Kanaighat News on Wednesday, July 27, 2011 | 11:17 PM

কানাইঘাটে এইচএসসি পরীক্ষায় আশানুরূপ ফলাফল

৩টি এ-প্লাস সহ পাশ করেছেন ৩০৭শিক্ষার্থী

সিলেট শিক্ষাবোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত এবারের এইচ এসসি পরীায় কানাইঘাটে আশানুরূপ ফলাফল লাভ করায় শিার্থী, অভিভাবক ও শিকদের মধ্যে আনন্দ - উল্লাস বইছে। কানাইঘাটে মোট পরীার্থী ৩৬৪ জনের মধ্যে ৩০৭জন পাশ করেছে। এর মধ্যে কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজে ২০০জনের মধ্যে ৩টি এ-প্লাস সহ ১৭০, গাছবাড়ি আইডিয়াল কলেজে ৮৫ জনের মধ্যে ৬২, মানিক নাহার মেমোরিয়াল কলেজে ৭৯ জনের মধ্যে ৭৫জন পরীার্থী কৃতকার্য লাভ করে।
কানাইঘাটের দুই ছাত্রলীগ নেতাকে প্রবাসী
সাবেক ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের অভিনন্দন
নিজাম উদ্দিনঃ কানাইঘাট উপজেলা গাছবাড়ি আঞ্চলিক শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মেধাবী ছাত্রনেতা শাহরীয়ার বখত্ সাজু নবগঠিত সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক এবং দণি বানীগ্রাম ইউপি শাখা বঙ্গবন্ধু কিশোর মেলার সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা খালেদ আহমদ শাহীন সম্মানিত সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় তাদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন, প্রবাসে অবস্থানরত কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতৃবৃন্দ। অভিনন্দন দাতারা হলেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য যুক্তরাজ্য প্রবাসী মস্তফা কামাল ফ্রান্স প্রবাসী খায়রুল আলম মাজেদ, ফ্রান্স প্রবাসী আজাদুর রহমান আজাদ, ফ্রান্স প্রবাসী মহি উদ্দিন সুহেল, দুবাই প্রবাসী শামীম রেজা প্রমুখ। সেই সাথে অভিনন্দন দাতারা মেধাবী এ দু'ছাত্রনেতাকে জেলা কমিটিকে অনর্্তভূক্ত করায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং জেলা ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
কানাইঘাট বাজার অগ্রগামী সমবায় সমিতি

পরিদর্শন করলেন সিলেট বিভাগীয় কর্মকর্তা

আব্দুন নূর:

কানাইঘাট বাজার অগ্রগামী সমবায় সমিতি লিমিটেডের কার্যালয় পরিদর্শন করেছেন সমবায় সিলেট বিভাগ অধিদপ্তরের উপ-নিবন্ধক মোঃ কামাল উদ্দিন আহমদ। গত সোমবার২৫ জুলাই তিনি কানাইঘাট বাজারস্থ সমবায় সমিতির অফিসে এসে প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় খাতাপত্র পরিদর্শন করেন এবং সমিতির বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের অগ্রগতির খোঁজ-খবর নেন। এ সময় সমিতির সেক্রেটারী আব্দুন নূর ও কোষাধ্য নজরুল ইসলাম রোকন স্বাবলম্বি হওয়ার উদ্দেশ্যে সমিতির সদস্যবৃন্দের মাঝে সহজ শর্তে ঋণ বিতরণ, স্যানিটেশন, মৎস্য চাষ ও বৃরোপন কার্যক্রমের অগ্রগতি তুলে ধরেন। বিভাগীয় উপ-নিবন্ধক মোঃ কামাল উদ্দিন আহমদ প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম গ্রহণে সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি সমিতির সকল সদস্যের উদ্দেশ্যে বলেন, 'সমবায় শক্তি, সমবায় মুক্তি'। আপনারা সমবায় সমিতির মাধ্যমে নিজেকে স্বাবলম্বি করার পাশাপাশি সমাজ ও জাতীয় পর্যায়ে অবদান রাখবেন। সে ল্যে অধিক লাভজনক খাতে বিনিয়োগ করতে হবে। এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা জামাল উদ্দিন, পরিদর্শক মিছবাহ উদ্দিন, আব্দুর রহমান, সাংবাদিক এখলাছুর রহমান, নিজাম উদ্দিন, কাওছার আহমদ, সমবায়ী আব্দুল হান্নান লাল পীর, মোহাম্মদ আলী, সিরাজ মিয়া প্রমুখ।

Kanaighat News on Tuesday, July 26, 2011 | 10:30 AM

পাল্টাপাল্টি কর্মসূচীর জের ধরে কানাইঘাটে গাছবাড়ি

বাজারে আয়োজিত প্রতিবাদ সভাস্থলে ১৪৪ ধারা জারি

কানাইঘাটে এক স্থানে পাল্টাপাল্টি সমাবেশ আহবান করায় স'ানীয় গাছবাড়ী বাজারে ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন।সমপ্রতি কানাইঘাটের গাছবাড়ি দর্জিমাটি গ্রামের জনৈক এক তরুণীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্র্ষণের ঘটনার সাথে জড়িত গাছবাড়িজামিউল উলূম কামিল মাদ্রাসার ফাজিলের ছাত্র কামাল আহমদকে অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবীতে গাছবাড়ি সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে গতকাল গাছবাড়ি উত্তর বাজারে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ আহবান করেন। একই সময় মাদ্রাসার ছাত্ররা পাল্টা প্রতিবাদ সভার ডাক দিলে প্রশাসন সভাস'ল, গাছবাড়ি বাজার ও আশ-পাশ এলাকায় শানি-শৃঙ্খলা রক্ষার্থে বেলা ২টা থেকে রাত ১০টা পর্যন- ১৪৪ ধারা জারি করে। সরেজমিনে ঘটনা স'লে গেলে প্রত্যেক্ষদর্শীদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, গত ৪ জুলাই মাদ্রাসার ছাত্র কামাল আহমদ ঐ তরুণীকে সিলেট শহরে একটি হোটেলে তুলে ধর্ষণ করলে এ ঘটনায় ঐ তরুণী কানাইঘাট থানায় মাদ্রাসা ছাত্র কামাল আহমদসহ দু’জনের বিরুদ্ধে নারী শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করে। গত রোববার সচেতন নাগরিক কমিটির ব্যানারে মামলার আসামীদের গ্রেফতারের দাবীতে এলাকায় মাইকিং করা হলে মাদ্রাসার ছাত্রদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। তারা ষড়যন্ত্রকারীদের ইন্ধনে ঐ তরুণী মাদ্রাসার মেধাবী ছাত্র কামাল উদ্দিনের উপর দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও মাদ্রাসার সুনাম ক্ষুন্ন হওয়ার প্রতিবাদে গতকাল সকাল ৯টার দিকে গাছবাড়ি বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে মাদ্রাসার ছাত্ররা সচেতন নাগরিক কমিটির সভাস'লে পাল্টা একই সময় প্রতিবাদ সভার ডাক দিলে দু’পক্ষের মধ্যে টান টান উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে দ্রুত কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ শফিকুর রহমান খান ও ওসি (তদন-) রুহুল আমীনের নেতৃত্বে প্রথমে একদল ফোর্স গাছবাড়ি বাজারের সভাস'ল ও আশপাশ এলাকায় অবস'ান নেন। পরে শানি-শৃঙ্খলা জোরদার করতে গোলাপগঞ্জ থানা ও সিলেট শহর থেকে অতিরিক্ত দাঙ্গা পুলিশ বাজারের বিভিন্ন পয়েন্টে মোতায়েন করা হয়। এক পর্যায়ে উত্তেজনাকর পরিসি'তি সৃষ্টি হলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মতিউল ইসলাম চৌধুরী সভাস'ল, গাছবাড়ি বাজারের আশপাশ এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেন। এদিকে বিকেল ৪টায় সভাস'লে সচেতন কমিটির নেতৃবৃন্দ প্রতিবাদ সভা করতে গেলে কানাইঘাট থানার ওসি শফিকুর রহমান খানের সাথে তাদের বাক-বিতন্ডা হয়। এ সময় ওসি শফিকুর রহমান খান মামলার আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে সচেতন কমিটির নেতৃবৃন্দ সভাস'ল ত্যাগ করে বাজারের অদূরে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে মানব বন্ধন করে। মানব বন্ধনে সচেতন কমিটির পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন কমিটির আহ্বায়ক ওলিউর রহমান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী খালেদ সাইফুল্লাহ, সমাজ সেবী উমর আলী, আ’লীগ এমাদ উদ্দিন মানিক সিলেট বারের আইনজীবী এডভোকেট মামুন রশিদ, এডভোকেট আব্দুস সাত্তার, যুবলীগ নেতা নাজিম উদ্দিন, জেলা ছাত্রলীগ নেতা শাহরিয়ার বখত রাজু ও হারুন রশিদ। অপরদিকে মাদ্রাসার ছাত্ররা জানিয়েছেন, এলাকার চরিত্রহীনা ঐ তরুণীকে দিয়ে একটি কুচক্রী মহল মাদ্রাসার মেধাবী ছাত্র কামাল আহমদের উপর মিথ্যা ধর্ষণ মামলা দিয়ে মাদ্রাসার সুনাম বিনষ্ট করার জন্য ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। আমরা ছাত্রের উপর দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে গাছবাড়ি বাজারে গতকাল সকালে শানি-পূর্ণ মিছিল করে বিকেলে উত্তর বাজারে প্রতিবাদ সভার ডাক দিলে প্রশাসন সভাস'লে ১৪৪ ধারা জারি করে।

Kanaighat News on Monday, July 25, 2011 | 10:15 PM

কানাইঘাটে সীমান্তিক এর ম্যালেরিয়া

প্রতিরোধক কীটনাশকযুক্ত মশারী বিতরণ উদ্বোধন

সিলেটের দীর্ঘদিনের উন্নয়ন বঞ্চনা উত্তরনে সবাইকে সমন্বিত প্রচেষ্ঠা চালাতে হবে - রুপালী ব্যাংক চেয়ারম্যান ড. আহমদ আল কবীররুপালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা সীমান্তিক’ এর প্রধান পৃষ্টপোষক ড. আহমদ আল কবীর বলেছেন দেশের অর্থনৈতিকপ্রবৃদ্ধিতে সিলেট দীর্ঘদিন ধরে ব্যাপক অবদান রেখে চলেছে। কিন্তু সেই অবদানের তুলনায় অতীতে এ অঞ্চলটি তার কাঙ্খিত উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত ছিল। মানবসম্পদ উন্নয়নসহ মৌলিক ক্ষেত্রে টেকসই উন্নয়নের ক্ষেত্রে সিলেট বরাবরই উপেক্ষিত ছিল। তিনি বলেন সিলেটের দীর্ঘদিনের এ বঞ্চনা থেকে উত্তরনের জন্য জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ, পেশাজীবী, সরকারী-বেসরকারী সংস'াসহ সর্বস'রের দেশপ্রেমিক জনগোষ্টিকে সমন্বিত প্রচেষ্ঠা চালাতে হবে। তিনি রোববার কানাইঘাট উপজেলা সদরে ইউটিডিসি হলে সীমানি-ক এর ম্যালেরিয়া কন্ট্রোল প্রকল্প এর উদ্যোগে উপজেলার দরীদ্র জনগোষ্টির মধ্যে ম্যালেরিয়া প্রতিরোধক কীটনাশকযুক্ত মশারী বিতরণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথাগুলো বলেন। উপজেলা স্বাস'্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ শামসুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ড. আহমদ আল কবীর আরো বলেন সীমানি-ক তার জন্মলগ্ন থেকে এ অঞ্চলের মানুষের সেবায় বিশেষ কর্মপ্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে শিক্ষা ও স্বাস'্যসেবায় সীমানি-কের প্রচেষ্ঠা ব্যাপক অগ্রগতি সাধনে সক্ষম হয়েছে। তিনি বলেন আর্থিক লাভের কথা বিবেচনায় না রেখে কেবল মানবসেবার উদ্দেশ্যে সংস'াটি নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। জকিগঞ্জ-কানাইঘাটের পশ্চাৎপদতা কাটাতে সবাইকে নিজ নিজ অবস'ান থেকে কাজ করার আহবান জানান ড. আহমদ আল কবীর। এলক্ষ্যে আগামী ৩ মাসের মধ্যে জকিগঞ্জ শহরে রুপালী ব্যংকের শাখা স'াপনের ঘোষনা দেন তিনি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কানাইঘাট উপজেলা পরিষদেও চেয়ারম্যান আশিক উদ্দিন চৌধুরী, পৌর মেয়র লুৎফুর রহমান, সিলেট উত্তর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার বীনা দাস, কানাইঘাট ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলাম, সাতবাক ইউপি চেয়ারম্যান মুস-াক আহমদ পলাশ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি রফিক আহমদ, লক্ষিপ্রসাদ ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ চৌধুরী, দিঘীরপাড় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মুমিন চৌধুরী, রাজাগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান ডাঃ মানিক ও লক্ষিপাশা ইউপি চেয়ারম্যান এ কে ফয়েজ উদিদ্দন। অনুষ্ঠানে উপজেলার দরীদ্র জনগোষ্টির মধ্যে ম্যালেরিয়া প্রতিরোধক কীটনাশকযুক্ত সাড়ে ১২ হাজার মশারী বিতরণ করা হয়

Kanaighat News on Sunday, July 24, 2011 | 10:43 PM

ছুরিকাহত হয়ে কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজের

এক শিক্ষার্থী মৃতু্র সাথে পাঞ্জা লড়ছে
কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজের ছুরিকাহত হয়ে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃতু্যর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। কলেজ কতর্ৃপ ঘটনার প্রকৃত তথ্য দিতে না পারলেও পুলিশ এবং নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার(২৩ জুলাই) কলেজের একাদশ ১ম বর্ষের ছাত্র জিয়াউর রহমান শুয়েব (১৮) দুপুর ১২টায় কলেজের নতুন ভবনের দু'তলায় কাসে যাওয়ার সময় ২০২নং করে বারান্দার সামনে আসামাত্র অতর্কিত ভাবে উশৃঙ্খল কয়েকজন ছাত্র পূর্ব বিরোধের জের ধরে জিয়াউর রহমানের মাথা এবং দু'পা চেপে ধরে ধারালো ছুরি দিয়ে বাম উরুতে ২টি ও বাম বাহুতে ২টি উপযর্ুপরি ছুরিকাঘাত করে গুরুতর আহত করে। এ সময় কলেজের বিভিন্ন কাসে অবস্থানরত শিার্থী এবং শিকরা ঘটনা প্রত্য করলেও প্রাণের ভয়ে হামলাকারীদের কবল থেকে জিয়াউর রহমানকে রা করতে কেউ এগিয়ে আসেনি। ঘটনার খবর দ্রুত ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়লে শিার্থীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। এসময় তারা দিক্বিদিক ছোটাছুটি করে ক্যাম্পাস ত্যাগ করেন। একপর্যায়ে কলেজের মেঝেতে অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে থাকা রক্তাক্ত জিয়াউর রহমানকে কয়েকজন শিক ও কলেজের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীরা উদ্ধার করে কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেঙ্ েনিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসার পর তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় দ্রুত সিলেট ওমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সেখানে গুরুতর আহত ঐ ছাত্রকে অস্ত্রপচারের পর তার শরীরে চার ব্যাগ রক্ত দিয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক কলেজের কয়েকজন শিার্থী ও প্রত্যদর্শীরা বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে কানাইঘাট থানা পুলিশ কলেজ ক্যাম্পাসে গিয়ে ছাত্রের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতারের চেষ্টা করলে কলেজ কতর্ৃপরে অসহযোগিতার কারণে হামলাকারীদের গ্রেফতার করতে ব্যর্থ হয়। তবে পুলিশ হামলাকারীদের সনাক্ত করে চার ছাত্রের বিরুদ্ধে থানায় একটি জিডি করেছে। জিডি নং- ৮৪৭। কলেজ ক্যাম্পাসে গিয়ে দেখা যায়, দু'তলার ২০২নং করে বারান্দায় এবং নিচতলার সিঁড়ির পাশে আহত জিয়াউর রহমানের শরীর থেকে নির্গত রক্ত জমাটঁেবধে রয়েছে। এব্যাপারে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্য শামছুল আলম মামুনের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, কাস চলাকালীন অবস্থায় অপ্রাত্যাশিতভাবে হঠাৎ করে এ অনাকাঙ্খিত ঘটনাটি ঘটে গেছে। আমরা খবর পেয়ে দ্রুত আহত ছাত্রকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য প্রথমে কানাইঘাট থানা স্বাস্থ্যকমপ্লেঙ্ েও পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী হাসপাতালে পাঠিয়েছি। অপরদিকে ঘটনার পর তাৎনিকভাবে ষ্টাফ কাউন্সিল ডাকা হয়। ষ্টাফ কাউন্সিলের সিদ্বান্ত অনুযায়ী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যকে প্রধান করে ৩সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির তদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এসময় কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি পৌর মেয়র লুৎফুর রহমানও উপস্থিত ছিলেন।

Kanaighat News on Friday, July 22, 2011 | 10:36 PM



কানাইঘাট উপজেলার ৪নং সাতবাঁক ইউনিয়ন পরিষদে সোলার প্যানেল মেশিনের উদ্বোধন

গতকাল(২১ জুলাই)সিলেট জেলার কানাইঘাট উপজেলার ৪নং সাতবাঁক ইউনিয়র পরিষদের সোলার প্যানেল স্থাপন স্ক্রীম উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট বিভাগের স্থানীয় সরকার পরিচালক এস এম ফজলুল করিম চৌধুরী। উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন৪নং সাতবাঁক ইউনিয়র পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ পলাস, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপসি'ত ছিলেন সিলেট জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হারুন রশিদ মোল্লা, কানাইঘাট পৌরসভার মেয়র লুৎফুর রহমান, কানাইঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মতিউল ইসলাম চৌধুরী, কানাইঘাট মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ও নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, ৭নং দক্ষিণ বালিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ, কানাইঘাট থানার অফির্সাস ইনচার্জ সফিক আহমদ। উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কানাইঘাট উপজেলার উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্ত মোহাম্মদ আবুল হারিছ। কোরআন থেকে তেলাওয়ত করেন মাও মকবুল হোসেন। প্রধান অতিথি সিলেট বিভাগের স'ানীয় সরকার পরিচালক এস এম ফজলুল করিম চৌধুরী বলেন, আমি নিজ উদ্যোগে সিলেট জেলা পরিষদ ও কানাইঘাট উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় সোলার প্যানেল স'াপন সিদ্ধান- নেই কানাইঘাট উপজেলার ৪নং সাতবাঁক ইউনিয়র পরিষদ ভবনে। তিনি আরো বলেন, বিদুৎতের বিকল্প এই সোলার প্যানেল স্থাপনে গ্রামবাসী অনেক অংশে বিদুৎতের লোড শেডিং থেকে মুক্তি পাবেন, গ্রাম্য উন্নয়নে আমাদের সোলার প্যানেল বর্তমান সরকারে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে সহায়ক হবে। আর এই সহজ বিদু॥তের মাধ্যমে অনেক অংশে খরচ কমে যাবে। একবার এই বিদুৎত ব্যবহার করলে বোঝা যাবে এই সোলার প্যানেল ঐ একমাত্র সহায়ক। তাই প্রতিটি গ্রামঞ্চলের মানুষকে সোলর প্যানেল ব্যবহারে উদ্বুধ করতে হবে। এবং প্রতিটি ঘরে ঘরে সোলার প্যানেলের সু-ফল পৌছে দিতে হবে।

Kanaighat News on Thursday, July 21, 2011 | 9:23 PM

কানাইঘাটে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় এক শিশুর মর্মান্তিক মৃতু্

কানাইঘাটে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় এক শিশুর মর্মান্তিক মৃতু্ ঘটেছে। শিশুটি নাম শাহিন আহমদ (১০)।সে পশ্চিম দর্পনগর গ্রামের মঈন উদ্দিন মনাই মিয়ার পুত্র। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় সিলেটগামী একটি মাইক্রোবাস (সিলেট-চ-৫১-০০৩২) গতিবেগ হারিয়ে সড়কের বাজারের পূর্বে রাস্তার পার্শ্বে দাঁড়িয়ে থাকা শিশুটিকে পিছন থেকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই শিশুটির মৃতু্ ঘটে। স্থানীয় জনতা ঘাতক মাইক্রোবাসটি আটক করে। খবর পেয়ে কানাইঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওমেক হাসপাতলে প্রেরন করেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Kanaighat News on Wednesday, July 20, 2011 | 8:02 PM

স্কুল শিক্ষক বরখাস্তের ঘটনায় শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ! শ্রেণীকক্ষে তালা
কাওছার আহমদঃ
কানাইঘাট জুলাই আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন এক সহকারী শিককে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির নেতৃবৃন্দ কোন কারণ ছাড়াই বরখাস্ত করেছেন। এ ঘটনায় বিুব্ধ শি্ার্থীরা কাস বর্জন করে শ্রেনীক েতালা ঝুলিয়ে দিয়েছে। এতে আজকের(২০জুলাই) প্রাক নির্বাচনী পরীা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। স্থানীয় লোকজন ও শিার্থীদের সাথে কথা হলে জানা যায়, সদ্য সমাপ্ত ৪নং সাঁতবাক ইউপি'র নির্বাচনে স্কুলের খন্ডকালীন সহকারী শিক ফরিদ আহমদ চেয়ারম্যান প্রার্থী বদরুল আমীনের প েনির্বাচনী কাজ করেন। স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মস্তাক আহমদ পলাশ ও চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ছিলেন। এতে তিনি প্তি হন ঐ শিকের উপর। এ সময় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি চেয়ারম্যান প্রার্থী মস্তাক আহমদ পলাশের পরে লোকজন ঐ শিককে স্কুল থেকে বহিস্কারের হুমকি প্রদান করেন। প্রায় মাস খানেক পূর্বে মস্তাক আহমদের পরে কিছু লোকজন ঐ শিকের বিরুদ্ধে প্রতিষ্ঠানের ছাত্রীদের সাথে ইভটিজিং এর অভিযোগ এনে ম্যানেজিং কমিটি বরাবরে একটি অভিযোগ দাখিল করেন। পরে বিষয়টি নিয়ে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি ও স্থানীয় লোকজন বৈঠকে বসলে তা মিথ্যা প্রমাণিত হয়। সমপ্রতি স্কুল ম্যানেজিং কমিটির নেতৃবৃন্দ ফান্ডে টাকার সমস্যা দেখিয়ে ঐ শিককে গত ১৫জুলাই স্কুল থেকে বরখাস্ত করলে শিার্থীরা ঘটনাটি মেনে নিতে পারেন নি। গতকাল বুধবার শিার্থীরা দিনভর তাদের প্রিয় শিকের পুর্নবহালের দাবীতে বিােভ মিছিল সহ স্কুল গেটে তালা ঝুলিয়ে দেয়। কয়েকজন শিার্থীদের সাথে কথা হলে তারা বলেন সব বিষয়ের পারদর্শী ও স্বনামধন্য এ শিককে প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মস্তাক আহমদ পলাশসহ অন্যান্যরা বরখাস্ত করেছেন। তারা আরো বলেন, প্রয়োজনে চাঁদা তুলে তাদের প্রিয় শিকের বেতন ভাতা প্রদান করবে। এ ব্যাপারে স্কুলের প্রধান শিক সিবি্বর আহমদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ম্যানেজিং কমিটির সিদ্বান্তে খন্ডকালীন শিক ফরিদ আহমদকে স্কুল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এতে শিকদের কোন সংশ্লিষ্টতা নেই। শিার্থীদের কতর্ৃক স্কুলে তালা ঝুলিয়ে দেওয়ার ঘটনাটি স্বীকার করে বলেন, ম্যানেজিং কমিটি, অভিভাবক ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ নিয়ে শিা্র্থীদের কাসে ফিরিয়ে আনার প্রয়োজনীয় পদপে গ্রহন করা হবে। স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মস্তাক আহমদ পলাশ জানান, কোন ধরনের প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে ঐ খন্ডকালীন শিককে বরখাস্ত করা হয়নি। তিনি একজন ভাল শিক তবে সমপ্রতি তিন জন নতুন সহকারী শিক স্কুলে নিযোগ দেওয়ায় ম্যানেজিং কমিটির সিদ্বান্তে খন্ডকালীন শিক ফরিদ উদ্দিনকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এছাড়া স্কুলের শিার্থী কতর্ৃক মিছিল, মিটিং ও কাস বর্জনের ঘটনার জন্য তিনি প্রধান শিককে দায়ী করেন।

Kanaighat News on Tuesday, July 19, 2011 | 9:37 PM

টার্গেট মাহে রমজান
কানাইঘাটে গরুর মাংস প্রতি কেজি চার শ'টাকা
কাওছার আহমদঃ

পবিত্র মাহে রমজান মাস আসার পূর্বেই কানাইঘাট বাজারের মাংস ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন। সমপ্রতি মাংস ব্যবসায়ীরা গরুর মাংস সহ অন্যান্য প্রাণীর মাংসের কেজি প্রতি ৮০/১০০টাকা দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। এতে সাধারণ ক্রেতাদের মধ্যে নাভিশ্বাস উঠেছে। এ ব্যাপারে বার বার প্রশাসনের ধারস্থ হওয়ার পরও মাংস ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কোন ধরনের পদপে গ্রহন না করায় বর্তমানে প্রতি কেজি গরুর মাংস ৪০০/- টাকা ধরে বিক্রি করা হচ্ছে। ক্রেতাদের অভিযোগ পবিত্র শবেবরাতের দিন কোন ধরনের পরীা নিরীা ছাড়াই রোগাক্রান্ত গরু ও মহিষ জবাই করে দু'প্রাণীর মাংস একত্রে মিশিয়ে প্রতি কেজি ৩৭০ থেকে ৪০০/- টাকা দরে বিক্রয় করেন এসকল অসাধু ব্যবসায়ী। সাধারণ মানুষ অসহায় হয়ে চড়াও দামে বিভিন্ন প্রাণীর মিশ্রিত মাংস কিনতে বাধ্য হন। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মতিউল ইসলাম চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন বিষয়টি আমার দেখার নয়, তা পৌর কতর্ৃপরে। পৌর মেয়র লুৎফুর রহমানের সাথে কথা হলে তিনি অতিরিক্ত দামে মাংস বিক্রির বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, এব্যাপারে শীঘ্রই তিনি মাংস ব্যবসায়ীদের সাথে বৈঠক করে গরু, মহিষ ও খাসির মাংসের দাম ঠিক করে দেবেন। তারপরও অতিরিক্ত দামে কেউ যদি মাংস বিক্রি করে থাকে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে মাংস ব্যবসায়ীদের অভিযোগ গরু ও মহিষের দাম চড়াও হওয়ায় তারা বাধ্য হয়ে মাংসের দাম বৃদ্ধি করেছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মাংস ব্যবসায়ী জানান, ২/৩ জায়গায় বখরা দিতে হয়। বিশেষ করে স্যানেটারী ইন্সপেক্টরকে প্রত্যেক মাংস ব্যবসায়ী প্রতি সপ্তাহে ১হাজার টাকা করে বখরা দিতে হয়।
সরকারী গাছ কেটে ফেলার অভিযোগে ৫জনেরবিরুদ্ধে

পৃথক দু’টি মামলা দায়ের
কাওছার আহমদ:

কানাইঘাটে গাজী বুরহান উদ্দিন সড়কের উভয় পাশে অবস্থিত সরকারী বন বিভাগের অর্ধশতাধিক দামী গাছ কেটে আত্মসাতের ঘটনায় সরকারের সাথে যৌথ অংশীদার হাজী হেলাল আহমদ কানাইঘাট পলী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের ডিজিএম, এজিএমসহ ৫ কর্মকর্তা/কর্মচারীর বিরুদ্ধে গত (৮জুন) সোমবার কানাইঘাট থানায় একটি অভিযোগ ।ও বন আইনে উপজেলা বিট কর্মকর্তা মারুফ বিল্লা পল্লীবিদ্যুতের ডিজিএম তাজুল ইসলাম, সহকারী ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রহিম ও লাইনম্যান আব্দুর রহমানের বিরুদ্ধে বন আইনে আরেকটি মামলা দায়ের করেছেন। থানায় দায়েরকৃত এজাহার সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় বিট অফিস এবং সামাজিক বনায়ন প্রকল্পের অংশীদারদের অনুমতি ব্যতিরেকে পল্লী বিদ্যুতের লোকজন ১৯৯৪-৯৫ ইং সনে লাগানো জন্তিপুর গ্রামের বুরহান উদ্দিন সড়কের উভয় পার্শ্বে অবস্থিত প্রায় অর্ধশতাধিক দামী গাছ গত রবিবার কেঁটে ফেলে গাছের দামী অংশ পল্লীবিদ্যুতের লোকজন নিয়ে যাওয়ার সংবাদ পেয়ে দুপুর ১২টায় বিট অফিসের লোকজন এবং গাছের যৌথ অংশীদার উপকারভোগী সামাজিক বনায়ন প্রকল্পের সভাপতি হাজী হেলাল আহমদ ঘটনাস্থলে গিয়ে সরকারী গাছ না কাঁটার জন্য পল্লীবিদ্যুতের লোকজনদের বাঁধা প্রদান করলে তারা উল্টো হেলাল আহমদকে নানাভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। এঘটনায় তিনি গতকাল ৫০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণের অভিযোগ এনে কানাইঘাট পল্লীবিদ্যুতের জোনাল অফিসের ডিজিএম তাজুল ইসলামসহ ৫জন কর্মকর্তা বিরুদ্ধে কানাইঘাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রক্ষিতে গতকাল থানার এস.আই. মনির, উপজেলা বিট কর্মকর্তা মারুফ বিলার উপস্থিতিতে ঘটনাস্থলে গিয়ে কেটে ফেলা গাছের কিছু অংশ উদ্ধার করেন। পরে উদ্ধারকৃত গাছগুলো বিট অফিসে নিয়ে আসায় হয়। এ ব্যাপারে বিট কর্মকর্তা মারুফ বিলার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, পলীবিদ্যুতের লোকজন কোন অনুমতি না নিয়ে সরকারী গাছ কেটে ফেলার ঘটনায় বন আইনে পলীবিদ্যুতের ৩ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদিকে কানাইঘাট পলীবিদ্যুতের ডিজিএম তাজুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিদ্যুৎ সরবরাহের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারী কিছু গাছের ডালপালা ছাঁটাই করা হয়েছে এবং এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের কোন অনুমতির প্রয়োজন হয় না। মামলার বিষয়টি তিনি শুনেছেন বলে জানিয়েছেন।

Kanaighat News on Friday, July 15, 2011 | 10:23 PM

ডি ম্যাঙ্মিম গ্রুপ কানাইঘাট শাখার উদ্ধোধন
মানব সম্পদ উন্নয়নের জন্য সমবায়ের
পাশাপাশি সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে

------গোলাম মোস্তফা রানা

কাওছার আহমদঃ
ডি ম্যাঙ্মিম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ গোলাম মোস্তফা রানা বলেছেন, মানব সম্পদ উন্নয়নের জন্য মেধা ও যোগ্যতা বিকাশিত করে ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে হবে। এছাড়া স্বাবলম্বিতা অর্জনের ল্যে দারিদ্র বিমোচন, একতা ও পারস্পরিক আস্থা বাড়াতে হবে এবং সততা ও উন্নত সেবার নিশ্চয়তাসহ সুশীল পরিবেশ গড়ে তোলার েেত্র সহযোগিতার ল্য নিয়েই দি ম্যাঙ্মি গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ডায়মন্ড ম্যাঙ্মি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিঃ এর শুভ যাত্রা। তিনি শুক্রবার(১৫ জুলাই) বিকেল ৪টায় কানাইঘাট শাখার শুভ উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। সিলেট বিভাগীয় প্রধান মোঃ আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে ও কানাইঘাট শাখার ব্যবস্থাপক আবুল কালামের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিভাগীয় প্রধান শফিকুল ইসলাম, রাজশাহী বিভাগীয় প্রধান সুলতান আহমদ, উপদেষ্টা এএফএম ফরিদ আহমদ, ফরিদপুর জেলার জোনাল হেড ওয়াহিদুজ্জামান, কানাইঘাট আঞ্চলিক পরিচালক হোসেইন আহমদ প্রমুখ।

Kanaighat News on Tuesday, July 12, 2011 | 10:21 PM



কানাইঘাটে চিতা বাঘ শাবককে কুপিয়ে হত্যা

কানাইঘাটের পল্লীতে একটি চিতা বাঘের শাবককে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। সোমবার সকালে উপজেলার বড়দেশ নয়াগ্রামের মুশাহিদ আলীর খালি বাড়িতে জামগাছে চিতা বাঘের শাবকটিকে প্রথমে একটি ছেলে দেখতে পায়। পরে ঘটনাটি মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে এলাকাবাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বাঘটিকে আটকে উপজেলা বিট কর্মকর্তাকে খবর দেয়। দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করে উপজেলা বন বিভাগ থেকে কেউ না আসায় দুপুরে এলাকাবাসী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শাবকটিকে কুপিয়ে মেরে মাটিচাপা দেয়। উপজেলা বিট কর্মকর্তা মায়রুফ বিল্লা বলেন, 'বাঘ আটকের বিষয়টি আমাদের কেউ অবগত করেনি।'

Kanaighat News on Thursday, July 7, 2011 | 9:08 PM



কানাইঘাট পৌরসভার ৮কোটি ৫০লক্ষ টাকার বাজেট ঘোষনা
কাওছার আহমদ/নিজাম উদ্দিন:

কানাইঘাট পৌরসভার ২০১১-১২ অর্থবছরের বাজেট ঘোষনা করা হয়েছে। কানাইঘাট পৌরসভার প্রথম নির্বাচিত মেয়র লুৎফুর রহমান গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় স্থানীয় ইউনিক কমিউনিটি সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে কাউন্সিলার বৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে ৮কোটি ৪৯ল ৫১হাজার ৯শ ৯৯টাকার বাজেট পেশ করেন। সমপরিমাণ আয় ও ব্যয় দেখিয়ে প্রস্তাবিত বাজেটে বিভিন্ন সেক্টরে নতুন করারোপ করা হয়েছে। বাজেটে আয়ের খাত হিসেবে পৌরসভার নিজস্ব খাতে ৫৩ল টাকা আয় ধরা হয়েছে। এছাড়া সরকার প্রদত্ত উন্নয়ন সহায়তা মঞ্জুরী ৫০ল, সরকারী বিশেষ প্রকল্প মঞ্জুরী ২০ল, অফিস ভবন নিমর্াণ মঞ্জুরী ১কোটি ৫০ল এবং সরকারী বিশেষ প্রকল্প বরাদ্দে ৫কোটি ৫০ল টাকা আয় ধরা হয়েছে। বাজেট অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মতিউল ইসলাম চৌধুরী, কানাইঘাট ডিগ্রিকলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্য শামসুল আলম মামুন, কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ শফিকুর রহমান খান, সমাজসেবক ডাঃ মুফাজ্জিল হোসেন, কানাইঘাট প্রেসকাবের সভাপতি এম.এ.হান্নান, ৫নং বড়চতুল ইউপির চেয়ারম্যান মুবশ্বির আলী, কাউন্সিলার শরিফুল হক, মস্তাক আহমদ, রহিম উদ্দিন ভরসা, তাজ উদ্দিন, কানাইঘাট উপজেলা আ'লীগের সহসভাপতি জালাল আহমদ, পৌর আ'লীগের আহ্বায়ক জামাল উদ্দিন, বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম খোকন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ, ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমুল ইসলাম হারুন প্রমুখ।
কানাইঘাটে টানা ৪৮ঘন্টার হরতাল শান্তিপূর্ণভাবে পালিত

বিএনপি-জামায়াতসহ সমমনা রাজনৈতিক দলগুলোর ডাকা টানা ৪৮ঘন্টার হরতাল সিলেটের কানাইঘাটে শান্তিপূর্নভাবে হরতাল পালিত হয়েছে। হরতালের নাশকতা এড়াতে ভোর থেকে উপজেলা সদরসহ গুরুত্বপূর্ন স্থানে পুলিশকে মারমুখী অবস্থায় টহল দিতে দেখা গেছে। হরতাল সফলের ল্যে থানা বিএনপি বিদ্যমান দুটিগ্রুপের নেতাকর্মী ও জামায়াতের কর্মীদের কানাইঘাট পৌর শহরে অবস্থান গ্রহন করে পিকেটিং করতে চাইলে পুলিশী বাধার মুখে হরতাল কারীরা পিকেটিং করতে পারেনি। তবে পিকেটিং ছাড়াই উপজেলার সর্বত্র হরতাল পালিত হয়েছে। উপজেলা সদর থেকে, দূরপাল্লার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকলেও ছোট খাট যানবাহন চলাচল ছিল সীমিত। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, অফিস-আদালত, ব্যাংক-বীমা খোলা থাকলেও উপস্থিতি ছিল নগন্য। হরতালের সমর্থনে বেলা ১২টায় কানাইঘাট বাজারে উপজেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা আব্দুল করিমের নেতৃত্বে একটি মিছিল পৌর শহরে প্রধান প্রধান সড়কগুলো প্রদণি শেষে দণি বাজারে এক পথসভায় মিলিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন, জামায়াতের উপজেলা সেক্রেটারী মাওলানা কামাল উদ্দিন, কর্মপরিষদ সদস্য শরিফ উদ্দিন, মাওলানা তাজ উদ্দিন, কামাল উদ্দিন, শিবির নেতা ছাবি্বর আহমদ, সেলিম উদ্দিন, এম.এ.বাবুল প্রমুখ। থানা বিএনপি'র একাংশের সভাপতি এম.এ.লতিফ এর নেতৃত্বে একটি মিছিল পৌরশহর প্রদণি শেষে কানাইঘাট পূর্ববাজারে এক পথসভায় মিলিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন, পৌর বিএনপি'র সভাপতি ইফজালুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক হাবিব আহমদ, প্রভাষক ফরিদ আহমদ, জসীম উদ্দিন, নাজিম উদ্দিন, গুলজার আহমদ, জাকির হোসেন প্রমুখ। অপরদিকে বেলা ১টায় হাজী এম.এ.মতিন'র নেতৃত্বে বিএনপি'র অপর অংশের একটি মিছিল পৌরশহরের প্রধান প্রধান সড়কগুলো প্রদণি শেষে কানাইঘাট দণি বাজারে শেষ হয়। পথসভায় বক্তব্য রাখেন, সাংগঠনিক সম্পাদক কাউন্সিলার শরীফুল হক, যুবদলর আহ্বায়ক এম.এ.মান্নান, ছাত্রদলের সভাপতি নজরুল ইসলাম, ছাত্রদল নেতা রাশিদুল হাসান টিটু, আব্দুল করিম, রুহুল আমীন প্রমুখ।

Kanaighat News on Wednesday, July 6, 2011 | 11:00 PM


কানাইঘাটে ৪৮ ঘন্টার হরতালের
প্রথম দিন শান্তিপূর্নভাবে পালিত

বিএনপিসহ সমমনা রাজনৈতিক দলগুলোর ডাকা টানা ৪৮ঘন্টার হরতালের প্রথম দিন কানাইঘাটে শান্তিপূর্নভাবে হরতাল পালিত হয়েছে। হরতালের নাশকতা এড়াতে ভোর থেকে উপজেলা সদরসহ গুরুত্বপূর্ন স্থানে পুলিশকে মারমুখী অবস'ায় টহল দিতে দেখা গেছে। হরতালসফলের লক্ষ্যে থানা বিএনপি বিদ্যমান দুটিগ্রুপের নেতাকর্মীদের কানাইঘাট বাজারে অবস'ান গ্রহন করে পিকেটিং করতে চাইলে পুলিশী বাধার মুখে হরতাল কারীরা পিকেটিং করতে পারেনি। তবে পিকেটিং ছাড়াই উপজেলার সর্বত্র হরতাল পালিত হয়। দূরপাল্লার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকলেও ছোট খাট যানবাহন চলাচল ছিল সীমিত। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, অফিস-আদালত, ব্যাংক-বীমা খোলা থাকলেও উপসি'তি ছিল নগন্য। হরতালের সমর্থনে বেলা ১২টায় কানাইঘাট বাজারে থানা বিএনপি’র একাংশের সভাপতি আব্দুল লতিফ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক হাবিব আহমদ, পৌর বিএনপি’র সভাপতি ইফজালুর রহমান সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক ফরিদ আহমদের নেতৃত্বে ৩০/৪০ জনের একটি মিছিল বের হয়। এরপর বেলা সাড়ে ১২টায় থানা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক হাজী এম.এ.মতিন সাংগঠনিক সম্পাদক কাউন্সিলার শরিফুল হক যুবদলের সভাপতি আব্দুল মান্নান, ছাত্রদলের সভাপতি নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের প্রায় দু’শতাধিক নেতাকর্মী হরতালের সমর্থনে মিছিল করে দক্ষিণ বাজারে পথসভা অনুষ্টিত হয়। সভায় পুলিশের লাটি চার্জে ঢাকায় বিরোধী দলের চীফ হুইপ জয়নাল আবেদীন ফারুক গুরতর আহত করায় এবং গ্রেনেড হামলায় ষড়যন্ত্র মূলক ভাবে তারেক জিয়া ও কানাইঘাটের কৃতি সন-ান হারিছ চৌধুরী কে আসামী করায় সভায় তীব্র নিন্দা জানানো হয়। এদিকে হরতালের সমর্থনে গাছবাড়ী বাজারে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্দোগে মিছিল পরবর্তি সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জামাল উদ্দিন। রফিক আহমদের পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন মাষ্টার আবু বক্কর,মকবুল হোসেন,ময়নুল হোসেন,কামাল উদ্দিন,দিলদার হোসেন শামীম,সাদিক আহমদ,আসাদ উদ্দিন,ইমদাদুর রহমান,উসমান গণি,সালিক উদ্দিন,বাহার উদ্দিন,বিলাল উদ্দিন,সাহিন আহমদ,নুরুল হুদা সুমন,ফয়েজ উদ্দিন,মাসুক উদ্দিন,মাসুম,লুকমান,জাহাঙ্গির আলম,জসিম উদ্দিন,রফি উদ্দিন,ফয়ছল,রুবেল,শিব্বির,ইলিয়াছ,আলঙ্গির,জাকারিয়া,আবুল হোসেন,আহমদ হোসেন শাবলু,মাহবুবুর রহমান সাদ্দাম,সোহেল আহমদ সাজু,খসরুজ্জামান,নুরুল আলম প্রমুখ। এছাড়া রাজাগঞ্জ বাজার সড়কের বাজার স'ানীয় বিএনপি নেতাকর্মীরা পিকেটিংসহ মিছিল সমাবেশ করেছে। তবে অন্যান্য দিনের হরতালের মত চারদলীয় জোটের শরীকদল জামায়াত, শিবির ও ইসলামী ঐক্যজোটের নেতাকর্মীদের হরতালের মাটে দেখা যায়নি।
কানাইঘাটে শাহনেওয়াজ হত্যাকান্ড
র‌্যাবের হাতে পাচ আসামী গ্রেফতার

গত ২৬জুন কানাইঘাট উপজেলার ৫নং বড়চতুল ইউপি’র মালিগ্রাম গ্রামের ফখরুল ইসলামের পুত্র ক্যারিকাব চালক শাহনেওয়াজ (১৮) হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত ৫খুনী র‌্যাবের হাতে গত সোম ও মঙ্গলবার গ্রেফতারের পরও নিহত শাহনেওয়াজের পরিবার ও এলাকাবাসীর মধ্যে এখনও শোকের মাতমবইছে। নিরাপরাধ এ তরুনের মর্মান্তিক হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত খুনিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী। সদ্য সমাপ্ত ইউপি নির্বাচন নিয়ে শত্রুতার জেরধরে বন্ধুবেশী এ হত্যা কান্ডের মূল পরিকল্পনাকারী জৈন্তাপুর উপজেলার চারিকাটা ইউনিয়নের পাতন গ্রামের মাষ্টার আব্দুর রহমান কুটির ছেলে আবুল কাসেম মারুফ (২৭) পরিকল্পনা করে ভাড়াটিয়া খুনীদের টাকা দিয়ে বন্ধু শাহনেওয়াজকে বাড়ি থেকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে চারিকাটা ইউনিয়নে নল বাগানে ডেকে নিয়ে নির্মমভাবে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে লাশ ভাড়াটে খুনীরা লাইন নদীতে ফেলে দেয়। এদিকে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতারকৃত শাহনেওয়াজের হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত বড়চতুল ইউনিয়নের মালিগ্রামের মৃত মকবুল আলীর পুত্র, ভাড়াটে খুনী খলিলুর রহমান (৫০), মৃত মাহমুদ আলীর পুত্র হেলাল আহমদ (৪০), লোহাই গ্রামের মৃত ইব্রাহীম আলীর পুত্র তাজ উদ্দিন (২০), জৈন-াপুর উপজেলার পাত্তন গ্রামের ইরফান আলীর পুত্র লোকমান আহমদ(২০) ও নরুল হকের পুত্র মোঃ বাবুল (২০) কে গত মঙ্গলবার রাতে র‌্যাব কানাইঘাট থানা পুলিশের কাছে হস-ান-র করেছে। স'ানীয় পুলিশ সূত্রে জানাযায় গত ২৬জুন শাহনেওয়াজকে তার বন্ধু জৈন-াপুর থানার আবুল কাসেম মারুফ পূর্ব শত্রুতার জেরধরে নিহতের পার্শ্ববর্তী বাড়ির খলিলুর রহমান ও তার সহযোগীদের পঞ্চাশ হাজার টাকার বিনিময়ে চুক্তি করে শাহনেওয়াজকে হত্যার পরিকল্পনা নেওয়া হয়। এর অংশ হিসেবে রাত ৯টায় বাড়ি থেকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ডেকে নিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করা হয় শাহনেওয়াজকে। র‌্যাবের কাছে হত্যাকান্ডের ঘটনা স্বীকারোক্তি করার পর ধৃত আসামীরা প্রাথমিক পুলিশি জিজ্ঞাসা বাদে কীভাবে শাহনেওয়াজকে ঠান্ডা মাথায় হত্যা করা হয় এবং হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত পরিকল্পনাকারী অন্যান্যদের নাম প্রকাশ করে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দী দিয়েছে বলে থানার অফিসার ইনচার্জ শফিকুর রহমান খান স'ানীয় সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। পুলিশ হত্যাকান্ডের মূল পরিকল্পনাকারী আবুল কাশেম মারুফকে গ্রেফতার করতে বিভিন্ন স'ানে সাড়ষী অভিযান চালাচ্ছে।

Kanaighat News on Sunday, July 3, 2011 | 6:29 PM

কানাইঘাট ডিগ্রিকলেজ ছাত্রলীগের মিছিল

কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের উদ্যোগে একাদশ শ্রেণীর প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের স্বাগত জানিয়ে এক বিরাট শুভেচ্ছা মিছিল গতকাল শনিবার বেলা ১২টায় মনসুরিয়া পয়েন্ট থেকে শুরু হয়ে কানাইঘাট বাজার ত্রিমোহনী পয়েন্টে গিয়ে এক ছাত্র সমাবেশে মিলিত হয়। থানা ছাত্রলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমুল ইসলাম হারুনের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহ্বায়ক সাহাব উদ্দিনের পরিচালনায় ছাত্র সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কানাইঘাট পৌর আহ্বায়ক জামাল উদ্দিন, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য এডভোকেট আব্দুল খালিক, আ’লীগ নেতা সামছুদ্দিন মেম্বার, নজির উদ্দিন প্রধান। বক্তব্য রাখেন, থানা ছাত্রলীগ নেতা মোঃ আব্দুল্লাহ কলেজ ছাত্রলীগ নেতা আখতার হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, মারুফ আহমদ, মামুন রশি, রাজু, সুমন, কাওছার প্রমুখ। বক্তরা প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে ছাত্র সমাজকে ছাত্রলীগের পতাকা তলে সমবেত হওয়ার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতি আহ্বান জানান।
কানাইঘাটে ছাত্রদলের দু'গ্রুপের সংঘর্ষে তিনজন আহত গতকাল শনিবার কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণীর প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের স্বাগত মিছিলকে কেন্দ্র করে অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে ছাত্রদলের দু'গ্রুপের মধ্যে কানাইঘাট পূর্ববাজারে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে এক ছাত্রদল নেতাসহ দুই যুবদল কর্মী আহত এবং দুটি মোটরসাইকেল ভাংচুর ও তিনটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ক্ষতিসাধন করা হয়েছে। অন্যদিকে গাছবাড়ি আইডিয়াল কলেজে অনুরূপ ঘটনায় ছাত্রদলের দু'গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে গাছবাড়ি বাজারে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এদিকে ছাত্রদলের দু'গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে দোকানপাটে হামলা এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে ছাত্রলীগ তাৎক্ষণিক বাজারে মিছিল বের করে। এ ব্যাপারে থানা ছাত্রদল সভাপতি নজরুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ছাত্রদলের শান্তিপূর্ণ সমাবেশ শেষে নেতাকর্মীরা ফেরার পথে ছাত্রদল নামধারী চার-পাঁচজনের একটি গ্রুপ হামলা চালিয়ে ছাত্রদল নেতা রুহুল আমিন ও যুবদল নেতা মামুন আহমদকে আহত করে। তিনি আরও জানান, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Kanaighat News on Saturday, July 2, 2011 | 1:38 PM

গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা

কানাইঘাটে গলায় ফাঁস দিয়ে মঈন উদ্দিন (২৫) নামের এক যুবক আত্মহত্যা করেছে। সে পৌরসভার ধলইমাটি গ্রামের সৌদি প্রবাসী মুছবি্বর আলীর পুত্র। জানা যায়, গত বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় নিজ বসত ঘরের তীরের সাথে গলায় কাপড় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। ঘটনার খবর পেয়ে রাত ৯টায় কানাইঘাট থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেছে। এ ব্যাপারে নিহতের ভাই হারুন আহমদ বাদী হয়ে কানাইঘাট থানায় একটি অপমৃতু্য মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং (৬) ২৯-৬-১১।
 
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: মো:মহিউদ্দিন,সম্পাদক : মাহবুবুর রশিদ,নির্বাহী সম্পাদক : নিজাম উদ্দিন। সম্পাদকীয় যোগাযোগ : শাপলা পয়েন্ট,কানাইঘাট পশ্চিম বাজার,কানাইঘাট,সিলেট।+৮৮ ০১৭২৭৬৬৭৭২০,+৮৮ ০১৯১২৭৬৪৭১৬ ই-মেইল :mahbuburrashid68@yahoo.com: সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত কানাইঘাট নিউজ ২০১৩