Wednesday, May 22

কানাইঘাটে আতঙ্কের আরেক নাম ‘ফুড়ির বাড়ি ইফতারি’

মাহবুবুর রশিদ::
পঞ্চাশোর্ধ মনির উদ্দিন(ছন্দনাম) পেশায় একজন কৃষক। অভাব-অনটনের সংসার। রমজানের মাসখানেক আগে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে ঋণ নিয়ে প্রথম মেয়ে বিয়ে দিয়েছেন তিনি। এখনও সেই ঋণের টাকা পরিশোধ করতে পারেননি। এর মধ্যেই চলে এসেছে পবিত্র রমজান মাস। 

মনিরের স্ত্রীর আবদার মেয়ের বাড়িতে ‘পয়লা ইফতারি’ঘটা করে পাঠাতে হবে। তা না হলে শশুর বাড়িতে মেয়ের মুখ উজ্জ্বল হবেনা । মেয়েও বাবাকে ইফতার পাঠানোর জন্য বার বার ফোন করে চাপ দিচ্ছে। এমনিতইে মেয়ে বিয়ে দিয়ে মনির উদ্দিনের হাতে নেই কোন টাকা-পয়সা। তার উপর মেয়ের বাড়িতে পাঠাতে হবে অনেক টাকার ইফতারি । এ যেন “মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা”। তবু অনেক কষ্ট করে
এভাবেই গাড়ি বোঝাই করে মেয়ের বাড়িতে পাঠানো হয় ইফতারি। ছবি: ইন্টারনেট
আত্নীয়-স্বজনের কাছ থেকে টাকা-পয়সা ধার করে মেয়ের বাড়িতে ইফতারি দেওয়ার প্রথা রক্ষা করেছেন মনির উদ্দিন।


মনির উদ্দিনের মতো মেয়ের বাড়িতে ইফতারি পাঠানোর প্রথা রক্ষা করতে গিয়ে কানাইঘাটের মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোকে নানাভাবে হিমশিম খেতে হয়। 

কানাইঘাটের অনেক পরিবারের কাছে মেয়ের বাড়িতে(ফুড়ির বাড়ি) ইফতারি দেওয়ার প্রথা ঐতিহ্য মনে হলেও মধ্যবিত্ত পরিবারের কাছে এ যেন এক আতঙ্কের নাম।

রমজানের ১০ম দিন কানাইঘাট বাজারে ইফতারি কিনতে এসেছিলেন মড়া মিয়া। বড় মেয়ের বাড়িতে ইফতারি পাঠাবেন তিনি। বাজারের তালিকা অনুযায়ী ইফতার সামগ্রী কিনতে গিয়ে শেষ হয়ে যায় তার পকেটের টাকা। অনেকটা রাগত স্বরে তিনি বলেন “কোন পাগলে বার করছে ফুড়ির(মেয়ের) ইফতারি দেওয়া? ইসলামও (ইসলাম ধর্মে) আছেনি রমজান মাসে ইফতারি পাঠানির কথা।

ইফতারি প্রথা নিয়ে চতুল বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নির্বাচনকালীন সদস্য সমাজসেবী কিউএম ফররুখ অাহমদ ফারুক আহমদ জানান, ইফতারি যদিও প্রাচীন একটি প্রথা হয়ে দাড়িয়েছে। তবে আমাদের এই প্রথা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। কারণ একটা মধ্যবিত্ত পরিবারের কাছে ইফতারি প্রথা যেন গলারকাটা। 

প্রতি বছর রমজান মাসে কানাইঘাটে শুরু হয়ে যায় মেয়ের বাড়িতে ইফতারি পাঠানোর ধুম। বিত্তবানদের কাছে মেয়ের বাড়িতে ইফতার পাঠানো অনেকটা আনন্দের মনে হলেও চরম বিপাকে পড়তে হয় মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোকে। ফলে কানাইঘাটের দরিদ্র পরিবারগুলোর কাছে ইফতারি পাঠানোর প্রথা এখন আতঙ্কের আরেক নাম। 

 কানাইঘাট নিউজ ডটকম/এম আর/ ২১মে ২০১৯ ইং

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়