Thursday, September 27

কানাইঘাটে বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা

নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট সুরমা নদীর রাজাগঞ্জ বালু মহাল থেকে কয়েকটি ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনের চেষ্টাকালে স্থানীয় লোকজনদের রোষানলে পড়েন বালু ব্যবসায়ী জাবের আশরাফ চৌধুরী। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে রাজাগঞ্জ বাজারের সুরমা নদীর ঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় নদীর তীরবর্তী বসবাসরত বিক্ষুব্ধ কিছু লোকজন বাজারে অবস্থিত কানাইঘাট ৯নং রাজাগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে কিছু দরজা জানালা ভাংচুর করে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। এ নিয়ে এলাকায় জনমনে উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সুরমা নদীর মারাত্মক ভাঙ্গন কবলিত রাজাগঞ্জ বালু মহাল ইজারা নেন সিলেটের আলোচিত বালু ব্যবসায়ী আফতাব উদ্দিন। কিন্তু বালু মহালের ইজারার সীমানার জায়গা মারাত্মক নদী ভাঙ্গন হওয়ায় স্থানীয় লোকজন সেখান থেকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনে বাঁধা দিয়ে আসছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালের দিকে ইজারাদার আফতাব উদ্দিনের সাথের বালু ব্যবসায়ী স্থানীয় তালবাড়ী গ্রামের জাবের আশরাফ চৌধুরী কয়েকটি ড্রেজার নিয়ে সুরমা নদীর রাজাগঞ্জ বাজারের পাশ থেকে বালু উত্তোলন করতে গেলে স্থানীয় কয়েক’শ লোকজন একত্রিত হয়ে বালু উত্তোলনে বাঁধা প্রদান করেন। এ সময় স্থানীয় লোকজন জাবের আশরাফ চৌধুরীকে ধাওয়া দিলে সেখান থেকে বালু উত্তোলন করা সম্ভব হয়নি। বালু উত্তোলনের সাথে রাজাগঞ্জ ইউপির চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলামের সম্পৃক্ততা রয়েছে দাবী করে এসময় কিছু বিক্ষুব্দ লোকজন ইউনিয়ন অফিস লক্ষ করে ব্যাপক ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে কিছু দরজা-জানালা ভাংচুর করে। নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বালু উত্তোলন নিয়ে যে ঘটনা ঘটেছে এ ব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না বলে জানান। থানার ওসি আব্দুল আহাদ জানিয়েছেন, তিনি ঘটনাটি শুনার পর সেখানে পুলিশ পাঠালে ও তারা গিয়ে কিছুই পায়নি। থানায় কেহ অভিযোগ ও দেয়নি। রাজাগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলামের সাথে বার বার ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। ইউপি সদস্য অলিউর রহমান ইউনিয়ন অফিসে ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা স্বীকার করে বলেন বালু উত্তোলন নিয়ে ইউনিয়ন অফিসে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করা হয়েছে। বালু ব্যবসায়ী জাবের আশরাফ চৌধুরীর মোবাইল ফোনে ঘটনার পর থেকে যোগাযোগ করার পর তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। স্থানীয় নদীর তীরবর্তী লোকজন জানিয়েছেন, তাদের বাড়ী-ঘর ফসলী জমিজমা প্রতিদিন নদী গর্ভে বিলিন হচ্ছে। রাজাগঞ্জ বাজারের আশপাশ এলাকার সুরমা নদীর ভাঙ্গন কবলিত এলাকা থেকে কাউকে তারা বালু উত্তোলন করতে দিবে না। জীবন দিয়ে হলেও তাদের বাড়ী ঘর রক্ষা করবেন। থানায় বালু ব্যবসায়ী আফতাব উদ্দিন ও জাবের আশরাফ গংরা মিথ্যা মামলা দিয়ে প্রতিবাদকারী লোকজনদের হয়রানী করছেন বলে সাবেক ইউপি সদস্য আফাজ উদ্দিন জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক