Thursday, January 25

কানাইঘাটে সরকারি রাস্তা বন্ধ করা নিয়ে সৃষ্ট বিরোধ নিষ্পত্তির উদ্যোগ নিলেন ইউএনও


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট রাজাগঞ্জ ইউপির নিজ রাজাগঞ্জ গ্রামের খাস খতিয়ান নং-১, জেএল নং- ৯১, দাগ নং- ১০৬১, শ্রেণি- সরকারি রাস্তার যাতায়াতের একাংশের উভয় পাশে পাকা খুটি মেরে বালুর বস্তা দিয়ে ভরাট করে রাস্তার দু’দিক বন্ধ করে দেয়ায় এলাকায় জনমনে উত্তেজনা বিরাজ করায় বিষয়টি শান্তিপূর্ণ ভাবে নিষ্পত্তির উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শ করে সরকারি রাস্তা বন্ধ করা নিয়ে সৃষ্ট বিরোধ কিভাবে নিরসন করা যায় এবং এলাকায় ধর্মীয় সম্প্রীতি বজায় রাখতে স্থানীয় রাজাগঞ্জ ইউপির চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ স্থানীয় রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ এবং মুসলিম ও হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনদের নিয়ে বৈঠক করেন। এর আগে গত বুধবার উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি লুসি কান্ত হাজং, থানার ওসি (তদন্ত) নুনু মিয়া সরেজমিনে রাস্তাটি পরিদর্শন করে উভয়পক্ষের সাথে কথা বলে সবাইকে শান্ত থাকতে বলেন। স্থানীয় গণ্যমান্য লোকদের সাথে বৈঠক কালে নির্বাহী কর্মকর্থা তানিয়া সুলতানা বলেন, এলাকার জনসাধারণের যাতায়াতের রাস্তার একাংশ বন্ধ করা নিয়ে এলাকায় কোন ধর্মীয় বিভেদ তৈরি হোক এটা আমরা চাইনা। আমি সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি, এব্যাপারে জেলা প্রশাসক মহোদয় স্যারের কাছে রিপোর্ট দিব। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ৩ দিনের মধ্যে এলাকার জন প্রতিনিধি সহ সবাইকে নিয়ে বিষয়টি শান্তিপূর্ণ ভাবে সমাধানের পথ বের করা হবে। সরেজমিনে জানা যায়, সম্প্রতি রাজাগঞ্জ ইউপির গাজীপুর গ্রামের দিগেন্দ্র চন্দ্র নাথের পুত্র দোল গোবিন্দ নাথ গংরা এলাকার প্রাচীনতম এলজিইডির রাস্তা তাদের বাড়ীর অংশের ৪০ শতক জায়গার যাতায়াতের উভয় পাশের পাকা পীলার ও বালুর বস্তা ফেলে বাঁশের খুটি দিয়ে গড় মেরে দিলে এলাকার কয়েকটি গ্রামের মানুষের যাতায়াত ও যানবাহন চলাচলের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে স্থানীয় লোকজনদের সাথে দোল গোবিন্দ নাথ গংদের পরিবারের সাথে বিরোধের সৃষ্টি হলে দোল গোবিন্দ নাথ বাদী হয়ে কানাইঘাট থানায় স্থানীয় নয়ামাটি সহ কয়েকটি গ্রামের মুসলিম সম্প্রদায়ের ৩২ জনের নাম উল্লেখ করে গত ১০ জানুয়ারি একটি মামলা দায়ের করেন। পাল্টা সরকারি রাস্তার উপর দোল গোবিন্দনাথ গংরা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে রাস্তা বন্ধ করে দেয়ায়, এলাকাবাসী বাদী হয়ে গত ২১ জানুয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে একটি অভিযোগ দাখিল করেন। পাল্টাপাল্টি মামলার অভিযোগ দাখিল নিয়ে দোল গোবিন্দনাথের পরিবারের সাথে এলাকার মানুষের বিরোধ তৈরি হলে যাতে করে এলাকায় কোন কু-চক্রী মহল ধর্মীয় বিভেদ তৈরি করতে না পারে এজন্য স্থানীয় প্রশাসন ও কানাইঘাট থানা পুলিশ বিষয়টি শান্তিপূর্ণ ভাবে নিষ্পত্তির জন্য এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সবাইকে শান্ত থাকার পরামর্শ দেন। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন রাস্তা বন্ধ করার ইস্যু নিয়ে দু’টি পক্ষের মধ্যে যে বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে তা নিরসনের জন্য আগামী ৩ দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসক মহোদয় স্যারের নির্দেশে সবাইকে নিয়ে শান্তিপূর্ণ ভাবে নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেয়া হবে। এ নিয়ে এলাকায় কোন মহল ধর্মীয় ইস্যু তৈরি করে আইন শৃঙ্খলার অবনতি না করতে পারে এজন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে আমি বৈঠক করেছি, সবাই আমাকে কথা দিয়েছেন প্রশাসন যে সিন্ধান্ত গ্রহণ করবে তারা সবাই সেটি মেনে নিবেন। রাজাগঞ্জ ইউপির চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম, সাবেক চেয়ারম্যান আ’লীগ নেতা সিরাজুল হক, ইউপি আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক সুহেল রানা জানিয়েছেন রাস্তার একাংশ বন্ধ করা নিয়ে এলাকায় কোন ধরনের ধর্মীয় ইস্যু তৈরি করতে কাউকে দেয়া হবে না। মুসলমান ও হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন শান্তিপূর্ণ ভাবে বসবাস করে আসছেন। দোল গোবিন্দ নাথ রাস্তার একাংশ বন্ধ করে দেয়ায় এ সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। অপরদিকে দোল গোবিন্দ নাথ ও এডভোকেট অরুণ চন্দ্র নাথ ও রাধিকা রঞ্জন নাথ জানিয়েছেন রাস্তাটির যে অংশ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে সে অংশটি দোল গোবিন্দ নাথের বসত বাড়ীর উপর দিয়ে গেছে। একটি মামলার রায় দোল গোবিন্দ নাথের পক্ষে রয়েছে, বিকল্প জনসাধারণ যাতায়াতের রাস্তা দেয়ার পরও এলাকার কিছু লোকজন অযথা দাঙ্গা হাঙ্গামার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন।

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক