Monday, June 24

যেভাবে ঘটল মৌলভীবাজারের ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা (ভিডিও)

সিলেট থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেস ট্রেন মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় বরমচাল রেলক্রসিং এলাকায় কালভার্ট ভেঙে লাইনচ্যুত হয়েছে। এ ঘটনায় একটি বগি খালে পড়ে যায় এবং অপর দুটি বগি ছিটকে রেললাইনের বাইরে সরে যায়। এখনও পর্যন্ত এ ঘটনায় ৬ জনের মৃত্যুর খবর জানা গেছে। এছাড়াও আহত হয়েছেন কয়েক শ মানুষ।
রোববার (২৩ জুন) দিবাগত রাত ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়।
প্রতিদিনের মতো রোববারও (২৩ জুন) রাতে সিলেট ছেড়ে যায় গন্তব্যের উদ্দেশে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একটি সেতু ভেঙে পড়ায় ৫দিন ধরে বন্ধ সড়ক পথ। তাই রেলপথই ছিল মানুষের ভরসা। ফলে এদিন ট্রেনে ছিল যাত্রীদের ভিড়। আসন সংকট দেখা দেওয়াতে অসংখ্য যাত্রী দাঁড়িয়ে যেতে হয়।
সিলেট ছাড়ার পর পরবর্তী স্টেশন মাইজগাঁও বিরতি নিয়ে পারম্ভিক স্টেশন কুলাউড়া জংশনে থামার কথা ছিল ট্রেনটি।
পথে লোকাল স্টেশন বরমচাল ছেড়ে চা বাগান থেকে নেমে আসা মনছড়া রেল সেতু অতিক্রম করতে গিয়েই ঘটে দুর্ঘটনা। দুর্ঘটনায় পেছনের গার্ডের ব্যবহৃত বগিটি ছড়ার পানিতে পড়ে যায়, ২ টি জমিনে উল্টে যায় ও ৩টি বগি লাইনচ্যুত হয়। অন্যগুলো রেল লাইনের উপরেই থেকে যায়।
এতে ঘটনাস্থলে নারীসহ ৩ জন যাত্রী মারা যান। পরবর্তীতে নিহতের সংখ্যা দাঁড়ায় ৬ জনে।
স্থানীয়রা তাৎক্ষণিক আহতদের অনেককে উদ্ধার করে নিযে যান বিভিন্ন হাসপাতালে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১০ টি ইউনিট ঘটনাস্থলে উদ্ধার কাজ শুরু করে। পাশাপাশি উদ্ধার কাজে ১০ টি অ্যাম্বুলেন্সে ব্যবহার করে আহতদের কুলাউড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ আশপাশের বিভিন্ন হাসপাতালে নেওয়া হয়।
এমন ভয়াবহ দুর্ঘটনা কিভাবে ঘটলো? সে বিষয়টি নিয়ে জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। তবে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, রেল ব্রিজটি অনেক পুরোনো। গাড়ি সেতু অতিক্রম করার সময় কোথাও স্লিপারে লুজ কানেকশন থাকার কারণে রেল সরে গিয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রেলওয়ে কুলাউড়ার উদ্ধারকারী দলের দুই সদস্য গণমাধ্যমকে এমন তথ্য নিশ্চিত করেন।
তারা বলেন, ট্রেনের পেছনের দিক থেকে ৬ নম্বর বগিটি লাইনচ্যুত হতেই সংযোগস্থলের হুকগুলো ভেঙে একটি বগি অন্যগুলোকে ধাক্কা দিলে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে। আর ট্রেনটির ভারে সেতুও বেঁকে গেছে। এ ঘটনার পর থেকে সিলেটের সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।
ভোর ৫টার দিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক উদ্ধারকারী দলের এক সদস্য জানান, রেলওয়ের শতাধিক কর্মী হতাহতদের উদ্ধারের পর ভোর ৫টা পর্যন্ত সামনের ৭টি বগি তারা উদ্ধার করেছেন। অন্য বগিগুলো উদ্ধারে সক্ষমতা তাদের নেই। তাই আখাউড়া থেকে উদ্ধারকারী ট্রেন আনা হবে।
ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হওয়ার বিষয়ে কুলাউড়া জিআরপি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল মালেক জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে স্লিপার সরে গিয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।
সকাল সাড়ে ৯টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছান রেল সচিব মোফাজ্জেল হোসাইন। তখন চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি করা হয়।
ভিডিও-- </

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক