Monday, April 8

কানাইঘাটে নিরীহ মহিলার জমি দখলের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
কানাইঘাট ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের আগফৌদ নারাইনপুর গ্রামের এক নিরীহ মহিলার ৩ শতক চারা শ্রেণির খরিদা জমি একই গ্রামের মৃত আব্দুল লতিফের পুত্র প্রভাবশালী ইসমাইল আলী (৫০) কর্তৃক জোর পূর্বক ভাবে জবর দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নিজের খরিদা জমি জবর দখল মুক্ত করতে আগফৌদ নারাইনপুর গ্রামের মৃত আলা উদ্দিনের মেয়ে নিরীহ পারভীন বেগম (৪০) গত ০৬/০৩/১৯ইং তারিখে বাদী হয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানার বরাবরে জমির জবর দখলকারী ইসমাইল আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। 

অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা সরজমিন তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা লুসিকান্ত হাজংকে নির্দেশ প্রদান করেন। ভূমি কর্মকর্তা তদন্ত পূর্বক ইসমাইল আলী কর্তৃক জোর পূর্বক ভাবে দখলকৃত ৩ শতক জমি দলিল সূত্রে মালিক পারভীন বেগম বলে নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবরে ২০/০৩/১৯ইং তারিখ প্রতিবেদন পেশ করেন।

নির্বাহী কর্মকর্তা প্রতিবেদন পেয়ে সমস্ত তথ্য ও প্রমাণাদি সাপেক্ষে স্থায়ী ভাবে বিধি মোতাবেক বিষয়টি সমাধান করার জন্য ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্বাস উদ্দিন কে (১এপ্রিল)এক আদেশের মাধ্যমে পত্র প্রেরণ করেন। 

ভূমির মালিক পারভীন বেগম জানিয়েছেন, তিনি একজন নিরীহ মহিলা, জনবল না থাকায় তার খরিদা ও দীর্ঘদিনের দখলীয় নারিকেল, আম গাছ, লেবু গাছ, কমলা গাছ লাগানো ৩ শতক জমি গায়ের জোরে এলাকার অত্যন্ত দাঙ্গাবাজ, প্রভাবশালী ইসমাইল আলী কয়েক মাস থেকে দখল করে রেখেছে। কখনো সে বলছে উক্ত জমি না কি গাছবাড়ী কামিল মাদ্রাসার আবার কখনো বলছে তার। স্থানীয় বিচারে সে কোন ধরনের কাগজপত্র দেখাতে পারেনি।

এ ব্যাপারে ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নে চেয়ারম্যান আব্বাস উদ্দিনের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, পারভীন বেগমের ভূমি সংক্রান্ত বিষয়টি সমাধানের জন্য নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা আমাকে আদেশ দিয়েছেন। বিষয়টি শীঘ্রই তদন্ত পূর্বক বিধি মোতাবেক জমির কাগজপত্র পর্যালোচনা করে তিনি উভয় পক্ষ কে নিয়ে সমাধান করে দেবেন বলে জানান।

কানাইঘাট নিউজ ডটকম/০৮ এপ্রিল ২০১৯ ইং

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক