Monday, July 15

কানাইঘাটে কমছে পানি, বাড়ছে দুর্ভোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
কানাইঘাটে সুরমা ও লোভা নদীর পানি কমতে শুরু করায় সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। 

তবে পানি কমার সাথে সাথে দুর্ভোগ বাড়ছে বানভাসি মানুষের। উপজেলার নিম্নাঞ্চলে এখনো পানি বাড়া অব্যাহত থাকায় হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছেন। 

সোমবার কানাইঘাটে সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ১১৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।


সরকারিভাবে বন্যা দূর্গতদের জন্য এ পর্যন্ত ১৪ মেট্রিক টন চাল বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া শতাধিক প্যাকেট শুকনো খাবার বন্যা দূর্গতদের মাঝে প্রশাসানের উদ্যোগে বিতরণ করা হয়েছে বলে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শীর্ষেন্দু পুরকায়স্থ কানাইঘাট নিউজকে জানান।

টানা ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে উপজেলার ৯ টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার বেশির ভাগ এলাকা বন্যার পানিতে প্লাবিত হলেও গত ২দিনে উচু অঞ্চল থেকে কিছুটা পানি কমলেও হাওর এলাকায় পানি বাড়া অব্যাহত রয়েছে। বন্যার পানির সাথে ব্যাপক কাদা মাটি থাকায় বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। 


এতে করে শত শত মানুষকে দূভোর্গ পোহাতে হচ্ছে। অনেক বাড়ী ঘর এখনো বন্যার পানিতে আক্রান্ত, অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও বন্ধ রয়েছে। ব্যাপক আউস ধানের মাঠ ও আমন ধানের বীজতলা তলিয়ে যাওয়া ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়েছে। 

ত্রাণ বিতরণে উপজেলা প্রশাসনের নেতৃবৃন্দ
উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে সাড়ে ৩ শত বিঘা আউস ধানের মাঠ অনেক বীজতলা তলিয়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেলেও স্থানীয় কৃষকরা জানিয়েছেন ৮ শত’র উপর বিঘা আউস ধান ও কয়েক’শ আমন ধানের বীজতলা বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। 


বিভিন্ন ইউনিয়নে বন্যা দূর্গতদের জন্য বরাদ্ধকৃত চাল বিতরণ করা হচ্ছে। 

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ আব্দুল মুমিন চৌধুরী জানান, কানাইঘাট বন্যা দূর্গত মানুষের মাঝে আরো ত্রাণ সামগ্রী প্রেরণ করার জন্য তিনি সরকারের সংশ্লিষ্ট অনেকের সাথে কথা বলেছেন, এবং কানাইঘাটের সার্বিক বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি পর্যালোচনা করে সরকারিভাবে উদ্যোগ গ্রহণের দাবী জানিয়েছেন।

কানাইঘাট নিউজ ডটকম/১৫জুলাই ২০১৯

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়