Wednesday, February 13

তুরস্কে নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসে গ্রেফতার ৬৪১

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক:
তুরস্কে পুলিশ নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে ৬৪১ জন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সম্প্রতি দেশটির রাজধানী আঙ্কারাসহ মোট ৭৬টি প্রদেশে অভিযান চালিয়ে এ ব্যক্তিদের গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয়েছে, তারা ২০১০ সালে অনুষ্ঠিত পুলিশ নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনার সঙ্গে জড়িত। এছাড়া ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগানকে ক্ষমতাচ্যুত করার লক্ষে পরিচালিত ব্যর্থ সামরিক ক্যু’তেও তারা জড়িত ছিল। খবর এনএইচকে’র।
এরদোগান প্রশাসনের দাবি, অভিযুক্তরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী ইসলামী প্রচারক ফেতুল্লাহ গুলেনের অনুসারী।
তুরস্কের বার্তা সংস্থা আনাদলু এজেন্সি জানিয়েছে, পুলিশ নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস ও ক্যু এর ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তুরস্ক প্রশাসন ১ হাজার ১১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করেছে। এদের মধ্যে মঙ্গলবার অভিযান চালিয়ে ৬৪১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
 
২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগানকে ক্ষমতাচ্যুত করার উদ্দেশ্যে তুরস্কে একটি সামরিক অভ্যুত্থানের চেষ্টা হয়। তখন সরকার পতন ঘটাতে না পারলেও সংঘর্ষে ২৫০ জন লোক প্রাণ হারান।
এ ব্যর্থ সামরিক অভ্যুত্থানের পরিকল্পনার সাথে যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়ায় বসবাসকারী তুর্কি ধর্মীয় নেতা ফেতুল্লাহ গুলেন জড়িত বলে প্রেসিডেন্ট এরদোগান অভিযোগ করে আসছেন। তবে এরদোয়ানবিরোধী হিসেবে পরিচিত গুলেন এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।
২০১০ সালে তুরস্ক পুলিশের ডেপুটি ইন্সপেক্টর পদে নিয়োগের জন্য একটি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু সেই সময় পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়ে যাওয়ায় পরীক্ষাটি বাতিল করতে হয়।

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক