Saturday, May 11

কানাইঘাটে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, হত্যা না আত্মহত্যা!

নিজস্ব প্রতিবেদক:
কানাইঘাটের নিজ গাছবাড়ি নয়াগ্রামে জেসমিন আক্তার (১৯) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন।

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে গলায় গামছা পেঁচিয়ে ঘরের তীরের সাথে আত্মহত্যা করেন।

তবে মেয়ের পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে স্বামী ইসলাম উদ্দিন নির্যাতন করে জেসমিন আক্তারকে হত্যা করেছে।

ঘটনার পর থেকে স্বামীসহ পরিবারের সকল সদস্য পলাতক রয়েছে।

নিহত জেসমিন আক্তারের মামা জানান, জেসমিনের স্বামী সিএনজি অটোরিকশা চালক ইসলাম উদ্দিনের ২য় স্ত্রী সে। ২ বছর আগে প্রেম করে বিয়ে করে তাকে। বিয়ের পর থেকে নানা অজুহাতে নির্যাতন করে জেসমিনকে। এছাড়া জেসমিনের কোন সন্তানাদি নেই। সম্প্রতি স্বামী ইসলাম উদ্দিন গাজা বিক্রিসহ নানা অপরাধ কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়ে। এতে জেসমিনের উপর আরো নির্যাতন বাড়িয়ে দেয়।

 মেয়ের পরিবারের দাবি স্বামীসহ পরিবারের লোকজন মিলে জেসমিনকে হত্যা করে আত্মহত্যার নাটক সাজিয়েছে। 

জেসমিনের বাবার বাড়ি নিজ দলইকান্দি আকুলি গ্রামে। সে তোতা মিয়ার মেয়ে। খবর পেয়ে কানাইঘাট থানার সেকেন্ড অফিসার স্বপন চন্দ্র সরকার লাশের সুরতাহাল রিপোর্ট তৈরী করে রাত ১টায় লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন।

স্বপন চন্দ্র সরকার , প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা মনে হলেও মেয়ের পরিবারের পক্ষ থেকে হত্যাকান্ড দাবি করা হচ্ছে। তবে ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর রহস্য জানা যাবে।

কানাইঘাট নিউজ ডটকম/১১মে ২০১৯ ইং

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক