Thursday, October 21

কানাইঘাটে শেখ রাসেলের ৪৬ তম  জন্মদিন পালিত

কানাইঘাটে শেখ রাসেলের ৪৬ তম জন্মদিন পালিত


বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ৪৬ তম জন্মবার্ষিকী উপল েকানাইঘাট শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের উদ্যেগে গত সোমবার বিকেল ৩ টায় কানাইঘাট বাজারস্থ অস্থাযী কার্যালয়ে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের সভাপতি ফয়সল আহমদের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক বিজয় দাসের পরিচালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি লুৎফুর রহমান,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের সদস্য আব্দুল হেকিম শামীম,যুবলীগ নেতা এনামুল হক,ছাত্রলীগের আহবায়ক গিয়াস উদ্দিন,সিনিয়র যুগ্ন আহবায়ক নাজমুল ইসলাম হারুন,সংগঠনের উপদেষ্টা সেলিম উদ্দিন। বক্তব্য রাখেন রাসেল ক্রীড়াচক্রের সদস্যশিমুল,পারবেজ,শাওন,আবুল,রুমান,জুয়েল,জুবায়ের,মিঠুন,মন্জুর,পিংকু,বিজয়,রেজওয়ান,জয়দাস,তারেক,প্রমূখ। আলোচনা সভা শেষে শেখ রাসেলের আত্নার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত এবং ৪৬তম জন্মদিন উপল েমিষ্টি বিতরণ করা হয়।
কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের অভিনন্দন

কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের অভিনন্দন

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সিলেট জেলা শাখার নবগঠিত কমিঠির সভাপতি পঙ্কজ পুরকায়স্থ ও সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ হোসেন খান নিসর্বাচিত হওয়ায় কানাইঘাট ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগ বাদ মাগরিব কানাইঘাট পৌর শহরে মিষ্টি বিতরণ ও আনন্দ উল্লাস করে। মিষ্টি বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক গিয়াস উদ্দিন,উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আসাদ উদ্দিন,ফয়সল উদ্দিন,ডিগ্রিকলেজ ছাত্রলীগ নেতা আখতার হোসেন,দেলোয়ার হোসেন,কাওছার,কামরুল সুমন,হাসনাত,শাহীন,ফয়েজ,লিপন,আকতার,,জামান,শরীফ,মারুফ,ডালিম,হিমেল, প্রমূখ।

Wednesday, October 20

কানাইঘাটে মালিক ইঞ্জিনিয়ারের দাফন

কানাইঘাটে মালিক ইঞ্জিনিয়ারের দাফন

কানাইঘাট পৌরসভাস্থ নন্দিরাই গ্রামের বিশিষ্ট মুরবি্ব, সমাজসেবী, অবসরপ্রাপ্ত ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল মালিকের মৃতু্যতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। গতকাল বিকেল ৪টায় কানাইঘাট দারুল উলুম মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে তাঁর দ্বিতীয় নামাজে যানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় এলাকার হাজারো শোকার্ত মানুষের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কানাইঘাট-জকিগঞ্জ-০৫ আসনের এমপি হাফিজ আহমদ মজুমদার, সাবেক এমপি ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, সাবেক এমপি আবুল কাহির চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান আশিক চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান বদরুজ্জামান ইকবালসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ। জানাযা শেষে নন্দিরাই গ্রামের গোরোস্থানে তাঁকে সমাহিত করা হয়। উল্লেখ্য যে, গতশুক্রবার সিলেট শহরের খাদিমপাড়াস্থ নিজস্ব বাসায় বিকেল ৩টায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মৃতু্যবরণ করেন। তার মৃতু্যতে এলাকার সর্বমহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
সুরমা নদীতে দেবীর প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য

সুরমা নদীতে দেবীর প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য

গত রবিবার সকাল ৯টা ৫৭ মিনিটে দেবীর দশমী বিহিত পূজা সমাপন ও দর্পণ বিসর্জন এবং শান্তিজল গ্রহণের মধ্য দিয়ে শেষ হয় ৫দিনের দূগের্াৎসব। বাঙালী হিন্দু সমপ্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধমের্াৎসব শারদীয় দূর্গাপুজা বিজয়া দশমী দিনে চিরচেনা দৃশ্য ছিল কানাইঘাটের সব পুজা মণ্ডপে। বিসর্জনের উদ্দেশ্যে কানাইঘাট বাজার থেকে সম্মিলিত বাদ্য-বাজনা, মন্ত্রোচ্চারণ ও পুজা অর্চণার মধ্য দিয়ে শুভাযাত্রার মাধ্যমে সন্ধ্যায় সুরমা নদীতে বিসর্জন দেয়া হয় দেবী দূর্গার প্রতিমা। এ সময় নদীর দু'পাশে বিপুল সংখ্যক ভক্তের সমাগম ঘটে এবং আগত ভক্তবৃন্দের অন্তরে ছিল দেবী দূর্গা মর্ত্যলোক ছেড়ে স্বর্গশিখর কৈলাশে স্বামীগৃহে ফিরে গেলেন। আবার আশ্বিনের কাশফুলের সঙ্গে ফিরে আসার অঙ্গীকারে পেছনে ফেলে গেলেন ভক্তদের শ্রদ্ধা আর বেদনাশ্রু। পুজা সফল ভাবে সমাপ্ত হওয়ার জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্য হাফিজ আহমদ মজুমদার, উপজেলা প্রশা্সন, পুলিশ প্রশাসন, স্থানীয় সাংবাদিকবৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলসহ কানাইঘাটবাসীর প্রতি অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন- উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদ সভাপতি বাবু সুদীপ্ত রায়, সাধারণ সম্পাদক সলিল চন্দ্র দাস, সহসভাপতি ডাঃ মানিক লাল দাস, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ সভাপতি দূর্গা কুমার দাস, সাধারণ সম্পাদক নির্মলেন্দু চক্রবতর্ী, উষা রঞ্জন দে, মতিলাল দাস, রবীন্দ্র কুমার দাস, নিহার রঞ্জন বর্ধন, মিলন কান্তি দাস, চমক রঞ্জন দে প্রমুখ। এদিকে, সংসদ সদস্য হাফিজ আহমদ মজুমদার, কানাইঘাট বাজারস্থ উষা বাবুর বাড়ীতে সবচেয়ে বড় সার্বজনীন পুজামণ্ডপসহ বিভিন্ন মণ্ডপ পরিদর্শন করে হিন্দু সমপ্রদায়দের সাথে শুভেচ্ছা বিনিয়ম করেন। কানাইঘাট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আশিক চৌধুরী ও বিএনপি নেতৃবৃন্দের নিয়ে কানাইঘাটের বিভিন্ন পুজা মণ্ডপ পরিদর্শন করেন। এসময় মজুমদারের সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ'লীগের সভাপতি লুৎফুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন আল মিজানসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
কানাইঘাটে প্রবাসীর বাড়ীতে গভীর রাতে

কানাইঘাটে প্রবাসীর বাড়ীতে গভীর রাতে

কানাইঘাট সদর ইউনিয়নের নিজ গোবিন্দপুর গ্রামে গত সোমবার দিবাগত রাত অনুমান ২টায় তিন দুবাই প্রবাসীর বাড়ীতে এক দুধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। প্রত্যদশর্ী ও বাড়ীর লোকজনদের কাছ থেকে জানা যায়, সোমবার গভীর রাতে ১০/১৫জনরে স্বশস্ত্র ডাকাতদল নিজ গোবিন্দুপর গ্রামের মৃত হানিফ আলীর বাড়ীতে হানা দিয়ে দুবাই প্রবাসী ৩ পুত্রের পাকা ঘরের দু'টি করে শক্ত কাঠের দরজা চায়নিজ কুড়াল দিয়ে ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। প্রথমে ডাকাতরা বাড়ীতে অবস্থানরত ৩ প্রবাসীর এক মাত্র ভাই গৃহকর্তা লন্ডন ফেরত হোসেন আহমদের ক েপ্রবেশ করে তার স্ত্রী ও তাকে অস্ত্রের মাধ্যমে জিম্মি করে বেধে ফেলে। এরপর বাড়ীর সবাইকে বেধে নগদ ৪০ হাজার টাকা ৯ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ৪টি দামী মোবাইল সেটসহ প্রায় ৪ল টাকার মালামাল লুট করে। এ সময় পাকা ঘরের অপর দু'টি ক েডাকাতির চেষ্টা করলে বাড়ীর লোকজনের কান্না-কাটি ও আর্তচিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ঘুম থেকে জেগে উঠেন। গ্রামবাসী ডাকাতদলকে প্রতিরোধের চেষ্টা করলে ডাকাতরা বোমা ফাটিয়ে ত্রাস সৃষ্টি করে ইঞ্জিন চালিত নৌকাযোগে পালিয়ে যায়। এ ঘটনার খবর পেয়ে কানাইঘাট থানার ওসি শফিকুর রহমান খান একদল পুলিশ ফোর্স নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১১টায় ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন। এ ঘটনায় গৃহকর্তা হোসেন আহমদ বাদী হয়ে কানাইঘাট থানায় একটি ডাকাতি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নং-২০/১৯/১০/১০ইং। গতকাল সিলেটের এডিশনাল পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার ঘটনাস্থল পরিদর্শ করেছেন।
নোটিশ :   কানাইঘাট নিউজ ডটকমে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক