটো পরিবারের ভাষা, সংস্কৃতি, খাদ্য, অভ্যাস এসব একেবারেই আলাদা।

একজন মা যে শিশুটিকে বড় করেন তার সাথে তার একটি বন্ধন তৈরি হয় ঠিকই কিন্তু যে শিশুটিকে তিনি গর্ভে ধারণ করেন তার জন্যেও ওই নারী একটা টান অনুভব করেন। এই আকুলতা দুই মায়ের মধ্যেও আছে।

তবে তারা বলছেন, বাচ্চা দুটো বড়ো হওয়ার পর তারাই সিদ্ধান্ত নিতে পারবে যে তারা আসলে কোন পরিবারের সাথে থাকতে আগ্রহী।

এখন এই দুটো পরিবার যেটা চেষ্টা করছে তা হলো- তাদের মধ্যে যাতে নিয়মিত দেখা সাক্ষাৎ হয়, বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে উঠে এবং শিশু দুটোর সাথে যাতে তাদের আসল পরিবারের একটা সম্পর্ক বজায় থাকে সেই চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া। সূত্র: বিবিসি
ছারপোকা তাড়ানোর সহজ কিছু ঘরোয়া উপায়

ছারপোকা তাড়ানোর সহজ কিছু ঘরোয়া উপায়

14.1.jpg

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
ছারপোকা খুবই যন্ত্রনাদায়ক একটি ছোট্ট পতঙ্গ। এ পোকাটি বিছানা, মশারি, বালিশের এক প্রান্তে বাসা বাঁধলেও ট্রেন, বাসের আসন ও বিশেষ করে আবাসিক হোটেলে এদের দেখা মেলে। বিছানার পোকা হলেও এর অন্যতম পছন্দের আবাসস্থল হচ্ছে- ম্যাট্রেস, সোফা এবং অন্যান্য আসবাবপত্র। ঘরে ছারপোকার আক্রমণ ঘটলে অশান্তির শেষ থাকে না।

জেনে নেয়া যাক এই জ্বালাতনকারী ছারপোকা সহজেই ঘর থেকে তাড়ানোর উপায়-

১. ছারপোকার হাত থেকে রেহাই পেতে আপনার বিছানা দেয়াল থেকে দূরে স্থাপন করুন। শোয়ার আগে ও পরে বিছানা ভালো করে ঝেড়ে ফেলুন সাথে পরিষ্কার পরিছন্ন থাকুন।

২. বিছানাসহ অন্যান্য জায়গা থেকে ছারপোকা তাড়াতে সারা ঘরে ভালো করে ভ্যাকুয়াম করুন। ভ্যাকুয়াম করার সময় খেয়াল রাখুন যাতে ঘরের মেঝেও বাদ না পড়ে। এতে করে আপনার ঘরে ছারপোকার আক্রমণ অনেকটাই কমে যাবে।

৩. আপনার ঘরের ছারপোকা তাড়াতে অ্যালকোহল ব্যবহার করতে পারেন। ছারপোকা প্রবণ জায়গায় সামান্য অ্যালকোহল স্প্রে করে দিন দেখবেন ছারপোকা মরে যাবে।

৪. এক লিটার পানিতে ডিটারজেন্ট যেমন সার্ফ এক্সেল ঘন করে মিশিয়ে স্প্রে করুন। এ উপায়ে স্প্রে করার ফলে ছারপোকা সহজেই মারা যাবে।

৫. ছারপোকা মোটামুটি ১১৩ ডিগ্রি তাপমাত্রাতে মারা যায়। ঘরে ছারপোকার আধিক্য বেশী হলে বিছানার চাদর, বালিশের কভার, কাঁথা ও ঘরের ছারপোকা আক্রান্ত জায়গাগুলোর কাপড় বেশী তাপে সিদ্ধ করে ধুয়ে ফেলুন। ছারপোকা এতে মারা যাবে।

৬. ঘরের যে স্থানে ছারপোকার বাস সেখানে ল্যাভেন্ডার অয়েল স্প্রে করুন। দুই থেকে তিনদিন এভাবে স্প্রে করার ফলে ছারপোকা আপনার ঘর ছেড়ে পালাবে।

৭. আসবাবপত্র ও লেপ তোশক পরিষ্কার রাখার সাথে সাথে নিয়মিত রোদে দিন। এতে করে ছারপোকার আক্রমণ কমে যাওয়ার সাথে সাথেই ছারপোকা থাকলে সেগুলো মারা যাবে।
'পদ্মাবত' মুক্তির আগেই বাগদান সেরে ফেললেন নাকি দীপিকা!

'পদ্মাবত' মুক্তির আগেই বাগদান সেরে ফেললেন নাকি দীপিকা!

6.jpg

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
বিরাট কোহলি এবং অানুষ্কা শর্মার পরই নাকি বাগদান পর্ব সেরেছেন রণবীর সিং-দীপিকা পাডুকন। শ্রীলঙ্কায় ছুটি কাটাতে গিয়েই নাকি রণবীরের সঙ্গে আংটি বদল সেরে ফেলেছেন দীপিকা।

রণবীরের বাবা-মা নাকি শ্রীলঙ্কায় হাজির হয়ে হবু বউমাকে শাড়ি এবং হিরের গয়না উপহার দিয়েছেন। বেশ কিছুদিন ধরে এমনই সব গুঞ্জন শোনা যচ্ছিল। কিন্তু বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলছিলেন না রণবীর-দীপিকার কেউই। কিন্তু, এবার বিষয়টি নিয়ে খোলসা করলেন দীপিকা নিজেই।

সম্প্রতি নেহা ধুপিয়ার একটি শো-এ হাজির হয়েছিলেন দীপিকা পাডুকোন এবং তার বোনের আনিশা পাডুকোন। সেখানেই বলিউডের ‘বেস্ট কিসার’ হিসেবে কার নাম নেবেন বলে প্রশ্ন করা হলে, দীপিকা সটান রণবীর সিং-এর উল্লেখ করেন।

এরপরই তাকে জিজ্ঞাসা করা হয়, বাগদান নিয়ে। রণবীর সিং-এর সঙ্গে কি বাগদান হয়েছে? এমন প্রশ্ন করা হলে, প্রথমে হেসে লুটিয়ে পড়েন দীপিকা। এরপর হাত দেখিয়ে স্পষ্ট জানান, রণবীর কেন, কারও সঙ্গেই আংটি বদল হয়নি তার। সূত্র: জি নিউজ
সু চি'র কড়া সমালোচনা করে পদত্যাগ করেছেন মার্কিন কূটনীতিক

সু চি'র কড়া সমালোচনা করে পদত্যাগ করেছেন মার্কিন কূটনীতিক

5.jpg


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চিকে পরামর্শ দেবার জন্য যে আন্তর্জাতিক উপদেষ্টা প্যানেল গঠন করা হয়েছে সেটির সদস্য এবং সুপরিচিত মার্কিন কূটনীতিক বিল রিচার্ডসন পদত্যাগ করেছেন।

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে এই প্যানেলের ভূমিকা ও অং সান সু চি'র 'সদিচ্ছা' নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন রিচার্ডসন। এই প্যানেলটির ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে রিচার্ডসন এটিকে 'লোক দেখানো' বলে উল্লেখ করেছেন। মিয়ানমার সরকার রিচার্ডসনকে এ প্যানেলে যোগ দেবার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন।

তিনি অভিযোগ করেন, রোহিঙ্গাদের দুর্দশার বিষয়টি আন্তরিকতার সাথে আলোচনা করা হয়নি। তিনি অং সান সু চি'র ভূমিকা নিয়ে কড়া সমালোচনা করেছেন।

একসময় ক্লিনটন প্রশাসনে কাজ করা এই অভিজ্ঞ কূটনীতিক বলেন, রোহিঙ্গা সংকট সমাধানের ক্ষেত্রে মিজ সু চি'র 'নেতৃত্বে নৈতিকতার ঘাটতি' রয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে রিচার্ডসন বলেছেন, সোমবারে এক বৈঠক চলার সময় মিজ সু চি'র সাথে তার কথা কাটাকাটি হয়েছে।

সোমবারের বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে রিপোর্ট করতে গিয়ে মিয়ানমারে আটক হওয়া রয়টার্সের দুই সাংবাদিকের আটক হবার বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন রিচার্ডসন।

এই প্রসঙ্গের অবতারণা করতেই মিজ সু চি 'ক্ষিপ্ত' হয়ে যান এবং এ বিষয়ে কথা বলা 'অ্যাডভাইজরি বোর্ডের কাজ নয়' বলেও তিনি সাফ জানিয়ে দেন।

এছাড়া এই প্যানেল নামে মাত্র থাকলেও কাজের কাজ কিছু না করে মূলত সেদেশের সরকারকে তুষ্ট রাখা বা মনোরঞ্জন করাই মূল উদ্দেশ্য বলেও তিনি উল্লেখ করেছেন। তার ভাষায় সরকারের জন্য 'চিয়ার-লিডিং স্কোয়াড' হিসেবে কাজ করবেন না বলেই তিনি পদত্যাগ করেছেন।

অং সান সু চি উদ্যোগে গত বছর এ আন্তর্জাতিক উপদেষ্টা বোর্ড গঠন করেছিল মিয়ানমার সরকার। এর উদ্দেশ্য ছিল রাখাইন রাজ্যের স্থিতিশীলতার জন্য সুপারিশ বাস্তবায়ন করা। ১০ সদস্য বিশিষ্ট এ উপদেষ্টা বোর্ডের পাঁচজন বিদেশী সদস্য। রিচার্ডসনের পদত্যাগের পর এখনো মিয়ানমার সরকারের কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে চলমান নির্যাতনের হাত থেকে বাঁচতে প্রায় সাড়ে ছয় লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। মিয়ানমারে যে নৃশংসতা চলছে, সেটিকে জাতিসংঘ 'জাতিগত নিধনের একটা ধ্রুপদী উদাহরণ' হিসেবে বর্ণনা করেছে।
চলে গেলেন কথাসাহিত্যিক শওকত আলী

চলে গেলেন কথাসাহিত্যিক শওকত আলী

1.jpg


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
প্রদোষে প্রাকৃতজন-খ্যাত কথাসাহিত্যিক শওকত আলী আর নেই। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮২ বছর।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। শওকত আলীর ছেলে আসিফ শওকত কল্লোল এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

এই কথাসাহিত্যিককে কোথায় দাফন করা হবে সে ব্যাপারে জানতে চাইলে তার ছেলে বলেন, ‘এ ব্যাপারে এখনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আমার এক ভাই সিলেটে থাকেন। তিনি এলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

শওকত আলীর জনপ্রিয় উপন্যাসের মধ্যে আছে প্রদোষে প্রাকৃতজন (১৯৮৪), অপেক্ষা (১৯৮৪), দক্ষিণায়নের দিন (১৯৮৫), কুলায় কালস্রোত (১৯৮৬), পূর্বরাত্রি পূর্বদিন (১৯৮৬), সম্বল (১৯৮৬), উত্তরের খেপ (১৯৯১), শেষ বিকেলের রোদ (২০০১) ইত্যাদি। ১৯৬৮ সালে তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কার পান।

শওকত আলী ১৯৩৬ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫৫ সালে বিভিন্ন পত্রিকায় তার লেখা প্রকাশিত হতে শুরু করে। একই সময়ে দৈনিক মিল্লাত পত্রিকার নিউজ ডেস্কে যোগদানের মাধ্যমে তিনি কর্মজীবন শুরু করেন। পরে তিনি শিক্ষকতা করেন। ১৯৯০ সালে সাহিত্যে অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার তাকে একুশে পদকে ভূষিত করে।

সূত্র: বিডি লাইভ।

Wednesday, January 24, 2018

 কানাইঘাটে তিন সন্তানের জননীকে হত্যা

কানাইঘাটে তিন সন্তানের জননীকে হত্যা


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাটে অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তদের হাতে তিন সন্তানের জননী বিধবা কুলছুমা বেগম (৪৫) নামের এক মহিলা খুন হয়েছেন। ধারনা করা হচ্ছে, গণধর্ষণের পর ঐ মহিলাকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। নিহত কুলছুমা বেগম উপজেলার দিঘীরপাড় পূর্ব ইউপির ধনমাইর মাটি গ্রামের মৃত আলা উদ্দিনের স্ত্রী। জানা যায়- গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর কুলছুমা বেগম তার দুই কন্যা সকিনা বেগম (২২) ও আমিনা বেগম (১৮)কে বাড়ীতে রেখে গ্রামের একটি সমিতির সভায় যাওয়ার কথা বলে ঘর থেকে বের হন। এরপর কুলছুমা বেগম রাতে বাড়ীতে ফিরেন নি। আজ বুধবার সকাল ১০টায় সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের ভবানীগঞ্জ খালের পাশে সীম বাগানের নিচে পথচারীরা এক মহিলার লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আলী হোসেন কাজলকে অবহিত করেন। পরে কুলছুমা বেগমের স্বজনরা খবর পেয়ে এসে তার লাশ সনাক্ত করেন। বিষয়টি তাৎক্ষণিক ইউপি চেয়ারম্যান আলী হোসেন কাজল কানাইঘাট থানা পুলিশকে খবর দিলে থানার এস.আই হুমায়ুন কবির নিহতের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। স্থানীয় এলাকাবাসীর ধারণা কুলছুমা বেগম বাড়ী থেকে বের হওয়ার পর হয়তোবা এলাকার খারাপ প্রকৃতির দুর্বৃত্ত চক্র তাকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করে হত্যা করতে পারে। প্রাথমিক লাশের সুরতহাল রিপোর্টে সে ধরনের আলামত পাওয়া গেছে।
 শোক সংবাদ

শোক সংবাদ


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: কানাইঘাট উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সহ-সভাপতি বাবুল চন্দ্র দাসের মা এবং ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদ কানাইঘাট উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি সাবেক ছাত্র নেতা বিধু লাল দাসের ঠাকুমা(দাদী) জোৎস্না রানী দাস গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় ইহলোক ত্যাগ করে পরলোক গমন করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৮০ বছর। তিনি ৩ পুত্র, পুত্র বধু এক মেয়ে ও নাতী নাতনী সহ অসংখ্য অাত্নীয় স্বজন গুনগ্রার্হী রেখে গেছেন। এদিকে বাবুল চন্দ্র দাসের মা এবং বিধু লাল দাসের ঠাকুমার পরলোক গমনে শোক প্রকাশ করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাবেক সভাপতি বাবু দূর্গা কুমার দাস, সহ সভাপতি মাষ্টার সলিল চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক রিংকু চক্রবর্তী, সহ সভাপতি বাবুল চন্দ্র দাস, হিন্দু-বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের পৌর শাখার সভাপতি শ্যামল চন্দ্র দাস, বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ কানাইঘাট উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক শ্রী ভজন লাল দাস, বাংলাদেশ ছাত্র-যুব-ঐক্য পরিষদ কানাইঘাট উপজেলা শাখার সভাপতি বিধান চৌধুরী, পৌর ছাত্র-যুব-ঐক্য পরিষদের সভাপতি বিপ্লব কান্তি দাস (অপু), সাধারণ সম্পাদক সুমন চন্দ্র দাস, উপজেলা ছাত্র-যুব-ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক জয় চক্রবর্তী মুন্না, অর্থ সম্পাদক অনুপ দাস, এলাকার বিশিষ্ট মুরব্বী নিখিল চক্রবর্তী, রাখাল চক্রবর্তী, মাধব চৌধুরী, মনি ভূষন চৌধুরী, জগেশ চন্দ্র দাস, মানিক দাস প্রমুখ।

Tuesday, January 23, 2018

কানাইঘাটে হত্যা মামলার আসামী সহ গ্রেফতার ২

কানাইঘাটে হত্যা মামলার আসামী সহ গ্রেফতার ২


নিজস্ব প্রতিবেদক: রুবেল হত্যা মামলার আসামী সহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মামলার তদন্তকারী অফিসার থানার এস.আই রাজীব মন্ডল একদল পুলিশ নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে রুবেল হত্যা মামলায় জড়িত থাকার দায়ে শামীম আহমদ (২৫)কে তার নিজ বাড়ী থেকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। সে উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপির সোনাতনপুঞ্জি গ্রাম বর্তমানে- বাউরভাগ ২য় খন্ড গ্রামের সিদ্দেক আলীর পুত্র। ধৃত আসামীকে মঙ্গলবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অপরদিকে, মোবাইল ট্র্যাকিং এর মাধ্যমে চোরাই মালামাল সহ বিয়ানীবাজার উপজেলা থেকে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। জানা যায় গত ১৩ জানুয়ারী গভীর রাতে কানাইঘাট উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ী ইউপির খাসেরমাটি গ্রামের নিজাম উদ্দিনের পুত্র জুবায়ের আহমদের বাড়িতে চোর কৌশলে তার বসত ঘরের জানালা দিয়ে ব্যবহৃত দামী একটি মোবাইল সেট ও ল্যাপটপ চুরি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনার পর জুবায়ের আহমদ বাদী হয়ে কানাইঘাট থানায় অজ্ঞাতনামা আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানার এসআই বশির আহমদ চুরির রহস্য উদ্ঘাটনের জন্য তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে চোরাই যাওয়া মোবাইলটির অবস্থান জানতে চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে তিনি নিশ্চিত হতে পারেন যে, মোবাইলটি বিয়ানীবাজার উপজেলার চারখাই ইউপির উত্তর ঘোলাঘাট গ্রামে রয়েছে। সোমবার রাত ১টায় তিনি একদল পুলিশ নিয়ে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশের সহায়তায় ঐ গ্রামের মৃত তমজিদ আলীর পুত্র এবাদুর রহমানকে গ্রেফতার করতে যান। সেখানে চোর এবাদুর রহমান দরজা না খুলে ঘরের ভিতর থেকে পুলিশকে নানা ধরনের হুমকি দিতে থাকে। তখন পুলিশ ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক কাওছার আহমদ চৌধুরী ও স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় রাত ৪টায় তাকে গ্রেফতার করে চোরাই যাওয়া মোবাইল সেট ও ল্যাপটপ উদ্ধার করে কানাইঘাট থানায় নিয়ে আসেন। এ ব্যাপারে কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল আহাদ জানান এবাদুর রহমান অভিনব কায়দার চোর। তাকে গ্রেফতার করতে পুলিশকে অনেক হয়রানীর শিকার হতে হয়েছে। এই ধরনের চোর এবং সকল অপরাধীদের গ্রেফতারে তিনি সমাজের সর্বস্থরের মানুষের সহযোগিতা কামনা করেছেন।
কানাইঘাটে ৩ দিনব্যাপী ইউপি প্রশাসন অবহিতকরণ কোর্স শুরু

কানাইঘাটে ৩ দিনব্যাপী ইউপি প্রশাসন অবহিতকরণ কোর্স শুরু


নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় স্থানীয় সরকার ইনস্টিটিউটের আয়োজনে এবং কানাইঘাট উপজেলা প্রশাসনের বাস্তবায়নে কানাইঘাট উপজেলার সকল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্যগণের জন্য তিন দিন ব্যাপী ইউনিয়ন পরিষদ প্রশাসন অবহিতকরণ কোর্স শুরু হয়েছে।  মঙ্গলবার সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রথম ধাপে উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের পুরুষ সদস্যদের অংশগ্রহণে তিন দিন ব্যাপী অবহিতকরণ কোর্সের শুভ উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা। উদ্বোধনী অবহিতকরণ কোর্সে নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা ইউপি সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, স্থানীয় সরকারের তৃণমূল পর্যায়ের উন্নয়ন মূলক সকল কর্মকান্ড ও সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হচ্ছে ইউনিয়ন পরিষদ। নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যগণ যাতে করে জবাবদিহিতার মাধ্যমে স্থানীয় সরকারের সকল উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে জনসাধারণকে সম্পৃক্ত এবং স্ব স্ব ওয়ার্ডের জনগণের মতামতের ভিত্তিতে সিন্ধান্ত গ্রহণ এবং সকল সামাজিক মূলক কর্মকান্ড বেগবান এবং অপরাধমূলক কর্মকান্ড প্রতিরোধ, ইউনিয়ন পরিষদের আয় বৃদ্ধি করার জন্য রাজস্ব খাতের উপর গুরুত্ব এবং সর্বোপরী পরিষদকে একটি জবাবদিহী মূলক প্রতিষ্ঠান হিসাবে গড়ে তুলতে ইউপি সদস্যদের আন্তরিকতার সহিত কাজ করতে হবে। সেই সাথে একজন চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যের কাজের পরিধি কি, সেই সকল বিষয় জানতে মূলত এ কোর্সের আয়োজন করা হয়েছে বলে তিনি তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন। দিনব্যাপী কোর্সে অংশগ্রহণকারী ইউপি সদস্যদের প্রশিক্ষণ দেন উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি লুসি কান্ত হাজং, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কাজী আনোয়ার হোসেন।
 চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে সিএইচসিপি এসোসিয়েশনের কর্মসূচী পালন

চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে সিএইচসিপি এসোসিয়েশনের কর্মসূচী পালন


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ সিএইচসিপি এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটি কর্তৃক ঘোষিত সিএইচসিপিদের চাকুরী জাতীয়করণের দাবিতে সারাদেশের ন্যায় সিলেট সিভিল সার্জনের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচী পালন করছেন। মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) সিভিল সার্জন অফিসে তাদের চাকুরী জাতীয়করণের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচী পালন করছেন। সিলেট জেলা সিএইচসিপি এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাহবুবুল ইসলামের সঞ্চালনায় ও সভাপতি মোঃ আকরামুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং জেলা সমন্বয়ক সৈয়দ হাবিবুল হকের সার্বিক সহযোগিতায় এই কর্মসূচী পালিত হচ্ছে। কর্মসূচীতে বক্তারা জানান- যতদিন পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে চাকুরী জাতীয়করণের কোন আশ্বাস না পাচ্ছেন ততদিন পর্যন্ত তাদের চলমান আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। তৃণমূল পর্যায়ে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণ এবং মহামান্য হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নে অচিরেই প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। উক্ত অবস্থান কর্মসূচীতে সিলেট জেলা এবং বিভাগের সাবেক ও বর্তমান সকল নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। কর্মসূচীতে একাত্বতা পোষণ করে বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা স্বাস্থ্য বিভাগীয় ৪র্থ শ্রেণি কল্যাণ সমিতির সভাপতি সেলিম মুন্সি, অফিস সহকারী কল্যাণ সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান এম. গৌছ আহমদ চৌধুরী, অফিস সহকারী কল্যাণ সমিতি সিলেট জেলার সভাপতি মো. আব্দুল আওয়াল, সাধারণ সম্পাদক রন্দেু কুমার দাস, স্বাস্থ্য বিভাগীয় স্টোর কিপার কল্যাণ সমিতির কেন্দ্রীয় পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আব্দুল আলী বাবলু প্রমুখ।

Sunday, January 21, 2018

কানাইঘাটে প্রবীণ শিক্ষক আলী আহমদকে বিদায় সংবর্ধনা

কানাইঘাটে প্রবীণ শিক্ষক আলী আহমদকে বিদায় সংবর্ধনা


নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রাথমিক শিক্ষা সিলেট বিভাগের উপ-পরিচালক তাহমিনা খাতুন বলেছেন,প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা হচ্ছেন জাতি গঠনের কারিগর। আর আদর্শ শিক্ষকরা হচ্ছেন সমাজের বাস্তব প্রতিচ্ছবি। একজন নিষ্ঠাবান শিক্ষকই পারেন একটি এলাকার সার্বিক শিক্ষার পরিবর্তন করতে। তাদেরই একজন হচ্ছেন কানাইঘাটের শিক্ষক সমাজের অহংকার নিষ্ঠাবান সদালিপি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের প্রাণের স্পন্দন প্রবীন শিক্ষক আলী আহমদ। তিনি তাঁর কর্মদক্ষতায় এলাকাবাসীর মন যেমন জয়লাভ করতে পেরেছেন, সেই সাথে অসংখ্য শিক্ষার্থীদের দেশ ও জাতির কর্ণধার হিসাবে গড়ে তোলার অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন তিনি। তাহমিনা খাতুন  রবিবার সকাল ১১টায় কানাইঘাট বিষ্ণুপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আলী আহমদের চাকরি জনীত বিদায় উপলক্ষ্যে স্কুল প্রাঙ্গণে আলী আহমদ সংবর্ধনা পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব আবু লেইছ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থী মাষ্টার আব্দুল করিমের পরিচালনায় উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রাথমিক শিক্ষা সিলেট বিভাগের সহকারী উপ-পরিচালক মোঃ কামরুল ইসলাম, সিলেট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সহকারী শিক্ষা অফিসার হাসিনা ইয়াসমিন, সংবর্ধিত অতিথি আলী আহমদ, আলী আহমদ সংবর্ধনা পরিষদের সভাপতি চিত্রশিল্পী ভানু লাল দাস, উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শাহীন মাহবুব, স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মামুনুর রশিদ চৌধুরী, উপজেলা প্রাথমিক সরকারি প্রধান শিক্ষক সমিতির সভাপতি আব্দুল লতিফ, পৌর আ’লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক খলিলুর রহমান, সহকারি প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি খাজা আজির উদ্দিন, কেন্দ্রীয় প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সদস্য আনোয়ার হোসেন। বক্তব্য রাখেন, ৯নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর হবিব আহমদ, বর্তমান কাউন্সিলর শাহাব উদ্দিন, সংবর্ধনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক স্কুলের প্রধান শিক্ষক শাহাব উদ্দিন, সহকারী শিক্ষক কবির আহমদ, আজির উদ্দিন, প্রাক্তন শিক্ষার্থী ইয়াহিয়া তানজীল, মানপত্র পাঠ করেন, স্কুলের সহকারি শিক্ষিকা আখিঁ রানী দাস। এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ এবং সূধীজন উপস্থিতিতে বিদাীয় শিক্ষক আলী আহমদের হাতে সম্মাননা স্বরূপ ক্রেস্ট ও বিভিন্ন উপহার সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়।
কানাইঘাট প্রেসক্লাবের ভবন নির্মাণে তহবিল গঠনে সূধী সমাবেশ ও এম.এ হান্নানকে সংবর্ধনা

কানাইঘাট প্রেসক্লাবের ভবন নির্মাণে তহবিল গঠনে সূধী সমাবেশ ও এম.এ হান্নানকে সংবর্ধনা


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট প্রেসক্লাবের প্রস্থাবিত নবনির্মিত ভবনের নির্মাণকাজ ও তার তহবিল গঠনের লক্ষ্যে কানাইঘাটের সর্বস্তরের জনসাধারণকে নিয়ে সূধী সমাবেশ আয়োজন করে প্রেসক্লাব। রবিবার বিকেল ৩টায় কানাইঘাট ডাক বাংলো মিলনায়তনে এ সূধী সমাবেশে প্রেসক্লাবের বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটি নেতৃবৃন্দ আমন্ত্রিত সূধীজনদের উদ্দেশ্যে প্রেসক্লাবের নবনির্মিত ভবনের পরিকল্পিত বাজেটের পরিমান ৩৬ লক্ষ টাকা সহ এ সংক্রান্তে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানে কানাইঘাট প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি দৈনিক সিলেট নির্বাহী সম্পাদক এম.এ হান্নান সিলেট প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি পদে নির্বাচিত হওয়ায় তাকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। ক্লাব সভাপতি রোটারিয়ান শাহজাহান সেলিম বুলবুলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিনের পরিচালনায় প্রেসক্লাবের তহবিল গঠন ও এম.এ হান্নানের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সূধীজন তাদের বক্তব্যে প্রেসক্লাবের একটি আধুনিক ভবন নির্মাণে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। সেই সাথে সূধীজন তাদের বক্তব্যে বলেন, সিলেটের সাংবাদিক অঙ্গনের একজন সিনিয়র পরিচিত মুখ ও সাংবাদিক সমাজের অভিভাবক হচ্ছেন এম.এ হান্নান। তিনি সব সময় একজন নির্বিক কলম সৈনিক ছিলেন, সিলেটের মাটি ও মানুষের কথা তিনি সব সময় সংবাদপত্রে তুলে ধরতেন। সিলেট প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি নির্বাচিত হয়ে তিনি কানাইঘাটবাসীর মুখ উজ্জ্বল করেছেন। ভবিষ্যতে এ জনপদের মানুষের পাশে থেকে নির্বিক একজন কলম সৈনিক হিসেবে কাজ করার পাশাপাশি কানাইঘাটের আর্থসামাজিক উন্নয়ন ও সাংবাদিকদের কল্যাণে তিনি কাজ করে যাবেন। বক্তারা আরো বলেন, এ জনপদের গর্ভের একটি প্রতিষ্ঠান হচ্ছে কানাইঘাট প্রেসক্লাব। এ প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে নিতে সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনে সবাই সহযোগিতার অঙ্গীকার করেন। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশিক উদ্দিন চৌধুরী, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মোহনা টেলিভিশনের ডাইরেক্টর আব্দুল মুমিন চৌধুরী, সংবর্ধিত অতিথি এম.এ হান্নান, উপজেলা আ’লীগের আহ্বায়ক সাবেক মেয়র লুৎফুর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক কানাইঘাট মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ শিক্ষাবিদ সিরাজুল ইসলাম, কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আহাদ, ইমজার সাবেক সভাপতি এনটিভির সিলেট ব্যুারো চিফ এডভোকেট মঈনুল হক বুলবুল, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম রানা, সিলেট জেলা পরিষদের ১৫নং ওয়ার্ড সদস্য আলমাছ উদ্দিন, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ফরিদ আহমদ, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মাষ্টার মহি উদ্দিন, লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউপি চেয়ারম্যান ডাঃ ফয়েজ আহমদ, দিঘীরপাড় পূর্ব ইউপি চেয়ারম্যান আলী হোসেন কাজল, দৈনিক এশিয়া এইজ সিলেটের ব্যুারো চিফ আব্দুল হালিম সাগর, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান সুহেল, দৈনিক ভোরেরপাতার সিলেটের ব্যুারো চিফ জয়নাল আবেদীন, নিউজ চেম্বার ডট কমের সম্পাদক তাওহীদুল ইসলাম, পৌর বিএনপির সভাপতি কাউন্সিলর শরিফুল হক, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকপার্টির সদস্য কিউএম ফররুখ আহমদ ফারুক, কানাইঘাট পৌরসভার সাবেক প্যানেল মেয়র হাজী আব্দুল মালিক মহাজন, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক এনামুল হক, সাবেক ছাত্রনেতা শাহাব উদ্দিন, মুলাগুল নয়াবাজার আদর্শ পাথর ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফখরুল ইসলাম, খেয়াঘাট পাথর ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মখলিছুর রহমান পাশা, কানাইঘাট পৌরসভার কাউন্সিলর যথাক্রমে ইসলাম উদ্দিন, তাজ উদ্দিন, আবিদুর রহমান, কানাইঘাট বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জাপা নেতা কামরুজ্জামান কাজল, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এখলাছুর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুন নুর, ক্রীড়া, সংস্কৃতি ও প্রকাশনা সম্পাদক মাহবুবুর রশিদ, সিনিয়র সদস্য বাবুল আহমদ, কাওছার আহমদ, সদস্য আমিনুল ইসলাম, শাহীন আহমদ, আলা উদ্দিন, সুজন চন্দ অনুপ, জসীম উদ্দিন, সহযোগী সদস্য মুমিন রশিদ, জুনায়েদুর রহমান প্রমুখ।
কানাইঘাট প্রেসক্লাবে সুধী সমাবেশ আজ

কানাইঘাট প্রেসক্লাবে সুধী সমাবেশ আজ


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি দৈনিক সিলেট বাণীর নির্বাহী সম্পাদক এম.এ হান্নান সিলেট প্রেসক্লাবের নির্বাচনে সহ-সভাপতি পদে নির্বাচিত হওয়ায় কানাইঘাট প্রেসক্লাবের উদ্যোগে আজ রবিবার বিকেল ২টায় কানাইঘাট ডাকবাংলোয় এম.এ.হান্নানের সম্মানে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ও সূধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যথা সময়ে সম্মানিত সকল সূধীজন এবং কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সকল সদস্য এবং কর্মরত সাংবাদিকদের যথাসময়ে উপস্থিত থাকার জন্য ক্লাবের সভাপতি রোটারিয়ান শাহজাহান সেলিম বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন অনুরোধ জানিয়েছেন।

Saturday, January 20, 2018

তেজপাতার তেলের উপকারীতা

তেজপাতার তেলের উপকারীতা

C9mklLHW0AATBeT_0.jpg


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
আগেরকার দিনে এমন কোন বাড়ি ছিল না যে সেই বাড়িতে তেজপাতা ছিল না। তেজপাতা রান্নার কাজে ব্যবহারিত জনপ্রিয় একটি মসলা জাতীয় দ্রব্য। এছাড়াও এটি দিয়ে শুধু রান্না নয় এর তেল মাথাব্যথাসহ বিভিন্ন ব্যথা কমাতে দারুণ কাজ করে। নানা রকম অসুস্থতা ছাড়াও বাড়ির পরিবেশ দূষণমুক্ত ও শান্ত রাখতেও ব্যবহার করা হতো তেজপাতা।

বাড়িতে বসেই তেজপাতা থেকে তেল বানিয়ে নিতে পারেন আপনিও। এর জন্য প্রয়োজন হবে ২৫০ মিলি অলিভ অয়েল ও ৩০ গ্রাম তেজপাতা নিন। তেজপাতা গুঁড়ো করে অলিভ অয়েলে ভিজিয়ে রাখুন।

এই মিশ্রণ কোন জারে ঢেলে কোনও অন্ধকার জায়গায় দুই সপ্তাহ রেখে দিন। এই সময়ে শুধু মাঝে মাঝে ঝাঁকিয়ে নেবেন। তারপর পাতলা কাপড়ে এই তেল ছেঁকে নিয়ে অন্য একটি পাত্রে ঢেলে ঠাণ্ডা স্থানে রেখে দিন।

যখনই প্রয়োজন হবে ব্যথার জায়গায় এই তেল লাগিয়ে নিন। তেজপাতার আরো কিছু গুণ- অ্যাসপিরিনের বদলে ব্যবহার করতে পারেন তেজপাতা। পেট ব্যথা কমিয়ে খিদে বাড়াতেও সাহায্য করে তেজপাতা। ত্বকের যে কোনো সমস্যাতেও উপকারী তেজপাতা তেল। মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়াতেও সাহায্য করে তেজপাতা।
চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে কানাইঘাটে সিএইচসিপিদের অবস্থান কর্মসূচি

চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে কানাইঘাটে সিএইচসিপিদের অবস্থান কর্মসূচি


নিজস্ব প্রতিবেদক: কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মরত কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার (সি.এইচ.সি.পি) দের চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে শনিবার দিনভর কানাইঘাট উপজেলা এসোসিয়েশনের উদ্যোগে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন কমিউনিটি ক্লিনিকের হেলথ কেয়ার প্রোভাইডাররা (সিএইচসিপি)। অবস্থান কর্মসূচি পালনকালে সিএইচসিপিরা গণতন্ত্রের মানসকন্যা কমিউনিটি ক্লিনিকের জননী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তাদের চাকরি জাতীয়করণের জন্য আকুল আবেদন জানান। এস.ডি.জি অর্জনের লক্ষ্যে সিএইচসিপিরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। চাকরি জাতীয়করণের জন্য মহামান্য হাইকোর্টে রিট আবেদন করলে আদালত তাদের চাকরি জাতীয়করণের জন্য রায় দেন। কিন্তু সেই রায় বাস্তবায়নে সরকারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোন পদক্ষেপ না নেওয়ায় তারা এ অবস্থান কর্মসূচি পালনে বাধ্য হয়েছেন। এ অবস্থান কর্মসূচির পরও যদি সরকারের পক্ষ থেকে চাকরি জাতীয়করণের কোন পদক্ষেপ না নেওয়া হয় তবে সিএইচপিরা পরবর্তী কর্মসূচির অংশ হিসেবে কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মবিরতি, সিভিল সার্জন অফিসে অবস্থান এবং ঢাকায় আমরণ অনশনে যাবেন বলে কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপিরা জানিয়েছেন।
কানাইঘাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

কানাইঘাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা


নিজস্ব প্রতিবেদক: ঐতিহ্যবাহী কানাইঘাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠান ২০১৮ শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। দিনব্যাপী উৎসব মুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন ইভেন্টে স্কুলের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে নৈপূণ্য দেখিয়ে সবাইকে মুগ্ধ করেন। স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সুষেন রঞ্জন তালুকদারের সভাপতিত্বে ও সহকারী শিক্ষিকা সাবিনা ইয়াসমিনের উপস্থাপনায় বিকেল ৩টায় প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন অতিথিবৃন্দ। মাঠে বসে অতিথি হিসাবে বার্ষিক ক্রীড়া উপভোগ করেন স্কুলের অভিভাবক কানাইঘাট বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম খোকন, পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বিলাল আহমদ, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, কাবের সদস্য আমিনুল ইসলাম, শাহীন আহমদ, আলা উদ্দিন, মুমিন রশিদ। বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন, স্কুলের ক্রীড়া শিক্ষক ব্রজ মোহন সিংহ, সহকারী সিনিয়র শিক্ষক হোসেইন আহমদ, আবুল কালাম, আব্দুশ শুক্কুর, সমর চন্দ্র মালাকার, নাসিমা বেগম, অফিস সহকারী তসলিমা বেগম প্রমুখ।
কানাইঘাটে ছয়দিন ব্যাপী জুয়েলারী শপিং মেলার উদ্বোধন

কানাইঘাটে ছয়দিন ব্যাপী জুয়েলারী শপিং মেলার উদ্বোধন


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট ইউনিক কমিউনিটি সেন্টারে ৬দিন ব্যাপী জুয়েলারী শপিং মেলা শুরু হয়েছে। জুয়েলারী সামগ্রী, কসমেটিক্স, হিজাব, স্টিপার, খেলনা, আমদানীকৃত ইমিটেশন জুয়েলারী, এন্টিক যাবতীয় গোল্ড প্লেটিং এ জুয়েলারী মেলায় ক্রেতাদের উপচেপড়া ভীড় লক্ষ্য করা গেছে। ৬দিন ব্যাপী এ মেলার আনুষ্ঠানিক ভাবে শনিবার সকাল ১০টায় শুভ উদ্বোধন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা। এছাড়া মেলায় আগত স্টল ঘোরে দেখেন কানাইঘাট প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ, থানার ওসি (তদন্ত) নুনু মিয়া। জুয়েলারী শপিং মেলার উদ্যোক্তা ঢাকার প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী জাকির হোসেন জানিয়েছেন, দেশী বিদেশী জুয়েলারী ও কসমেটিক্স সামগ্রী নিয়ে মেলা সাজানো হয়েছে। গত বছর তারা ইউনিক কমিউিনিটি সেন্টারে এ ধরনের মেলার আয়োজন করে ক্রেতাদের বিপুল সাড়া পেয়েছিলেন। দেশব্যাপী জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ ও স্বল্প মূল্যে জুয়েলারী ও কসমেটিক্স সামগ্রী যাতে গ্রামীণ জনপদের মানুষ স্বাচ্ছন্দে কিনতে পারেন এবং বিশেষ করে আমাদের মা-বোনেরা এবং স্কুলের শিক্ষার্থীরা তাদের পছন্দের জিনিস দেখে শোনে কিনতে পারেন এজন্য এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। মেলায় ক্রেতাদের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন বলে তিনি জানান।
প্রধানমন্ত্রীর জনসভা সফলের লক্ষ্যে কানাইঘাট পৌর আ.লীগের প্রস্তুতি সভা

প্রধানমন্ত্রীর জনসভা সফলের লক্ষ্যে কানাইঘাট পৌর আ.লীগের প্রস্তুতি সভা


নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী ৩০ জানুয়ারী আওয়ামীলীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিলেট আলিয়া মাদ্রাসার জনসভা সফল করার লক্ষ্যে কানাইঘাট পৌর আওয়ামীলীগের উদ্যোগে এক প্রস্তুতি সভা শনিবার সন্ধ্যে ৭টায় কানাইঘাট ডাক বাংলোয় অনুষ্ঠিত হয়। পৌর আওয়ামীলীগের আহবায়ক জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক কেএইচএম আব্দুল্লাহর পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক যথাক্রমে, খলিলুর রহমান, নাসির আহমদ, নাজমুল ইসলাম হারুন, সাহেদ আহমদ প্রমুখ। কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদের উপস্থিতিতে ৩০ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় পৌর আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে বিশাল মিছিল সহকারে যোগদানের লক্ষ্যে আগামী ২৬ জানুয়ারি শুক্রবার বিকেল ৪টায় পৌর আওয়ামীলীগের ৯টি ওয়ার্ডের সকল নেতাকর্মীদের নিয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের উপস্থিত থাকার জন্য পৌর আ’লীগ নেতৃবৃন্দ আহবান জানিয়েছেন।
সক্ষমতা বাড়াতে উৎপাদনের গুণগতমান নিশ্চিত করুন: রাষ্ট্রপতি

সক্ষমতা বাড়াতে উৎপাদনের গুণগতমান নিশ্চিত করুন: রাষ্ট্রপতি

1_1.jpg


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ জাতীয় উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে কৃষিবিদ, বিজ্ঞানী, কৃষক ও উদ্যোক্তাদের সমন্বিত প্রচেষ্টা চালানোর আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি আজ এখানে ফার্মগেটের খামারবাড়িতে কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন বাংলাদেশ (কেআইবি)-এ প্রাণিসম্পদ সপ্তাহ-২০১৮-এর উদ্বোধন কালে বলেন, ‘মৎস্য ও গবাদিপশু পালন কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও বিনিয়োগের জন্য একটি বড় ও সম্ভাবনাময় খাত। রপ্তানি প্রতিযোগিতার সক্ষমতা বাড়াতে উৎপাদনের গুণগতমান নিশ্চিত করুন।’
রাষ্ট্রপতি সকল স্তরে উৎপাদনের যথাযথ মান নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো, পরীক্ষাগার গড়ে তোলা, সক্ষমতা বৃদ্ধি ও আইনি কাঠামো কার্যকর করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।
পণ্যের চাহিদা ও যোগানের ভারসাম্যের কারণে ভোক্তারা এখন বাজারে যৌক্তিক দামে ডিম, দুধ, মাংস পাচ্ছে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি হামিদ বলেন, ‘শুধু ভোক্তাদের সুযোগ-সুবিধার কথা ভাববেন না; একই সাথে উৎপাদকদের অর্থনৈতিক নিরাপত্তাকে অগ্রাধিকার দিন।’
পণ্যের ন্যায্যমূল্য বজায় রাখার পাশাপাশি এই খাতের রপ্তানি আয়ের ব্যাপারেও নজর দেয়ার জন্য রাষ্ট্রপতি সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানান। কিছু দুর্নীতিবাজ ব্যবসায়ী যারা অতীতে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা নেয়ার সঙ্গে জড়িত ছিল তাদের কর্মকাণ্ডের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, তাদের কর্মকাণ্ড দেশের সম্ভাবনাকে মারাত্মকভাবে ব্যাহত করেছে এবং বিদেশেরও দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে।
বৈশ্বিক রপ্তানি বাজারকে খুবই প্রতিযোগিতামূলক উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের পণ্যকে অবশ্যই সেরা হতে হবে। এক্ষেত্রে কোন ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতি করা হলে তার বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও রাষ্ট্রপতি হামিদ সতর্ক করে দেন।’
খাদ্যে স্বনির্ভরতা অর্জনকারী বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য ২০৩০ এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে প্রাণিসম্পদ খাতে ডিজিটাল সেবা নিশ্চিত করার মাধ্যমে নিরাপদ ও মানসম্পন্ন খাদ্যপণ্য উৎপাদনে আরও উন্নত সেবা দেয়ার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব এম মাকসুদুল হাসান খান, প্রাণিসম্পদ সেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. আইনুল হকও অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।
সংসদ সদস্য, কূটনীতিক, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, পেশাজীবী, বিজ্ঞানী, বিশেষজ্ঞ, ঊর্ধ্বতন বেসামরিক-সামরিক কর্মকর্তা ও রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সচিবগণ উপস্থিত ছিলেন।
লাইভ কনসার্টে হঠাৎ মেজাজ হারালেন অরিজিৎ সিং (ভিডিও)

লাইভ কনসার্টে হঠাৎ মেজাজ হারালেন অরিজিৎ সিং (ভিডিও)

11_0.jpg


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
অরিজিৎ সিংয়ের গলার মেলোডিতে আচ্ছন্ন হয় সঙ্গীতপ্রেমীরা। তিনি স্টেজে উঠলে গানের জাদুতে একসূত্রে বাঁধা পড়েন অনেকেই। তবে এবার সেই সুরেই যেন ছন্দ পতন। মেজাজ হারালেন গায়ক। সম্প্রতি ইন্টারনেটে এমনই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে অরিজিৎ সিংয়ের।

কনসার্টে রণবীর কাপুরের 'রকস্টার' ফিল্ম থেকে 'নাদান পরিন্দে' গানটি সবে শুরু করেছিলেন অরিজিৎ। হঠাৎই মাইকে কিছু সমস্যা হওয়ায় অরিজিৎ সিংয়ের মেজাজ গেল বিগড়ে। চটে গিয়ে কিছু অশ্রাব্য ভাষা বেরিয়ে এল তার মুখ থেকে। চটজলদি টেকনিশিয়ানসরা এসে যখন মাইক ঠিক করছিলেন, তখন স্টেজের মধ্যেই গিটার নিয়ে ঘোরাফেরা করতে দেখা গেল ক্ষুব্ধ অরিজিৎকে।

তারপর অবশ্য সবকিছু ভুলে ফের গান শুরু করেন সাম্প্রতিককালের রকস্টার অরিজিৎ। সে গান শুনে যাথারীতি মুগ্ধ শ্রোতারা।  প্রসঙ্গত, 'নাদান পরিন্দে' গানটি সিনেমাতে গেয়েছেন মোহিত চৌহান।
তুরস্কে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৩

তুরস্কে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৩

8.jpg


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক :
তুরস্কের এসকিসেহির প্রদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন আরো অন্তত ৪২ জন।

আজ শনিবার সকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পর্যটকবাহী বাসটি রাজধানী আঙ্কারা থেকে উত্তরপশ্চিমাঞ্চলীয় বুরসা প্রদেশের দিকে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে রাস্তার পাশে থাকা গাছপালার সঙ্গে ধাক্কা লাগে বাসটির। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

আহতদের নিকটস্থ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।
কানাইঘাটের সড়কের বাজারে তাফসীর ও ঈসালে সাওয়াব মাহফিল অনুষ্ঠিত

কানাইঘাটের সড়কের বাজারে তাফসীর ও ঈসালে সাওয়াব মাহফিল অনুষ্ঠিত


বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় সভাপতি আল্লামা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী বলেছেন,দেশে ইসলাম প্রচারের ক্ষেত্রে আউলিয়াদের অবদান সবচেয়ে বেশি। কারণ তাঁরা সঠিক আক্বিদা লালন করে গেছেন। তাদের দেখানো পথে চললে সমাজে শান্তি শৃংখলা ও পরিবর্তন আনা সম্ভব। তিনি আরো বলেন,যারা রাসুল সাঃ কে বড় ভাইয়ের মত মনে করে তারাই জঙ্গীবাদ ও নানা কুকর্মে লিপ্ত থাকে। তারা নিজেকে মুমিন ছাড়া অন্য কাউকে মুমিন বিশ্বাস করতে পারেনা। তারা মাযহাব অস্বীকার করে তাদের নব আবিস্কৃত এ ইসলাম পরিত্যাগ করতে হবে। আল্লাম হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী গতকাল শুক্রবার(১৯ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় কানাইঘাট সড়কের বাজার উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বার্ষিক তাফসীরুল কোরআন ও শামছুল উলামা আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (র) এর ঈসালে সাওয়াব মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। মাহফিল বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি আজমল হোসেন এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আল আমীন সিদ্দিকীর পরিচালনায় অনুষ্টিত মাহফিলে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুফাসসীরে কোরআন হযরত মাওলানা জ.উ.ম আব্দুল মুনঈম মনজলালী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হযরত মাওলানা মুফতি শিহাব উদ্দিন আলীপুরী,হযরত মাওলানা মুশাহিদ আহমদ কামালী,হযরত মাওলানা ওয়ারিছ উদ্দিন তাপাদার,হাফিজ মাওলানা ফারুক আহমদ,মাওলানা জহিরুল আলম, সড়কের বাজার উচ্চ বিদ্যালয় এর সহকারী শিক মাওলানা আব্দুল আহাদ। তাফসীর মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন মাহফিল বাস্তবায়ন কমিটির সহ-সভাপতি কয়েছ আহমদ খান,সড়কের বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক ,মুসলিম উদ্দিন সুন্নাহ, উপজেলা তালামীযের সভাপতি মতিউর রহমান মতিন। নাতান শাহ ইবতেদায়ী মাদরাসার প্রধান শিক হুছাইন আহমদ। উপজেলা তালামীয নেতা জুনেদ আহমদ, সায়াদ আহমদ,তানভীর আহমদ,রেদওয়ান আহমদ প্রমূখ।(প্রেস বিজ্ঞপ্তি)

Friday, January 19, 2018

যুবলীগ নেতা ইকবাল ও বাবলুর বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে গাছবাড়ীতে মিছিল

যুবলীগ নেতা ইকবাল ও বাবলুর বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে গাছবাড়ীতে মিছিল

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক:
গাছবাড়ী যুবলীগের ত্যাগী,পরিশ্রমী ও ১/১১ এর নির্যাতিত নেতা ইকবাল আহমদ ও বাবলু আহমদের উপর মিথ্যা, বানােয়াট অভিযোগ এবং তাদের বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে শুক্রবার গাছবাড়ী বাজারে এক বিক্ষোভ মিছিল ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়।

গাছবাড়ী আঞ্চলিক শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি বর্তমান উপজেলা ছাত্রলীগের গ্রন্থ প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক মুনতাসিরের সভাপতিত্বে গাছবাড়ী আইডিয়্যাল কলেজের সিনিয়র ছাত্রলীগ নেতা আব্দুর রহমানের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শাহরিয়ার বখত সাজু,সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি হারুন রশিদ, কানাইঘাট উপজেলার শ্রমীক লীগের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক শেবুল আহমেদ,গাছবাড়ী আঞ্চলিক শাখা যুবলীগের সহ-সাধারণ সম্পাদক আশিক আহমেদ, উপজেলা ছাত্রলীগের শিক্ষা পাঠ্যবিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মৌলা, উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুলতান আহমেদ। 
সভায় উপস্থিত ছিলেন যুবলীগ নেতা জয়নুল, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক আসাদুজ্জমান রুবেল,এম সি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা শাহীন আহমেদ,গাছবাড়ী আইডিয়্যাল কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রুহেল আহমেদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক এম সি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা ইমরান নাজীর, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জুনেদ আহমেদ,পাঠাগার সম্পাদক শিব্বির আহমেদ,জেলা ছাত্রলীগ নেতা মাহফুজ,মহানগর ছাত্রলীগ নেতা শাকিল আহমেদ,এম সি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা অহিদুজ্জমান রুনেল, গাছবাড়ি আইডিয়্যাল কলেজ ছাত্রলীগ নেতা ইমরান আহমেদ সাজু, পাবেল আহমেদ সুমন,শফিউর,আব্দুর রহমান শেবুল,জাকির,মুকিত,ফাহীম, ফরহাদ,মুরসালিন,সিলেট স্কলারসহোম ছাত্রনেতা শাহীন,ছাত্রলীগ নেতা সাফওয়ান আল মাসুদ,মারুফ প্রমুখ



বিক্ষোভ মিছিল শেষে পথসভায় বক্তারা বলেন, সম্প্রতি কানাইঘাট ৭নং দক্ষিণ বানীগ্রাম ইউপি আ’লীগের এক বর্ধিত সভায় যুবলীগের ত্যাগী,পরিশ্রমী নেতা ইকবাল ও বাবলু সম্পর্কে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং বানোয়াট।  ইকবাল ও বাবলু আওয়ামীলীগে উড়ে এসে জুড়ে বসেননি। তারা আওয়ামী পরিবারের সন্তান।  অবিলম্বে ইকবাল ও বাবলুর বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার না করলে কঠোর আন্দোলনে যাবেন তারা।(বিজ্ঞপ্তি)
নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক