Kanaighat News on Thursday, February 10, 2011 | 1:21 PM

কানাইঘাটে ইভটিজিং ও দুর্নীতি বিরোধী
ব্যাতিক্রমধর্মী মোটর শোভাযাত্রা র্র‌্যালী
দেলওয়ার হোসেন সেলিম/নিজাম উদ্দিন:
'ঘরে-বাইরে সর্বত্র নারীর প্রতি বৈষম্য, শিা প্রতিষ্টানগামী ছাত্রীদের প্রতি যৌন হয়রানীসহ সামাজিক অবয়রোধ এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে সম্মিলিত সামাজিক প্রতিরোধ আন্দোলন গড়ে তুলুন' এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে কানাইঘাট গাছবাড়ী সচেতন যুব সমাজ কতর্ৃক গতকাল বুধবার ২০ কি.মি ব্যাপি ব্যতিক্রমধর্মী মোটর সাইকেল শোভাযাত্রা-র্যালী কানাইঘাটের সর্বমহলে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। দেশব্যাপী শিা প্রতিষ্ঠানগামী ছাত্রীদের প্রতি বখাটেরা কতর্ৃক উত্যক্ত, যৌন হয়রানীর মতো ঘটনায় লাজ-লজ্জা সইতে না পেরে অনেক কোমলমতি কিশোরী মেয়েদের আত্মহত্যার মতো ঘটনায় সমাজের সর্বস্থরের মানুষের হৃদয়কে ব্যাপক নাড়া দেওয়ার পাশাপাশি বখাটেদের প্রতি তীব্র ঘৃণার সৃষ্টি হয়েছে। সমাজ থেকে এসব অপরাধীদের নিমর্ুলের বিরুদ্ধে সোচ্চার ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সচেতনতা সৃষ্টির ল্যে এ ধরণের মোটর শোভাযাত্রা আয়োজন করা হয়েছে বলে গাছবাড়ী সচেতন যুব সমাজের নেতৃবৃন্দ জানান। কানাইঘাটের-গাছবাড়ী বাজার থেকে সকাল ১১টায় শুরু হয়ে এ বর্ণাঢ্য মোটর শোভা যাত্রা র্যালীটি গাছবাড়ী মর্ডাণ একাডেমী মাঠ থেকে শুরু হয়। সেখানে আনুস্টানিকভাবে মোটর শোভা যাত্রা র্যালীর উদ্বোধন করেন একাডেমীর প্রধান শিক মিফতাহুল বর চৌধুরী । পরে গাছবাড়ী আইডিয়াল কলেজের শিার্থী এবং শিকদের সাথে মতবিনিময় শেষে র্যালীটি কানাইঘাট গাজী বুরহান উদ্দিন রোড হয়ে প্রায় ২০ কি.মি রাস্তা প্রদণি করে কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজ, কানাইঘাট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, কানাইঘাট মহিলা কলেজ প্রদণি শেষে কানাইঘাট বাজার প্রদণি করে বেলা ২টায় উত্তর বাজারে গিয়ে এক পথসভায় মিলিত হয়। গাছবাড়ী সচেতন যুব সমাজের সভাপতি রুহুল আমীন এবং ছাত্রনেতা হামজা হেলাল ও হারুনের যৌথ পরিচালনায় পথসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কানাইঘাট পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র ও উপজেলা আ'লীগের সভাপতি লুৎফুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কানাইঘাট পৌর আ'লীগের আহ্বায়ক যুবনেতা জামাল উদ্দিন, কানাইঘাট প্রেসকাবের প্রতিষ্ঠাতা সহসভাপতি সাংবাদিক দেলওয়ার হোসেন সেলিম। মোটর শোভাযাত্রার প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্য সামসুল আলম মামুন, গাছবাড়ী মর্ডাণ একাডেমীর প্রধান শিক মিসবাহুল রব চৌধুরী, দনি বানীগ্রাম ইউপির চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সাংবাদিক নিজাম উদ্দিন, সচেতন যুব ও ছাত্র সমাজের প েখালেদ আহমদ সুমন, আতিকুর রহমান, আখতার হুসেন, জামিল আহমদ, সালেহ আহমদ, বাবুল, নাজমুস সাকিব, রিয়াজ উদ্দিন প্রমুখ। শোভাযাত্রা ও র্যালী প্রদণিকালে ইভটিজিং ও দুর্নীতি বিরোধী শ্লোগান সংবলিত প্লেকার্ড বহন এবং লিফলেট বিতরণ করা হয়। ব্যতিক্রমধর্মী এ মোটর সাইকেল র্যালিতে এলাকার যুব সমাজ বিভিন্ন শিা প্রতিষ্ঠানের শিার্থী, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহণ করেন। র্যালীটি বিভিন্ন এলাকা ও শিা প্রতিষ্টান প্রদণিকালে সকল পেশার মানুষ স্বাগত জানান এবং এ ধরণের ব্যতিক্রমধর্মী শোভাযাত্রা-র্যালী আয়োজনের মাধ্যমে নারীর প্রতি সকল প্রকার বৈষম্যরোধ, যৌন হয়রানী বন্ধ, দুর্নীতিসহ সকল প্রকার সামাজিক অপরাধ নিমর্ূল করা সম্ভব হবে বলে তারা জানান।
কানাইঘাটের দুই ব্যবসায়ীর রহস্যজনক মৃত্যু
গত সোমবার পৃথক দুটি ঘটনায় সিলেটের কানাইঘাট চতুল বাজারের এক স্বর্ণকার ও পান ব্যবসায়ী রহস্যজনক মৃতু্যর ঘটনায় বাজারের ব্যবসায়ী ও এলাকার সর্বত্র জনসাধারণের মধ্যে নানা গুঞ্জন ও উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে। স্বাভাবিক মৃতু্য না এ দু' ব্যবসায়ীর অন্য কারণে অস্বাভাবিক মৃতু্য হয়েছে তা নিয়ে জনসাধারণের মধ্যে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। জানা যায়, চতুল বাজারের পান ব্যবসায়ী ৫নং বড়চতুল ইউনিয়নের সরুফৌদ গ্রামের বৃদ্ধ আছাদুল হক (৬০) ব্যবসা শেষে গত রবিবার তার নিজ বাড়ীতে রাত ৯টার দিকে বাজার থেকে রওয়ানা হলেও বাড়ীতে ফিরে না যাওয়ায় তার স্বজনরা অনেক জায়গায় তাকে খুজে পাননি। গতকাল সকাল ৮টার দিকে চতুল বাজার সংলগ্ন হাজী খলিলুর রহমানের বাড়ীর পাশ্বর্ের শিম ঝাড়ের নিচে পান ব্যবসায়ী বৃদ্ধ আসাদুল হকের লাশ রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে পথচারীরা তার স্বজনদের খবর দেন। অপর দিকে অনুরূপভাবে গত রবিবার চতুল বাজারের স্বর্ণ ব্যবসায়ী বি. বাড়িয়া জেলার কসবা উপজেলার নয়নপুর গ্রামের স্বর্ণকার বৃদ্ধ ধনু মিয়া (৬১) ব্যবসা শেষে প্রতিদিনের মতো নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে রাত্রীযাপনের পর গতকাল ফজরের নামাজ শেষে ব্যবসায়ী ধনু মিয়া পুনরায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে শুয়ে পড়লে তার স্বজনরা ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার পরও উক্ত স্বর্ণ ব্যবসায়ী ফোন রিসিভ না করায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক সরওয়ার জাহানের কাছে বিষয়টি অবহিত করা হলে তিনি সকাল ১১টায় বাজারের ব্যবসায়ীদের নিয়ে দোকানের দরজা ভিতরের দিকে তালাবদ্ধ দেখে অনেক ডাকাডাকি করার পরও স্বর্ণ ব্যবসায়ী ধনু মিয়ার কোন সাড়া-শব্দ না পাওয়ায় তারা বিষয়টি কানাইঘাট থানা পুলিশকে অবহিত করলে ওসি শফিকুর রহমান খান ঘটনাস্থলে গিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে ধনু মিয়ার মৃত লাশ দেখতে পান। পরে পুলিশ উক্ত স্বর্ণ ব্যবসায়ী ধনু মিয়া ও পান ব্যবসায়ী আসাদুল হকের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে পোস্টমর্টেমের জন্য সিলেট ওমেক হাসপাতালে প্রেরণ করে। এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ শফিকুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, দু'ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওমেক হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে, কি কারণে তাদের মৃতু্য হয়েছে তা পোস্টমর্টেম রিপোর্টের পর জানা যাবে। তবে প্রাথমিক ভাবে এ দু ব্যবসায়ীর মৃতু্যর ঘটনায় কানাইঘাট থানায় পৃথক দু'টি অপমৃতু্য দায়ের করা হয়েছে।
কানাইঘাটে বিএনপি'র হরতাল পালিত
বিএনপি'র ডাকা দেশব্যাপি সকাল-সন্ধ্যা হরতাল কানাইঘাটে ঢিলেঢালা ভাবে শান্তিপূর্ণভাবে পালিত হয়েছে। হরতালের সমর্থনে উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের কোন নেতাকমর্ীকে পৌর শহরের গুরুত্বপূর্ণ কোন পয়েন্ট বা সড়কগুলোতে পিকেটিং করতে দেখা যায়নি। সকালে হরতাল আতংকে যানবাহন ও সর্বসাধারন চলাচল অনেকটা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে প্রতিদিনের মতো অফিস, পাড়া, ব্যাংক-বীমাসহ পৌরশহরের সবধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা ছিল। বারী যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকলেও অটোরিঙ্া ও অটোট্যাম্পু চলাচল স্বাভাবিক ছিল। হরতালের সমর্থনে উপজেলা বিএনপি'র পৃথক দুটি গ্রুপ দায়সারভাবে কানাইঘাট বাজারের সংপ্তি মিছিল করে। সকাল ১১টার দিকে ইলিয়াস আলী সমর্থিত থানা বিএনপি'র সভাপতি আব্দুল লতিফ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক হাবিব আহমদ ও পেরৈ বিএনপি'র সভাপতি ইফজালুর নেতৃত্বে ১৫/১৬ জন নেতাকমর্ী মিছিল করে ত্রিমোহনী পয়েন্টে পথসভা করে অপরদিকে সাইফুর পন্থী থানা বিএনপি'র সাধারন সম্পাদক হাজী এম.এ.মতিন, সাংগঠনিক সম্পাদক কানাইঘাট পৌরসভার কাউন্সিলার শরিফুল হক, থানা যুবদলের আহবায়ক আব্দুল মন্নান, ছাত্র দলের সভাপতি নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে বেলা ১২টার দিকে প্রায় অর্ধশতাধিক নেতাকমর্ী হরতালের সমর্থনে পৌরশহরে একটি বিােভ মিছিল বের করে। মিছিল শেষে কানাইঘাট দণি বাজারে হরতারের সমর্থনে এক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। হরতালে নাশকতা এড়াতে সকাল থেকে পৌরশহর সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। তবে হরতাল কারীদের সাথে কোথাও পুলিশের কোন ধরনের সংঘর্ষের খবর পাওয়া যায়নি।
কানাইঘাটের সমাজসেবী শফিকুল হকের ইন্তেকাল

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার দক্ষিন বানীগ্রাম ইউপির ব্রাম্মনগ্রামের অধিবাসী, ডেইলি নিউ নেশনের ষ্টাফ রিপোর্টার এহসানুল হক জসিমের পিতা সমাজসেবী শফিকুল হক আর নেই। গত বুধবার (০২/০২/১১) ভোর ৫ টায় নিজ বাড়ীতে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিলল্লাহি.........রাজিউন)। দীর্ঘ দিন থেকে তিনি জটিল রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল প্রায় ৬০ বছর। তিনি সহ ধর্মিনী সহ ৫ ছেলে, ২ মেয়ে এবং অসংখ্য আত্বীয় ও গুনগ্রাহী স্বজন রেখে গেছেন। গতকাল বিকেল সাড়ে ৫টায় গ্রাম সংলগ্ন মাঠে নামাজে জানাজা অনুষ্টিত হয়। সর্বরের বিপুল সংখ্যক ধর্মপ্রাণ মুসলমান এতে অংশ নেন। জানাজা পুর্ববর্তী সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন সিলেট-৫ আসনের সাবেক এমপি প্রিন্সিপাল মাওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, গাছবাড়ী জামে উল উলুম কামিল মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা শামসুদ্দীন, গাছবাড়ী জামে উল উলুম কামিল মাদ্রাসার আরবী বিভাগের চেয়ারম্যান ডক্টর মাওলানা ইব্রাহিম প্রমুখ। এদিকে, সাংবাদিক এহসানুল হক জসিমের পিতা সমাজসেবী শফিকুল হকের মৃত্যুতে বিভিন্ন মহল গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন। শোক প্রদানকারীরা হলেন সাবেক এমপি আব্দুল কাহির চৌধুরী, কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশিক চৌধুরী,ভাইস চেয়ারম্যান বদরুজ্জামান ইকবাল, গাছবাড়ী জামে উল উলুম কামিল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল হাফিজ মাওলানা আব্দুর রহিম,কানাইঘাট উপজেলা বিএনপির সভাপতি মামুনুর রশীদ মামুন, গাছবাড়ী আইডিয়্যাল কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল মতিন, গাছবাড়ী মডার্ণ একাডেমীর প্রধান শিক্ষক মিফতাহুল বর চৌধুরী, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ওলিউর রহমান, উপজেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা আব্দুল করিম,সেক্রেটারী কামাল উদ্দিন, শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশন কানাইঘাট উপজেলা শাখার সভাপতি মাওলানা আব্দুল মালিক, সেক্রেটারী ওলি উল্লাহ, ঝিংগাবাড়ী ইউপি শাখার সভাপতি রেজওয়ানুল করিম, দক্ষিণ বাণীগ্রাম শাখার সভাপতি লুকমান আহমদ, গাছবাড়ী ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সিপাল এবিএম ফজলে হক, গাছবাড়ী মহিলা মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আব্দুল মান্নান,আলহাজ্ব বশির আহমদ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল আমিন, বিশ^নাথ রামসুন্দর উচ্চ বিদ্যালয়ের স্কাউট শিক্ষক নজমুল ইসলাম, দক্ষিন বানীগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ, ঝিংগাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান সইফ উল্যাহ, সাতবাক ইউপি চেয়ারম্যান মুল্লাক আহমদ পলাশ, কানাইঘাট স্টুডেন্টস এসোসিয়েশনের সেক্রেটারী কদর উদ্দিন শিশির, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের প্রতিষ্টাতা সহসভাপতি দেলওয়ার হোসেন সেলিম,মাসিক সীমান্তে ডাক পত্রিকার সম্পাদক মাহবুবুর রশিদ গাছবাড়ী বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল মৌলা, সেক্রেটারী ফয়জুন নুর, কোষাধ্যক্ষ বুরহান উদ্দিন, গাছবাড়ী উত্তর বাজারের ব্যাবসায়ী এম সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ, ফতেহগন্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শাহ মোহাম্মদ ইসমাইল আলী, কানাইঘাট উপজেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক দিলদার হোসেন শামীম, হোমল্যান্ড লাইফ ইন্সুরেন্সের ইভিপি সুলতান মাহমুদ প্রমূখ। পৃথক পৃথক শোক বার্তায় নেতৃবৃন্দ শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান এবং মহান আল্লাহর কাছে মরহুমার আত?ার মাগফিরাত কামনা করেন।
 
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি: মো:মহিউদ্দিন,সম্পাদক : মাহবুবুর রশিদ,নির্বাহী সম্পাদক : নিজাম উদ্দিন। সম্পাদকীয় যোগাযোগ : শাপলা পয়েন্ট,কানাইঘাট পশ্চিম বাজার,কানাইঘাট,সিলেট।+৮৮ ০১৭২৭৬৬৭৭২০,+৮৮ ০১৯১২৭৬৪৭১৬ ই-মেইল :mahbuburrashid68@yahoo.com: সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত কানাইঘাট নিউজ ২০১৩