Saturday, June 30

কানাইঘাটে মতবিনিময় সভায় সেলিম এমপি ও সিলেটের জেলা ও দায়রা জজ গোলাম মর্তুজা

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিলেট জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির উদ্দ্যোগে কানাইঘাটে অসহায় ও দরিদ্রদের জন্য সরকারি খরচে আইনগত সহায়তা কার্যক্রম তৃণমূল পর্যায়ে পৌছানোর লক্ষ্যে জন সচেতনতা মূলক এক অবহিত করণ সভা শনিবার সকাল ১১টায় পৌরসভাস্থ ইউনিক কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়। জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান এবং সিলেটের সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ ড. মোঃ গোলাম মর্তুজা মজুমদারের সভাপতিত্বে অবহিত করন সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় হুইপ সিলেট ৫ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সেলিম উদ্দিন বলেন, দেশের প্রতিটি নাগরিকের সমান অধিকার রয়েছে। আইনে ধনী-গরীবের মধ্যে কোন ধরনের ভেদাবেদ নাই। যারা হতদরিদ্র অসহায় সরকার তাদেরকে বিনা খরচে সম্পূর্ণ আইনগত সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। তিনি কানাইঘাটে লিগ্যাল এইড কমিটির কার্যক্রম তৃণমূল পর্যায়ে শক্তিশালী করে যারা অর্থের অভাবে মামলা পরিচালনা করতে পারছেন না এমন অসহায়দেরকে সরকারি খরচে আইনগত সুবিধা পেতে জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা ও সমাজের বিবেকবানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান এবং সেই সাথে তিনি মিথ্যা মামলা মোকদ্দমায় কোন নিরীহ লোকজন প্রভাবশালী ব্যক্তি ও গোষ্টির দ্বারা হয়রানীর স্বীকার না হন এজন্য বিচার বিভাগের সাথে জড়িত বিচারকদের ন্যায় বিচার নিশ্চিত করার আহবান জানান। সিলেট সমাজ সেবা অধিদপ্তরের প্রফেশনাল কর্মকর্তা তমির হোসেইন চৌধুরীর সার্বিক উপস্থাপনায় মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে সিলেটের সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ ড. মোঃ গোলাম মর্তুজা মজুমদার বলেন, রাষ্ট্রের সংবিধান অনুযায়ী প্রত্যেকের সমান আইনগত অধিকার রয়েছে। আর বিচারালয় হচ্ছে মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল। আইন নিরাপত্তা ও সুরক্ষা এবং সমাজে শান্তিপূর্ণ ভাবে বসবাসের অধিকার দেয়। আর অপরাধীদের শাস্তি প্রদান করে থাকে। দেশের একজন হতদরিদ্র অসহায় ব্যক্তি মামলা পরিচালনা করতে আইনী সহায়তা থেকে যাতে করে বঞ্চিত না হন এজন্য সরকার আইনগত সহায়তা আইন ২০০০ এর অধীনে জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থা প্রতিষ্ঠা করে জেলা পর্যায়ে লিগ্যাল এইড অফিসের মাধ্যমে সম্পূর্ণ বিনা খরচে সবধরনের মামলায় আইনগত সহায়তা ও সালিশের মাধ্যমে বিরোধ নিষ্পত্তি করে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, সচেতনতার অভাবে সমাজের তৃণমূল পর্যায়ের অসহায় ব্যক্তিরা লিগ্যাল এইডের আইনী সুবিধা থেকে অনেক ক্ষেত্রে বঞ্চিত রয়েছেন। ইতোমধ্যে লিগ্যাল এইডের কার্যক্রম দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে পৌছে দেওয়ার লক্ষ্যে সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা ও নানা শ্রেনী পেশার লোকজনদের নিয়ে সচেতনতা মূলক কার্যক্রম শুরু হয়েছে এর মূল কারণ হচ্ছে উপজেলা ইউনিয়ন পর্যায়ের লিগ্যাল এইড কমিটিকে শক্তিশালী করে আইনী অধিকার থেকে রাষ্ট্রের একজন অসহায় ব্যক্তি তার অধিকার থেকে বঞ্চিত না হন। জাতীয় আইনগত সহায়তা সংস্থার মাধ্যমে দেশের লক্ষ লক্ষ সুবিধা বঞ্চিত অসহায় মানুষকে বিনা খরচে আইনগত সুবিধা দেওয়ার পাশাপাশি কয়েক হাজার মামলা ইতোমধ্যে নিষ্পত্তি করে দিয়েছে। সিলেটের বিচারাঙ্গনের বিভিন্ন পর্যায়ের বিচারকবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক, গণ্যমান্য ব্যক্তি, এনজিও কর্মীদের উপস্থিতিতে মতবিনিময় সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিলেটের বিভাগীয় স্পেশাল জজ আশফাকুর রহমান, সিলেটের চীপ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট কাওছার আহমদ, সিলেট বারের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আব্দুল কুদ্দুস কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশিক উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম রানা, কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুল আহাদ, সদর ইউপির চেয়ারম্যান মামুন রশিদ, বড়চতুল ইউপির চেয়ারম্যান মাওঃ আবুল হোসেইন, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্প্দাক নিজাম উদ্দিন, কানাইঘাট বাজার বণিক সমিতিরি সভাপতি সিরাজুল ইসলাম খোকন প্রমুখ। 

কানাইঘাট নিউজ ডটকম/৩০জুন ২০১৮ ইং

শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক