Sunday, November 5

সিলেটের শিহরণ জাগানিয়া জয়

সিলেটের শিহরণ জাগানিয়া জয়
কানাইঘাট নিউজ  ডেস্ক: ১৯তম ওভারে খেলা জমিয়ে দিলেন কুমিল্লার পেসার আল-আমিন হোসেন।

ওই ওভারের শেষ বলে রস হুইটলি আউট হলে সিলেট শিবিরে নামে ঘোরতর অন্ধকার।

সিলেট জিততে শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ১০ রান। বল হাতে ডোয়াইন ব্রাভো আর ব্যাটিংয়ে শুভাগত হোম। প্রথম বলেই শুভাগতের স্টাম্প উপড়ান ব্রাভো। খেলার মোড় ঘুরে যায় কুমিল্লার দিকে। ব্রাভোর দ্বিতীয় বলে এক কদম এগিয়ে লং অনের ওপর দিয়ে দুর্দান্ত ছয় হাঁকান নুরুল হাসান সোহান। মুহূর্তেই স্তব্ধ গ্যালারিতে প্রাণের সঞ্চার। উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের হাজারো দর্শক।

পরের দুই বলে সিলেটের স্কোরবোর্ডে এক রান করে জাম পড়ে। পঞ্চম বলের সামনে আবারও সোহান। দারুণ প্রচেষ্টায় সীমানা ছাড়া করেন সোহান। শর্ট থার্ডম্যান অঞ্চল দিয়ে বল গড়িয়ে গড়িয়ে চলে যায় সীমানার ওপারে। ততক্ষণে শুরু হয়ে গেছে জয়োল্লাস।

জয়ের এমন নাটকীয় চিত্রনাট্যের বিপরীত প্রান্তটা খুব বেশি রসালো নয়। আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৪৫ রান সংগ্রহ করে তামিমবিহীন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস।

কুমিল্লার পক্ষে সর্বোচ্চ ৬০ রান করেছেন মারলন স্যামুয়েলস। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৬ রান এসেছে অলক কাপালির ব্যাট থেকে। এ ছাড়া লিটন দাসের ২১ রান আর ব্রাভোর ৯ বলে ১১ কুমিল্লার সংগ্রহে অবদান রাখে। সিলেটের হয়ে ক্রিসমার সান্টোকি এবং তাইজুল ইসলাম ২টি করে উইকেট শিকার করেছেন। খালি হাতে ফেরেননি লিয়াম প্লাঙ্কেট ও নাসির হোসেন।

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক