Friday, April 20, 2018

কানাইঘাট থানা পুলিশের অভিযান ! জকিগঞ্জ থেকে ডাকাতির সরঞ্জাম উদ্ধার: মহিলা গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক:
 গ্রেপ্তারকৃত এক ডাকাতের স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দির সূত্র ধরে কানাইঘাট থানা পুলিশ জকিগঞ্জ উপজেলার বারহাল ইউ.পির বিলবাড়ী গ্রামের এনাম মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ১টি বিদেশী তৈরী পাইপগান ও গুলি, ৩টি দামী মোবাইল সেট ও বিপুল পরিমান ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জামসহ এক মহিলা কে গ্রেপ্তার করেছে। শুক্রবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে কানাইঘাট থানার ওসি আব্দুল আহাদ, ওসি (তদন্ত) নুনুমিয়া সহ পুলিশের একটি টিম স্থানীয় বারহাল ইউ.পির চেয়ারম্যান মস্তাক আহমদ চৌধুরীসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে সিলেট শহরে বসবাসরত বিলবাড়ী গ্রামের এনাম উদ্দিনের বাড়িতে অভিযান চালান। অভিযান কালে তার বসতঘর থেকে ১টি পাইপগান, ৫রাউন্ড কার্তুজ, ভারতীয় শিসা গুলি, ৩টি মোবাইল সেট ও ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত কয়েকটি লোহার গ্রিল ও তালা ভাঙ্গার শাবল, যন্ত্রপাতিসহ কিছু এমিটেশন উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় এনাম মিয়ার বসত বাড়িতে বসবাসরত ভাড়াঠিয়া বিয়ানীবাজার উপজেলার জলডুবা গ্রামের আন্তঃজেলা ডাকাত বক্করের স্ত্রী সীমা বেগম (২৭) কে গ্রেপ্তার করা হয়। থানার ওসি আব্দুল আহাদ "কানাইঘাট নিউজকে" জানান, গত বুধবার মধ্যরাতে কানাইঘাট সদর ইউপির আব্দুল জলিলের বাড়িতে ডাকাতির উদ্দেশ্যে দূর্বৃত্তরা হানা দেয় এবং দূর্বৃত্তদের গুলিতে জলিলের পুত্র ইফজাল আহমদ নিহতের পর থেকে এ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান শুরু করে। গত বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ জকিগঞ্জ উপজেলার পূর্ব খালপার গ্রামের মৃত মইন উদ্দিনের পুত্র কুখ্যাত ডাকাত সাবুল আহমদ (২৭) কে আত্মগোপনে থাকাবস্থায় তার শ্বশুড় বাড়ি কানাইঘাটের কেউটিহাওড় গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করে। পরে এ ডাকাতের স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দীর সূত্র ধরে সহযোগী ডাকাতদের আটক ও ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি উদ্ধার করার জন্য থানা পুলিশ জকিগঞ্জ থানার বিলবাড়ি গ্রামের এনাম মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে উল্লেখিত পাইপগান ও গুলিসহ ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জামাদি উদ্ধার ও ডাকাত দুলাল মিয়ার স্ত্রী সীমা বেগমকে গ্রেপ্তার করে। সীমা বেগম স্বামীর সকল অপরাধ মূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত এবং ডাকাতদের স্ত্রীরা স্বামীর কাজে সহযোগিতা করে থাকেন বলে পুুলিশ জানিয়েছে। অভিযান কালে স্থানীয় ইউ.পি চেয়ারম্যান মস্তাক আহমদ চৌধুরী, ইউ.পি সদস্য মখদম আলী, সোলেমান আহমদ, সুমন মিয়া ও মহিলা সদস্যা রিনা বালা মালাকারসহ এলাকাবাসীর সর্বাত্মক সহযোগিতায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন থানার ওসি আব্দুল আহাদ। অভিযানের নেতৃত্বে থানার এসআই আবু কাউছার, এএসআই খোরশেদ আলম, সামুছুল আরেফিন, পুলিশ কনস্টেবল মিজানুর রহমান ও বাকার উদ্দিন সাহসী ভূমিকা পালন করেন বলে ওসি আব্দুল আহাদ জানান।

কানাইঘাট নিউজ ডট.কম/ ২০ এপ্রিল

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক