Sunday, November 26

কানাইঘাটে ওকাপ'র উদ্যোগে অভিবাসন ও স্বাস্থ্য শীর্ষক আলোচনা সভা


নিজস্ব প্রতিবেদক: অভিবাসী কর্মী উন্নয়ন প্রোগ্রাম (ওকাপ) এর উদ্যোগে ও ইউনিসেফ এর আর্থিক সহযোগিতায় অভিবাসন ও স্বাস্থ্য শীর্ষক উপজেলা স্টেকহোল্ডারদের নিয়ে এক আলোচনা সভা রবিবার সকাল ১০টায় কানাইঘাট উপজেলা সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। অভিবাসী কর্মীদের অধিকার আদায় এবং স্থানীয় পর্যায়ে অবস্থিত সরকারী স্বাস্থ্য কেন্দ্র সমূহে অভিভাসন কর্মী তাদের স্ত্রী এবং পরিবারের সদস্যদের এইচআইভি/এইডস ও যৌন রোগ প্রতিরোধ পরীক্ষা ও চিকিৎসা বিষয়ে গণসচেতনা তৈরির লক্ষ্যে দেশের উপজেলা পর্যায়ে প্রবাসী অধ্যুসিত কানাইঘাটে ওকাপ দুই বছর মেয়াদী সচেতনতা মূলক এ প্রোগ্রাম হাতে নিয়েছে। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশিক উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও ওকাপের প্রোগ্রাম ডিরেক্টর শাকিরুল ইসলামের উপস্থাপনায় উক্ত অবহিত করণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এ.কে. মাহবুবুল হক বলেন, অভিবাসন কর্মীরা হচ্ছেন দেশের উন্নয়নের মূল চালিকাশক্তি। প্রবাসীদের পাঠানো কষ্টার্জিত রেমিটেন্সের মাধ্যমে দেশের রিজার্ভ সমৃদ্ধি হচ্ছে। নিরাপদ অভিবাসন, মানব পাচার রোধে নতুন আইন তৈরি করে কর্মস্থলে অভিবাসন কর্মীরা যেন নিরাপদে থাকেন দালালদের খপ্পরে পড়ে সর্বশান্ত না হন। সঠিকমতো বেতন ভাতা পান তাই প্রবাসীদের অধিকার আদায়ে রাষ্ট্রকে আরো সোচ্চার হতে হবে। তিনি আরো বলেন, প্রবাসী ভাই ও বোনরা যাতে করে কোন ধরনের যৌন রোগ, এইচআইভি/এইডস এ আক্রান্ত না হন এজন্য তাদেরকে আরো সচেতন হতে হবে। এইচআইভি আক্রান্তদের গোপনীয়তা রক্ষার মাধ্যমে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসা প্রদান করা হয়। এক্ষেত্রে ইউনিসেফ ও আশার আলো নামক সংগঠন মাঠ পর্যায়ে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি ওকাপ’র কার্যক্রমে ইউনিসেফ আর্থিক ভাবে সহযোগিতা করায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে এইচআইভি আক্রান্তদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ভয়ের কোন কারণ নেই, আপনারা চিকিৎসা নেন ভালোভাবে বেঁচে থাকবেন। অভিবাসন ও স্বাস্থ্য শীর্ষক আলোচনা সভায় বিশেষ করে অভিবাসন কি? কি ভাবে অভিবাসীরা প্রতারিত হয় এবং অভিবাসী ও তাদের পরিবার এইডস রোগে আক্রান্ত হয় তার গুরুত্ব তুলে ধরা হয়। সিলেটের মধ্যে সর্বপ্রথম কানাইঘাটে এইডস আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল। তখনকার সময়ে এইডস রোগ শুনলে মানুষ আতংকে থাকতো। কিন্তু সে সময় আর নয়। এ বিষয় অভিবাসী অর্থাৎ প্রবাসী ও তার পরিবার সচেতন হলেই সমাধান যথেষ্ট। সকল অভিবাসীকে সর্ব বিষয় সচেতন হওয়া এবং কর্মস্থলে কোন সমস্যায় পড়লে অভিবাসী হেল্প লাইনে সাহায্য নেওয়ার আহবান জানান। অভিবাসী কর্মী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতনা ও প্রবাসীদের অধিকার আদায়ে কানাইঘাটে ওকাপ’র কার্যক্রমে সব ধরণের সহযোগিতার আশ্বাস দেন সভায় উপস্থিত জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক, ডাক্তার ও প্রবাসী ভাইরা। অবহিত করণ সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিওমেক হাসপাতালের বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ দিলীপ কুমার ভৌমিক, ইউনিসেফ এর এইচআইভি বিশেষজ্ঞ ড. জিয়া উদ্দিন, ইউনিসেফ সিলেটের মাঠ কর্মকর্তা কাজী দিল আফরোজা ইসলাম, কানাইঘাট মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মরিয়ম বেগম, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ আবুল হারিছ, সদর ইউপির চেয়ারম্যান মামুন রশিদ, বাণীগ্রাম ইউপির চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ, লক্ষীপ্রসাদ পুর্ব ইউপির চেয়ারম্যান ফয়াজ আহমদ, দিঘীরপাড় ইউপির চেয়ারম্যান আলী হোসেন কাজল, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন। বক্তব্য রাখেন, ওকাপ’র নির্বাহী পরিচালক ওমর ফারুক চৌধুরী প্রজেক্ট অফিসার রবিউল ইসলাম, ট্রেইনার ফারহানা চৌধুরী, প্রজেক্ট ম্যানেজার শহিদুল ইসলাম, প্রবাস ফেরত এবাদুর রহমান মজাই, আলিম উদ্দিন প্রমুখ।

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক