Tuesday, July 16

হেফাজতে মিন্নি, যা বললেন পুলিশ সুপার (ভিডিও)

বহুল আলোচিত বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বরগুনা পুলিশ লাইনে নেয়া হয়েছে। মিন্নির বাবাও সঙ্গে রয়েছেন। বর্তমানে মিন্নি ও তার বাবা পুলিশি হেফাজতে রয়েছে।
মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকাল সোয়া ১০টার দিকে বরগুনা পৌরসভার মাইট এলাকার নিজ বাসা থেকে তাকে পুলিশ লাইনে নেয়া হয়।
বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, আপনাদের অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, গত ২৬ জুন চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলারয় পুলিশ বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে এক পর্যন্ত এজাহারনামীর ৭ জন যার মধ্যে ৬জন জীবিত ও তদন্ত প্রাপ্ত ৭ জনসহ মোট ১৪ জন আসামিকে গ্রেফতার করেছে।
মামলার মূল রহস্য উদঞঘাটনের ও সুষ্ঠ তদন্তের জন্য এ মামলার ১নং সাক্ষী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি (২০) কে আজ মঙ্গলবার সকালে জবানবন্দির জন্য পরিবারের সদস্যসহ ডেকে আনা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।
স্ত্রীর সামনে স্বামীকে খুন। আর তাও দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখল শ খানেক লোক। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসল না। এ নিয়ে উত্তাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। রিফাত শরীফের (২২) মৃত্যুর ঘটনায় দেশজুড়ে চলছে শোকের মাতম।
অন্যদিকে রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন হয়েছে। গত রবিবার (১৪ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ‘বরগুনার সর্বস্তরের জনগণ’ ব্যানারে বরগুনা প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে এ মানববন্ধন করা হয়।
মানববন্ধনে বক্তারা মিন্নিকে রিফাত হত্যার নেপথ্যের নায়িকা উল্লেখ করে তাকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।
মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন নিহত রিফাত শরীফের বাবা দুলাল শরীফ, চাচা আবদুল আজীজ শরীফ, জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুনাম দেবনাথ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মারুফ মৃধা প্রমুখ। সূত্র:বিডি লাইভ


শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়