Thursday, November 9

কানাইঘাটে পাথর উত্তোলন করতে গিয়ে ৪ বছরে ৯ জনের মৃত্যু


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: কানাইঘাটের লোভা কোয়ারীতে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন করতে গিয়ে গেল ৪ বছরে শিক্ষার্থী সহ প্রায় ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। পাথর কোয়ারীতে পাথর উত্তোলন করতে গিয়ে মাটি ধসে, মাটিতে চাপা পড়ে, পানিতে ডুবে মৃত্যুবরণ করেছেন তারা। বছরের পর বছর শ্রমিকরা এভাবে যেখানে সেখানে মারা গেলেও এর বিরুদ্ধে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কোন তৎপরতা নেই। গরীব, অসহায় শ্রমিকরা এভাবে মারা গেলেও ঘটনা নৈপথ্যে নায়করা আজও অধরা। জানা যায়, ২০১৪ সালের ১ এপ্রিল (মঙ্গলবার) লোভাছড়া পাথর কোয়ারী থেকে গর্ত তৈরী করে পাথর উত্তোলনের সময় পাথর বোঝাই মাটি চাপা পড়ে আব্দুল মতিন (১৮) নামে এক শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। সকাল ৮টার দিকে উপজেলার সাউদ গ্রামের শফিকুল হকের পুত্র আব্দুল মতিন গর্ত তৈরী করে পাথর উত্তোলন করার সময় উপর থেকে পাথরের চাকা পড়লে ঘটনাস্থলে তিনি মারা যান বলেন স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র জানায়। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছিলো। তারপর ২০১৬ সালে ২৫ অক্টোবর কানাইঘাট লোভাছড়া পাথর কোয়ারী থেকে ডুবন্ত অবস্থায় কামিল আহমদ নামক এক যুবকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। নিহত কামিল আহমদ উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউপির বাংলাটিলা গ্রামের কবির আহমদের পুত্র। এ বছরের ২৩ জানুয়ারি লোভাছড়া পাথর কোয়ারীতে মাটি ধসে সুহেল আহমদ (২৮) নামে এক শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। সে সুনামগঞ্জের বিশম্ভরপুর উপজেলার মাজেরটেক গ্রামের আবুল কাশেমের পুত্র। সর্বশেষ গতকাল মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) পাথর উত্তোলন করতে গিয়ে মাটি চাপা পড়ে পাঁচ কিশোরসহ ৬ জন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কানাইঘাট উপজেলার লোভা নদীর তীরবর্তী মোলাগুল বাংলাটিলায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলো- কানাইঘাট উপজেলার চান্দালা বাংলাটিলা গ্রামের ইউনূস মিয়ার ছেলে জাকির (১৬), আলমাছ মিয়ার ছেলে নাহিদ (১৩) ও শাকিল (১২), মোছাব্বির মিয়ার ছেলে মারুফ (১৩), জন মিয়ার ছেলে আবদুল কাদির (১৩) ও একই গ্রামের সুন্দর আলী (৩৫)। নিহতদের মধ্যে পাঁচ কিশোর স্থানীয় একটি মাদরাসার শিক্ষার্থী বলে জানিয়েছে পুলিশ। সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শামসুল আলম সরকার জানান, কানাইঘাটের ডাউকেরগুল নেছারুল কোরআন হাফিজিয়া মাদরাসায় ওয়াজ মাহফিল চলছিল। ওয়াজ উপলক্ষে বসা হাটে কেনাকাটা করার জন্য ওই কিশোররা বাংলাটিলায় নদীর তীর থেকে পাথর তুলতে যায়। এসময় নদীর তীরের টিলা ধ্বসে পড়ে তারা চাপা পড়ে। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, যেস্থানে দুর্ঘটনা ঘটেছে সেটি পাথর কোয়ারি নয়। নিহতরা চুরি করে নদীর তীরের টিলা কেটে পাথর উত্তোলন করতে গিয়েছিল। এসময় দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মৃত্যুবরণ করে তারা।
 সূত্র: শীর্ষ খবর ডটকম।

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক