Tuesday, June 13

পাহাড়ধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৭

পাহাড়ধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৭
কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: রাঙামাটিতে টানা বর্ষণে পাহাড়ধসের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৭ জনে পৌঁছেছে। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
স্থানীয় কর্মকর্তারা মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত রাঙামাটিতে ১১ জন এবং বান্দরবানে আটজন এবং চট্টগ্রামে আটজনের লাশ উদ্ধারের খবর নিশ্চিত করেছেন।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে গত রোববার থেকে চট্টগ্রাম, রাঙামাটি, বান্দরবানে ভারি বৃষ্টিপাত চলছে। বিভিন্ন স্থানে সড়ক যোগাযোগ ও বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যাওয়ারও খবর এসেছে।

এর মধ্যে সোমবার রাতে ও মঙ্গলবার ভোরে বৃষ্টির পানিতে মাটি সরে গিয়ে বিভিন্ন স্থানে পাহাড় ধসে হতাহতের ঘটনা ঘটে। বিভিন্ন স্থানে বেশ কয়েকজন নিখোঁজ থাকারও খবর পাওয়া গেছে।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সসহ পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা বান্দরবান ও রাঙামাটির পাহাড় ধসের এলাকাগুলোতে উদ্ধারকাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। তারা বলছেন, হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

তবে চট্টগ্রামের চন্দনাইশ ও রাঙ্গুনিয়া উপজেলার দুটি দুর্গম এলাকায় পাহড়ধসের ঘটনা ঘটায় সেখানে উদ্ধারকর্মীদের পৌঁছাতে দেরি হচ্ছে। প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমেই পাহাড় ও দেয়াল ধসে হতাহতের ঘটনা ঘটে। ২০০৭ সালের ১১ জুন চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন স্থানে পাহাড়, দেয়াল ও ভূমি ধসে ১২৭ জনের প্রাণহানি ঘটে।

রাঙামাটি সদর হাসপাতালের সিভিল সার্জন শহীদ তালুকদার বলেন, জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে পাহাড়ধসে নিহত নয়জনের মৃতদেহ হাসপাতালে আনা হয়। এখন আরও চারজনের মৃতদেহ আনা হয়েছে।

কাপ্তাই থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সৈয়দ নুর জানান, কাপ্তাই উপজেলায় পাহাড়ধসে এখন পর্যন্ত তিনজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। ঘাগড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান জগদীশ চাকমা জানান, এই ইউনিয়নে পাহাড়ধসে মৃত একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। 
সূত্র: বিডি লাইভ।


শেয়ার করুন

0 comments:

পাঠকের মতামতের জন্য কানাইঘাট নিউজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়

নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক