ইন্দোনেশিয়ায় বোমা হামলা: গুলি বিনিময়ে হামলাকারী নিহত

Kanaighat News on Tuesday, February 28, 2017 | 8:54 AM

ইন্দোনেশিয়ায় বোমা হামলা: গুলি বিনিময়ে হামলাকারী নিহত
কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: ইন্দোনেশিয়ার বান্দা নগরীর পার্কে সোমবার ছোট একটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটেছে। এ সময় হামলাকারী সরকারি ভবনে ঢুকে পড়লে পুলিশের সঙ্গে তাদের গুলি বিনিময় ঘটে।

জাভা দ্বীপের প্রধান শহরটিতে এই হামলার ঘটনায় ওই ভবনের কেউ আহত হয়নি। উভয়পক্ষের মধ্যে প্রায় এক ঘন্টা গুলি বিনিময়ের পর হামলাকারী গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনার সঙ্গে একটি ‘সন্ত্রাসী নেটওয়ার্কের’ সম্পর্ক রয়েছে যারা মুসলিম প্রধান দেশগুলোতে সাম্প্রতিককালে হামলা চালাচ্ছে।

সিগারেট, মদ ও মাদকে আসক্ত মেধাবি শিক্ষার্থীরাই

সিগারেট, মদ ও মাদকে আসক্ত মেধাবি শিক্ষার্থীরাই

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: ছেলেটা বা মেয়েটা পড়াশোনায় একটু পিছিয়ে। তার মানে এই নয় যে সে উচ্ছন্নে গেল। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বদলেছে পৃথিবী, বদলেছে মানুষ, বদলে গিয়েছে বড় হয়ে ওঠা। আর বড় হয়ে ওঠার সাথে সাথে সিগারেট, মদ ও মাদকে সবচেয়ে বেশি আসক্ত হয়ে পড়ছে মেধাবি শিক্ষার্থীরাই। এমনটাই দাবি ব্রিটিশ মেডিক্যাল জার্নালের গবেষকদের।

ইংল্যান্ডের বিভিন্ন স্কুলের প্রায় ৬০০০ শিক্ষার্থীদের উপর কয়েক মাস ধরে পরীক্ষা চালিয়েছেন গবেষকরা। তারপরই এই সিদ্ধান্তে এসে পৌঁছেছেন তারা। ১৩ থেকে ২০ বছর বয়স পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের ব্যবহারের উপর নজর রেখেছিলেন গবেষকরা। তাদের খাবার অভ্যাস থেকে নেশার অভ্যাস সব জানার জন্য তৈরি হয়েছিল প্রশ্নপত্র। তাতেই উঠে এসেছে আসল সত্যটা। দেখা গিয়েছে পড়াশোনার দিক থেকে এগিয়ে থাকা কিশোর-কিশোরী ও যুবক-যুবতীদের মধ্যেই নেশার প্রতি আসক্তি বেশি।

এর কারণ কী হতে পারে? বিজ্ঞানীদের মতে, বুদ্ধি থাকলেই মানুষের মধ্যে যুক্তি দিয়ে সবকিছু যাচাই করার প্রবণতা বেড়ে যায়। আর উঠতি বয়সে নতুন কিছু করার ঝোঁক সবচেয়ে বেশি থাকে। সেই কারণেই এক্সিপেরিমেন্টের জন্য নেশার কবলে পড়ে যায় তরুণ প্রজন্ম।

কঙ্গনার সাথে কোনো সমস্যা নেই: শাহরুখ

কঙ্গনার সাথে কোনো সমস্যা নেই: শাহরুখ

বিনোদন ডেস্ক: কদিন ধরে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হচ্ছে, কঙ্গনা রানাউত এবং শাহরুখ খানের মধ্যে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। শাহরুখ নাকি কঙ্গনার সঙ্গে ছবি করতে নারাজ। তবে তা অস্বীকার করলেন বলিউড বাদশাহ। তিনি তার ভক্তদেরকে গুজবে কান না দেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

খবরে শোনা যাচ্ছিল, সঞ্জয় লীলা বানসালি শাহরুখকে তার নতুন ছবিতে অভিনয়ের জন্য প্রস্তাব দেন। কিন্তু নায়িকার চরিত্রে কঙ্গনা থাকবেন জেনে তা প্রত্যাখ্যান করেন শাহরুখ।

‘রেঙ্গুন’ অভিনেত্রী কফি উইথ করণ শোতে বলেছেন, তিনি ‘খান’ অভিনেতাদের সঙ্গে ছবি করতে চান না, কারণ তিনি চান তার চরিত্র পুরুষ শিল্পীদের সমান সমান হোক। একারণেই নাকি শাহরুখের এই সিদ্ধান্ত।

কিন্তু এ নিয়ে প্রশ্ন করলে শাহরুখ জবাব দেন, ‘কে এ কথা বলেছে! যা পড়বেন, সবটা বিশ্বাস করবেন না।‘

শাহরুখ জানিয়েছেন, বানসালি তাকে দুটি চিত্রনাটি পাঠিয়েছেন। কিন্তু কোনওটিতেই এখনও চূড়ান্ত করেন নি তিনি।

এই মুহূর্তে কঙ্গনা তার ‘রেঙ্গুন’ ছবির সাফল্য উপভোগ করছেন। অপরদিকে শাহরুখ ইমতিয়াজ আলির ‘দ্য রিং’ নিয়ে ব্যস্ত। এই ছবিতে তার বিপরীতে রয়েছেন আনুশকা শর্মা। সূত্র: দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

বাজেটে সামরিক ব্যয় বাড়াচ্ছেন ট্রাম্প

বাজেটে সামরিক ব্যয় বাড়াচ্ছেন ট্রাম্প

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের ২০১৮ সালের অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেটে সামরিক ব্যয় বাড়াতে চাচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এছাড়া বাজেটে বৈদেশিক সহায়তা ও পরিবেশ খাতে বরাদ্দ কমানোর পরিকল্পনাও করছেন তিনি। সোমবার বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

আগামী মার্চ মাসের মাঝামাঝিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট তার চূড়ান্ত বাজেট প্রস্তাবনা প্রকাশ করতে যাচ্ছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ফাঁস হওয়া খসড়া বাজেট পরিকল্পনায় ট্রাম্প সামরিক ব্যয় বাড়ানোর যে প্রস্তাব দিয়েছেন তা গত বছরের তুলনায় ৯ শতাংশ বেশি। ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান দল সামাজিক নিরাপত্তা ও চিকিৎসা খাতে সংস্কারের দাবি জানিয়ে আসলেও এই দুই খাতে কোনো পরিবর্তন না আনার প্রস্তাব দিয়েছেন তিনি।

সোমবার হোয়াইট হাউজে গভর্নরদের সঙ্গে বৈঠকে ট্রাম্প বলেছেন, ‘আমরা স্বল্প সম্পদ দিয়ে অনেক বেশি কিছু করতে চাই এবং সরকারকে নির্ভরযোগ্য ও দায়বদ্ধ করতে চাই।’

ট্রাম্প অবশ্য তার নির্বাচনী প্রচারণার সময় সামরিক ব্যয় বৃদ্ধি ও কল্যাণমূলক প্রকল্পগুলো অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। বৈঠকে সে বিষয়গুলো পুর্নব্যক্ত করে তিনি বলেন, তার বাজেটে সামরিক, নিরাপত্তা ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের বিষয়টিকে প্রাধান্য দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার কংগ্রেসে বক্তৃতা দেওয়ার সময় তিনি অবকাঠামো খাতে ব্যয়ের বিষয়েও আলোকপাত করবেন বলেও জানান ট্রাম্প।

বাম দলগুলোর চলছে নিরুত্তাপ হরতাল

বাম দলগুলোর চলছে নিরুত্তাপ হরতাল

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে সিপিবি-বাসদ ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার অর্ধদিবস হরতাল মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে শুরু হয়েছে। তবে ধানমন্ডি, কলাবাগান, লালবাগ ও আজিমপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় নিত্যদিনের মতোই চলছে বাস, প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল ও রিকশা।

শাহবাগ মোড়ে প্রগতিশীল ছাত্র ফোরামের ব্যানারে স্বল্প সংখ্যক শিক্ষার্থীকে ব্যানার হাতে হরতালের পক্ষে স্লোগান দিতে দেখা যায়। পেট্রল পাম্পগুলোর অধিকাংশই ছিল বন্ধ। স্কুলগুলোতে ছাত্রছাত্রীর উপস্থিতি তুলনামূলক কম।

এসএসসি পরীক্ষার্থী ও পরীক্ষার সব কাজ এবং অগ্নি নির্বাপণ ব্যবস্থা, হাসপাতাল-অ্যাম্বুলেন্স, সংবাদপত্র-প্রচারমাধ্যম, জরুরি গ্যাস ও বিদ্যুতের কাজ হরতালের আওতার বাইরে রাখা হয়েছে। বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ), গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা ও গণসংহতি আন্দোলন এই হরতালের ডাক দিয়েছে। দুপুর ১২টা পর্যন্ত হরতাল চলবে।
সূত্র: বিডিলাইভ ।

ডাবল মার্ডারে উত্তপ্ত ওসমানীনগর


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: এবারই প্রথমবারের মতো নির্বাচন হচ্ছে ওসমানীনগর উপজেলা পরিষদের। এই উপজেলা পরিষদের প্রথম নির্বাচনেই ইতিমধ্যে ঝরে গেছে দুুটি তাজা প্রাণ। নির্বাচনে আওয়ামী লীগদলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী ও দলটির বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে ডাবল মার্ডারের ওই ঘটনায় ওসমানীনগর এখন উত্তপ্ত। একইসাথে রয়েছে শোকের কালো ছায়াও। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যাতে আর কোনো সংঘাত না হয়, সে লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। চলতি মাসের ১ তারিখ নির্বাচন কমিশন ওসমানীনগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে। তফসিল অনুযায়ী ৬ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর থেকেই ওসমানীনগরে লাগে ভোটের হাওয়া। এবারই প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীকে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এজন্য আওয়মাী লীগ, বিএনপিসহ অন্যান্য দলগুলোর নেতাকর্মীদের মধ্যে শুরু হয় দৌড়ঝাঁপ। উত্তপ্ত হতে থাকে রাজনীতির মাঠ। বিশেষ করে আওয়ামী লীগের জন্য ওসমানীনগরের নির্বাচনী মাঠ হয়ে ওঠে প্রতিকূল। দল থেকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে জেলা আওয়ামী লীগের উপদপ্তর সম্পাদক আখতারুজ্জামান চৌধুরী জগলুকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। কিন্তু তিনি তা প্রত্যাখ্যান করে চেয়ারম্যান পদে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এজন্য দল থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এদিকে, চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থী আতাউর রহমানের বিপক্ষে জগলু মাঠ না ছাড়ায় দলটির জন্য নির্বাচনী পরিস্থিতি আরো উত্তপ্ত হতে থাকে। যার পরিণতি রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ। আর সে সংঘর্ষে ডাবল মার্ডার। গত রবিবার সকালে আতাউর রহমান ও জগলু চৌধুরীর সমর্থকদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই সাইফুল ইসলাম নামের এক কিশোর নিহত হয়। সংঘর্ষে আহত সুহেল মিয়া নামের আরেক ব্যক্তি সোমবার ওসমানী হাসপাতালে মারা গেছেন। এই ডাবল মার্ডার নিয়ে ওসমানীনগরের পরিস্থিতি এখন উত্তপ্ত। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নির্বাচনের এখনও প্রায় সপ্তাহখানে বাকি। এরইমধ্যে ঝরে গেছে দুটি তাজা প্রাণ। এ নিয়ে জগলু চৌধুরী ও আতাউর রহমানে ভাগ হয়ে যাওয়া আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে বিক্ষুব্দ মনোভাব কাজ করছে। যে কোনো সময় উভয়পক্ষের মধ্যে ফের বড় ধরনের সংঘর্ষ ঘটতে পারে। তবে আর কোনো সংঘাত এড়াতে তৎপর হয়ে ওঠেছে প্রশাসন। এজন্য সংঘর্ষে দুজন নিহত হওয়ার পরই সোমবার ওসমানীনগরে ছুটে এসেছেন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম। সেখানে নির্বাচনে প্রার্থী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও প্রশাসনের সাথে মতবিনিময় করেছেন তিনি। পরে সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘নির্বাচনে কোনো অন্যায় বরদাস্ত করা হবে না। কোনো ধরনের সংঘাতও কাম্য নয়।’ ওসমানীনগর থানার ওসি আবদুল আউয়াল চৌধুরী বলছেন, ‘আর কোন ঘটনা যাতে না ঘটে, সে ব্যাপারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।’ ওসমানীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারি রির্টানিং অফিসার শওকত আলী বলেন, ‘সৃষ্ট ঘটনায় নির্বাচনে কোনো প্রভাব ফেলবে না।’ - 
সূত্র: সিলেট ভিউ:

ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ নিহত ২

ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ নিহত ২

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় এক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্যসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। সোমবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার লক্ষীগঞ্জ বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে।  

নিহতরা হলেন, মর্তুজা আলী সরকার (৪৩) ও শাহীন মিয়া (২৫)। মর্তুজা আলী উপজেলার মাইজবাগ ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ছিলেন।  

ঈশ্বরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ইনচার্জ রোকনুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ইউপি সদস্য ঘটনাস্থলেই মৃত্যুবরণ করেছেন। আর শাহিন মিয়াকে গুরুতর আহত অবস্থায় ফায়ার সার্ভিসের গাড়িতে করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ ভোর ৪টার দিকে তার মৃত্যু হয়।  

তারা মোটরসাইকেল যোগে মাইজবাগ থেকে ইউনিয়ন পরিষদ হয়ে বাড়ির দিকে আসছিল বলেও জানান রোকনুজ্জামান।

ঈশ্বরগঞ্জ থানা পুলিশ জানায়, ঘটনাস্থলে মোটরসাইকেলটি দুমড়ে মুচরে গেছে। তবে কিসের সাথে মটর সাইকেলটির সংঘর্ষ হয়েছে তা স্থানীয় এলাকাবাসী জানাতে পারেননি। 

কানাইঘাটে ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি কমিটি


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: প্রায় এক যুগ পর সিলেটের সীমান্তবর্তী কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গত শনিবার অনুমোদন দেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ ও সাধারণ সম্পাদক এম. রায়হান চৌধুরী। একই সাথে কানাইঘাট পৌরসভা ও ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগেরও কমিটি ঘোষণা করা হয়। শনিবার রাতে এ কমিটি ঘোষণার পর থেকে কমিটিকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করে কানাইঘাট বাজারে ঝাড়ু মিছিল করে ছাত্রলীগের একপক্ষ। তারা এ কমিটিকে প্রত্যাখ্যান করে সোমবার রাতে এক সভায় কানাইঘাট উপজেলা, পৌর ও কলেজ ছাত্রলীগের পাল্টা কমিটি ঘোষণা দেন তারা। পাল্টা কমিটিতে কানাইঘাট উপজেলা শাখার সভাপতি করা হয়েছে হুমায়ুন কবীর তারেককে এবং সাধারণ সস্পাদক করা হয়েছে দেলোয়ার হোসেনকে, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি করা হয়েছে মো. ইয়াহইয়া ডালিমকে এবং সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে মো. আশফাক হোসেনকে ও কানাইঘাট ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি করা হয়েছে মো. শাহেদ আহমদকে এবং সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে সাজু আহমদকে।
 সূত্র: সিলেট ভিউ:

বিউটি পার্লারে গিয়ে হতে পারে যেসব রোগ

বিউটি পার্লারে গিয়ে হতে পারে যেসব রোগ

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: নিজেকে আরো সুন্দর ও পরিপাটি করতে এখন বেশিরভাগ মানুষই বিউটি পার্লারের সেবার উপর নির্ভরশীল। বিউটি পার্লার হয়ত আপনাকে আরো সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে কিন্তু এর পাশাপাশি আপনার স্বাস্থ্যের ক্ষতিও হতে পারে। পার্লারে যে সকল যন্ত্রপাতি দিয়ে কাজ করা হয় তার অধিকাংশই জীবাণুমুক্ত থাকে না। ফলে এতে একজনের শরীর থেকে জীবাণু আরেক জনের কাছে ছড়িয়ে যাচ্ছে।

মেকআপে ব্যবহৃত স্পঞ্জ, ব্রাশ, ফেসিয়ালে ব্যবহৃত তোয়ালে ও পোশাক যদি যথাযথ পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্ত না থাকে তবে আগের ভোক্তার ত্বকের যেকোনো সংক্রমণ বা ইনফেকশন যেমন-একজিমা, ডার্মাটাইটিস, ব্রণ, মাথার খুশকি, ভাইরাল ইনফেকশন দ্বারা পরবর্তী ভোক্তা আক্রান্ত হতে পারে।

এছাড়া মেনিকিওর, পেডিকিওরে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি যদি যথাযথ জীবাণুমুক্ত করা না থাকে তবে কোনো ভোক্তার ছত্রাক বা ফাঙ্গাল ইনফেকশন থাকলে তা পরবর্তী ভোক্তার কাছে ছড়িয়ে যেতে পারে। এ ধরনের অসতর্কতামূলক পরিস্থিতি কখনো হেপাটাইটিস, সিফিলিস, এইডস সংক্রমণের কারণও হতে পারে। এমনি ভ্রু প্লাক করার সময় মুখে সুতা আটকে ভ্রু তোলা হয়। এক্ষেত্রে সেবাদানকারী কর্মীর কোন রোগ থাকলে তা লালার মাধ্যমে জড়ানোর সম্ভবনা থাকে।

সেবাদানকারী কর্মী যে হাতে সেবা প্রদান করেন তার হাতে চর্মরোগ থাকলেও তা ভোক্তাদের কাছে ছড়াতে পারে। এছাড়া মেয়াদ উত্তীর্ণ বা নিম্নমানের প্রসাধনী ব্যবহারে ত্বকে ক্যান্সার বা ক্ষতের সৃষ্টি হতে পারে। তাই পার্লারগুলোতে উপযুক্ত পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখার জন্য যথেষ্ট সংখ্যক পরিচ্ছন্নতা কর্মী, ওয়াশিং মেশিন, স্টেরিলাইজারের ব্যবস্থা রাখতে হবে। ভোক্তাদের সেবা নেয়ার সময় ব্যবহৃত সামগ্রীর মেয়াদ ও মান এবং পরিপূর্ণ পরিচ্ছন্নতার দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

গাজা উপত্যকা থেকে ইসরাইলে রকেট হামলা

গাজা উপত্যকা থেকে ইসরাইলে রকেট হামলা

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: গাজা উপত্যকা থেকে ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলে রকেট হামলা চালানো হয়েছে। সোমবার ভোরে এ হামলা চালানো হয়। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি।

সামরিক বাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘গাজা উপত্যকা থেকে ছোঁড়া একটি রকেট ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলের উম্মুক্ত স্থানে আঘাত হানে। এতে কেউ হতাহত হয়নি।’

বিবৃতিতে বলা হয়, রকেট হামলার পর নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পৌঁছে এবং তদন্তের জন্য রকেটের গোলার ভাঙ্গা টুকরোগুলো উদ্ধার করা হয়।

ফেব্রুয়ারির গোড়ার দিকে গাজায় ইসরাইলী বাহিনীর ট্যাঙ্ক ও বিমান হামলায় তিন ফিলিস্তিনি নাগরিক আহত হয়। ফিলিস্তিনি ভূখন্ড থেকে চালানো রকেট হামলার জবাব দিতেই তারা এ হামলা চালায়।

১৬ ফেব্রুয়ারি ইসরাইলি প্রতিরক্ষা মন্ত্রী আভিগদর লিবারম্যান গাজার হামাস শাসকদের হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেন, তিনি ভবিষ্যতে তাদের ‘উস্কানিমূলক’ হামলার কঠোর জবাব দেবেন। সূত্র: বাসস

বয়স ধরে রাখতে ঘুমনোর আগে খান ‘কালো দুধ’

বয়স ধরে রাখতে ঘুমনোর আগে খান ‘কালো দুধ’
কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: কালো তিল খুব উপকারী। রক্তে পুষ্টি জোগাতে সাহায্য করে এই কালো তিল। একই সঙ্গে চুল পাকা, ত্বকের বলিরেখা ও নখ ভেঙে যাওয়ার সমস্যাও রুখতে পারে কালো তিল। কারণ রক্ত ও রেচনতন্ত্র সুস্থ থাকলে তার প্রভাব ত্বক, চুল ও নখে পড়ে।

প্রতিদিনের খাবারে কালো তিল থাকলে চেহারায় বয়সের ছাপ পড়ে না। তাছাড়া কিডনির স্বাস্থ্য ভাল রাখতে কালো জিরা অতুলনীয়।

উপকরণ
কালো তিল আধা কাপ
পানি আড়াই কাপ
মধু, খেজুর বা নারকেল কোরা

প্রস্তুত প্রণালী
কালো তিল ধুয়ে নিয়ে সারা রাত ভিজিয়ে রাখতে হবে। ব্লেন্ডারে পানি, কালো তিল ও মধু, খেজুর বা নারকেল কোরা দিয়ে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। কিছুক্ষণ রেখে দিলে পানি ও তিল আলাদা হয়ে যাবে। এবার দুধ গরম করতে হবে ধোঁয়া না উঠা পর্যন্ত (ফোটানো যাবে না)। এবার দুধ তিলের মিশ্রণে ঢেলে দিতে হবে। গরম অবস্থায় এই দুধ খেতে হবে। বাকিটা ফ্রিজে সংরক্ষণ করে তিনদিন অবধি পান করা যায়।

রাতে ঘুমানোর আগে এই দুধ পান করলে সবচেয়ে ভাল ফল পাওয়া যাবে। সুজির সঙ্গে মিশিয়েও খাওয়া যেতে পারে।

ধনী খেলোয়াড়ের তালিকায় শীর্ষে রোনালদো, দ্বিতীয় মেসি

ধনী খেলোয়াড়ের তালিকায় শীর্ষে রোনালদো, দ্বিতীয় মেসি

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: ফোর্বস ম্যাগাজিনে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী খেলোয়াড়ের তালিকায় এক নম্বরে নাম লেখালেন পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো এবং দুই নম্বরে আর্জেন্টিনার লিওনেল মেসি।

২০১৬ সালে রোনালদো মৌসুমটি দারুণ কাটিয়েছেন। দেশ ও ক্লাবের হয়ে অসাধরাণ পারফরম্যান্স করেছেন তিনি। তারই ফলস্বরূপ উঠে এলেন এই তালিকার শীর্ষে।

গত মৌসুমে অসাধারণ পারফরম্যান্সের সুবাদে ব্যালন ডি’অর ও ফিফা বর্ষসেরার দুটি পুরস্কারই নিজের দখলে নিয়েছেন রোনালদো। যার প্রভাবে অর্থনৈতিকভাবেও চাঙ্গা হয়ে গিয়েছেন তিনি।

গত বছর ৭০.৬ মিলিয়ন পাউন্ড আয় করে উঠে এসেছেন শীর্ষে। বেতন ও স্পন্সর থেকে এই আয় এসেছে সিআর সেভেনের। রোনালদোর পরে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন তার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী কাতালান ক্লাব বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি। তার গত বছর আয় হয়েছে ৬৫ মিলিয়ন পাউন্ড।

তৃতীয় স্থান অর্জন করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের বাস্কেটবল খেলোয়াড় লিব্রন জেমস (৬১.৯ মিলিয়ন পাউন্ড)। ৫৪.৪ মিলিয়ন পাউন্ড নিয়ে চতুর্থ টেনিস কিংবদন্তি রজার ফেদেরার। আর পাঁচে আছেন ৪৫.১ পাউন্ড নিয়ে আরেক যুক্তরাষ্ট্রের বাস্কেটবল খেলোয়াড় কেভিন ডোরান্ট।

কানাইঘাট সুরইঘাট বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা

Kanaighat News on Monday, February 27, 2017 | 10:59 PM


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট উপজেলার সুরইঘাট বাজারের ৪টি দোকানে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ সোমবার বিকেল ৩টায় তাদের জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমন আচার্য্য। অভিযান পরিচালনার সময় তার সাথে ছিলেন উপজেলার স্যানেটারি ইন্সপেক্টর আবুল কালাম আজাদ,কানাইঘাট থানার এস,আই রবিউল ইসলাম সহ একদল পুলিশ। জানা যায়, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য তৈরি,তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন দোকানে টানানো, মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্য সামগ্রী বিক্রি'র জন্য রোমান ষ্টোর,লতিফ ভেরাইটিজ ষ্টোর,নাহিদ ভেরাইটিজ ষ্টোর ও ফাতেমা রেষ্টুরেন্টকে ভোক্তা অধিকার আইনে পর্যায়ক্রমে ১৩ হাজার ৫ শত টাকা জরিমানা আদায় করেন আদালত।

ফিরে এলো নোকিয়া ৩৩১০

ফিরে এলো নোকিয়া ৩৩১০

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: বাজার থেকে হারিয়ে যাওয়া এককালের ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাওয়া মোবাইল ফোনসেট নকিয়া ৩৩১০ আবারো সদর্পে বাজারে ফিরেছে।

নকিয়ার পুনরুৎপাদিত এই সংস্করণটি বিক্রি হবে ফিনিশ স্টার্ট-আপ প্রতিষ্ঠান এইচএমডি গ্লোবালের লাইসেন্সের আওতায়।  জানা যায়, ২০০৫ সালে উৎপাদন বন্ধ করার আগে এই মডেলের সাড়ে ১২ কোটির বেশি ফোনসেট প্রস্তুত করেছিল নকিয়া।

তবে এই নকিয়া ৩৩১০টি যে সেই পুরনো ৩৩১০ এর মতো হুবহু থাকছে তা নয়। গ্রাহকদের সুবিধা ও সময়কে প্রাধান্য দিয়ে পুনর্জন্ম নেয়া এই ফোনটিতে সামান্য কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছ।

অবশ্য পুরনো ফোনটির আকৃতিসহ বেশির ভাগ জনপ্রিয় বৈশিষ্ট্যই রাখা হয়েছে অক্ষুণ্ণ, তবে সাধন করা হয়েছে উন্নয়ন। এই ফোনটিতে স্মার্টফোনের কিছু বৈশিষ্ট্য থাকলেও এটি মূলত একটি ফিচার ফোন।

সেই আমলে মানুষ মোবাইল ফোনে ইন্টারনেটও ব্যবহার করতে পারত না। বর্তমান সময়ের কথা মাথায় রেখে এতে সীমিত আকারে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে। রয়েছে একটি মাত্র ক্যামেরা যা ২ মেগাপিক্সেল ক্ষমতার। অবশ্য পুরনো ৩৩১০ এ কোনো ক্যামেরাই ছিল না।
তবে এটির ব্যাটারির ক্ষমতা সেই আগের মতোই।

প্রস্ততকারকদের বক্তব্য, একবার পুরো চার্জ দিলে এটির ব্যাটারি এক মাস পর্যন্ত স্ট্যান্ডবাই থাকবে। আর কথা বলা যাবে টানা ২২ ঘণ্টা। নতুন ৩৩১০ এর পর্দা রঙিন। পুরনো ৩৩১০ এর পর্দা ছিল সাদাকালো। এটিতে রয়েছে সেই জনপ্রিয় 'স্নেক' গেমটিও। তবে ক্লাসিক সংস্করণ নয়, ৩৩১০ এ খেলা যাবে স্নেক এর আধুনিক সংস্করণ। সূত্র : বিবিসি বাংলা

হোয়াইট হাউসে এক বাংলাদেশি সাংবাদিকের অভিজ্ঞতা

হোয়াইট হাউসে এক বাংলাদেশি সাংবাদিকের অভিজ্ঞতা

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রশাসন মূলধারার গণমাধ্যমের সঙ্গে রীতিমত যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছে। হোয়াইট হাউসের প্রেস কনফারেন্সে কিছু সাংবাদিককে পর্যন্ত নিষিদ্ধ করছে, তখন অনেকের এনিয়ে কৌতূহল জাগা স্বাভাবিক যে হোয়াইট হাউসে বসে প্রতিদিন যে সাংবাদিকরা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের খবরাখবর সংগ্রহ করেন, তাদের সঙ্গে প্রেসিডেন্টের পেশাগত সম্পর্কটা কেমন থাকে?

হোয়াইট হাউসে যুক্তরাষ্ট্রের তো বটেই, সারা দুনিয়ার বড় বড় সংবাদ-মাধ্যমগুলোর প্রতিনিধিরা নিয়োজিত থাকেন খবরাখবর সংগ্রহের জন্য। সেখানে প্রায় প্রতিদিনই ব্রিফিং এর ব্যবস্থা থাকে সাংবাদিকদের তথ্য জানানোর জন্য। নিয়মিতভাবে প্রেসিডেন্টরাও বিভিন্ন সময়ে সংবাদ সম্মেলন করেন।

কিন্তু প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের আমলে এই নিয়মের ব্যতিক্রম দেখা যাচ্ছে। শুরু থেকেই তিনি হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে তীব্র বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েছেন। কিন্তু আগের প্রেসিডেন্টদের আমলে হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকরা কিভাবে কাজ করেছেন? তাদের সঙ্গে প্রেসিডেন্টের সম্পর্কই বা কেমন ছিল?

ফরাসী বার্তা সংস্থা এএফপি'র ফটো সাংবাদিক হিসেবে প্রেসিডেন্ট ওবামার আমলে হোয়াইট হাউসে ছয় বছরের বেশি সময় ধরে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে বাংলাদেশি সাংবাদিক জুয়েল সামাদের। তিনি বলছিলেন তার অভিজ্ঞতার কথা।

"হোয়াইট হাউসের ব্রিফিং রুমে প্রায় প্রতিদিনই প্রেস ব্রিফিং হয় এবং সাধারণত প্রেসিডেন্টের প্রেস সেক্রেটারি সেখানে কথা বলেন। এটি 'অন ক্যামেরা' এবং 'অন রেকর্ড' প্রেস ব্রিফিং। অর্থাৎ এখানে ছবি তোলা যাবে, কথা রেকর্ড করা যাবে। হোয়াইট হাউসে ঢোকার পাস বা প্রেস কার্ড আছে এমন যে কোন সাংবাদিক এই সংবাদ সম্মেলন কভার করতে পারেন।"

তিনি জানান, ব্রিফিং রুমে সাধারণত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাংবাদিকদের জন্য সুনির্দিষ্ট আসন থাকে। সামনের সারিতে বসেন নিউইয়র্ক টাইমস বা সিএনএনের মতো মূলধারার প্রতিষ্ঠানের সাংবাদিকরা।

"প্রেসিডেন্টের কোন অনুষ্ঠানে কোন সাংবাদিকরা যাবেন বা যোগ দেবেন, কে আগে প্রশ্ন করার সুযোগ পাবেন, এসব সাধারণত নির্ধারিত হয় হোয়াইট হাউস করেসপনডেন্টস এসোসিয়েশন এবং প্রেসিডেন্টের প্রেস অফিসের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে। বলতে পারেন এটা বহুদিনে গড়ে উঠা একটা অলিখিত রীতি বা ব্যবস্থা।"

"যদি ফটোগ্রাফারদের কথা বলি, তাদের জন্য একটা 'ট্রাভেল পুল' আছে। আমি যে প্রতিষ্ঠানের জন্য কাজ করি, সেই এএফপি সহ রয়টার্স, এপি এবং নিউইয়র্ক টাইমস এই ট্রাভেল পুলের অংশ। এর মানে হলো, হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্টের যে কোন অনুষ্ঠান কভার করার ক্ষেত্রে এই চারটি প্রতিষ্ঠান অগ্রাধিকার পাবে। যে কোন লাইনে এই চারটি প্রতিষ্ঠানের পর অন্য সাংবাদিকরা সুযোগ পাবেন।"

হোয়াইট হাউসের কোন সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের মধ্যে কারা কি প্রশ্ন করতে পারবেন, সেটা কিভাবে নির্ধারিত হয়?

জুয়েল সামাদ জানান, নিত্যদিনের ব্রিফিং এ প্রেসিডেন্টের প্রেস সেক্রেটারি তার পছন্দমত যে কোন সাংবাদিকের দিকে অঙ্গুলি নির্দেশ করে তাকে প্রশ্ন করার সুযোগ দিতে পারেন। তখন সেই সাংবাদিক তার যেমন খুশি প্রশ্ন তাকে করতে পারেন।

জুয়েল সামাদ বলেন, এখন হোয়াইট হাউসে যে ঘটনাটি ঘিরে তীব্র বিতর্ক চলছে, সেটি ঠিক প্রেস কনফারেন্স নয়, এটাকে বলা হয় 'প্রেস গ্যাগল'। প্রেসিডেন্টের প্রেস সেক্রেটারি বাছাই করা কিছু সাংবাদিককে ডেকে এই ব্রিফিং এর আয়োজন করেন। সেটি 'অন ক্যামেরা' হতে পারে, আবার 'অফ ক্যামেরা'ও হতে পারে।" আমার অভিজ্ঞতায় আমি দেখেছি, প্রেস গ্যাগল সাধারণত অনানুষ্ঠানিক ব্রিফিং এর মতো। অনেক সময় প্রেসিডেন্ট নিজেও হাজির হন এরকম ব্রিফিং-এ। তিনি শুরুতেই বলে দেন, আমি এমনিতেই কথা বলতে এসেছি। এটা অফ দ্য রেকর্ড।"

কিন্তু এবার হোয়াইট হাউসে যা ঘটলো, মূলধারার প্রতিষ্ঠানের সাংবাদিকদের যেভাবে একটি ব্রিফিং এ নিষিদ্ধ করা হলো, সেটা কি আগে কখনো হয়েছে?

"না আমার অভিজ্ঞতায় আমি এটা দেখিনি। বিশেষ করে হোয়াইট হাউসের ভেতরে এটা কখনো হয়নি। হোয়াইট হাউসের বাইরে আমরা যখন ভ্রমণ করছি, তখন অনেক সময় কেবল ট্রাভেল পুলের সাংবাদিকদের ব্রিফিং-এ ডাকা হয়। তখন কিন্তু বলে দেয়া হয় যে এটা একটা গ্যাগল।"

যেভাবে এখন হোয়াইট হাউসে কিছু সাংবাদিককে কোন কোন ব্রিফিং-এ নিষিদ্ধ করা হচ্ছে, সেটার কি প্রভাব পড়তে পারে এসব সংবাদ প্রতিষ্ঠানের ওপর?

জুয়েল সামাদ বলেন, "এটা যত না এসব প্রতিষ্ঠানের জন্য ক্ষতিকারক হবে তার চেয়ে বেশি ক্ষতি হবে যুক্তরাষ্ট্রের। কারণ ভালো গণতন্ত্রের জন্য মিডিয়াকে স্বচ্ছভাবে কাজ করতে দেয়া দরকার।"

জুয়েল সামাদ বলেন, হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের কাজ করা নিয়ে যে সংকট তৈরি হয়েছে, সেই সংকট থাকবে না বলেই মনে করেন তিনি। কারণ হোয়াইট হাউস করেসপনডেন্টস এসোসিয়েশন একটি শক্তিশালী সংগঠন, এবং তারা একটা সমাধানের পথ খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে। বিবিসি।

এক ছবিতেই শাহরুখ, দীপিকা ও ক্যাটরিনা

এক ছবিতেই শাহরুখ, দীপিকা ও ক্যাটরিনা
কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: এবার এক ছবিতেই বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান, দীপিকা পাড়ুকোন ও ক্যাটরিনা কাইফকে এক সঙ্গে দেখা যাবে বলে জানিয়েছেন ভারতীয় পরিচালক আনন্দ এল রাই।

বলিউডে বামন বা স্বল্প দৈর্ঘ্যের মানুষকে নিয়ে ছবি করতে চলেছেন আনন্দ এল রাই। তাতে মুখ্য ভূমিকায় যে শাহরুখ খান থাকবেন, তা হয়তো অনেকেরই জানা। কিন্তু পরিচালক এবার তার আস্তিনের আরও একটি তাস বার করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, ছবিতে একইসঙ্গে দেখা যাবে বলিউডের দুই প্রথম সারির অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন ও ক্যাটরিনা কাইফকে।

দীপিকা-ক্যাটরিনা দু’জনেই নাকি শাহরুখের সঙ্গে রোমান্স করবেন। এই প্রথম এই দুই অভিনেত্রীকে এক ছবিতে দেখা যাবে।

শোনা যায়, রণবীর কাপুর দু’জনেরই প্রাক্তন বয়ফ্রেন্ড হওয়ায় দীপিকা-ক্যাটরিনার সম্পর্ক মোটেই ভাল নয়। কিন্তু যদি সত্যিই তারা একসঙ্গে এই ছবি করেন, তাহলে বলতে হবে, সম্পর্কের শীতলতার গল্প এখন অতীত, সেখানে উষ্ণতা এসেছে।

জানা গিয়েছে, দুই মহিলা চরিত্রই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও একে অপরের থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন। শিগগিরই এই ছবির চূড়ান্ত ঘোষণা হবে। সামনের মাস থেকে শুরু হবে শ্যুটিং।

বিসিএলে টানা তৃতীয় সেঞ্চুরি করলেন নাঈম

বিসিএলে টানা তৃতীয় সেঞ্চুরি করলেন নাঈম

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: বিসিএলে টানা তৃতীয় ম্যাচে সেঞ্চুরি করলেন নাঈম ইসলাম। দিন শেষে ২৭৫ বলে ১৩৩ রান করে অপরাজিত আছেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। ১৯টি চার ও ১ ছক্কায় এ ইনিংস সাজিয়েছেন নাঈম।

প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে নাঈমের এটা ২১তম সেঞ্চুরি। তুষার ইমরানের সেঞ্চুরির রেকর্ড ছোঁয়া থেকে দূরত্ব মাত্র একটির। এবারের বিসিএলে পাঁচ ম্যাচে নাঈমের এটি চতুর্থ সেঞ্চুরি।

এদিকে প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে তৃতীয় সেঞ্চুরি করেছেন নাজমুল ইসলাম শান্ত।
এ দুই সেঞ্চুরিয়ানের ব্যাটে বিসিএলের পঞ্চম রাউন্ডের দ্বিতীয় দিন শেষে উত্তরাঞ্চলের রান ৬ উইকেটে ৪২২।

আগের দিন মধ্যাঞ্চল গুটিয়ে গিয়েছিল ১৮১ রানেই। দ্রুত ৩ উইকেট হারিয়ে দিনটা স্বস্তিতে শেষ করতে পারেনি উত্তরাঞ্চলও।

এদিন ওয়ানডে মেজাজেই ব্যাট করেছেন নাঈম। নাঈমের ব্যাটে সবসময়ের নির্ভরতা। এগিয়েছেন উইকেট আঁকড়ে রেখে নিজের সবসময়ের চেনা পথে। দুই জমানার দুই ব্যাটসম্যানের দুই ধরনের ব্যাটিংয়ে খেই হারিয়েছে বোলাররা।

৭০ বলে অর্ধশতক স্পর্শ করেছিলেন শান্ত। সেখান থেকে পরের পঞ্চাশ ছুঁয়েছেন ৪৩ বলে! ১৮ চারে ১২৩ করেছেন ১৪২ বলে। নাঈমের সঙ্গে ১৯৭ রানের জুটি গড়ে শরিফুল্লাহর বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরেন শান্ত।

শান্তর পর নাসির হোসেন ফিরে যান অল্পতেই। তবে ধীমান ঘোষকে নিয়ে মধ্যাঞ্চলকে ম্যাচে ফিরতে দেননি নাঈম। ধিমানও রান করেছেন বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে। দিন শেষে ৬৪ রানে অপরাজিত ৭৫ বলে। অবিচ্ছিন্ন সপ্তম উইকেট জুটির রান ১০৯। দুই দিন বাকি থাকতেই ২৪১ রানে এগিয়ে উত্তরাঞ্চল।

বাংলাদেশি পর্যটক আকর্ষণে পশ্চিমবঙ্গের পরিকল্পনা

বাংলাদেশি পর্যটক আকর্ষণে পশ্চিমবঙ্গের পরিকল্পনা

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশের পর্যটকদের কাছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গকে আকর্ষণীয় করে তুলতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে সে রাজ্যের সরকার।

বিভিন্ন পর্যটন সংস্থার সঙ্গে আলোচনা করে সরকার চিন্তাভাবনা করছে যে কীভাবে এক-দু রাতের বদলে বাংলাদেশি পর্যটকদের আরও বেশি সময় পশ্চিমবঙ্গে ধরে রাখা যায়। এইসব ব্যবস্থার মধ্যে আছে সীমান্ত চেকপোস্টে উষ্ণ ব্যবহার, চিকিৎসা সংক্রান্ত হয়রানির অভিযোগ জমা নেওয়া, হালাল খাবারের দোকানগুলির তথ্য দেয়া, পর্যটক-সুবিধা বৃদ্ধি প্রভৃতি।

'ইনবাউন্ড ট্যুর অপারেটার্স কাউন্সিল' হিসাব দিচ্ছে যে প্রতিবছর প্রায় ৫ লক্ষ বাংলাদেশি পর্যটক আসেন পশ্চিমবঙ্গে। কিন্তু তাদের বেশিরভাগই এক বা দুই রাত কলকাতায় কাটিয়ে অন্যান্য রাজ্যে চলে যান। কেউ চলে যান দক্ষিণ ভারতে চিকিৎসা করাতে, কেউ আজমীর শরিফে, কেউ আবার কাশ্মীরে ঘুরতে।

কিন্তু কলকাতা, শান্তিনিকেতন, মুর্শিদাবাদ আর দার্জিলিং পাহাড় রাজ্যের এই জনপ্রিয় পর্যটনস্থলগুলিতে যাতে বাংলাদেশিরা আরও বেশি দিন সময় কাটান, তার ব্যবস্থা করা দরকার বলে মনে করছে পর্যটন সংস্থাগুলির সংগঠন ওই 'কাউন্সিল'।

সংগঠনটির সভাপতি শুদ্ধব্রত বলেছেন, "সুন্দরবন বা দীঘা সমুদ্র সৈকত এই দুটো জায়গায় আমরা বাংলাদেশিদের আকৃষ্ট করতে পারব না, কারণ অরণ্য আর সমুদ্র তাদের দেশেই আছে। আবার যারা জিয়ারত করতে আজমীর যান, সেটাও পশ্চিমবঙ্গে দেওয়া সম্ভব না। কিন্তু এখানেও অনেক গুরুত্বপূর্ণ দরগা-শরিফ আছে, যেগুলোর কথা আমরা বাংলাদেশিদের কাছে তুলে ধরতে পারি। যদি কোনও একটা বিশেষ দেশের মানুষকে আকৃষ্ট করতে চাই আমরা, তাহলে তাদের বিশেষ চাহিদার কথা মাথায় রেখেই আমাদের পর্যটন পরিকাঠামো গড়ে তুলতে হবে, তথ্য ভান্ডার গড়তে হবে।"

পশ্চিমবঙ্গের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব বলেছেন, "লক্ষ লক্ষ মানুষ বাংলাদেশ থেকে পশ্চিমবঙ্গে আসেন। কেউ শিক্ষার জন্য, কেউ চিকিৎসার জন্য, কেউ আবার শুধুই বিনোদনমূলক ভ্রমণের জন্য আসেন। কিন্তু সেই সংখ্যাটা কীভাবে আরও বাড়ানো যায়, আমরা সেটাই চিন্তা করছি। বিশ্বের মানুষের কাছে পশ্চিমবঙ্গকে যেভাবে পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে তুলে ধরার যে ভিশন মমতা ব্যানার্জী নিয়েছেন, সেখানে বাংলাদেশ স্বাভাবিকভাবেই অগ্রাধিকারের জায়গায় আছে। সেই প্রচেষ্টার ফলশ্রুতিতেই আমরা ঢাকায় যাচ্ছি।"

মি. শুদ্ধব্রত দেব বলেছেন, "পশ্চিমবঙ্গে ইতিমধ্যেই যে সব পর্যটনস্থল আছে, সেগুলোতেই বাংলাদেশি পর্যটকদের অন্তত দিন সাতেকের জন্য আকৃষ্ট করা যায়। কোন ধরণের স্বাচ্ছন্দ্য দিলে তারা থাকবেন পশ্চিমবঙ্গে সেটা বুঝতে হবে আমাদের। যেমন বহু বাংলাদেশি এসে হালাল খাবারের খোঁজ করেন, সেটা এখানে খুব বেশি পাওয়া যায় না। চিকিৎসা সংক্রান্ত কোনও অভিযোগ জানানোর জন্য যদি পর্যটন দপ্তরই একটা বিশেষ বিভাগ খোলে, তাহলে বাংলাদেশিরা অন্তত জানবেন যে কোথাও একটা ভরসা করার জায়গা আছে। সীমান্তে যদি একটু উষ্ণ ব্যবহার করা যায়, স্বাগত জানানো যায়, তাহলেও বাইরে থেকে যারা আসছেন, তাদের ভাল লাগে। এগুলো করতে তো খুব বেশি খরচ হয় না, কিন্তু এই ছোটখাটো ব্যাপারগুলোর দিকেও নজর দেওয়া দরকার।"

পশ্চিমবঙ্গের পর্যটনকেন্দ্র আর অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা সম্বন্ধে বাংলাদেশের মানুষের কাছে তথ্য তুলে ধরতেই রাজ্য সরকারের পর্যটন দপ্তরের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধিদল ঢাকা আসছে এপ্রিল মাসে।

বাংলাদেশে ট্যুর অপারেটর্স এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ বা টোয়াবের আয়োজনে আন্তর্জাতিক পর্যটন-বাণিজ্য মেলাতে এবারই প্রথমবার সংগঠিতভাবে হাজির থাকবে পশ্চিমবঙ্গের সরকারি প্যাভিলিয়ন। বাংলাদেশের পর্যটন সংস্থাগুলির সঙ্গেও বৈঠক করবে প্রতিনিধিদল।

কানাইঘাটের সড়কের বাজারে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: কানাইঘাট উপজেলা, পৌরসভা ও কলেজ ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে বৃহত্তর সড়কের বাজার আঞ্চলিক ছাত্রলীগ শাখা আনন্দ মিছিল করেছে। মিছিল পরবর্তী পথসভায় কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তানজিল আহমদের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্তিত ছিলেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি এম মামুন উদ্দিন। কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সফল সদস্য ওয়ালীদ সরকার নুর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কানাইঘাট উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়ক জহিরুল ইসলাম,বক্তব্য রাখেন সড়কের বাজার যুবলীগের সভাপতি গোলাম মোস্তফা রাসেল,বক্তব্য রাখেন সাবেক ছাত্রনেতা আবু সাঈদ,উপস্তিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক মাসুম আহমেদ,জাহাংগীর আলম। সভায় উপস্থিত ছিলেন নবগঠিত কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি আল মাহমুদ ছাবিল,সহ সভাপতি জয়নুল আবেদিন জয়, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দেলওয়াল চৌধুরী, উপস্থিত ছিলেন নবগঠিত কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের সমাজ সেবা সম্পাদক আবু খালেদ আনাছ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আরাফাত সাঈদ, উপ ক্রীড়া সম্পাদক ওয়াহীদ বদরুল, সহ সম্পাদক পঞ্চম নম, পাঠাগার সম্পাদক শিব্বির আহমদ, কানাইঘাট সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের সহ সভাপতি আব্দুল্লাহ আল হাদী,প্রচার সম্পাদক কামরুল ইসলাম, গ্রন্থ প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল কামরান, উপজেলা ছাত্রলীগের উপ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক তায়েফ হাসান। অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন মিশন চন্দ্র,আলী হোসেন,জাহাংগীর, আলমগীর, মনসুর,মান্না,নিরমল,আব্দুর রাহমান, তাহের,খালেদ, সেবুল,ইসমাইল, রঞ্জন,মাসুম, আতিক, খালেদ, নওশাদ,আনোয়ার,আমীর, ইমরান,এমদাদ,জাহেদ,ইবজাল, কামরান, তানভীর, মস্তাক হাবিব,হামিদ,কাসেম,ইকবাল, তোফায়েল,সুলতান প্রমুখ।

বিশেষ বিধান রেখেই বাল্য বিবাহ বিল পাস

বিশেষ বিধান রেখেই বাল্য বিবাহ বিল পাস

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: নারী ও পুরুষের ক্ষেত্রে বিয়ের সর্বনিম্ন বয়স যথাক্রমে ২১ এবং ১৮ বছর নির্ধারণসহ বাল্য বিয়ে নিরোধে প্রয়োজনীয় বিধান করে আজ সংসদে বাল্য বিবাহ নিরোধ বিল-২০১৭ পাস করা হয়েছে।

সোমবার জাতীয় সংসদে এ বিল পাস হয়।

বিলে বিধিমালা দ্বারা নির্ধারিত পদ্ধতি বাল্য বিয়ে প্রতিরোধের জন্য জাতীয়, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে প্রতিরোধ কমিটি গঠন ও এর কার্যাবলী নির্ধারণের বিধান করা হয়েছে। বিধিমালায় স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, বেসরকারি সংস্থার কর্মকর্তা এবং স্থানীয় পর্যায়ের গণ্যমান্য ব্যক্তির সমন্বয়ে এ কমিটি গঠনের বিধান করা হয়েছে।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন। পরে কণ্ঠভোটে বিলটি পাস হয়।

বিলে বাল্য বিয়ে বন্ধে সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তা এবং স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধির সাধারণ ক্ষমতা নির্ধারণ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, উপজেলা মহিলা ও শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা, উপজেলা প্রাথমিক বা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বা স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধি কোনো ব্যক্তির লিখিত বা মৌখিক আবেদন অথবা অন্য কোনো মাধ্যমে বাল্য বিয়ের সংবাদ পেলে তিনি উক্ত বিয়ে বন্ধ করবেন। অথবা বিধিমালার দ্বারা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারবেন।

বিলে স্ব-উদ্যোগে বা কোনও অভিযোগের ভিত্তিতে অথবা অন্য কোনও মাধ্যমে তথ্যের ভিত্তিতে নিশ্চিত হয়ে আদালত কর্তৃক কোনও বাল্য বিয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিধানের প্রস্তাব করা হয়েছে।

বিলে আদালতের নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গকারীকে ৬ মাসের কারাদণ্ড বা অনধিক ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত এবং অনাদায়ে আরও ১ মাসের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান করা হয়েছে।

বিলে বাল্য বিয়ের ক্ষেত্রে মিথ্যা অভিযোগজনিত অপরাধে অনধিক ৬ মাস কারাদণ্ড বা অনধিক ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত এবং অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ১ মাস কারাদণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান করা হয়েছে।

বিলে বাল্য বিয়ে করলে প্রাপ্ত বয়স্ক নারী বা পুরুষ, যিনি দায়ী হবেন তাকে অনধিক ২ বছর কারাদণ্ড বা অনধিক ১ লাখ টাকা অর্থ দণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত এবং অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৩ মাস কারাদণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান করা হয়েছে।

তবে অপ্রাপ্ত বয়স্ক নারী বা পুরুষের ক্ষেত্রে অনধিক ১৫ দিনের আটকাদেশ বা অনধিক ৫ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় ধরনের শাস্তিযোগ্য করার বিধান করা হয়েছে।

বিলে বাল্য বিয়ে সংশ্লিষ্ট পিতা-মাতাসহ অন্যান্য ব্যক্তির ক্ষেত্রে বাল্য বিয়ের জন্য অনধিক ২ বছর ও অন্যূন ৬ মাস কারাদণ্ড বা অনধিক ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত এবং অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৩ মাস কারাদণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান করা হয়েছে।

বিলে বাল্য বিয়ে সম্পাদন বা পরিচালনাকারীর ক্ষেত্রে অনধিক ২ বছর ও অন্যূন ৬ মাস কারাদণ্ড বা অনধিক ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত এবং অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৩ মাস কারাদণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান করা হয়েছে।

বিলে বাল্য বিয়ে নিবন্ধকের ক্ষেত্রে লাইসেন্স বাতিল, তাকে অনধিক ২ বছর ও অন্যূন ৬ মাস কারাদণ্ড বা অনধিক ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত এবং অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৩ মাস কারাদণ্ডের বিধান করা হয়েছে। 
সূত্র:  বিডিলাইভ ।

'আগামী বছরের মধ্যেই পদ্মা সেতুর কাজ শেষ হবে'

'আগামী বছরের মধ্যেই পদ্মা সেতুর কাজ শেষ হবে'
কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ আগামী বছরের ডিসেম্বরের মধ্যেই শেষ হবে।

তিনি আজ সংসদে সরকারি দলের সদস্য মো. শফিকুল ইসলাম শিমুলের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সরকারি দলের সদস্য এনামুল হকের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, দূরপাল্লার রুটে বিআরটিসির বিভিন্ন ধরনের বাস চালু রয়েছে। বর্তমানে ১৩৯টি রুটে ৩২৮টি বাস চলাচল করছে। দূরপাল্লার রুটে বিআরটিসির আরও বাস বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। নতুন ৬শ’টি বাস আমদানি করার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এসব বাস আমদানি করার পর দূরপাল্লার রুটে বাস বৃদ্ধি করা হবে।

সরকারি দলের সদস্য এম, আবদুল লতিফের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, সড়ক মহাসড়কে শৃঙ্খলা বজায় রাখার উদ্দেশ্যে সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

তিনি বলেন, ২০ বছরের অধিক পুরাতন বাস-মিনিবাস ও ২৫ বছরের অধিক পুরানো পণ্যবাহী যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বিআরটিএ’র উদ্যোগে পেশাজীবী গাড়ি চালককে সড়ক নিরাপত্তা, ট্রাফিক আইন ও সচেতনতামূলক বিষয়ে নিয়মিতভাবে স্বল্পমেয়াদী প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, যানজট ও সড়ক দুর্ঘটনা কমানোর জন্য জাল বা ভুয়া ড্রাইভিং লাইসেন্সধারী গাড়িচালক, যান্ত্রিক ত্রুটিপূর্ণ, রংচটা, চলটা উঠা, ফিটনেসবিহীন গাড়ির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে জরুরি সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি প্রচার করা হয়েছে এবং এসবের বিরুদ্ধে বিআরটিএ এবং ঢাকা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের মাধ্যমে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে।

শ্রীলঙ্কায় বন্দিদের বহনকারী ভ্যানে গুলি, নিহত ৭

শ্রীলঙ্কায় বন্দিদের বহনকারী ভ্যানে গুলি, নিহত ৭
কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: শ্রীলঙ্কায় বন্দিদের বহনকারী একটি প্রিজন ভ্যানে বন্দুকধারীরা গুলি চালিয়ে সাতজনকে হত্যা করেছে। সোমবার এ ঘটনা ঘটেছে বলে রয়টার্স অনলাইনের এক খবরে জানানো হয়েছে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ভূমি নিয়ে বিরোধের জেরে অন্য পক্ষের লোকজন এ হামলা চালিয়ে থাকতে পারে। প্রিজন ভ্যানে বন্দিদের বহন করে আদালতে নেওয়া হচ্ছিল।

শ্রীলঙ্কার কারা বিভাগের মুখপাত্র থুরাসা উপুলদেনিয়া জানিয়েছেন, বন্দিদের বহনকারী ভ্যানটি আদালতে যাওয়ার পথে একদল অস্ত্রধারী আটকায়। এরপর তারা গুলি চালাতে থাকে।

বিরোধপূর্ণ দুই পক্ষের কারণে এই হামলা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিদায়ের সুর অমর একুশে বইমেলায়

বিদায়ের সুর অমর একুশে বইমেলায়
কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: বিদায়ের সুর বেজেছে অমর একুশে বইমেলায়। বাঙালির প্রাণের এ মেলা শেষ হচ্ছে কাল। তাই বইপ্রেমিরা আর দেরি করছেন না পছন্দের বইটি সংগ্রহ করতে ছুটছেন মেলায়। সবার হাতে হাতে বই। স্টলে বইপ্রেমিকদের ভিড়। বই কিনে সবাই হাসিমুখে বাড়ি ফিরেছেন। ভিড় ঠেলে, স্টলের সামনে দীর্ঘসময় অপেক্ষা করে বই সংগ্রহ করেছেন সবাই।

এদিকে, শেষ বেলায় বাংলা একাডেমি মেলা শুরুর সময় বাড়িয়েছে, শেষদিন সকাল এগারোটায় খুলবে মেলার দ্বার। সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর মেলায় এক অনুষ্ঠানে সকাল থেকে মেলা শুরুর ঘোষণা দেন। পরে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান সাংবাদিকদের কাছে মেলার সময় বাড়ানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

গতকাল ৪৬টি নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। এরমধ্যে তানিয়া খুশবু রাখির কাব্যগ্রন্থ ‘আলোকপাখি ও ক্ষরণ’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেন সাংবাদিক ইশতিয়াক রেজা। বইটি প্রকাশ করেছে শ্রাবণ প্রকাশনী। এছাড়া গণসঙ্গীতশিল্পী ফকির আলমগীরের গ্রন্থ ‘পপ গানের সেকাল একাল’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেন সংসদ সদস্য গাজী গোলাম দস্তগীর, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, ড. তপন বাগচী ও গ্রন্থের লেখক ফকির আলমগীর। বইটি প্রকাশ করেছে মিজান পাবলিশার্স।

গতকাল মেলায় নতুন বই এসেছে ১০৩টি। এরমধ্যে পলল প্রকাশনী এনেছে ড. অলিউর রহমানের ‘সাংবাদিকতা ধারণা ও কৌশল’, অন্য প্রকাশ এনেছে রবীন্দ্রনাথ রায় চৌধুরীর ‘আলো অন্ধকারে যাই’, জয়তী এনেছে হামিদ কায়সারের ‘অগ্রন্থিত রশিদ করিম’, আনজির লিটনের ‘আনারসের ঢাকা সফর’, দাউদ হায়দারের ‘লক্ষীছাড়ার ইহলোক, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর ‘পিতার হুকুম মাতা ও পুত্রের জন্য’, চন্দ্রাবতী একাডেমি এনেছে শামসুজ্জামান খানের ‘কিশোর সমগ্র’, মঞ্জু সরকারের ‘অচল ঘাটের আখ্যান’, কাইজর চৌধুরীর ‘সুমনের বন্ধু’, ইতি প্রকাশনী এনেছ আনিসুল হকের ‘কিশোর সমগ্র ৪’, সমগ্র প্রকাশন এনেছে আসিফ নুরের ‘খেয়ালি খেয়া’, মহাকাশ প্রকাশনী এনেছে জালাল আহমেদের ‘নিশি কুহক’।

উত্তর কোরিয়ার কর্মকর্তাদের ভিসা বাতিল করলেন ট্রাম্প

উত্তর কোরিয়ার কর্মকর্তাদের ভিসা বাতিল করলেন ট্রাম্প
কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: আগামী সপ্তাহে নিউইয়র্কে মার্কিন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসার কথা ছিল উত্তর কোরিয়ার ছয় সদস্যের একটি দলের। সম্প্রতি বেসরকারি পর্যায়ের ওই বৈঠক বাতিল হয়ে গেছে। কারণ কোরিয়ার ওই প্রতিনিধি দলের ভিসা বাতিল করে দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন।

তবে ঠিক কী কারণে ভিসা বাতিল করা হয়েছে, সেটা বলা হয়নি। এই বৈঠকে উত্তর কোরিয়ার দলটিকে নেতৃত্ব দেয়ার কথা ছিল চোই সন-হুউয়ের।

আমেরিকা থেকে পাঠানো একটি ই-মেইলে বৈঠক হওয়ার কথা জানানো হয়। পরে আরও একটি ই-মেইল পাঠানো হয়। কোরিয়ার প্রতিনিধি দলের উদ্দেশ্যে পাঠানো ওই ই-মেইলে বলা হয়, আপনাদের ভিসা বাতিল করা হয়েছে এবং বৈঠকটিও বাতিল করা হয়েছে।

মৌমাছিদের ফুটবল শেখালেন বিজ্ঞানীরা

মৌমাছিদের ফুটবল শেখালেন বিজ্ঞানীরা

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: ফুটবল খেলাটা মানুষের পাশাপাশি মৌমাছিরাও ভালো বোঝে- মৌমাছিদের ফুটবল খেলা দেখিয়ে তারই প্রমাণ দিলেন বিজ্ঞানীরা।

লন্ডনের কুইন মেরি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা তাদের গবেষণায় বেশ কয়েকটি মৌমাছিকে ক্ষুদ্র হলুদ রঙের বল দিয়ে গোল দেওয়া শিখিয়েছে। আরো চমকপ্রদ ঘটনা হচ্ছে, কয়েকটিকে শেখাতেও হয়নি বরঞ্চ অন্যদের দেখাদেখি নিজেরাই আরো ভালোভাবে গোলের মধ্যে বল রাখলে সফল হয়েছে। গবেষণাটি জার্নাল সায়েন্সে প্রকাশিত হয়েছে।

এর মাধ্যমে বিশ্বে প্রথমবারের মতো কীটপতঙ্গ দেখিয়েছে যে, তারা একটি জটিল দক্ষতা অর্জন করতে পারে এবং তার ওপর উন্নতি করতে পারে। বিজ্ঞানীদের গবেষণায় এই প্রথম দেখা গেছে যে, মৌমাছি দেখে শিখতে পারে এবং শুধু অনুকরণ নয় বরঞ্চ তার চেয়ে ভালো ও করতে পারে। এই দক্ষতা শুধুমাত্র এতদিন মানুষ, প্রাইমেট গোত্রের প্রাণী এবং ডলফিনের মতো সামুদ্রিক স্তন্যপায়ীতে দেখা গেছে।

গবেষণা প্রকল্পটির কর্মকর্তা অধ্যাপক লার্স চিট বলেন, ‘পোকামাকড়ের ছোট মস্তিষ্কে সীমিত আচরণগত নমনীয়তা এবং সহজ শেখার ক্ষমতা রয়েছে।’

গবেষণায় প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কিছু মৌমাছি সরাসরি কেন্দ্রে বল নিয়ে যায়। একটি গ্রুপ চুম্বকের প্লাস্টিকের মৌমাছিকে দেখে বল কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া শিখেছে এবং তৃতীয় গ্রুপকে কোনো প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়নি, দেখেই শিখেছে। পুরস্কার হিসেবে গোল কেন্দ্রেই মধু খেতে দেওয়া হয়েছে সফল মৌমাছিগুলোকে।

গবেষকরা বলেন, যেসব মৌমাছি পর্যবেক্ষণ করে শিখেছে তারা বেশি দক্ষ ছিল, যার মানে হচ্ছে, মৌমাছিকে প্রশিক্ষিত করা যেতে পারে। এটা হতে পারে যে ভ্রমর, অনেক অন্যান্য প্রাণীদের জটিল কাজগুলো সমাধান করার জ্ঞানীয় ক্ষমতা আছে।

কানাইঘাট আন্তঃইউপি ফুটবল লীগ ! দ্বিতীয় বারের মতো চ্যাম্পিয়ান হলো পৌরসভা


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট ক্রীড়া সংস্থার উদ্যোগে মাসব্যাপী অনুষ্ঠিত আন্তঃইউপি ফুটবল টুর্নামেন্টে ২৩ ফেব্রুয়ারি উপজেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য ফাইনাল খেলায় কানাইঘাট পৌরসভা ১-০ গোলে ৮ নং ঝিংগাবাড়ী
ইউপি দলকে হারিয়ে জয়লাভ করে। এর আগে ২০১২ সালে কানাইঘাট মনসুরিয়া মাদ্রাসা মাঠ সংলগ্ন মাঠে উপজেলা সদরকে ট্রাইব্রেকার শর্টে  হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান হওয়ার গৌরব অর্জন করেছিলো কানাইঘাট পৌরসভা। কানাইঘাট আন্তঃইউপি ফুটবল টুর্নামেন্টে দ্বিতীয় বারের মতো চ্যাম্পিয়ান হয়েছে কানাইঘাট পৌরসভা।

তুলসী পাতার রসে গলে যাবে কিডনির পাথর

তুলসী পাতার রসে গলে যাবে কিডনির পাথর

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: সবুজ রঙের গুল্মজাতীয় একটি উপকারি উদ্ভিদ তুলসী। তুলশী গাছের পাতায় রোগ সারানোর অনেক উপকারি গুণ রয়েছে। তুলসীপাতার রস বা চা প্রতিদিন একগ্লাস করে পান করলে, আমাদের কিডনিতে পাথর হওয়ার শঙ্কা কমে যায়। আর যদি কিডনিতে পাথর জমে তাহলে তুলসী পাতার রস টানা ৬ মাস পান করলে সেই তা গলে প্রস্রাবের সঙ্গে বেরিয়ে যায়।

সর্দি, কাশি, কৃমি, প্রস্রাবে জ্বালা কমায়, হজম কারক ও কফ গলাতেও দারুণ কাজ করে তুলসীপাতা। ক্ষত সারাতে এটি এন্টিসেপটিক হিসেবেও কাজ করে।

তুলসিপাতা দিয়ে চা ও মিশ্রণ তৈরির কয়েকটি প্রস্তুত প্রণালী নিচে তুলে দেয়া হলো:

তুলসীর পানি প্রস্তুত:
এই মিশ্রণটি গলা ব্যথা ও খুসখুসে কাশি কমিয়ে আপনাকে আরাম দেবে।

উপকরণ: দুই কাপ পানি ও কয়েকটি পাতা।

প্রস্তুত প্রণালী:
একটি পাত্রে দুই কাপ পানি নিন। এর সঙ্গে কয়েকটি তুলসিপাতা সিদ্ধ করুন। ফুটে উঠলে নামিয়ে পান করতে পারেন।

তুলসী-চা প্রস্তুত:
এই চা পান করলে আপনার শরীর উষ্ণ থাকবে।

উপকরণ: ১০-১৫টি তুলসীপাতা, গুড়, পানি ও লেবুর রস।

প্রস্তুত প্রণালী:
প্রথমে গুড় ও তুলসীপাতা বেটে নিন। এর মধ্যে দেড় কাপ পানি ও এক চামচ লেবুর রস মিশিয়ে চুলায় বসান। মিশ্রণটি ফুটে উঠলে নামিয়ে ফেলুন।
  
ভেষজ তুলসী-চা প্রস্তুত:
এই ভেষজ তুলসী-চা আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং ডেঙ্গু ও ম্যালেরিয়া রোগ থেকে বাঁচানোর ক্ষমতা রাখে।

উপকরণ: এক টুকরো আদা, গোলমরিচ, লবঙ্গ, তুলসীপাতা, দারুচিনি, এলাচ পরিমাণ মতো।
 
প্রস্তুত প্রণালী:
পরিমাণমতো পানিতে উপরের উপকরণগুলো মিশিয়ে জ্বাল দিন। ১০ মিনিট পর নামিয়ে ছেকে পান করতে পারেন।

এবার জেনে নেই কিভাবে হার্বাল জুস তৈরি করা যায়।
হার্বাল জুস প্রস্তত:
এই জুস প্রতিদিন পান করলে হজমশক্তি বাড়বে এবং পানিশূন্যতা থেকেও আপনাকে রক্ষা করবে।

উপকরণ: আজওয়াইন, তুলসীপাতা, জিরা, আমচুর গুঁড়া, লবণ এবং পুদিনা পাতা পরিমাণ মতো।
 
প্রস্তুত প্রণালী:
চার কাপ পানিতে উপরের উপকরণগুলো মিশিয়ে ১০-১৫ মিনিট জ্বাল দিন। এরপর পান করুন।

দীর্ঘজীবী হতে দিনে ৮০০ গ্রাম ফল, শাক-সবজি খান

দীর্ঘজীবী হতে দিনে ৮০০ গ্রাম ফল, শাক-সবজি খান

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: লন্ডনের ইমপেরিয়াল কলেজের এক গবেষণায় বলা হয়েছে, প্রতিদিন নানা ধরনের ৮০০ গ্রাম ফল ও শাক-সবজি খেলে দীর্ঘজীবী হবার সম্ভাবনা বাড়ে।

তবে ৮০০ গ্রাম ফল ও শাক-সবজি একবারে না খেয়ে দিনে ১০ বারে খেতে হবে। সেজন্য বিভিন্ন ধরনের ফল ও শাক-সবজি খেতে হবে একবারে ৮০ গ্রাম করে।

৯৫টি আলাদা গবেষণার তথ্য-উপাত্ত একত্রিত করে এ গবেষণার উপসংহারে পৌঁছানো হয়েছে। এত সব মিলিয়ে প্রায় ২০ লাখ মানুষের খ্যাদ্যাভাসের চিত্র উঠে এসেছে।

মানুষ কিভাবে দীর্ঘজীবী হতে পারে কিংবা কিভাবে তারা রোগ প্রতিরোধ করতে পারে সে বিষয়ে গবেষণার অন্ত নেই। পাশ্চাত্যে এ নিয়ে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানে নানা গবেষণা হচ্ছে।

ইমপেরিয়াল কলেজের গবেষকরা বলছেন, এভাবে খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুললে বিশ্বের প্রতি বছর প্রায় ৮০ লাখ মানুষ অপরিণত বয়সে মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পাবে।

গবেষকরা বলছেন, এমন কিছু ফল ও সবজি আছে যেগুলো খেলে ক্যান্সার ও হৃদরোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব।
সবুজ শাক-সবজি, হলুদ রংয়ের সবজি- বিশেষ করে ক্যাপসিকাম ও ফুলকপি-বাঁধাকপি জাতীয় সবজি খেলে ক্যান্সারের ঝুঁকি কমবে বলে জানাচ্ছেন গবষকরা।

গবেষকরা বলছেন, হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমানোর জন্য আপেল, নাশপাতি, লেবু জাতীয় ফল, সালাদ, সবুজ পাতার শাক বেশ কার্যকরী হতে পারে।

তবে প্রতিদিন ৮০০ গ্রামের বেশি ফল ও সবজি খেলে স্বাস্থ্যের জন্য আরো বেশি উপকার হবে কিনা সে বিষয়ে নিশ্চিত নন গবেষকরা। সূত্র: বাসস

‘আমাকে মাফ করে দিও, মনে হয় এ বাড়িতে আর আসা হবে না’

‘আমাকে মাফ করে দিও, মনে হয় এ বাড়িতে আর আসা হবে না’

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: গাইবান্ধা-১ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য মনজুরুল ইসলামকে লিটন হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন জাতীয় পার্টির সাবেক সাংসদ আবদুল কাদের খান। পুলিশের রিমান্ডে থাকার তিন দিনের মাথায় শনিবার বিকেলে তিনি এই জবানবন্দি দেন।

এর আগে সাংসদ লিটন হত্যায় জড়িত থাকার সন্দেহে জাতীয় পার্টির সাবেক সাংসদ ও অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা কাদের খানকে বগুড়া শহরের বাসায় ছয় দিন ‘নজরবন্দী’ করে রাখার পর গত মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরদিন গাইবান্ধার আদালতে হাজির করে তাকে ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। ওই দিন রাতেই কাদের খানকে সঙ্গে নিয়ে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম ছাপরহাটি খানপাড়ায় তার গ্রামের বাড়ি থেকে ছয়টি গুলিসহ একটি পিস্তল উদ্ধার করে পুলিশ।

ওই দিন কাদের খান ঘটনাস্থলে উপস্থিত তার ছোট ভাই ইউসুফ খানের স্ত্রী ফিরোজা বেগমের কাছে ক্ষমা চান। গতকাল দুপুরে কাদের খানের বাড়ির আঙিনায় বসে ফিরোজা বেগম বলেন, ওই দিন তিনি ঘুমিয়ে ছিলেন। পুলিশের কয়েকজন সদস্য তাকে ডেকে তুলে ঘরের পাশের গরুর খামারের দিকে নিয়ে যান। সেখানে গিয়ে তিনি হেলমেট ও হাতকড়া পরা অবস্থায় ভাশুর কাদের খানকে দেখতে পান। তখন কাদের খান ফিরোজাকে বলেন, ‘তোমরা আমাকে মাফ করে দাও। আমাকে বিদায় দাও। মনে হয় এ বাড়িতে আর আসা হবে না।’

ফিরোজা বেগম বলেন, ‘একপর্যায়ে ভাইজান (কাদের খান) পুলিশ সদস্যদের বলেন, আমার পরিবারের কাউকে কিছু জিজ্ঞেস করবেন না। ওরা কিছু বোঝে না। কেউ কিছু জানে না।’

আবদুল কাদের খান পেশায় চিকিৎসক। তার বাবা নয়ন খাঁ ছিলেন পেশায় কৃষক। পাঁচ ভাই ও পাঁচ বোনের মধ্যে কাদের তৃতীয়। সাংসদ মনজুরুল ইসলাম হত্যার পর ওই আসনে উপনির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থী ছিলেন তিনি।

পুলিশের মহাপরিদর্শক (অব.) এ কে এম শহীদুল হক বুধবার চট্টগ্রামে সাংবাদিকদের বলেন, সাংসদ মনজুরুল হত্যার পরিকল্পনাকারী কাদের খান। তার ইচ্ছা ছিল মনজুরুলকে সরিয়ে পথ পরিষ্কার করে পরবর্তী সময়ে সাংসদ হবেন।
সূত্র:বিডিলাইভ ।

'আ'লীগ ক্ষমতায় আসার পর দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন হয়েছে'

'আ'লীগ ক্ষমতায় আসার পর দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন হয়েছে'
কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন হয়েছে। মানুষ এখন পেট ভরে ভাত খেতে পায়, শান্তিতে ঘুমাতে পারে।

আজ বগুড়া জেলার আদমদিঘীতে শান্তাহার স্টেডিয়ামে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

এসময় শান্তি-শৃঙ্খলা ও উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে আগামী নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে পুনর্নির্বাচিত করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০১৯ সালের মধ্যে যে নির্বাচন অনুুষ্ঠিত হবে, আপনারা যদি এই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে চান তাহলে সেই নির্বাচনে আপনারা আওয়ামী লীগকে পুনর্নির্বাচিত করুন। যাতে করে আমরা পুনরায় আপনাদের সেবা করার সুযোগ পাই।

শেখ হাসিনা বলেন, এ দেশে কেউ আর না খেয়ে থাকবে না, কেউ বেকার থাকবে না। গৃহহীনদের জন্য বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াত স্কুল-কলেজে আগুন দিয়ে শিক্ষাব্যবস্থা ধ্বংস করার চেষ্টা করেছিল কিন্তু আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে দেশের শিক্ষাব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন করেছে। বছরের শুরুতেই শিক্ষার্থীদের হাতে হাতে নতুন বই তুলে দেওয়া হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, কৃষকদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্যে নিশ্চিত করতে এবং দীর্ঘ সময় ধরে চাল মজুত রাখতে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে এই প্রথম সান্তাহারে আধুনিক খাদ্যগুদাম নির্মাণ করা হয়েছে—যেখানে ২৫ হাজার মেট্রিক টন চাল মজুত থাকবে। এই চাল দিয়ে আপৎ​কালীন খাদ্যঘাটতির মোকাবিলা করা যাবে।

তিনি বলেন, 'আমি শুধু এটুকুই বলবো, নৌকা যখন ক্ষমতায় আসে তখন বাংলাদেশের মানুষ কিছু হলেও পায়'। আর ধানের শীষ যখন ক্ষমতায় আসে তখন ধানে চিটা ধরে যায় এবং দেশে খাদ্যাভাব দেখা দেয়। দেশে লুটপাট, দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ সৃষ্টি হয়।

আদমদিঘী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনসার আলী মৃধার সভাপতিত্বে জনসভায় সভায় আরো বক্তৃতা করেন ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ, খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিব সম্পাদক আবু সাইদ আল মামুদ স্বপন, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মমতাজ উদ্দিন প্রমুখ। 
সূত্র:বিডিলাইভ ।

ছাত্রলীগের কমিটির বিরুদ্ধে কানাইঘাটে ঝাড়ু মিছিল

Kanaighat News on Sunday, February 26, 2017 | 9:25 AM


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: নব গঠিত কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগ কমিটিকে অবাঞ্ছিত ঘোষনা করে কানাইঘাট বাজারে ঝাড়ু মিছিল করা হয়। শনিবার রাতে মিছিল শেষে কানাইঘাট বাজারে পয়েন্টে একটি পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। পথসভায় নবগঠিত কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি হুমায়ন কবির তারেক ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন ও পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশফাক হোসেনের সভাটি পরিচালনা করেন। সভাপতির বক্তেব্য পথসভায় হুমায়ন কবির তারেক বলেন, ছাত্রদল, ছাত্রশিবির, অছাত্র, বিবাহিত ও চাকরিজীবীদের দিয়ে একটি পকেট কমিটি করা হয়েছে। আমরা এই কমিটিকে কানাইঘাটে অবাঞ্ছিত ঘোষনা ও পদত্যাগ করছি।এই কমিটি বাতিল করা না পর্যন্ত আমরা আন্দোলন করে যাব । সভায় বক্তব্য রাখেন- নব গঠিত কমিটির উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাহির কাহার, উপ দপ্তর সম্পাদক আশরাফ চৌধরী, গ্রন্থ ও প্রকাশনা সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো. শহীদুল্লাহ, নবগঠিত পৌর ছাত্রলীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক সেবুল আহমদ, কানাইঘাট সরকারি কলেজ শাখার নবগঠিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাজু আহমদ, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন, রিজবি, মুন্না, কানাইঘাট কলেজ ছাত্রলীগ নেতা ,ডালিম, সাহেদ, মারফ, আফজাল প্রমুখ। প্রসঙ্গত, প্রায় এক যুগ পর সিলেটের সীমান্তবর্তী কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার ছাত্রলীগের জেলা সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ ও সাধারণ সম্পাদক এম. রায়হান চৌধুরী আগামী এক বছরের জন্য ওই কমিটির অনুমোদন করেন। 
সূত্র: সিলেট ভিউ

নতুন কমিটি পেলো কানাইঘাট পৌর ছাত্রলীগ


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: সিলেটের কানাইঘাট পৌরসভা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার ছাত্রলীগের জেলা সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ ও সাধারণ সম্পাদক এম. রায়হান চৌধুরী আগামী এক বছরের জন্য ওই কমিটির অনুমোদন করেন। এতে নোমান আহমদ রুমান সভাপতি ও মো. আশফাক হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। ২৪ সদস্য বিশিষ্ট কমিটিতে সহ সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছেন আফতাব উদ্দিন, মাহবুব আলম তামিম, মনির উদ্দিন, আল-মারুফ চৌধুরী, ফজলুর রহমান ফজলু, রিয়াজ উদ্দিন, নজির আহমদ তুহিন, অজয় দাস, রাশেদুল ইসলাম কামরান। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন মিজান, ফয়সল আহমদ তাহের, মো. জুনেদ আহমদ (৫নং ওয়ার্ড), মামুন রশিদ, এহসানুল করিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান আহাদ, মো. সেবুল আহমদ, রেজুয়ান এইচ. মিনু, কামরুজ্জামান রুমেল, মো. মামুনুর রহমান। প্রচার সম্পাদক আবু তাহের, দপ্তর সম্পাদক জুনেদ আহমদ এবং গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে জিসান আহমদ পাপলুকে মনোনিত করা হয়েছে। 
সূত্র: সিলেট ভিউ।

কানাইঘাট ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: কানাইঘাট ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার ছাত্রলীগের জেলা সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ ও সাধারণ সম্পাদক এম. রায়হান চৌধুরী আগামী এক বছরের জন্য ওই কমিটির অনুমোদন করেন। এতে আব্দুর রহমান সভাপতি ও সাজু আহমদকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। ১৯ সদস্য বিশিষ্ট কমিটিতে সহ সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছেন মিজানুর রহমান মিজান, আমিনুর রশিদ তুহিন, সাদ উদ্দিন, মাহবুব হোসেন রহমত, আব্দুল্লাহ আল হাদি মুন্না, তানিম আহমদ। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম. সুলতান আহমদ, নুরুল আলম রাজু, শাহিন আহমদ, নাসির আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সালাউদ্দিন, মো. জাকারিয়া, কাওসার আহমদ, নাঈম উদ্দিন, প্রচার সম্পাদক কামরুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক মো. আলিম উদ্দিন এবং গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল কামরানকে মনোনিত করা হয়েছে। 
সূত্র: সিলেট ভিউ।

কানাইঘাট ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পেলেন যারা...


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: প্রায় এক যুগ পর সিলেটের সীমান্তবর্তী কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার ছাত্রলীগের জেলা সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ ও সাধারণ সম্পাদক এম. রায়হান চৌধুরী আগামী এক বছরের জন্য ওই কমিটির অনুমোদন করেন। এতে মো. আক্তার হোসেন- কে সভাপতি ও মো. মারুফ আহমদকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। ৬৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটিতে সহ সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছেন হুমায়ুন কবির তারেক, আল-মাহমুদ ছাবিল, মো. আশফাক উজ্জামান, মো. ছামির উদ্দিন, মামুনুর রশিদ রাজু, ফজলে রব্বানী, মো. মাহফুজ সিদ্দিকী, মো. জুনেদ আহমদ (বড়দেশ), কামরান হোসেন শাকিল, মাহমুদুল হাসান চৌধুরী, জয়নাল আবেদীন জয়, লালন হোসেন মুন্না। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নূরুল আলম সুমন, জেড. আই নাবিল, দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, মো. মাছুম কাদির. আব্দুল কাহির কাহার, সাংগঠনিক সম্পাদক তানজিল আহমদ, মো. আকছর আহমদ, জুবেল আহমদ, মো. আবু জহর ও সুলতান আহমদ। প্রচার সম্পাদক মো. আফসার আহমদ, উপ প্রচার সম্পাদক আরিফুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক জুবায়ের আহমদ তুহিন, উপ দপ্তর সম্পাদক মো. আশরাফ চৌধুরী, গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. দেলোয়ার হোসেন, উপ গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মুনতাসির আহমদ, শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদক আব্দুল মাওলা, উপ শিক্ষা ও পাঠচক্র সম্পাদক মো. কামরুল ইসলাম, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো. শহিদুল্লাহ, উপ সাংস্কৃতিক সম্পাদক অর্পন দাস। সমাজসেবা সম্পাদক আবু খালেদ আনাছ, উপ সমাজসেবা সম্পাদক আদিলুর রহমান, ক্রীড়া সম্পাদক আহমদ হোসেন চৌধুরী মুন্না, উপ ক্রীড়া সম্পাদক বদরুল আলম (সড়কের বাজার), পাঠাগার সম্পাদক মো. শিব্বির আহমদ, উপ পাঠাগার সম্পাদক আদনান সামি, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এম এইচ রানা, উপ তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এনামুল হক মাছুম, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক তানভির শাহরিয়ার, উপ অর্থ বিষয়ক সম্পাদক রুহুল আমিন। আইন বিষয়ক সম্পাদক মো. আমিন উদ্দিন, উপ আইন বিষয়ক সম্পাদক মো. সুফিয়ান আহমদ, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক তাজুল ইসলাম বিপ্লব, উপ পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল কাহির ডালিম, স্কুল ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মো. জুনেদ আহমদ ইমন (রাজাগঞ্জ), উপ স্কুল বিষয়ক সম্পাদক জাকের আহমদ, বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মো. ইউসুফ, উপ বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক তায়েফ আহমদ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আরাফাত সাঈদ, উপ ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আবুল হাসান তায়েফ। গণ শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মো. দুলাল আহমদ, উপ গণ শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক রেজুয়ানুল করিম, ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ওয়ালিদুর রহমান (ঝিঙ্গাবাড়ী), সহ-সম্পাদক পদে মাহফুজ আহমদ, সেলিম আহমদ, আসাদুজ্জামান রুবেল, পঞ্চম নম:, ইমরান আহমদ এবং তাফসির আহমদ রিসানকে মনোনিত করা হয়েছে। 
 সূত্র: সিলেট ভিউ।

কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা

Kanaighat News on Saturday, February 25, 2017 | 11:46 PM


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: প্রায় এক যুগ পর সিলেটের সীমান্তবর্তী কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার ছাত্রলীগের জেলা সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ ও সাধারণ সম্পাদক এম. রায়হান চৌধুরী আগামী এক বছরের জন্য ওই কমিটির অনুমোদন করেন। এতে মো. আক্তার হোসেনকে সভাপতি ও মো. মারুফ আহমদকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। তাছাড়া সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পেয়েছেন তানজিল আহমদ, মো. আকছর আহমদ, জুবেল আহমদ, মো. আবু জহর ও সুলতান আহমদ। এছাড়া কমিটিতে সহ সভাপতির পদে ১২ জন, যুগ্ম সম্পাদক পদে ৫ জনসহ বিভিন্ন সম্পাদকীয় পদ মিলিয়ে ৬৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।
সূত্র:সিলেট ভিউ

কানাইঘাট সীমান্তে ভারতীয় খাসিয়াদের গুলিতে ৪ বাংলাদেশী আহত


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট উপজেলার সীমান্তবর্তী ২নং লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউনিয়নের বড়বন্দ সিঙ্গারী খাল এলাকার ১৩১০ সীমান্ত মেইন পিলারে বাংলাদেশ অভ্যন্তরে ভারতীয় খাসিয়াদের গুলিতে ৪ বাংলাদেশী গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,শনিবার সকাল অনুমান ৮টার দিকে ভারতের মেঘালয় রাজ্যের কানাইঘাট সীমান্তের লোহাশুনি খাসিয়া পুঞ্জি থেকে খাসিয়া পান কিনে আনার সময় বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ডুকে অস্ত্রধারী খাসিয়ারা ৪ বাংলাদেশী পান বহনকারীর উপর গুলি ছুড়তে থাকে। এসময় খাসিয়াদের গুলিতে লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপির বড়বন্দ ৩য় খন্ড গ্রামের মুসা মিয়ার পুত্র ফয়সল আহমদ (২৮), একই গ্রামের সুরুজ আলীর পুত্র নাজিম উদ্দিন (২৪), কুটি মিয়ার পুত্র এনাম উদ্দিন (২২) এবং হখই মিয়ার পুত্র শামিম আহমদ (৩০) আহত হয়। পরে আহতদের স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে তাদের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি স্বীকার করে কানাইঘাট থানার ওসি (তদন্ত) কামাল হোসেইন কানাইঘাট নিউজকে জানিয়েছেন, ভারতীয় খাসিয়াদের গুলিতে স্থানীয় ৪ বাংলাদেশী আহতের খবর পেয়েছি। তাদের চিকিৎসার জন্য ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে কি কারণে এঘটনাটি ঘটেছে এ ব্যাপারে তিনি কিছু বলেননি।

কোম্পানীগঞ্জ থানায় নতুন ওসির যোগদান


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ থানায় নতুন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলতাফ হোসেন বৃহস্পতিবার দুপুরে থানায় যোগদান করেন। তিনি এর আগে চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ থানায় কর্মরত ছিলেন। যোগদানের পর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলাবাসীর কাছে সার্বিক কাজে সহযোগিতা কামনা করেছেন। উল্লেখ্য, শাহ আরফিন টিলা ট্র্যাজেডির ঘটনায় ওই থানার ওসি বায়েছ আলমকে গত ১১ ফেব্রুয়ারি প্রত্যাহার করা হয়। এরপর থানার নতুন ওসি হিসেবে পদায়ন পান আলতাফ।

চিলিতে আবারও ভয়াবহ দাবানল

চিলিতে আবারও ভয়াবহ দাবানল
কানাইঘাট নিউজ  ডেস্ক: চিলিতে আবারও ভয়াবহ দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। বিওবিও প্রদেশে এই দাবানলের ঘটনায় জারি করা হয়েছে সর্বোচ্চ সতর্কতা। সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে সেখানকার বাসিন্দাদের।

একে সাম্প্রতিক ইতিহাসে সবচেয়ে ধ্বংসাত্মক দাবানল বলে আখ্যা দিয়েছে দেশটির সরকার।

চলতি মাসের শুরুতে দাবানলে ১১ জন নিহতের খবর পাওয়া যায়।

এছাড়াও পুড়ে যায় প্রায় ১৫ শ’ ঘর-বাড়ি। এসব ঘটনায় প্রায় ৩৫ কোটি মার্কিন ডলার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানায় গণমাধ্যম। দমকলবাহিনী দাবানল নিয়ন্ত্রণে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

বিএনপি জনগণের ওপর নির্ভর না: মতিয়া

বিএনপি জনগণের ওপর নির্ভর না: মতিয়া

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি বলেছেন, বিএনপির জনগণের ওপর নির্ভর না করে সন্ত্রাসের ওপর নির্ভর করে বলেই পেট্রোলবোমা মেরে মানুষ হত্যা করে।

তিনি বলেন, 'বিএনপি জনগণের ওপর নির্ভর না করে সন্ত্রাসের ওপর নির্ভর করে। তাই তারা পেট্রলবোমা মেরে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করে।'

বেগম মতিয়া চৌধুরী আজ বিকেলে রাজধানীর গুলিস্থানের গণগ্রন্থাগার কেন্দ্র মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কৃষক লীগের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেন, 'কানাডার আদালত বলেছে বিএনপি সন্ত্রাসী সংগঠন। আর বিএনপি এখন বলছে, আমরা কানাডার আদালতের রায়কে প্রভাবিত করেছি। কেউ পাগল না হলে এ ধরনের কথা বলতে পারে না।'

তিনি বলেন, 'কানাডায় বঙ্গবন্ধুর হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত আসামী পালিয়ে রয়েছে। আমরা সে খুনীদের ফেরত চেয়েছি। কিন্তু সেদেশে মৃত্যুদণ্ডের বিধান না থাকায় তারা বঙ্গবন্ধুর খুনীদের ফেরত দিচ্ছে না।'

কৃষিমন্ত্রী বলেন, আর বিএনপি বলছে সরকার সেদেশের আদালতের রায়কে প্রভাবিত করেছে। তারা দেউলিয়া না হলে এ ধরনের কথা বলতে পারে না।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা সম্পর্কে কৃষিমন্ত্রী বলেন, 'বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিরন্তর সংগ্রামের ফসল আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। কারণ প্রথমে বঙ্গবন্ধু এবং তারপর তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে বাংলা ভাষায় ভাষণ দান করেন।'

বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে মতিয়া আরো বলেন, 'যারা জাতিসংঘে বাংলায় ভাষণ দিতে লজ্জা পেয়েছে তারা এ দেশী নয়। একুশের প্রথম প্রহরে শহীদে মিনারে তিনি যা করেছেন জাতি হিসেবে সত্যি তা লজ্জাকর।'

কৃষক লীগের সভাপতি মো. মোতাহার হোসেন মোল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ-সভাপতি খান আলতাফ হোসেন ভুলু, ওমর ফারুক, ছবি বিশ্বাস এমপি ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট খন্দকার শামসুল হক রেজা।

বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেন, শ্রমিক অধিকার আদায়ে ১ মে শ্রমিকরা জীবন দেওয়ায় এ দিনটিকে যেমন মে দিবস হিসেবে পালন করা হয় তেমনি ২১ ফেব্রুয়ারী ভাষার জন্য জীবন দেওয়ায় এ দিনটিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

বাঙ্গালী যখন কোন সংগ্রামের শপথ নিয়েছে তখন কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার আলোক বর্তিকা হিসেবে কাজ করেছে উল্লেখ করে কৃষিমন্ত্রী বলেন, ১৯৯৬ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার আগে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের অবস্থা এত সুন্দর ছিল না।

তিনি বলেন, বই পড়লেই শুধু আলোকিত মানুষ হওয়া যায় না। আলোকিত মানুষ হওয়ার জন্য অন্ধকার থেকে আলোর পথে আসতে হয়।

রাজধানীর ইসলামবাগে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৩

রাজধানীর ইসলামবাগে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৩

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: রাজধানীর চকবাজার থানা এলাকার ইসলামবাগে একটি প্লাস্টিক কারখানা ও বসতবাড়িতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

তথ্যটি নিশ্চিত করেছে ওখানে কর্মরত ফায়ার সার্ভিস ইউনিট।

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণকক্ষের পরিদর্শক বেলাল হোসেন বলেন, ওই আগুনের ঘটনায় তিনজন প্রাণ হারিয়েছেন বলে আমরা জানতে পেরেছি। তাদের মধ্যে শামীম নামের একজন রয়েছে। অন্য দুজনের নাম জানা যায়নি।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণকক্ষ থেকে জানানো হয়, একটি প্লাস্টিক কারখানায় শনিবার বিকেল ৪টার দিকে এই আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১২টি ইউনিট চেষ্টা চালিয়ে ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। তবে আগুনের সূত্রপাত কীভাবে, তা জানাতে পারেননি এই কর্মকর্তা।

তবে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ইলেকট্রিসিটির ট্রান্সমিটার ব্লাস্ট হয়ে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। জায়গাটি এখন পুলিশ ঘিরে রেখেছে। একটি এটিএম বুথ পুড়ে গেছে ও একজন পথচারী দগ্ধ হয়েছেন। তাকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দিতে নেয়া হয়েছে।

চকবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামীমুর রশীদ তালুকদার বলেন, ইসলামবাগের টিনশেডের বসতবাড়িতে আগুন লাগে। সেখানে প্লাস্টিকের কারখানা ছিল।
সূত্র: বিডিলাইভ্

সিলেট বিদ্বেষি মন্তব্য : বেঙ্গলের ‘লিটু’কে প্রকাশ্য ক্ষমা চাইতে হবে


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: বেঙ্গল ফাউন্ডেশন আয়োজিত সংস্কৃতি উৎসব চলাকালে কয়েকজন দর্শকের উচ্ছাস প্রকাশকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার রাতে অনুষ্ঠানমঞ্চে সংগঠনটির চেয়ারম্যান আবুল খায়ের লিটুর সিলেট বিদ্বেষি বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, সিলেট। প্রতিবাদে বলা হয়েছে, কয়েকজন দর্শকের উচ্ছাসের প্রেক্ষিতে ‘লিটু’ সিলেটের দর্শক এবং পুরো সিলেটবাসী সম্পর্কে কটুক্তিপূর্ণ মন্তব্য করে ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। তার এমন দাম্ভিক আচরণের জন্য অতিসত্বর এই অনুষ্ঠান চলাকালীন ওই মঞ্চে দাঁড়িয়ে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। যদি তা না হয়; তবে পরবর্তীতে সিলেটে বেঙ্গলের অনুষ্ঠান করবে কি করবে না তা সিলেটবাসীই নির্ধারণ করবে। জোটের সাধারণ সম্পাদক গৌতম চক্রবর্তীর পাঠানো এক বিবৃতিতে এ প্রতিবাদ জানানো হয়। উল্লেখ্য, শুক্রবার রাতে অনুষ্ঠান চলাকালীন সময়ে কিছু দর্শকের উচ্ছাসের প্রেক্ষিতে লিটু মঞ্চে দাঁড়িয়ে বলেন, ‘তিনি সিলেটে অনুষ্ঠান করতে আগ্রহী নন, তিনি কাউকে কেয়ার করেন না, বিনা পয়সায় অনুষ্ঠান দেখাচ্ছেন, চাইলে যেকোন সময় অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেবেন!’

কানাইঘাটে দুর্বৃত্তদের হামলায় সৌদি প্রবাসী আহত


নিজস্ব প্রতিবেদক :কানাইঘাট বানীগ্রাম ইউপির মাছুখাল বাজারে এক সৌদি প্রবাসীর উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে। আশংকা জনক অবস্থায় এই প্রবাসীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিওমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। জানা যায়, ২০ দিন পূর্বে বানীগ্রাম ইউপির ধলিবিল দক্ষিণ গ্রামের মৃত আজিজুর রহমানের পুত্র শরিফ উদ্দিন (৩৬) বাড়ীতে আসেন। শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে প্রবাসী শরীফ উদ্দিন কেনাকাটার জন্য স্থানীয় মাছুখাল বাজারে গেলে তার উপর ধারালো অস্ত্র ও লোহার রড নিয়ে হামলা করে ৭/৮ জনের দুর্বৃত্ত অস্ত্রধারী চক্র। দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়ে শরিফ উদ্দিনের মাথায় একাধিক ধারালো অস্ত্রের কোপ দিলে স্থানীয় লোকজন তাকে গুরুতর রক্তাক্ত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে তার জখম গুরুতর হওয়ায় কর্তব্যরত ডাক্তার সিওমেক হাসপাতালে প্রেরন করেন।

কানাইঘাটে তিন কম্পিউটার ব্যবসায়ীকে জরিমানা


নিজস্ব প্রতিবেদক: কানাইঘাট বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সুমন আচার্য্য তিন কম্পিউটার ডাউনলোড ব্যবসায়ীকে অশ্লীল ভিডিও পাওয়ার অপরাধে জরিমানা করেছেন। শনিবার কানাইঘাট বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে অশ্লীল ভিডিও বাজারজাত করার অপরাধে দন্ডবিধি ১৮৬০ ধারায় নাসির কম্পিউন্টার এন্ড ডিজিটাল ফটোস্টুডিও, ইমরান কম্পিউটার এন্ড ডিজিটাল স্টুডিও, দিগন্ত কম্পিউটার ও ডিজিটাল গ্রাফিক্স পয়েন্ট নামে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে ১ হাজার টাকা করে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করেন। পাবলিক প্লেসে ধুমপান করায় আলমাছ উদ্দিন নামের এক ব্যক্তিকে ৩০০/- টাকা জরিমানাও করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সুমন আচার্য। ভবিষ্যতে কম্পিউটার ডাউনলোডের মাধ্যমে অশ্লীল ভিডিও কেউ বাজারজাত করলে তাদের বিরুদ্ধে পর্ণোগ্রাফী আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে সতর্ক করেন।

কানাইঘাট কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে হুইপ সেলিম


নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ সিলেট-৫ (কানাইঘাট-জকিগঞ্জ)আসনের সংসদ সদস্য কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজের গভর্ণিং বডির সভাপতি আলহাজ্ব সেলিম উদ্দিন বলেছেন, কানাইঘাট কলেজ সিলেট জেলার মধ্যে লেখাপড়ার দিক থেকে দিন দিন এগিয়ে যাচ্ছে। শত শত শিক্ষার্থীরা উক্ত প্রতিষ্ঠান থেকে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে এলাকার মুখ উজ্জ্বল করেছেন। তিনি আরো বলেন, ইতিমধ্যে কানাইঘাট কলেজকে জাতীয় করন করা হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে উক্ত প্রতিষ্ঠান এক সময় সিলেটের সেরা প্রতিষ্ঠানের স্বীকৃতি অর্জন করতে সক্ষম হবে। কলেজের একাডেমিক ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। এ প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে আমার সব ধরনের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। তিনি ছাত্র-ছাত্রীদের লেখাপড়ার পাশাপাশি কলেজের সুনাম ভয়ে আনার জন্য খেলাধূলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে আরো বেশি সক্রীয় হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। সেই সাথে নিজেদের আলোকিত মানুষ হিসাবে সমাজে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানান। সেলিম উদ্দিন এমপি শনিবার সকাল ১১টায় তাঁকে দেওয়া কলেজ গভর্ণিং বডির উদ্যোগে সংবর্ধনা এবং কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। কলেজের অধ্যক্ষ শামসুল আলম মামুনের সভাপতিত্বে ও প্রভাষক ফরিদ আহমদ এবং ফয়ছল উদ্দিনের যৌথ পরিচালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম, জাপার জেলা শাখার সিনিয়র সভাপতি আব্দুস সহিদ লস্কর বশির, কানাইঘাট পৌর মেয়র নিজাম উদ্দিন, কলেজ গভর্ণিং বডির সদস্য কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সভাপতি এম.এ হান্নান, গভর্ণিং বডির সদস্য রফিক আহমদ, ডাঃ মুফাজ্জিল হোসেন, ডাঃ নজমুল ইসলাম, উপজেলা জাপা নেতা এড. আব্দুর রহিম, ৭নং ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ। কলেজের শিক্ষকবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপাধ্যক্ষ লোকমান হোসেন, অধ্যাপক হাবিব আহমদ, লিটন চন্দ্র দে, পৌর সভার কাউন্সিলার হাজী শরিফুল হক, সাবেক কাউন্সিলার ফখর উদ্দিন শামীম, শিক্ষার্থীদের মধ্যে ইয়াহইয়া ডালিম, আব্দুর রহমান, রোমান আহমদ নোমান, সাহেদ আহমদ প্রমুখ। উক্ত অনুষ্ঠানে কলেজ গভর্ণিং বডির সভাপতি সেলিম উদ্দিন এমপি কলেজ জাতীয় করনে ভূমিকা রাখায় এবং কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক সাংসদ আব্দুল কাহির চৌধুরী ও প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলামকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে বার্ষিক ক্রীড়া ও সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার ও সনদপত্র তুলে দেন প্রধান অতিথি আলহাজ্ব সেলিম উদ্দিন। কলেজের বিভিন্ন দাবী দাওয়া শিক্ষার্থীরা তুলে ধরলে এমপি সেলিম উদ্দিন বলেন, আমি এই কলেজের গভর্ণিং বডির সভাপতি হিসাবে কলেজের সকল সমস্যা সমাধান করব ইনশাহ্আল্লাহ। অনুষ্ঠান শেষে আড়াই লক্ষ টাকা ব্যায়ে কলেজ প্রাঙ্গনে একটি শহীদ মিনারের ভিত্তি প্রস্থর করেন সেলিম উদ্দিন এমপি।

৪০০তম-জয়ের-লক্ষ্যে-অ্যাথলেটিকোর-মুখোমুখি-মেসি

৪০০তম জয়ের লক্ষ্যে অ্যাথলেটিকোর মুখোমুখি মেসি


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: রবিবার লা লিগার মহারণে মুখোমুখি হচ্ছে বার্সেলোনা ও অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের মাঠ ভিসেন্তে কালদেরন স্টেডিয়াম থেকে যদি জয় তুলে আনতে পারে বার্সেলোনা তাহলে বার্সার জার্সিতে মেসির হবে ৪০০তম জয়। বার্সার হয়ে মোট ৫৬৪টা ম্যাচ খেলেছেন মেসি, যার মধ্যে জিতেছেন ৩৯৯টা।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর ম্যাচে পিএসজি’র বিরুদ্ধে ৪-০ গোলে হারের পর কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়েছিল মেসিকে। সমালোচকদের মতে, মেসি ফুরিয়ে গিয়েছেন। কিন্তু লেগানেসের বিরুদ্ধে জোড়া গোল করে তার জবাবও দেন মেসি।

মেসির রেকর্ডের থেকেও অবশ্য বার্সা শিবির জুড়ে চিন্তা লা লিগা নিয়ে। ভ্যালেন্সিয়ার বিরুদ্ধে রিয়ালের হারের সুবিধা নিতে রবিবার অ্যাথলেটিকোর বিরুদ্ধে জিততেই হবে বার্সাকে। কিন্তু ভিসেন্তে কালদেরন মানেই তো আতঙ্ক! যদিও ম্যাচের আগে আত্মবিশ্বাসী বার্সার ডিফেন্ডার জর্দি আলবা। তিনি বলেন, “এখনও লা লিগায় অনেক ম্যাচ বাকি। কিছুই ঠিক হয়নি। তবে আমরা আর পয়েন্ট নষ্ট করতে পারব না। যদি ঠিক মতো খেলতে পারি, তা হলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ আছে আমাদের।”

বার্সার বিরুদ্ধে ম্যাচের আগে আবার অ্যাথলেটিকো ডিফেন্ডার ফিলিপে লুইসও বলছেন, “আমার মনে হয় খুব কঠিন একটা ম্যাচ হবে। কিন্তু আমরা তৈরি।”

বাংলাদেশ সময় সোয়া ৯টায় ম্যাচটি শুরু হবে।

'মেক্সিকো সীমান্তে দেয়ালের কাজ শুরু মার্চেই'

'মেক্সিকো সীমান্তে দেয়ালের কাজ শুরু মার্চেই'

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দলের রক্ষণশীলদের নিয়ে এক অনুষ্ঠানে নির্ধারিত সময়ের আগেই দেয়াল নির্মাণের কাজ বাস্তবায়নের কথা যখন বলেন, তার কয়েক ঘণ্টা পরই দেশটির অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা দপ্তর থেকে কাজটি শুরুর সুনির্দিষ্ট সময় জানানো হয়।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী টিলারসন এবং অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা প্রধান জন কেরির মেক্সিকো সফরের একদিন পরেই সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের ইস্যুটি বাস্তবায়নের ব্যাপারে বক্তব্য দেন ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, নির্ধারিত সময়ের আগেই এবং শিগগিরই মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে।

কনজারভেটিভ পলিটিকাল অ্যাকশন কংগ্রেসে ট্রাম্প যখন দেয়াল নির্মাণের তার আগের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের কথা তুলে ধরেন, তখন রক্ষণশীল সমর্থকরা সেই বক্তব্যের সমর্থনে শ্লোগান দেন।

দেয়াল তোলার এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে মেক্সিকো আগে থেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে আসছে। কিন্তু এই ইস্যুর পাশাপাশি অভিবাসী ইস্যুও আবার সামনে এনেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

রক্ষণশীলদের উদ্দেশ্যে ভাষণে তিনি বলেছেন, "আমেরিকা থেকে বাজে লোকদের দূরে রাখার ব্যাপারে শিগগিরই পদক্ষেপ নেয়া হবে"।

যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধ অভিবাসীদের বড় অংশই মেক্সিকো থেকে এসেছে। ফলে অবৈধ অভিবাসীদের যুক্তরাষ্ট্র থেকে বের করে দেয়া হলে মেক্সিকোই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরের সময় অভিবাসী ইস্যুতে মেক্সিকো তাদের উদ্বেগ ও বিরক্তি প্রকাশ করেছিল।

এর মাঝেও ডোনাল্ড ট্রাম্প দুটি ইস্যুতেই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের কথা তুলে ধরলেন।

সূ্ত্র: বিবিসি

চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চান কানাইঘাটের বাহার


কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী আপনার দেওয়া ১ লক্ষ টাকায় আমি সুস্থ হইনি, দু’হাতের উন্নতর চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়। শারিরীক প্রতিবন্ধী, কম্পিউটারের সফট্ওয়ার আবিস্কার সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার বাহার উদ্দিন প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাতের জন্য আকুতি জানিয়েছেন। বাহার তার দু’হাতের উন্নতর চিকিৎসার সহায়তার আব্দার নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যেতে চান বলে সংবাদ সমম্মেলন করে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করেন। শনিবার নগরীর সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কানাইঘাট উপজেলার গাছবাড়ির বানী গ্রামের বাহার উদ্দিন বলেন, শারিরীক প্রতিবন্ধি হয়ে আজ আমি মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছি। ইতিমধ্যে অনেক চিকিৎসা করানো হয়েছে। কিন্তু চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করা সম্ভব নয়। তিনি বলেন, একজন ক্ষুদে বৈজ্ঞানিক ও শারিরীক প্রতিবন্ধী। ইতিমধ্যে দুইটি কম্পিউটারের সফট্ওয়ার আবিস্কার করেছি। ১. বাংলা সফট্ওয়ার যার নাম মাহিনা বাহার সাকি-২০০৯, ২। মাল্টিমিডিয়া সফট্ওয়ার- যার নাম মার্জিয়া বাহার আকি-২০১০। ১৯৮৯ সালে অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত হয়ে সু-চিকিংসার অভাবে দুইটি পা চিরতরে পঙ্গু হয়ে যায়। এর পরও আমাদের বসে থাকিনি। ছেলে মেয়েদের লেখা পড়ার পাশাপাশি পরিবার চালাচ্ছি। ১৯৯৯ সালে এস.এস.সি পাশ করার পর নিয়তির নির্মম পরিনতিতে দুইটি হাতে রোগ দেখা দেয়। যার ফলে লেখাপড়ার ইতি টানতে হয়। তাই ২/১টি প্রতিষ্টানে কম্পিউটার প্রশিক্ষন নিয়ে ঘরে বসে কম্পিউটার সহায়ক বই পড়ে কম্পিউটারের ডিপ্লমা করি। পরবর্তিতে নিজ বাড়ীতে কুইক লাক কম্পিউটার একাডেমি নামে একটি প্রতিষ্টান গড়ে তুলি। যেখানে ছাত্র ছাত্রিরা নিয়মিত প্রশিক্ষন গ্রহণ করতে পারত। হাতের রোগ দেখা দেওয়ার কারণে বিগত ৪ বছর থেকে শিক্ষা প্রতিষ্টান বন্ধ হয়ে যায়। এমতাবস্তায় মানুষের সাহায্য ছাড়া আমাদের ঘরে দু বেলা খাবার জুটেনা। এ পর্যন্ত আমাদের বাংলাদেশের ৪২ জন ডাক্তারের চিকিংসা নিয়েছি। কিন্তু কোন সুফল না পেয়ে ভারতে চিকিৎসার জন্য যাই। এখানকার ডাক্তার বলেছেন, দু হাতের অপারেশন লাগবে, যা অত্যান্ত ব্যয় বহুল। অপারেশনের অনুমানিক খরচ ৪০,০০০ হাজার মার্কিন ডলার। ১ বৎসর আমাকে হাসপাতালের বেডে থাকতে হবে। ডাক্তাররা বলেছেন, যদি অপারেশন না করাই তাইলে যে কোন সময় ২টি হাত চিরতরে অচল হয়ে যাবে। এই চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করা সম্ভব নয়। প্রধানমন্ত্রী ২৪ মার্চ ২০১৫ তারিখে ১ লক্ষ টাকার চেক দিয়েছেন। এতে চিকিৎসা করানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার আবেদন- দু’হাতের উন্নতর চিকিৎসার যাবতীয় ব্যবস্তা গ্রহণ করতে সাক্ষাতকার সুযোগ করতে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাহার উদ্দিনের দুই মেয়ে ও ৫ বছরের ছেলে সোহান আহমদ মান্না।

মিশরের সিনাই উপত্যকা থেকে পালিয়ে যাচ্ছে খ্রিস্টানরা

মিশরের সিনাই উপত্যকা থেকে পালিয়ে যাচ্ছে খ্রিস্টানরা

কানাইঘাট নিউজ ডেস্ক: মিশরের সিনাই উপত্যকার উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ থেকে কপটিক খ্রিস্টানরা পালিয়ে যাচ্ছে। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে সন্দেহভাজন ইসলামপন্থী জঙ্গিদের বেশ কয়েকটি হত্যাকাণ্ডের পর প্রাণভয়ে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে তারা পালিয়ে যাচ্ছে।

এদের মধ্যে অনেক কপটিক খ্রিস্টান এখন ইসমাইলিয়া নগরীর সুয়েজ খালের তীরে অবস্থিত এভাঙ্গেলিকাল চার্চে আশ্রয় নিয়েছে। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।

কপটিক চার্চ হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছে, মিশরীয়দের মধ্যে বিভেদ তৈরির জন্যই এ হামলা চালানো হয়েছে।

রোববার ইসলামিক স্টেট জঙ্গিরা একটি ভিডিওতে মিশরের সংখ্যালঘু খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মানুষের ওপর আবারো হত্যার হুমকি দেয়ছে।

মিশরের নয় কোটি মানুষের মধ্যে ১০ শতাংশ কপটিক খ্রিস্টান। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ইসলামপন্থী জঙ্গিরা তাদের লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে। সূত্র: বাসস
 
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: মো:মহিউদ্দিন,সম্পাদক : মাহবুবুর রশিদ,নির্বাহী সম্পাদক : নিজাম উদ্দিন। সম্পাদকীয় যোগাযোগ : শাপলা পয়েন্ট,কানাইঘাট পশ্চিম বাজার,কানাইঘাট,সিলেট।+৮৮ ০১৭২৭৬৬৭৭২০,+৮৮ ০১৯১২৭৬৪৭১৬ ই-মেইল :mahbuburrashid68@yahoo.com: সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত কানাইঘাট নিউজ ২০১৩