Friday, July 6

বন্যা দুর্গতদের পাশে কানাইঘাট এসোসিয়েশন ইউকে

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: কানাইঘাট এসোসিয়েশন ইউকে কানাইঘাটের বন্যা দুর্গত এলাকার মানুষের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গত রবিবার(১জুলাই) লন্ডনের অভিজাত এলাকায় সংগঠনের অন্যতম এডভাইজার ব্যারিস্টার কতুব উদ্দিন শিকদারের বাড়ি শিকদার প্যালেসে এডভাইজারী কাউন্সিল ও এক্সিকিউটিভ কমিটির সভায় কয়েকটি যুগান্তকারী সিদ্বান্ত গ্রহণ করা হয়। সংগঠনের সভাপতি নাজিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আজমল আলীর পরিচালনায় মহাগ্রন্থ আল কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন
হাফিজ মাহফুজুর রাহমান। কানাইঘাটের কৃতি পুরুষ, সাবেক সভাপতি ও এডভাইজার ব্যারিস্টার  শিকদার এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জালালাবাদ এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, শিক্ষাবিদ, কানাইঘাট এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি ও এডভাইজার সিরাজুল ইসলাম এসোসিয়েশন প্রতিষ্ঠার সংক্ষিপ্ত ইতিহাস অত্যন্ত সুন্দর ও সাবলীলভাবে তুলে ধরেন। শিকদার বলেন, কানাইঘাটবাসী গর্ব করার মত অনেক গুণীজন রয়েছেন বা ছিলেন যারা এ সংগঠন সৃষ্টি করেছিলেন এবং বর্হিবিশ্বে বাংলাদেশকে দক্ষতার সাথে প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক,  কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের প্রথম চেয়ারম্যান , কানাইঘাট এসোসিয়েশনের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা মরহুম এম.এ রকিবের কর্মময় জীবনের স্মৃতিচারণ করে বলেন, মরহুম এম.এ
রকিব ছিলেন একজন সৎ, নিরহংকারী সমাজ সেবক ও শিল্পপতি। তার যোগ্যতা ও কর্ম দক্ষতা দিয়ে বর্হিবিশ্বে বাংলাদেশ তথা কানাইঘাটের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। শিকদার কানাইঘাট এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মরহুম  শামসুল হক সাহেবের কথা স্মরণ করে বলেন, তিনি একজন দক্ষ সংগঠক হিসাবে ১৯৮৫ সাল প্রতিষ্ঠাকাল থেকে এ সংগঠনের দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে সকলের সহযোগীতায় এ সংগঠনের সেবা কানাইঘাটবাসীর দোরগোড়ায় পৌছে দিতে সক্ষম হয়েছিলেন। বিশিষ্ট সমাজসেবক শাকুর সিদ্দিকীকে সভায় উপস্থিত হওয়ার জন্য তাকে ধন্যবাদ জানান। সিরাজুল ইসলাম তার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র জীবনের স্মৃতিচারণ করে বলেন, প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে এসে যদি কানাইঘাটের ছেলে নেতৃত্ব দিতে পারে, ছাত্র সমাজকে একতাবদ্ধ করতে পারে, তাহলে যুক্তরাজ্যে কানাইঘাটবাসীরা কানাইঘাটের উন্নয়নকল্পে কেন একতাবদ্ধ হতে পারবে না। তিনি বলেন “ইউনিটি ইজ ষ্ট্রেন্থ” আমাদের ভিত্তি মজবুত করে সঠিক লক্ষ্য নিয়ে এগোতে হবে। তিনি বিগত এডুকেশন এনহেন্সমেন্ট প্রজেক্টের ভুঁয়সী প্রশংসা করেন।সাবেক সভাপতি মখলিছুর রাহমান (সিনিয়র) ও জনাব ইজ্জত উল্লাহ সকল ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে একতাবদ্ধভাবে কাজ করার উপর গুরুত্বারোপ করেন। সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক চৌধুরী কানাইঘাটে বন্যা কবলিত হয়ে অনেকে সর্বস্ব হারিয়েছেন। এ বিষয়টি সকলের দৃষ্টি আকর্ষন করলে উপস্থিত সকলে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেন এবং সর্বস্ব হারিয়ে যাওয়া কয়েকটি পরিবারের জন্য ঘর নির্মাণের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। এছাড়া আবুল ফাতেহ ঝিংগাবাড়ী ইউনিয়নের অবহেলিত অঞ্চল কটালপুর গ্রামে মসজিদ নির্মাণের জন্য সহযোগীতার প্রস্তাব করলে সর্বসম্মতি ক্রমে সহযোগীতার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। বিশিষ্ট সমাজসেবী, দানবীর শাকুর সিদ্দীকীর উপস্থিতি ভিন্ন মাত্রা যোগ করে। সাবেক সভাপতি রফিক আহমদ বলেন, কানাইঘাট এসোসিয়েশনে শাকুর সিদ্দীকী ও তার পরিবারের অবদান অবিশ্বরনীয়। প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ে শাকুর সিদ্দীকী ছিলেন কর্মচঞ্চল এক যুবক যিনি মুরব্বিয়ানের দিকনির্দেশনায় সকল প্রকল্প বাস্তবায়নে আমাদের সাথে ছিলেন সরব। এমনকি তার মাতা আমাদেরকে অনেক সহযোগীতা করেছেন। শাকুর সিদ্দিকী অতীতের মত কানাইঘাট এসোসিয়েশনে তার সহযোগীতা অব্যাহত থাকবে বলে সকলকে আশ্বস্ত করেন। সহ সভাপতি  খসরুজ্জামান খসরু (ভি পি) বিগত ই ই পি প্রজেক্ট সম্পর্কে অবহিত করেন। সহ সভাপতি আবুল ফাতেহ শাকুর সিদ্দিকী কে স্পেশাল অবজারভার হিসেব এ কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাব করলে সর্ব সম্মতিক্রমে গৃহিত হয়।ন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহ সভাপতি সাদেকুল আমীন, ট্রেজারার জাকারিয়া সিদ্দিীক, ইসি মেম্বার প্রফেসর আব্দুল মালিক, আবুল মনসুর চৌধুরী, সুয়েবুর রাহমান, সহ সেক্রেটারী মখলিছুর রাহমান (জুনিয়র), সাংগঠনিক সম্পাদক আহমেদ ইকবাল চৌধুরী, সহ ট্রেজারার হারুন রশীদ, প্রচার সম্পাদক ইমাদ উদ্দীন রানা, হাসন রাজা, প্রমুখ। শিকদারকে তার আতিথেয়তার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে মোনাজাতের মাধ্যমে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

কানাইঘাট নিউজ ডটকম/প্রেবি/০৫ জুলাই ২০১৮ ইং

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক